মেন্যু
১০০০ টাকার পণ্য কিনলে সারা দেশে ডেলিভারি একদম ফ্রি।

নবিজির পরশে সালাফদের দরসে

প্রকাশনী : সমর্পণ প্রকাশন

মূল: জামিউল উলুমি ওয়াল হিকাম থেকে চয়নকৃত
অনুবাদ: হাফিজ আল মুনাদি, ফারহীন জান্নাত মুনাদি
মোট পৃষ্ঠা: ১৬০

রাসূলুল্লাহ ﷺ-এর কথা ছিল সংক্ষিপ্ত তবে ব্যাপক অর্থবোধক। আর এরকমই কিছু মৌলিক হাদীসের আলোচনা নিয়ে মাজলিস করেছিলেন আবূ আমর ইবনুস সালাহ রহ.। তিনি সেখানে ছাব্বিশটি মৌলিক হাদীস বর্ণনা করেছেন। বলা হতো, সমগ্র দ্বীন এ ছাব্বিশটি হাদীসে অন্তর্ভুক্ত। পরবর্তীকালে ইমাম নববি রহ. প্রয়োজনের দিকে লক্ষ করে যুক্ত করলেন আরও কয়েকটি হাদীস। এতে করে হাদীস সংখ্যা গিয়ে দাঁড়াল বিয়াল্লিশে। মুসলিম-বিশ্বে যুগ যুগ ধরে ইমাম নববি সংকলিত এ হাদীসগুলো ‘ইমাম নববির চল্লিশ হাদীস’ নামে খুব সমাদৃত হয়ে আসছে। আরও পরে ফিকহ-শাস্ত্রের বিখ্যাত ইমাম ও মুহাদ্দিস ইবনু রজব হাম্বলি রহ. তাঁর অনুসারীদের বারংবার অনুরোধে বুঝতে পারলেন, ইমাম নববি সংকলিত বিয়াল্লিশটি হাদীসের উপর একটি আলাদা ব্যাখ্যাগ্রন্থ প্রয়োজন। তিনি ‘জামিউল উলুমি ওয়াল হিকাম’ নামে সহস্রাধিক পৃষ্ঠার একটি ব্যাখ্যাগ্রন্থ প্রণয়ন করলেন। এ গ্রন্থে তিনি ইমাম নববি সংকলিত বিয়াল্লিশটি হাদীসের সাথে আরও আটটি হাদীস জুড়ে দিলেন। মোট হাদীসের সংখ্যা দাঁড়াল পঞ্চাশ-এ।

কালোত্তীর্ণ এ গ্রন্থটি শতাব্দীর-পর-শতাব্দী পাঠকদের প্রিয়-গ্রন্থের তালিকায় স্থান করে আছে অনুবাদকদ্বয় এই সুবিশাল গ্রন্থ থেকে প্রতিটি হাদীসের সপেক্ষে সালাফদের বাণীগুলো চয়ন করে ক্রমান্বয়ে সাঁজিয়েছেন। অনেকটা রাসূল-ﷺ-এর হাদীসের ব্যাখ্যা সালাফদের মুখে শোনা। ফলে পাঠক একই সাথে নবিজির হাদীস, এবং এগুলোর ব্যাখ্যা সালাফদের বাণী থেকে শিখবে এবং আত্মন্নায়নে ব্যাপক ভূমিকা রাখবে।

পরিমাণ

170.00  242.00 (30% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

3 রিভিউ এবং রেটিং - নবিজির পরশে সালাফদের দরসে

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    ভাবুন তো কোনো এক পরন্তবিকেলে যদি নবিজির পরশে জ্ঞান আহরণ করা যেত,সন্ধ্যার গোধূলি আলোয় যদি সালাফদের দরস কন্ঠস্থ করা হতো।কেমন হতো? এই ম্লান জীবন হয়তোবা যৎসামান্য উদ্ভাস ফিরে পেত।নিষ্প্রদীপ হৃদয়ের হৃষ্টতা অন্তরিক্ষ ভেদ করে সাজদায় লুটিয়ে পড়তো আরশে।এ অধম তবে একটু ফিরে পেত জীবনের স্বাদ।নবিজির পরশমাখা বাণীতে নিজেকে ডুবিয়ে দিতে পারলেই অনুভব করবে জীবনের প্রসন্নতা।বইটি নির্ঘাত পাঠককে উদ্ভাসিত করে তুলবে।সালাফদের অভ্রভেদী কথন স্মরণ করিয়ে দেবে রবের সন্তুষ্টির গুরুত্ব।তবে কেন বসে থাকা,একখন্ড আলো কুড়িয়ে নিতে,সালাফদের দরসে নিজেকে ডুবিয়ে দিতে নিছক দুনিয়া ছেড়ে ছুটে চলা হোক তাদের পথে।
    ————————————————————–
    ◼বইকথন:রাসুল (সা:) এক আলো;যে আলোর বিচ্ছুরণ সর্বত্র ___কথায় কাজে,চলনে-মননে।জীবনের সর্বক্ষেত্রে রয়েছে তাঁর অনুপম শিক্ষা ও অনুসরণীয় বৈশিষ্ট্য।তাঁর অন্যতম বৈশিষ্ট্য ও মুজিযা হলো ‘জাওয়ামিউল কালিম’।’জাওয়ামিউল কালিম’ অর্থ ____অল্প কথায় ব্যাপক অর্থ প্রকাশ।ইমাম যুহরি বলেন, আল্লাহ্ পূর্ববর্তী জাতিকে যে-জ্ঞান ও প্রজ্ঞা আসমানি কিতাবের মাধ্যমে দিয়েছেন, রাসুল (সা:) এর মাধ্যমে এ উম্মাতকে সে জ্ঞান ও প্রজ্ঞা দিয়েছেন এক শব্দে বা এক লাইনে।নবিজির সেই প্রজ্ঞাময় বাণী থেকে মোটামুটি পঞ্চাশটি হাদিস ও অজস্র সালাফদের দরস নিয়ে,আত্নগঠনে উৎসাহী করে তোলার মতো একটি বই”নবিজির পরশে সালাফের দরশে ”
    —————————————————————
    ◼কেন পড়বেন:আল্লাহ তায়লা বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সা) কে যে হেকমাত ও প্রজ্ঞা দান করেছেন তা উপলব্ধি করা মুসলমানদের জন্য অপরিহার্য।নবিজিকে উপলব্ধি করার মাঝে নিহিত রয়েছে জীবনের সকল সফলতা।বলা চলে,একজন মুসলিমের সমগ্র দ্বীন রয়েছে বইটির এই পঞ্চাশটি হাদিসে।
    ————————————————————-
    ◼অনুভূতি:বইটি পড়তে পড়তে কখনো হোঁচট খেয়েছি,সালাফদের কথাগুলো এতটাই গভীর যা আপনাকে থমকে দেয়ার মতো।নিজেকে নিয়ে ভাবতে উৎসাহী করবে বইটি।আত্মপ্রবঞ্চনা থেকে বেরিয়ে,সালাফদের দিকে উৎসাহী করবে পাঠককে।বইটি ইমান সিরিজ হিসেবে পারফেক্ট।
    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
  2. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    মহান রবের স্মরণে শুরু করছি,,,,,
    “নবিজির পরশে সালাফের দরশে ”
    ইমাম ইবনু রজব হাম্বলী
    কেমন ছিল সালাফদের জীবন,কেমন অনূভূত হতো যদি তাদের দরসে নবীর হাদিস শোনা যেত।কখনো কি কল্পনা করেছেন সালাফদের দরসে বসে নবিজির দেয়া উপদেশগুলো শোনার সৌভাগ্য হবে।এই বইটির প্রতিটি পাতা আপনাকে অনুভব করাবে কেমন ছিল সালাফদের দরস।
    ●বিষয়বস্তু:এই বইয়ের বিষয়বস্তু বলে বোঝানোর মতো নয়।রাসুল (সা:) এর হাদিস আর সালাফদের উপদেশ,,এই দুইয়ের সমন্বয়ে পরিচ্ছন্ন জীবন গঠনে বইটির জুড়ি নেই।বইয়ের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত রয়েছে,,,জীবনকে কিভাবে ইসলামের পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়।
    ○ ইসলামের সৌন্দর্য: আবু হুরায়রা থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, রাসূল (সা:)ইরশাদ করেছেন, ইসলামের সৌন্দর্য হলো, অপ্রয়োজনীয় সবকিছু পরিহার করা।(তিরমিজি:২৭১৭)
    এই বইয়ের একটি গুন হলো,বইটি পড়া মাত্রই আপনার হৃদয়ে সাড়া জাগাবে,,,,,,যেকোনো কাজে আপনাকে মনে করিয়ে দেবে রাসূলের বানীগুলো।বইটি আমাদের জীবনের সকল অপ্রয়োজনীয় কাজ ও কথা পরিহার করতে সাহায্য করবে।
    ●পাঠ অনুভূতি: দ্বীনের পথে ফিরে আসাটা সহজ কিন্তু এ পথে অবিচল থাকাটা কঠিন।এই বইটি যতবার পরবেন মন থেকে একটা সাহায্য পাবেন,আত্মবিশ্বাস ফিরে আসবে,ইনশা আল্লাহ্।শয়তান আমাদের ওয়াসওয়াসা দেবেই,,,,কিন্তু এই বইটি সবসময় সাথে থাকলে শয়তানের ফাঁদ থেকে বাঁচা সম্ভব হবে।
    ●কাদের জন্য বইটি: নবমুসলিম ভাইবোন ও প্র্যাকটিসিং মুসলিমাহদের জন্য বইটি খুবইগুরুত্বপূর্ণ।
    ●বইটি কেন আর্কষনীয়:কীভাবে আল্লাহর প্রিয় হবে? এই প্রশ্নটা প্রায় সবার মনেই থাকে,,,,বইটিতে আছে সালাফদের,,,আল্লাহর প্রিয় হওয়ার গল্প
    শেষ কথা:বইটি একদিকে যেমন আপনাকে আত্মবিশ্বাসী করে তুলবেন,,,,তেমনি জীবন সম্পর্কে ভাবাবে।আল্লাহ্ আমাদের সকলকে সঠিক বোঝার তাওফিক দান করুন।আমিন
    2 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
  3. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    অসাধারণ।
    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?