মেন্যু


যেভাবে স্বামীর হৃদয় জয় করবেন

প্রকাশনী : পথিক প্রকাশন
Cashback

অনুবাদ : সামী মিয়াদাদ চৌধুরী
শরঈ সম্পাদনা : সাইফুল্লাহ আল মাহমুদ
পৃষ্ঠা সংখ্যা : ৬৪
বইয়ের ধরণ : হার্ডকভার

অধিকহারে বিবাহ সংক্রান্ত সমস্যা বৃদ্ধি পাওয়া, মুসলিম সমাজে তালাক সংক্রান্ত জটিলতার প্রসার, স্বামীর বিভিন্ন ব্যাপারে স্ত্রীর অধিক হস্তক্ষেপ এবং স্বামীর নিজ দায়িত্ব ও কর্তব্যে অবহেলা, পাশ্চাত্যের বিভিন্ন ধ্যান-ধারণার অনুসরণ ও কুরুচীপূর্ণ সিনেমা দেখার প্রতি মুসলিমদের অধিক আগ্রহ ইত্যাদি বিবাহ সংক্রান্ত জটিলতা দেখা দিচ্ছে প্রতিনিয়ত।

এ ক্ষেত্রে নারীর ভূমিকা কী হবে? কীভাবে সে তার স্বামীর মন জয় করবে? ভাঙ্গা সংসার কীভাবে পুনরায় জোড়া দিবে? এ নিয়েই রচিত বক্ষ্যমাণ গ্রন্থটি।

পরিমাণ

88  160 (45% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
- ১৪৯৯+ টাকার অর্ডারে সারাদেশে ফ্রি শিপিং!

2 রিভিউ এবং রেটিং - যেভাবে স্বামীর হৃদয় জয় করবেন

5.0
Based on 2 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    আলহামদুলিল্লাহ অনেক অনেক ভালো
    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    :

    #ওয়াফিলাইফ_পাঠকের_ভালোলাগা_মার্চ_২০২০
    .
    |বই পর্যালোচনাঃ| বইটি মূলত দাম্পত্য জীবনের পারস্পরিক বোঝাপড়া, আন্তরিকতা ও ইসলামী জীবনাচরণে মজবুত বন্ধন গঠনের দিকনির্দেশিকা। ক্যারিয়ারিজম কিংবা সিনেমাফোবিয়ায় যারা ভুগছেন তাদের নিয়ে আলোচনা করেছেন লেখক। কুরআন ও সুন্নাহভিত্তিক সুন্দর দাম্পত্যজীবনের মন্ত্র শিখিয়ে দিয়েছেন। স্বামীর মন জয় করে পরিবারের সবার সাথে ব্যালেন্স রেখে চলার পদ্ধতি তুলে ধরেছেন। নবীজি ও সালাফদের সাথে বর্তমানের যুগলজীবনের তুলনামূলক আলোচনা করে নির্দেশনা দিয়েছেন। পাশ্চাত্যের স্রোতে গা না ভাসিয়ে,দ্বীনি জীবনে অভ্যস্ত হওয়ার নসীহা দিয়েছেন।তাছাড়া পরিবারকেন্দ্রিক কিছু প্রশ্নোত্তরে লেখক পাঠ্য করেছেন সাবলীল আর সবার অন্তরে গেঁথে যাওয়ার মতো। মোটকথা বইটি মেয়েদের ইসলামিক্যালি সংসারজীবনের একটি কম্পলিট গাইডলাইন।
    .
    |বইটি যাদের জন্যঃ|
    – বর্তমানে অধিকাংশ নারীরা চোখে নারীবাদী’দের দেওয়া চশমা পরিধান করে দুনিয়া দেখে। ক্যারিয়ারিজমকে জীবনের মূলমন্ত্র বানিয়ে সকাল থেকে রাত অব্দি বসের গোলামি করাকে সম্মানের মনে করে আর স্বামীর খেদমতকে ভাবে দাসীবৃত্তি!
    .
    – এমনও অনেক পরিবার আছে যেখানে কিনা চাকরিগিরির যাতাকলে স্বামীর সাথে স্ত্রীর সপ্তাহের শুক্রবার ছাড়া দেখা’ই হয় না। সম্পর্ক স্রেফ যান্ত্রিক হয়ে গেছে। তাদের সন্তানাদিও এর থেকে রেহাই পায়না।
    খামখেয়ালী বুয়ার হাতে সন্তানদের তুলে দিয়ে, কেমন প্রজন্ম গড়তে চলেছে তারা? সেটাই অদ্য ভাবার বিষয়।
    .
    – অনেকে আবার সিনেমা-নাটকের সাথে জীবনের তুলনা করে হতাশায় ভুগে।
    .
    -তাছাড়া বিয়ের আগে অনেক মেয়েরাই জানেনা সংসার কিভাবে মেইনটেইন করতে হয়, কীভাবে স্বামীর মন জয় করতে হয়, কিংবা পারস্পরিক বোঝাপড়া নিয়ে হতাশ।
    .
    এমনই অনেক নারী যারা ইসলাম থেকে দূরে কিংবা ইসলামের রীতিনীতি নিয়ে ভুল ধারণা রেখে সংসারজীবনকে অন্ধকারে রেখে দিয়েছে, তাদের জন্য বইটি অত্যন্ত সহায়ক।
    .
    |ইতিবাচক/নেতিবাচক দিকঃ| লেখার প্রাঞ্জলতাগুণ প্রশংসার দাবিদার। গোছালো নির্দেশনা আর রেফারেন্স বইকে করেছে সুখপাঠ্য। প্রচ্ছদ ভালো ছিলো।কোয়ালিটি, বাইন্ডিং ও ঠিক আছে।
    তবে, কিছু স্থান খাপছাড়া মনে হয়েছে। হয়তো অনুবাদক সাহেব লেখককে হৃদয়াঙ্গম করতে ব্যহত হয়েছিলেন। তবে মজার ব্যাপার হলো, তৎক্ষণাৎ তিনি কৌশলে এ থেকে উত্তরিত ও হয়েছেন।
    .
    |পাঠ্যানুভূতিঃ|
    “প্রিয়তমা!
    তোমার হৃদয়ের পবিত্র ভালোবাসাটুকু দিও।ভালোবাসার বন্ধনে বেঁধে রেখো আমায় জনম জনম”
    গোড়ার কথাগুলোই খাঁ খাঁ করা হৃদয়জমিনে ঢেলেছে শুভ্রতার বারিধারা।
    অসাধারণ অনুভূতি ছিলো। ইসলাম কত সুন্দর! নারীকে দিয়েছে আয় করার সুযোগ, দিয়েছে তার ন্যায্য অধিকার, তার সাথে জুড়ে দিয়েছে স্বামীর মন জয় করার শর্ত। ব্যাস এতটুকুই নারীর কর্ম।
    বইয়ের পাতায় অঙ্কিত হয়েছে স্বপ্নীল জীবনপ্রাপ্তির সরল প্রবাহচিত্র। অনেক প্রশ্নের উত্তর পেয়েছি। ভালোবাসা দিয়ে ভালোবাসা আদায়ের পদ্ধতি রপ্ত করেছি। এককথায় অসম্ভব ভালো লেগেছে বইটি।
    .
    বইটি কিনে নিজে পড়ুন। মা, বোন কিংবা স্ত্রীকে বিলিয়ে দিন। স্বামীর মন জয় করে মঞ্জিলের পথ চিনার সুযোগ করে দিন ইনশাআল্লাহ।
    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top