মেন্যু
the bond of faith

দ্য বন্ড অব ফেইথ (দৃঢ় করো ঈমানী বন্ধন)

প্রকাশনী : আয়ান প্রকাশন
অনুবাদক : আহলুল্লাহ মুনীব
পৃষ্ঠা : 112, কভার : পেপার ব্যাক
ভাষা : বাংলা
ভ্রাতৃত্ব ও বন্ধুত্ব। হৃদ্যতা ও ভালোবাসা। আমাদের যাপিত জীবনের চেনা কিছু শব্দ। পরিচিত কিছু বন্ধন। যে বন্ধনগুলো মিলে গড়ে ওঠেছে জীবনের বলয়। এর মাঝেই ফিরছি অহর্নিশ। চেতনে অবচেতনে গড়ে ওঠছে... আরো পড়ুন
পরিমাণ

128  220 (42% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

22 রিভিউ এবং রেটিং - দ্য বন্ড অব ফেইথ (দৃঢ় করো ঈমানী বন্ধন)

4.6
Based on 22 reviews
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published.

  1. 5 out of 5

    রাশেদ আহমাদ:

    ধরিত্রীতে বেঁচে থাকার জন্য মানুষের যেমন খাদ্য, বস্ত্র ও বাসস্থান প্রয়োজন, তেমনি সমাজে বসবাস করার জন্য প্রয়োজন মানুষের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক, সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির। কেননা মানুষ সামাজিক জীব; সমাজবদ্ধ হয়ে চলা মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। আর মানুষের স্বভাব-প্রকৃতিই এমন যে, কোনো মানুষ একাকী থাকতে চায় না। সমাজের অন্য সবার সঙ্গে প্রীতির মেলবন্ধনে জড়িয়ে থাকতে আগ্রহী। এই পারস্পরিক সম্পর্ক, সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির মায়াজাল মানুষের মধ্যে বন্ধুত্বের আবহ সৃষ্টি করে।

    ইসলাম সম্পূর্ণ জীবনব্যবস্থার নাম। এখানে বন্ধু হিসেবে আমি-আপনি কাকে গ্রহণ করব–সে বিষয়েও দিক নির্দেশনা বিদ্যমান। আল্লাহপাক পবিত্র কুরআনুল কারিমে বলেন, ‘মুমিনগণ যেন অন্য মুমিনকে ছেড়ে কোনো কাফেরকে বন্ধুরূপে গ্রহণ না করে। যারা এরূপ করবে,তাদের সঙ্গে আল্লাহর কোনো সম্পর্ক থাকবে না।’- সুরা ইমরান :২৮

    আল্লাহর রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘মানুষ তার বন্ধুর ধর্ম (স্বভাব-চরিত্র) দ্বারা প্রভাবিত। সুতরাং সে কার সঙ্গে বন্ধুত্ব করছে তা যেন অবশ্যই যাচাই করে নেয়।
    – মুসনাদে আহমাদ, তিরমিজি।
    হুজ্জাতুল ইসলাম ইমাম গাজালি (রহ.) বলেছেন,
    ‘যার সঙ্গে বন্ধুত্ব করবে তার মধ্যে পাঁচটি গুণ থাকা চাই। তা হলো-‘বুদ্ধিমত্তা ও সৎ স্বভাবের অধিকারী হওয়া এবং পাপাচারী, বেদআতি ও দুনিয়াসক্ত না হওয়া।’

    পাঠ অনুভূতি :
    ____________
    আমাদের এখন বন্ধুর অভাব নেই। বিশেষ করে তরুণ প্রজন্ম এ দিকটায় সবচেয়ে বেশি এগিয়ে। তবে বন্ধু নির্বাচনে আমরা অনেকেই ভুল করে বসি, আর সেই ভুলের মাশুল সারাজীবন বয়ে বেড়াতে হয়। মাদক থেকে শুরু করে কঠিন কঠিন বদঅভ্যাসে লিপ্ত হয়ে যাই এই বন্ধুদের সাথে চলতে গিয়ে। যতক্ষণ ভালোবাসা থাকে ততক্ষণ তার প্রিয়পাত্র হয়ে পাশে থাকি; যেই কিনা স্বার্থে আঘাত লাগে—তখন সে বন্ধুকে হত্যা করতেও দ্বিধাবোধ করি না। আফসোস! আজ যদি বন্ধু বাছাইয়ের ক্ষেত্রে ইসলামের দিকনির্দেশনা অনুসরণ করতাম, তাহলে এই সমাজ ও রাষ্ট্রের চেহারা এরকম হতো না।

    আয়ান প্রকাশন থেকে প্রকাশিতব্য বই ‘দ্য বন্ড অব ফেইথ’ বইটির শর্ট পিডিএফ আমি পড়েছি। বইটিতে লেখক বন্ধু নির্বাচন, বন্ধুর হক আদায় করা, আল্লাহর জন্য করা বন্ধুত্বের শর্ত ও ভিত্তি, ইসলামে ভ্রাতৃত্ববন্ধনের উপকারিতা, সততা ও বিশ্বস্ততার পরিচয় দেওয়া, প্রয়োজন পূরণে এগিয়ে থাকা,
    তার ভুলগুলো ক্ষমা করা এবং তার জন্য দুআ করা ইত্যাদি বিষয়গুলোর ওপর বিস্তারিত আলোচনা করেছেন। বইটি পড়ার মাধ্যমে আমরা বন্ধুর হক, তার সাথে আচরণ কেমন হওয়া চাই এবং কোন কোন বন্ধু আমার জীবনকে ফুলের মতো সুবাসিত করে তুলবে তাদের পরিচয় খুঁজে পাবো। জানতে পারব, ভ্রাতৃত্বের এই মধুর সম্পর্ক বজায় রাখার জন্য কুরআন-হাদিসে কী কী আদেশ আমাদের দেওয়া দিয়েছে।
    আল্লাহপাক বইটির সঙ্গে সকলকে উত্তম প্রতিদান দান করুন। আমিন।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    Amit Hasan:

    ■ শুরুর কথা-

    দুনিয়াবী জীবনে বিভিন্ন তাগিদে আমাদের একে অন্যের সংস্পর্শে আসতে হতে হয় এটি সৃষ্টিশীল প্রক্রিয়া। ভালো মানুষের সংস্পর্শে আসলে আমরা যেরকম ভালোর দ্বারা প্রভাবিত হই ঠিক তেমনি খারাপ মানুষের সংস্পর্শে আসলে তাদের মন্দ দিকগুলো আমাদেরকে প্রভাবিত করে। ইসলামি দৃষ্টিতে অবশ্যই মন্দ কাজ পরিতাজ্য। তাই আমাদের উচিত এমন মানুষদের সংস্পর্শে আসা যাদের নিজেদের জীবন ইসলামী ধারায় আলোকিত। আর তাদের সংস্পর্শে আমরাও যেন তাদের আলোকচ্ছটায় নিজেদের জীবনকে আল্লাহর রঙে রাঙাতে পারি। কিভাবে আমরা আমাদের জীবনের পারস্পরিক সম্পর্ক বা বন্ধন গুলোকে শক্তিশালী করবো? কিভাবে আমরা আল্লাহর সাথে সম্পর্ক উন্নয়ন করবো? সম্পর্ক বা বন্ধনকে দৃঢ় করতে কোন গুণগুলো ধারণ করা প্রয়োজন? কোন গুলো বর্জনীয়; তারই জানান দেবে আলোচ্য বই “দ্য বন্ড অব ফেইথ (দৃঢ় করো ঈমানী বন্ধন )”

    ■ বইটিতে যা যা থাকবে-

    বইটি আকর্ষণীয় ২৯ টি অধ্যায়ে সুসজ্জিত। সূচিপত্র দেখেই ধারণা করা যায় বইটি ভেতর কেমন হবে। বইটিতে আমাদের প্রাত্যহিক জীবনে আল্লাহ ও মানুষের সাথে বন্ধন গঠনে যে মানবীয় গুণগুলো একজন মুসলিমের মাঝে থাকা উচিত। যেমন- বিশ্বস্ততা, ভ্রাতৃত্ব,বন্ধুত্ব, সুন্দর চরিত্র, সত্যবাদিতা ইত্যাদি গুণগুলোকে কুরআন হাদিসের আলোকে, কিছু আকর্ষনীয় গল্পের আলোকে আলোকপাত করা হয়েছে। এই গুণগুলোর প্রয়োজনীয়তা, গুরুত্ব এবং এই গুণগুলো অর্জনে আমাদের করণীয়সমূহ আলোকপাত করা হয়েছে।

    ■ শর্ট পিডিএফ পড়ে পাঠ্যানুভূতি-

    শর্ট পিডিএফে বইটির ভিন্ন ভিন্ন সাতটি অধ্যায়ের চয়িতাংশ আলোচিত হয়েছে। সুন্দর চরিত্র গঠনে কুরআনের নসীহত, বন্ধু নির্বাচনে আমাদের করণীয়তা, বিশ্বস্ত হও, বিশ্বস্ততার প্রতিদান, এর বিভিন্ন ক্ষেত্র, এর মূল্য ইত্যাদি শিরোনামে এই গুণের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে অবগত হবে পাঠক। এছাড়া সত্যবাদী হও শিরোনামে সত্যবাদিতার গুরুত্ব সম্পর্কে আলোচনা রয়েছে। পঠিত অংশের প্রতিটি পাতায় কুরআন ও হাদিসের যথাযথ রেফারেন্স সহিত আলোচনা করা হয়েছে। বইটির অনুবাদও যথেষ্ট সহজ, সরল ও প্রাঞ্জল মনে হয়েছে। বাংলা ভাষায় বইটি অনন্য ভূমিকা রাখতে পারবে আশা করছি।

    ■ বইটি কেন পড়া উচিত-

    একজন মানুষের জীবনে ইসলামের সূচনা হয় ঈমান তথা বিশ্বাস আনয়ন করার মাধ্যমে। আর সেই বিশ্বাস হতে হয় দৃঢ়তাপূর্ণ যা তাকে এমন এক জীবনব্যবস্থার দিকে ধাবিত করে সেই জীবনবিধান ওহীর নূর দ্বারা পরিপূর্ণ। আর সেই ওহীর নূরের আলোকচ্ছটায় যে আলোকিত হয় সেই মানবাত্না লাভ করে এমন সব মানবীয় গুণ যা তার ঈমানকে যেমন মজবুত করে তেমন তার প্রভাবে প্রভাবিত হয় পরিবার থেকে সমাজ, সমাজ থেকে রাষ্ট্র। যার প্রভাব হয় সুদূরপ্রসারী। এমনই কিছু মানবীয় গুণাবলীর কথা, সেগুলো কিভাবে পূর্ণতা পাবে, কিভাবে আমাদের সামাজিক বন্ধন গুলো আরো সুদৃঢ় ও মজবুত হবে তার কথা জানান দেবে আলোচ্য বইটি। এই বিষয়গুলো জানতে বইটি পাঠ করা আবশ্যক বলে মনে করি।

    ■ শেষ কথা-

    বর্তমান মুসলিম সম্প্রদায় অন্ধকারে নিমজ্জিত তারা তাদের পথের দিশা হারিয়ে আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের আনুগত্য বাদ দিয়ে দুনিয়াবী সফলতার জন্য আল্লাহর বিরুদ্ধ শক্তি ঘোর ইসলামের শত্রু গুলোর সাথে সম্পর্ক স্থাপন করছে যা মোটেও কাম্য নয়। এই বইটি আশা করি প্রতিটি মুসলিম ব্যক্তিকে চিন্তার খোরাক জোগাবে কাদের সাথে সম্পর্ক উন্নয়ন করা উচিত এবং কাদের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করা প্রয়োজন।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    মুহাম্মদ রুবেল মিয়া:

    জীবনে চলার পথে কতো মানুষের সাথেইতো আমাদের বন্ধুত্ব হয়। কারো সাথে বন্ধুত্ব হয় ক্ষনিকের, আবার কারো সাথে সারাজীবনের।
    বন্ধুত্ব প্রতিষ্ঠা করার আদেশ ইসলামের অন্যতম একটি সৌন্দর্য। তবে ইসলামে বন্ধুত্ব করার ক্ষেত্রে রয়েছে কিছু দিকনির্দেশনা ও বিধিনিষেধ। আমাদের মনে রাখতে হবে, বন্ধুত্ব হবে একমাত্র আল্লাহ তাআলার জন্যই। তেমনি শত্রুতাও হবে একমাত্র আল্লাহ তাআলার জন্য।
    ইসলামে কাফিরকে বন্ধু বানানোর অনুমতি নেই। বন্ধুত্ব করতে হবে মুমিন এবং মুত্তাকিদের সাথে। যারা মুসলিম এবং আল্লাহওয়ালা তাঁরাই অন্য মুসলিমের বন্ধু হওয়ার অধিক উপযুক্ত।

    বন্ধুত্ব প্রতিষ্ঠা করার পর আসে বন্ধুত্বের হক এবং বন্ধুর প্রতি দায়িত্ব ও কর্তব্য। ইসলাম বন্ধুত্বের প্রতি যেমন উৎসাহ দেয় তেমনি বন্ধুত্ব ধরে রাখার প্রতিও উৎসাহ দেয়। আর কিভাবে ইসলামি উপায়ে বন্ধুত্ব ধরে রাখা যাবে, বন্ধুত্বের হক আদায় করা যাবে এবং বন্ধুত্বকে সুদৃঢ় করা যাবে সে সম্পর্কে জ্ঞানার্জন করা আমাদের জন্য জরুরি। আর সে জরুরি দিকটির কথা লক্ষ্য রেখেই আয়ান প্রকাশন নিয়ে আসছে “দ্য বন্ড অফ ফেইথ” অর্থাৎ দৃঢ় করো ঈমানী বন্ধন নামক বইটি।

    বইটির আলোচ্য বিষয় :
    দ্য বন্ড অব ফেইথ (দৃঢ় করো ঈমানী বন্ধন) বইটিতে বন্ধুত্ব প্রতিষ্ঠা, বন্ধুত্বের হক এবং বন্ধুদের প্রতি দায়িত্ব ও কর্তব্য বিষয়ে লিখিত একটি গ্রন্থ।
    বইটিতে কাদের সাথে বন্ধুত্ব করা যাবে, কাদের সাথে করা যাবেনা, কারা মুসলিমদের প্রকৃত বন্ধু, বন্ধু নির্বাচন, ইসলামে বন্ধুত্বের শর্ত, বন্ধুদের প্রতি মুসলিমের আচরণ, বন্ধুত্ব ধরে রাখতে একজন ব্যক্তির মাঝে যে গুণগুলো থাকা প্রয়োজন সে গুণগুলোর বিস্তারিত আলোচনা এবং কুরআন ও হাদিসে বর্ণিত সৎ বন্ধুত্বের কিছু দৃষ্টান্ত আলোচনা করা হয়েছে।

    বইটি পাঠ করার প্রয়োজনীয়তা:
    চলতে ফিরতে আমরা কতো জনকেই তো বন্ধু বানাই। কারো সাথে বন্ধুত্ব গাঢ় হয়, কারো সাথে হয়না। কিন্তু ইসলামে বন্ধুত্বের ব্যপারেও আছে দিকনির্দেশনা ও বিধিনিষেধ, তা কি আমরা জানি?
    অথচ আমাদের বন্ধুত্ব এবং শত্রুতা একমাত্র আল্লাহর জন্যই হতে হবে। এজন্যই আল্লাহর জন্য বন্ধুত্ব ও আল্লাহর জন্য শত্রুতা আমরা কিভাবে গড়বো সে সম্পর্কে জ্ঞানার্জন করা আমাদের অন্যতম দায়িত্ব। সে দায়িত্ব আদায়ের লক্ষ্যেই আমাদের পড়তে হবে দ্য বন্ড অব ফেইথ (দৃঢ় করো ঈমানী বন্ধন) বইটি। তাছাড়া বন্ধুত্বের মধ্যে রয়েছে বন্ধুত্বের হক। সে সম্পর্কে জানার জন্যও বইটি পড়া আমাদের জন্য জরুরি।

    ইনশাআল্লাহ বইটি আমাদের বন্ধুত্ব ও শত্রুতার মাপকাঠি এবং বন্ধুত্বের হক আদায় ও সেই সম্পর্ককে দুনিয়া ও আখিরাতের সফলতার কারণ হিসেবে গড়ে তুলতে সাহায্য করবে।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    উম্মে হানি নাসরিন:

    ভ্রাতৃত্ব ও বন্ধুত্ব, হৃদ্যতা ও ভালোবাসা শব্দগুলো কে ঘিরেই আবর্তিত হয় মানব জীবন। এই বন্ধন গুলোই যেন আমাদের জীবনে টিকে থাকার শক্তি। সজ্জন কুজন সবার সঙ্গেই গড়ে উঠে এই বন্ধন, যা আমাদের জীবনে সুদূরপ্রসারী প্রভাব ফেলে। কথায় আছে সৎ সঙ্গে স্বর্গ বাস, অসৎ সঙ্গে সর্বনাশ। সম্পর্ক যদি হয় কুজন কারো সঙ্গে তবে তার হৃদয় হয়ে পড়ে কলুষিত এবং অন্ধকারে নিমজ্জিত হয়ে যায় সে। কিন্তু সুন্দর ও সৎ স্বভাবের সঙ্গী সন্ধান দেয় সত্য ও সুন্দর পথের। কেননা মানুষের মেধা- মনন, চিন্তা-চেতনা, বোধ-উপলব্ধি বিনির্মানে রয়েছে এসব সম্পর্কের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা।
    আর তাই তো ইসলাম এসব ভ্রাতৃত্ব, বন্ধন এবং সঙ্গী নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে কিছু নীতিমালা এবং দিকনির্দেশনা নির্ধারণ করে দিয়েছে। নিশ্চয় আল্লাহর জন্য কাউকে ভালোবাসা এবং দ্বীনের স্বার্থে কারো সাথে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ হওয়া একটি পূণ্যময় ইবাদাত, পূর্ণাঙ্গ ঈমানের পরিচায়ক।

    ইসলামে ভ্রাতৃত্ব বন্ধনের স্বরুপ এবং সাহাবী মনীষীদের ভ্রাতৃত্ব বন্ধনের নজীর তুলে ধরতেই লেখক মুসআদ হুসাইন মুহাম্মদ রচনা করেছেন, ” দ্য বন্ড অফ ফেইথ ( দৃঢ় করো ঈমানী বন্ধন) ” নামক বিখ্যাত গ্রন্থ।

    বইয়ের ভেতরঃ

    ১১২ পৃষ্ঠার ছোট্ট এই বইটিতে লেখক তুলে ধরেছেন কোরআন হাদিসের আলোকে সুন্দর চরিত্র, বন্ধু নির্বাচন, বন্ধুত্ব ও ভ্রাতৃত্বের ভিত্তি, কিছু চিত্তাকর্ষক কাহিনী, হযরত মুসা (আঃ) এর একটি ঘটনা, বিশ্বস্ততা ও এর নানা দিক, কোরআন হাদিসের আলোকে সত্যবাদীতা, ভ্রাতৃত্বের অধিকার শিষ্ঠাচার এবং উপকারীতা।
    কোরআন হাদিসের দালিলিক প্রমাণ উপস্থাপন করে লেখক অত্যন্ত সাবলীল ভাবে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনকে তুলে ধরেছেন।

    শর্ট পিডিএফ পাঠে অনুভূতিঃ
    ১৬ পৃষ্ঠার পিডিএফে মূলত সূচীপত্র ও ভূমিকা সহ সুন্দর চরিত্র, বন্ধু নির্বাচন, বিশ্বস্ত হও, বিশ্বস্ততার প্রতিদান ও এর বিভিন্ন ক্ষেত্র, বিশ্বস্ততার মূল্য সত্যবাদী হও টপিক গুলো আংশিক দেয়া আছে। এটুকু পাঠেই বুঝতে পারি বইটা প্রত্যেক মুসলিমের ঈমানের পূর্ণতা এনে দিতে সহায়ক হবে। কেননা এটা পড়েই প্রত্যেক মুসলিম বুঝতে পারবে কিভাবে আল্লাহর জন্য ভ্রাতৃত্ব বন্ধন গড়তে হয় আর কিভাবে আল্লাহর জন্য সম্পর্ক ছিন্ন করতে হয়। তাছাড়া বইটা উত্তম চারিত্রিক গুণাবলী অর্জনে এবং একটি সুন্দর কল্যাণমূলক সমাজ নির্মাণেও সহায়ক হবে আশা করি।

    সহজ সরল অনুবাদ এবং এর সাবলীল ভাষার কারণে বইটি সব মহলে সমান ভাবে গ্রহণ যোগ্য হবে বলে আমি মনে করি।

    ভ্রাতৃত্ব, বন্ধুত্ব ও ভালোবাসার বন্ধন গড়তে গিয়ে যারা হীনমন্যতায় ভোগে, যারা সম্পর্ক গড়ার ক্ষেত্রে শুধুমাত্র দুনিয়াকে প্রাধান্য দেয় কিংবা আল্লাহর জন্য যারা সম্পর্ক গড়া এবং সম্পর্ক ছিন্ন করার প্রয়োজন মনে করতে চায়না বইটা তাদের জন্য। বইটা তাদের ঐ সমস্ত ভ্রান্তির ভেড়াজাল থেকে মুক্ত করে সত্য পথের দিশা দেখিয়ে দিবে।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  5. 3 out of 5

    Fahim:

    ১৬ পৃষ্ঠার পিডিএফ পড়ে মনে হয়েছে বিশ্বাসের দেয়ালকে মজবুত করতে চাই এমন কেউ চাইলেই বইটি সহায়ক হিসেবে পেতে পারে। চরিত্রবান ব্যক্তি মাত্রই সবার কাছে প্রশংসার দাবি রাখে।

    ★চরিত্র নিয়ে কোরআন ও নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের বাণী।
    ★বন্ধু নির্বাচন কাকে ও কেন করবো
    ★আল্লাহর জন্য বন্ধুত্ব ও ভ্রাতৃত্বের শর্ত, ভিত্তি, দাবি ও উপকারিতা ; পাশাপাশি দুটি ঘটনাও উল্লেখ আছে বলে সুচি থেকে জানা যায়।

    ★সততা, বিশ্বস্ততা যে বিশ্বাসের বন্ডকে দৃঢ় করে তার ধারণাও বইটির শর্ট পিডিএফ থেকে জেনেছি।

    মোটকথা বইটি মাত্রই পাঠকের জন্য উপকারী হবে বলে আশাবাদী।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top