মেন্যু
Time Management (paper back)

Time Management (paper back)

লেখক : Ismail Kamdar
পৃষ্ঠা : 144, কভার : পেপার ব্যাক, সংস্করণ : 4th Print, 2022
আইএসবিএন : 9789849168201, ভাষা : English
Time Management is a field in which you are always upping your game and learning new tricks, so there is always room for expansion in future editions. I, Ismail Kamdar,... আরো পড়ুন
পরিমাণ

202  270 (25% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

3 রিভিউ এবং রেটিং - Time Management (paper back)

5.0
Based on 3 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    jabedking2017:

    মানুষের জীবন মূলত কিছু সময়ের সমস্তই। সময়ের গুরুত্ব বুঝতে কুরআন হাদিসের কয়েকটি দলীলই যথেষ্ট।
    “কসম যুগের (সময়ের)” [১০৩ঃ০১]
    ইব্‌নু ‘আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ

    তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ্‌ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ এমন দু’টি নিয়ামত আছে, যে দু’টোতে অধিকাংশ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত। তা হচ্ছে, সুস্থতা আর অবসর। ‘আব্বাস আম্বরী (রহঃ)…..সা‘ঈদ ইব্‌নু আবূ হিন্দ (রহঃ) থেকে ইব্‌নু ‘আব্বাস (রাঃ) সূত্রে নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) থেকে এ রকমই হাদীস বর্ণনা করেছেন।(আধুনিক প্রকাশনী- ৫৯৬৪, ইসলামিক ফাউন্ডেশন- ৫৯৭০)

    অপর হাদিস থেকে আমরা জানি –
    ”তোমরা পাঁচটি জিনিসকে পাঁচটি জিনিস আসার আগে গনিমতের অমূল্য সম্পদ মনে করো:
    ১) জীবনকে মৃত্যু আসার আগে।
    ২) সুস্থতাকে অসুস্থ হওয়ার আগে।
    ও) অবসর সময়কে ব্যস্ততা আসার আগে।
    ৪) যৌবনকে বার্ধক্য আসার আগে এবং
    ৫) সচ্ছলতাকে দরিদ্রতা আসার আগে।”
    (মুসান্নাফ ইবনে আবী শায়বা ৮ম খণ্ড, ৮ম অধ্যায় ১২৭ পৃষ্ঠা। আল্লামা আলবানী রহঃ, হাদিসটি সহীহ বলেছেন।)

    তাহলে সময়ের গুরুত্ব বুঝতেই পারছেন। অথচ এই মহামূল্যবান সময় সম্পরকে আমরা উদাসীন।
    কিভাবে আমদের সময় গুলোকে সঠিক ভাবে ব্যবহার করে দুনিয়া এবং আখিরাতে সফল হতে পারি তার নির্দেশনা পাবেন এই বইতে, ইন শা আল্লাহ।

    “টাইম ম্যানেজমেন্ট” নিয়ে অনেক সেক্যুলার লেখকের বইয়ের ভিড়ে এই বই আপনাকে টাইম ম্যানেজমেন্ট এর সাথে ইসলাম এর দিকটিও তুলে ধরবে বলে আশা করি।

    4 out of 4 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    Wahida Akhtar Sanna:

    একজন মুসলিম হিসেবে প্রথমেই যেটা মাথায় রাখতে হবে, সেটা হচ্ছে – স্বাস্থ্য, সম্পদ, জ্ঞান, পরিবার-পরিজন, বুদ্ধিবৃত্তি ইত্যাদির মত ‘সময়’ও মহান আল্লাহতা’লার দেয়া এক প্রকার রিযিক এবং মৃত্যুর পর অন্যান্য রিযিকের মত মুসলমানগণ আল্লাহতা’লার কাছে তার সময়ের হিসেব দিতে বাধ্য। সেজন্যই আমাদের সময়কে কাজে লাগাতে হবে আল্লাহতা’লার নির্দেশ অনুসারে, আল্লাহতা’লা যে উদ্দেশ্যে আমাদের সৃষ্টি করেছেন, সেটা মাথায় রেখে।

    ইসলামের ৫টি মূল স্তম্ভের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যায়, এর ৪টিই সময়ের সাথে সম্পর্কিত।
    কিন্তু আমরা নামাজের ক্ষেত্রে যে ভুলটা করে থাকি, সেটা হচ্ছে নামাজকে কেন্দ্র করে কর্মপরিকল্পনা করার পরিবর্তে কর্মপরিকল্পনার মধ্যে নামাজকে ঢুকানোর চেষ্টা করি এবং নামাজ পড়ার সময় না পাওয়ার অভিযোগ করি। মুসলমান হিসেবে নামাজ যে আমাদের জন্য শুধুমাত্র একটা আনুষ্ঠানিকতা নয়, বরং অগ্রাধিকার, সেটা ভুলে যাই।
    অন্যদের সাথে তাল মিলিয়ে ছুটতে ছুটতে আমরা প্রায়শই নিজের অগ্রাধিকার-লক্ষ্য-কর্তব্য-স্বপ্ন ভুলে বসে থাকি। আমি কয়েকঘন্টা সোশ্যাল মিডিয়ায় না থাকলে যে দুনিয়া রসাতলে যাচ্ছে না, বরং সবই ঠিকঠাক চলছে; আর মাঝখান থেকে আমি অপচয় করছি আমার অতি মূল্যবান সময়, সেটা মাথায় থাকে না আমাদের!

    Urgent এবং Important – শব্দদ্বয়ের পার্থক্য বুঝতে এবং মাথায় রাখতে হবে। মনে রাখতে হবে যে, সব আর্জেন্ট কাজই ইম্পর্ট্যান্ট না, আবার সব ইম্পর্ট্যান্ট কাজ আর্জেন্টও না। মাথায় রাখতে হবে আমাদের ধর্মীয়, পেশাগত, পারিবারিক, সামাজিক এবং ব্যক্তিগত অগ্রাধিকারের কথা। একের সাথে আরেকটাকে গুলিয়ে ফেলা চলবে না, আবার এক কে বেশি গুরুত্ব দিতে গিয়ে অন্যকে বঞ্চিত করাও চলবে না।
    প্রত্যেকবার নোটিফিকেশন আসামাত্রই ফোন চেক করার তাড়না দমন করতে হবে। অনেকের মত আমারও ফোন কল আসামাত্র সেটা রিসিভ করতে না পারলে বা ব্যাক না করা পর্যন্ত একটা অস্বস্তি হয়। কিন্তু লেখক বলে দিয়েছেন, তার কোনো প্রয়োজন নাই। বরং তিনি পরামর্শ দিয়েছেন, খুব গুরুত্বপূর্ণ কাজ করার সময় ফোন সাইলেন্ট বা একেবারেই সুইচড অফ করে রাখতে, যাতে উটকো লোকে ফোন দিয়ে মনোসংযোগে ব্যাঘাত ঘটাতে না পারে। মনোসংযোগে ব্যাঘাত ঘটাতে যে ফাঁদগুলো রয়েছে, সে সংক্রান্ত আলোচনা উঠে এসেছে একটি পূর্ণাঙ্গ অধ্যায়ে।

    সময় ব্যবস্থাপনার সবচেয়ে কার্যকরী কিছু পন্থা ( the seven day planner, the to-do list, the hybrid method) এবং সেগুলো কিভাবে প্রয়োগ করতে হবে, সে বিষয়ে আলোচিত হয়েছে বিস্তারিতভাবে। বাকি বেশিরভাগই খুবই সাধারণ কথাবার্তা, যেমন – লক্ষ্য ঠিক করতে হবে, পারফেক্টশনিস্ট হতে গিয়ে এক কাজ নিয়ে পরে থাকা যাবে না, পজিটিভ থেকে কাজ শুরু করতে হবে, পরিকল্পনা করতে হবে, কাজকে ছোট ছোট ভাগে ভাগ করে নিতে হবে, রিমাইন্ডার রাখা যেতে পারে,………….. ইত্যাদি ।
    বাড়তি যে বিষয়ে লেখক আলোচনা করেছেন তা হচ্ছে একজন মুসলিম হিসেবে আমাদের যে বিষয়গুলো অবশ্যই মাথায় রাখতে হবে সেই বিষয়গুলো, যেমন – the sabr factor, accept your Qadar, dua and Barakah!
    লেখক আলাদাভাবে পরামর্শ দিয়েছেন – খারাপ দিনগুলোতে এবং রমজান মাসে সময় ব্যবস্থাপনা নিয়ে, বাতলে দিয়েছেন ব্যর্থতা কাটিয়ে ওঠার ৫টি উপায় যা তিনি নিজের জীবনে প্রয়োগ করে থাকেন।

    সবশেষে যা না বললেই না,
    ১. সাধারণত উপদেশমূলক কথাবার্তা শোনার মত এই টাইপ বই পড়তেও আমি খুবই বিরক্ত হই। এই বইটি সেদিক থেকে ব্যতিক্রম ছিলো, পড়তে ভালো লেগেছে।

    ২. ইংরেজি বই পড়ে বাংলায় রিভিউ লিখতে গিয়ে একেবারেই যাচ্ছে তাই অবস্থা!বেশ কিছু ইংরেজি শব্দও ঢুকিয়ে ফেলেছি। কিন্তু আমার অভিজ্ঞতা বলে, এই রিভিউ বাংলায় লেখাতে যে কয়জন পড়ছে/পড়বে ইংরেজিতে লিখলে পড়বে তার সিকিভাগ হয়তো!

    ৩. অন্যান্য সেল্ফ-হেল্প বইয়ের মতো এটাও একটা প্র‍্যাক্টিকাল বই, প্রত্যেক চ্যাপ্টার শেষে লেখক কিছু “action point” দিয়ে রেখেছেন। উপকৃত হতে হলে অবশ্যই সেই অনুযায়ী কাজ করতে হবে। তাছাড়া আপনি ‘যেই লাউ, সেই কদু’ই থেকে যাবেন, ২/৪টা নতুন ইংরেজি শব্দ জানা ছাড়া বাড়তি কোনো উপকার পাবেন না!

    9 out of 9 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    ফারুক আব্দুল্লাহ:

    পৃথিবীতে সময়ই একমাত্র আল্লাহ প্রদত্ত নিয়ামত যা সবার জন্যই সমান। এ সময়েরই হিসাব নিবেন আল্লাহ! এই বইটা সময় কি এবং এর উওম ব্যবহারের সহায়ক। লেখক বিচক্ষণতার সাথে বইটির উপস্থাপন করেছেন। দীর্ঘায়ু কামনায় : ফারুক
    5 out of 5 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No