মেন্যু
doar mohima

দুআর মহিমা

পৃষ্ঠা : 148, সংস্করণ : 1st published 2020
মন খারাপের কথা, জীবনের সব চাওয়া-পাওয়ার কথা আপনার রবকে বলুন। মনের মাধূরী মিশিয়ে দু’আ করুন তাঁর কাছে। দুনিয়ার মানুষের কাছে বলে কি লাভ (!) দুনিয়ার মানুষ তো কোনো উপকার করতে পারবে... আরো পড়ুন
পরিমাণ

219  300 (27% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

2 রিভিউ এবং রেটিং - দুআর মহিমা

4.5
Based on 2 reviews
5 star
50%
4 star
50%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    Rahath Ahmed:

    আবূ হুরায়রা (রাঃ) থেকে বর্ণিত নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেনঃ “মহান আল্লাহর নিকট দোয়ার চেয়ে অধিক সম্মানিত কোন জিনিস নাই।”
    যে জিনিসটা আল্লাহর কাছে সম্মানিত আমরা ওই জিনিসটা “খালি দুয়া করলে কি হবে” বলে ইগো দেখিয়ে (নাউজুবিল্লাহ) অবহেলা করি।
    আমরা বর্তমানে খুব বেশি বস্তুবাদি হয়ে পড়ছি,আমরা আদ্ধাতিকতা থেকে দূরে সড়ে যাচ্ছি।
    অতচ একমাত্র দুয়াই তকদির চেঞ্জ করতে পারে,আপনার আগত এবং চলমান বিপদকে একমাত্র দুয়াই মোকাবেলা করে অস্ত্রের মতো।
    কিন্তু আমরা মনে করি আমাদের বুদ্ধি,প্রচেষ্টা,পরিকল্পনা আমাদের জন্য যথেষ্ট তাই তো দুয়া শুনলেই আমরা কেন নাক সিটকাই।
    অতচ এই দুয়ার মাধ্যমে কত অসম্ভব যে সম্ভব হয়েছে তা আপনার আমার কল্পনার বাইরে।
    আমরা কত ভুলে আছি।
    যে আল্লাহর কাছে দুয়া করে না তাকে নিজের কাছে সোপর্দ করা হয়,
    নিজের কাছে সোপর্দ করার মানে হচ্ছে বাস্তবতার হাতে ছেড়ে দেওয়া অর্থাৎ দুনিয়া যেভাবে চলছে সেভাবেই পাবেন ওইভাবে না করলে পাবেন না।
    এর জন্যই তো আমাদের লাইফে এতো হতাশা,সমস্যা যার মুল কারন আল্লাহর রহমতকে ছোট করে দেখা আর এই শাস্তি হিসেবে আল্লাহ আমাদের নিজের হাতে আমাদের ছেড়ে দেন।
    “দুয়ায় মহিমা” বইটি পড়লে এই দুয়া নামক অস্ত্রের সঠিক ব্যবহার সম্পর্কে জানতে পারবেন।
    খুবই ভালো একটি বই।
    7 out of 8 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 4 out of 5

    sayful islam:

    দু’আর মহিমা বইটি কেন পড়া জরুরী?
    বইটি পড়তে গিয়ে আমি বার বার থেমে গিয়েছি
    একেকটা লেখা বারবার পড়েছি পত্যেক বারই অন্তরে ধাক্কা খেয়েছে কখনো কখনো চোখ বেয়ে পানি পড়েছে।
    বইটি পড়ার সময় মনে হয়েছে আল্লহই আমার আপন। আমার সকল কিছুর চাওয়া পাওয়া একমাত্র তিনিই মিটিয়ে দিতে পারেন অন্য কেউ নয়।সব কিছুর জন্যই তার কাছে চাইতে হবে। দু’আ কবুল হোক বা না হোক বা বিলম্ব হোক তার কাছেই চাইতে হবে নিরাশ হওয়া ‍যাবে না।বইটি পড়লে বার বার শুধু দু’আ করতে মনে চাইবে।দুআ করার প্রতি আগ্রহ বেড়ে যাবে। আমরা যারা ভিবিন্ন পেরেশানীতে রয়েছি আল্লাহর নিকট তাওবা ইসতিগফার ও দু’আর মাধ্যমেই সকল পেরেশানী মুক্ত হওয়া সম্ভব এটা বুজতে সহজ হবে। বইটি পড়লে বইটিতে দুআর আজমত গুরুত্ত্ব ফজিলত দুআ কবুলের কিছু ঘটনা সহ গুরুত্ত্বপুর্ণ অনেক বিষয় নিয়ে আসা হয়েছে । বইটি দাওয়ার কাজেও অনেক গুরুত্তপূর্ণ ভুমিকা পালন করবে।
    10 out of 10 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top