মেন্যু
১০০০ টাকার পণ্য কিনলে সারা দেশে ডেলিভারি একদম ফ্রি।

উসমানি সাম্রাজ্যের ইতিহাস

অনুবাদক : কাজী আবুল কালাম সিদ্দীক, মাহদি হাসান
সম্পাদক : আহসান ইলিয়াস ও সালমান মোহাম্মদ
পৃষ্ঠা : ৭৫২

হিজরি সপ্তম শতাব্দী। মোঙ্গলীয়দের আক্রমণে লণ্ডভণ্ড আব্বাসীয় সালতানাত। কনস্টান্টিনোপলের খ্রিষ্টানদের সাথে লড়াইয়ে রোমের সালজুক সালতানাতের প্রাণ ওষ্ঠাগত প্রায়। ইসলামি ইতিহাসের এক চরম দুর্যোগপূর্ণ সময়। ঠিক এই দুর্যোগপূর্ণ সময়ে মেঘের আড়াল থেকে উঁকি দিয়ে হেসে ওঠে এক নবারুণ সূর্য। দিগ-দিগন্তে ছড়িয়ে পড়ে সেই সূর্যের দীপ্তি। ইসলামি সাম্রাজ্যের মেঘলা আকাশকে স্বচ্ছ এবং প্রখর রোদের আকাশে পরিণত করা সেই সূর্যের নাম ‘উসমানি সালতানাত’। ইসলামি ইতিহাসের এক সোনালি অধ্যায় জুড়ে ছড়িয়ে যে সালতানাতের ব্যাপ্তি। যারা শতাব্দীর পর শতাব্দী দোর্দণ্ড প্রতাপের এবং ন্যায়নিষ্ঠার সাথে শাসন করে গেছেন মুসলিম বিশ্ব। একের পর এক রাজ্য বিজয় করে ইসলামকে করেছেন সমুন্নত এবং সম্প্রসারিত। সারা বিশ্ব যাদেরকে জানে ‘অটোমান সাম্রাজ্য’ নামে। দীর্ঘকাল যাদের কথা চর্চা হয়ে আসছে ইতিহাসের পাতায় পাতায়।
.
কীভাবে উত্থান হলো এই মহা শক্তিশালী সালতানাতের? কী তাদের পরিচয়? কোথা থেকে তাদের আগমন?

আর কীভাবেই বা এ মহাশক্তিশালী সাম্রাজ্যের পতন হলো? কীভাবে ধ্বংস হলো শত শত বছরের খিলাফতব্যবস্থা?
.
প্রশ্নগুলোর উত্তর নিয়েই ‘উসমানি সাম্রাজ্যের ইতিহাস’।

পরিমাণ

600.00  800.00 (25% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

3 রিভিউ এবং রেটিং - উসমানি সাম্রাজ্যের ইতিহাস

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম
    .
    বইয়ের নাম : উসমানি সাম্রাজ্যের ইতিহাস (The Ottoman Empire)
    লেখক : ড. আলি মুহাম্মদ সাল্লাবি
    অনুবাদক : কাজী আবুল কালাম সিদ্দীক, মাহদি হাসান
    সম্পাদক : আহসান ইলিয়াস ও সালমান মোহাম্মদ
    প্রকাশক:মুহাম্মদ আবদুল্লাহ খান
    প্রকাশনায় : মুহাম্মদ পাবলিকেশন
    পৃষ্ঠাসংখ্যা : ৭৫২
    মুদ্রিত মূল্য : ৮০০ টাকা

    ১৩৯৯ সাল।
    তাতারিদের হামলায় সমগ্র মুসলিম বিশ্ব তখন লণ্ডভণ্ড।বাগদাদের খিলাফত,শক্তিশালী খাওয়ারেজম সাম্রাজ্য,তুর্কি সেলজুক সাম্রাজ্য তখন ধ্বংস হয়ে গেছে।
    উম্মাহর এই ক্রান্তিলগ্নে শীতের সকালে আরামদায়ক সূর্যোদয়ের মতোই উত্থান ঘটে এক ইসলামি সাম্রাজ্যের।সেলজুক সাম্রাজ্যের ধংসস্তুপের উপর গড়ে উঠে শক্তিশালী উসমানি সাম্রাজ্য।
    যেই সাম্রাজ্য পরবর্তী প্রায় ছয়শত বছর প্রবল প্রতাপের সঙ্গে শাসন করে সমগ্র ইসলামি ভুখন্ড।যাদের পদতলে পিষ্ঠ হতে থাকে সম্মিলিত খ্রিস্ট শক্তি।যাদের তলোয়ারের শক্তিতে সমগ্র বলকান অঞ্চল মুসলমানদের আয়ত্বে চলে আসে এবং ইউরোপের আটশত মাইল ভিতরে পর্যন্ত যাদের শাসনক্ষমতা প্রতিষ্ঠিত হয়।

    কারা এই উসমানি?কি তাদের পরিচয়?তাদের এই শক্তিমত্তার কারণ কি?
    আর…
    আর কি কারণেই বা এমন শক্তিশালী একটি সাম্রাজ্যের পতন হলো?

    এসকল প্রশ্নের উত্তর জানতে হলে অধ্যয়ন করতে হবে উসমানিদের ইতিহাস।
    আর সেই ইতিহাস নিয়েই বিখ্যাত ঐতিহাসিক ড. আলি মুহাম্মদ আস-সাল্লাবি তার দ্য অটোমান এম্পায়ার বইটি লিখেছেন।
    বইটির বাংলা অনুবাদ উসমানি সাম্রাজ্যের ইতিহাস নামে প্রকাশ করতে যাচ্ছে মুহাম্মদ পাবলিকেশন।

    বইটির যা কিছু ভালো লাগলো:
    ইতিহাস শাস্ত্রে ড. আলি মুহাম্মাদ সাল্লাবিকে নতুনভাবে পরিচয় করিয়ে দেয়ার কারণ নেই।তার লেখনীর গ্রহণযোগ্যতা সর্বমহলে প্রতিষ্ঠিত।তেমনি অনুবাদক হিসেবে কাজী আবুল কালাম সিদ্দিকীকেও নতুনভাবে পরিচয় করিয়ে দেয়ার কারণ নেই।
    লেখক আলি মুহাম্মাদ সাল্লাবি আর অনুবাদক কাজী আবুল কালাম সিদ্দিকীর নাম যেন একই সুতায় গাঁথা।যে বইটি এই দুইজনের রসায়নে প্রকাশিত হয়,তা না পড়া আমার জন্য কষ্টকর।
    অন্য অনুবাদক মাহদি হাসান ভাইও অনুবাদের ক্ষেত্রে অল্প সময়ের মধ্যেই যথেষ্ট সুনাম অর্জন করেছেন।সম্পাদক দুইজনও উচ্চ পর্যায়ের।বিধায় তাদেরকেও নতুনভাবে পরিচয় করিয়ে দেয়ার কোনো কারণ নেই।

    বইটির ঝরঝরে অনুবাদ।বক্তব্য বুঝানোর জন্য কঠিন গুরুগম্ভীর শব্দের পরিবর্তে সহজে বোধগম্য শব্দই ব্যবহার করা হয়েছে।

    বইটিতে উসমানি খিলাফতের শাসক,শাসন ব্যবস্থা,যুদ্ধ,বিজয়,অর্থ ব্যবস্থা,সমাজ ব্যবস্থা,পররাষ্ট্র নীতি ইত্যাদি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।
    উসমানিদের অধঃপতনের সময়কাল,তার কারণ এবং এর ফলাফল নিয়েও বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে।
    পাশাপাশি উসমানিদের উত্তরসূরী সেলজুক সাম্রাজ্যেরও খানিকটা আলোচনা তুলে ধরা হয়েছে।
    বইটিতে তুর্কিদের বংশ পরিচিতি এবং তাদের ইসলাম গ্রহণের আলোচনাও করা হয়েছে।যা জানার জন্য আগ্রহী ছিলাম।

    বইয়ের প্রচ্ছদ,আলোচনার ধরণ,বিষয়বস্তুর ধারাবাহিকতা,আলোচনার ক্ষেত্রে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র পরিচ্ছেদে ভাগ করে নেয়া সবকিছুই ভালো লেগেছে।
    সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে বইয়ের ইংরেজি নাম বাদ দিয়ে বাংলা নাম রাখা।ইদানিং বাংলা বইয়ের ইংরেজি নাম রাখার যে প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়,তা থেকে বেরিয়ে এসে বাংলা নাম রাখাটা সত্যিই প্রসংশার যোগ্য।

    সর্বোপরি সবার প্রতি লক্ষ্য রেখে বইয়ের মূল্যও কম রাখা হয়েছে।

    শেষ কথা:
    এক মলাটে বিশাল একটি সাম্রাজ্যের উত্থান থেকে পতন পর্যন্ত আলোচনা করা সত্যিই খুব কঠিন।কিন্তু সেই কষ্টকর কাজটিকেই বাস্তবে রূপান্তর করতে পারায় মুহাম্মদ পাবলিকেশন কে ধন্যবাদ।
    আশা করি,বইটি উসমানি সাম্রাজ্যের ইতিহাস জানতে এবং তা থেকে শিক্ষা নিতে আমাদের দারুণভাবে সাহায্য করবে।

    আল্লাহ লেখক,অনুবাদকমন্ডলী,সম্পাদকমন্ডলী, প্রকাশকসহ সকলকে নেক হায়াত দান করুন।
    আমিন।

    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
  2. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    মুসলিম শাসকদের রয়েছে কত শত গৌরবোজ্জল ইতিহাস ও বীরত্বপূর্ণ কাহিনী। যে মুসলমান একসময় বীরদর্পে দুনিয়া শাসন করতো তারাই আজ সকল ক্ষেত্রে চরম নির্যাতিত। আজ আমরা ভূলে গেছি সেই গৌরবময় অতীত। বর্তমান বিশ্বের দিকে তাকালে দেখা যায় মুসলমানরা দিন দিন অধপতনের দিকে ধাবিত হচ্ছে।
    মুসলমানদের এই অধপতনের অন্যতম কারন হলো তারা ভুলে গেছে তাদের উজ্জল সোনালী অতীত ও ইতিহাস সম্পর্কে। আমরা পারছি না সেই গৌরবময় ইতিহাস থেকে শিক্ষা নিতে।
    উসমানী সাম্রাজ্য মুসলমানদের গৌরবময় সেই ইতিহাসেরই এক স্বরনীয় নাম। যাদেরকে সবাই অটোম্যান এম্পায়ার হিসেবেই চিনে। বলা হয়ে থাকে মুসলিম শাসনের স্বর্ণযুগ ছিল এই অটোম্যান শাসনকাল। এক সময় সমগ্র বিশ্ব এই অটোম্যান শাসকদের সমীহ করতো। তারা একাধারে ছয়শত বছরেরও অধিক সময় ধরে এশিয়া, ইউরোপ, ও আফ্রিকার বিস্তৃত অঞ্চলের শাসনকার্য পরিচালনা করেছিল। কিন্তু পৃথিবীর কোন কিছুই যেমন চিরস্থায়ী নয়, তেমনিভাবে অটোম্যান সাম্রাজ্যও চিরস্থায়ী হতে পারে নি। গৌরবময় উত্থানের সাথে এই সাম্রাজ্যেরও হতাশাময় পতন হয়।
    পাঠকদের সেই অটোমান বা উসমানি সাম্রাজ্য সম্পর্কে পরিচয় করিয়ে দিতে এবং উসমানি সাম্রাজ্যের সমস্ত দিক এক মলাটে পেতে চাইলে পড়ে ফেলুন “উসমানী সাম্রাজ্যের ইতিহাস” নামক বইটি। বইটি প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ ড: আলী মুহাম্মদ সাল্লাবি রচিত “আদ দাউলাতুল উসমানিয়া” বইয়ের অনুবাদ। বইটি যৌথভাবে বাংলায় অনুবাদ করেছেন দুজন বিজ্ঞ অনুবাদক। তারা হলেন কাজী আবুল কালাম সিদ্দিকী ও মাহদি হাসান। যারা ইতোমধ্যেই অনুবাদ ও লেখালেখিতে বেশ প্রসিদ্ধ ও প্রতিষ্ঠিত নাম।
    বইটি পড়ার পর পাঠক বুঝতে পারবে উসমানী সাম্রাজ্য বর্তমান বিশ্বের কি পরিমান অঞ্চল জুড়ে বিস্তৃত ছিল। আরো জানতে পারবেন সেই সময়ের সুলতানদের রাষ্ট্রব্যবস্থা, সমাজ, অর্থনীতি, ও যুদ্ধকোশল সহ নানা দিক।
    তাই বাংলাভাষী সকলের প্রতি অনুরোধ “উসমানী সাম্রাজ্যের ইতিহাস” বইটি একবার হলেও পড়ুন এবং অন্যকেও পড়ার জন্য উৎসাহিত করুন। কারন এটা শুধু ইতিহাসের বই না এর সাথে মিশে আছে মুসলমানদের গৌরবময় সোনালী অতীত।
    1 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
  3. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    মুসলিম শাসকদের রয়েছে কত শত গৌরবোজ্জল ইতিহাস ও বীরত্বপূর্ণ কাহিনী। যে মুসলমান একসময় বীরদর্পে দুনিয়া শাসন করতো তারাই আজ সকল ক্ষেত্রে চরম নির্যাতিত।  আজ আমরা ভূলে গেছি সেই গৌরবময় অতীত। বর্তমান বিশ্বের দিকে তাকালে দেখা যায় মুসলমানরা দিন দিন অধপতনের দিকে ধাবিত হচ্ছে।
    মুসলমানদের এই অধপতনের অন্যতম কারন হলো  তারা ভুলে গেছে তাদের উজ্জল সোনালী অতীত ও ইতিহাস সম্পর্কে। আমরা পারছি না সেই গৌরবময় ইতিহাস থেকে শিক্ষা নিতে।
    উসমানী সাম্রাজ্য মুসলমানদের গৌরবময় সেই ইতিহাসেরই এক স্বরনীয় নাম। যাদেরকে সবাই অটোম্যান এম্পায়ার হিসেবেই চিনে। বলা হয়ে থাকে মুসলিম শাসনের স্বর্ণযুগ ছিল এই অটোম্যান শাসনকাল। এক সময় সমগ্র বিশ্ব এই অটোম্যান শাসকদের সমীহ করতো। তারা একাধারে ছয়শত বছরেরও অধিক সময় ধরে এশিয়া, ইউরোপ, ও আফ্রিকার বিস্তৃত অঞ্চলের শাসনকার্য পরিচালনা করেছিল। কিন্তু পৃথিবীর কোন কিছুই যেমন চিরস্থায়ী নয়, তেমনিভাবে অটোম্যান সাম্রাজ্যও চিরস্থায়ী হতে পারে নি। গৌরবময় উত্থানের সাথে এই সাম্রাজ্যেরও হতাশাময় পতন হয়।
    পাঠকদের সেই অটোমান বা উসমানি সাম্রাজ্য সম্পর্কে পরিচয় করিয়ে দিতে এবং উসমানি সাম্রাজ্যের সমস্ত দিক এক মলাটে পেতে চাইলে পড়ে ফেলুন “উসমানী সাম্রাজ্যের ইতিহাস” নামক বইটি। বইটি প্রখ্যাত ইতিহাসবিদ ড: আলী মুহাম্মদ সাল্লাবি রচিত “আদ দাউলাতুল উসমানিয়া” বইয়ের অনুবাদ। বইটি যৌথভাবে বাংলায় অনুবাদ করেছেন দুজন বিজ্ঞ অনুবাদক। তারা হলেন কাজী আবুল কালাম সিদ্দিকী ও মাহদি হাসান। যারা ইতোমধ্যেই অনুবাদ ও লেখালেখিতে বেশ প্রসিদ্ধ ও প্রতিষ্ঠিত নাম।
    বইটি পড়ার পর পাঠক বুঝতে পারবে উসমানী সাম্রাজ্য বর্তমান বিশ্বের কি পরিমান অঞ্চল জুড়ে বিস্তৃত ছিল। আরো জানতে পারবেন সেই সময়ের সুলতানদের রাষ্ট্রব্যবস্থা, সমাজ, অর্থনীতি, ও যুদ্ধকোশল সহ নানা দিক।
    তাই বাংলাভাষী সকলের প্রতি অনুরোধ “উসমানী সাম্রাজ্যের ইতিহাস” বইটি একবার হলেও পড়ুন এবং অন্যকেও পড়ার জন্য উৎসাহিত করুন। কারন এটা শুধু ইতিহাসের বই না এর সাথে মিশে আছে মুসলমানদের গৌরবময় সোনালী অতীত।
    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?