মেন্যু
tinii amar Rabb

তিনিই আমার রব

অনুবাদক : আব্দুল্লাহ মজুমদার
সম্পাদক : আবুল হাসানাত কাসেমী, উস্তায আকরাম হোসাইন, উস্তায আব্দুল্লাহ মাহমুদ
পৃষ্ঠা : 164, কভার : পেপার ব্যাক, সংস্করণ : 2nd Edition, 2019
প্রকাশকের কথা:  বইটির রচয়িতা শায়খ আলী জাবের আল ফিফী (হাফিজাহুল্লাহ)। এই বইটি হচ্ছে মহান আল্লাহ সুবাহান ওয়া' তা'য়ালার দশটি মহান নামের ব্যাখ্যা। আল্লাহ রাব্বুল আলা'মীনের দশটি নামকে জীবনের প্রতিটা দৃষ্টিকোণ, প্রতিটা... আরো পড়ুন
পরিমাণ

201  272 (26% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

20 রিভিউ এবং রেটিং - তিনিই আমার রব

5.0
Based on 20 reviews
5 star
95%
4 star
5%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published.

  1. 5 out of 5

    সানজিদা মেহের:

    কিছু কিছু বই আছে যা পড়লে নিজের অজান্তেই অশ্রু গড়ায়। মনের ভেতর প্রশান্তি অনুভব হয়। আত্মশক্তি অর্জন করা যায়। আজকের আলোচিত বইটি তেমনই একটি বই।

    বইটির নামেই রয়েছে আবেগ মিশ্রিত অনুভূতি। “তিনিই আমার রব”।

    আমরা সকলেই জানি আল্লাহ তা’আলার ৯৯টি গুণবাচক নাম রয়েছে। যেসব নামের গুণাবলিতে আমরা তার ক্ষমতা সম্পর্কে জ্ঞান লাভ করতে পারি। একেকটি নাম একেকটি বিষয় সম্পর্কে জানান দেয়। যেমন, আর রাজ্জাক- এর অর্থ আল্লাহ রিজিকদাতা। আল খালিক্ব- এর অর্থ আল্লাহ সৃষ্টিকর্তা। এর দ্বারা বুঝায় আল্লাহ তা’আলার গুণসমূহ।

    আজকের বইটিতে আলোচনা করা হয়েছে আল্লাহ তা’আলার সুন্দরতম ৯৯টি নাম থেকে ১০টি নাম নিয়ে। প্রথম নামটি “আস সামাদ” তথা “স্বয়ংসম্পূর্ণ”। এর দ্বারা প্রথমেই আল্লাহ তা’আলা বুঝিয়ে দিচ্ছেন যে, তিনি কারো মুখাপেক্ষী নন উপরন্তু সকলেই তার মুখাপেক্ষী।

    দ্বিতীয় নামটি হলো “আল-হাফীয” তথা “মহারক্ষক” এর মাধ্যমে তিনি মানব সম্প্রদায়কে জানান দিচ্ছেন যে, তোমাদের বিপদেআপদে কেবল আমাকেই ডেকো। আমি চাইলেই তোমরা রক্ষা পাবে নয়তো কারো শক্তি নেই তোমাদেরকে রক্ষা করবে।

    তৃতীয় নামটি হলো “আল-লাতীফ” তথা “সূক্ষ্মদর্শী” অর্থাৎ তুমি ক্ষুদ্র থেকে ক্ষুদ্র যে কর্মকাণ্ডই ঘটাও না কেন আমি সবকিছু সম্পর্কেই জ্ঞান রাখি।

    অতঃপর? অতঃপর এরকম আরও ৭টি সুন্দর নাম রয়েছে। যার অর্থের গভীরতা আমাদেরকে শিখাতে সক্ষম মহান আল্লাহ তা’লার শান সম্পর্কে।
    যা আমাদের প্রতিদিনকার জীবনের প্রতিটা ঘটনার সাথে ওতপ্রোতভাবে জড়িত। নামগুলো প্রত্যহ কীভাবে আমাদের সাথে জড়িত তা লেখক বিভিন্ন ঘটনার মাধ্যমে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করেছেন। সে সাথে ব্যাখ্যা করেছেন আমাদের জীবনে আল্লাহ তা’আলার এই নামসমূহের প্রভাব কতখানি।

    ভাষার প্রাঞ্জলতা আপনাকে মুগ্ধ করতে বাধ্য। অহেতুক কোনো বাকবিতণ্ডা নেই, কলমের কালিতে সরলভাবে ফুঁটে উঠেছে রাব্বুল আলামীনের পরিচয়। যা আপনাকে নতুনভাবে রবের দিকে ধাবিত হবার আহবান জানায়। আপনার মন হতাশায় অন্ধকারাচ্ছন্ন হয়ে থাকলে, নিজেকে একাকী মনে করলে এই বই আপনাকে আলোর পথ দেখাবে। রবের সাথে সখ্যতা ব্যতীত কেউ জান্নাত লাভ করতে পারবে না এমনকি ইহকালেও সুখ অর্জন করতে পারবে না। যেই সত্ত্বা আপনাকে আমাকে সৃষ্টি করেছেন এবং নেয়ামত দিয়ে পরিপূর্ণ করে রেখেছেন সেই সত্ত্বাকে চেনাজানা এবং উপলব্ধি করা আপনার ঈমানের দায়িত্ব।

    প্রচ্ছদ থেকে অলংকরণ পরিপাটি সুন্দর। বানানের নির্ভুলতা পড়ার প্রতি আপনাকে মনোযোগী রাখবে।

    আল্লাহ তা’আলার সাথে নতুন করে পরিচিত হবার জন্য বইটি আপনার পড়া উচিত বলেই মনে করছি।
    দেখবেন বইটি পড়ার পর, রবকে জানার পর আপনার হৃদয়ের মলিনতা ধুয়ে মুছে সাফ হয়ে গেছে। শান্ত স্নিগ্ধ মন নিয়ে সিজদায় লুটিয়ে পড়বেন ইনশাআল্লাহ।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    মো জসিম উদ্দীন:

    আমাদের জীবনে এমন কিছু মানুষের আবির্ভাব ঘটে। তাদের সহায়তা আমাদের অনেক পরিবর্তন ঘটে। আমি যখন কোনো কবিতা বা ছোট গল্প লিখি তখন তিনি আমাকে বলে এসব কখন বাস্তবে সম্ভব নয়।

    তিনিই আমার রব- বইটি এক বসায় পড়ার মতো হলেও আমি এক বসায় পড়তে পারি নি। বইয়ের এমন কিছু লাইন আছে, যেগুলো পড়ার পর ভালোমতো চিন্তা করার জন্য কিছু সময় দরকার ছিলো।

    বইটি আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলার ১০ টি গুণবাচক নামের মর্মার্থ নিয়ে লিখা। লেখক কুর’আন-হাদীসের উদ্ধৃতি দিয়ে আল্লাহর গুণবাচক নামগুলোর তাৎপর্য ব্যাখ্যা করেন।

    আল্লাহকে চেনার, আল্লাহ সম্পর্কে জানার জন্য এই বইটা পাঠকের সামনে নতুন দ্বার উন্মোচন করবে।

    লেখকের মতে- আল্লাহর নামগুলো না জানলে তো আমরা মরুভূমিতে পথহারা লোকের মতো হয়ে যাব। মরুভূমির গনগনে রোদে আমাদের দিনগুলো, আমাদের প্রাত্যহিক ‘আমলগুলো ঝলসে যাবে। ফলে অন্তরে সারাক্ষণ বিরাজ করবে দুশ্চিন্তার কালো মেঘ। তাই, আসুন, সবচেয়ে আপনজন হিসেবে আল্লাহকে বেছে নেই।

    আপনি যখন দরজা বন্ধ করে তাঁর অবাধ্যতা করতে যান তখন তিনি দরজার নিচ দিয়ে অক্সিজেন প্রবেশ করিয়ে দেন যেন আপনি মরে না যান।

    “বলে দাও, হে আমার বান্দাগণ! যারা নিজ সত্তার উপর সীমালংঘন করেছে, আল্লাহর রহমত থেকে নিরাশ হয়াে না। নিশ্চয়ই আল্লাহ সমস্ত পাপ ক্ষমা করেন। নিশ্চয়ই তিনি অতি ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।”
    [ সূরা —আয্‌-যুমার ]

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    সাবের হোসেন:

    আমার জীবনে পড়া শ্রেষ্ঠ্য একটি বই এটি। মহান আল্লাহকে চিনতে পারার অন্যতম মাধ্যম এই বই টি। বই এর সাথে জড়িত সকল এর জন্য মন থেকে দোয়া রইল। আমি বিয়ে করতে যখন পাত্রী দেখতে যাই আমার স্ত্রীকে এই বই এর দুটো অংশই হাদিয়া দেই।
    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    রাজিয়া সুলতানা:

    আলহামদুলিল্লাহ ,বইটি পড়ে খুবই ভালো লেগেছে । হতাশা যাদের ঘিরে ধরেছে তারা বইটি পড়লে আল্লাহ অসংখ্য নিয়ামতের কথা স্বরন হবে। বইটি সবার পড়া উচিত আমি মনে করি।
    ওয়া ফি লাইফ কে আল্লাহ বারাকাহ দান করুক । খুব তাড়াতাড়ি বই গুলো হাতে পেয়েছি।
    4 out of 4 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  5. 5 out of 5

    fahimmuhammad.iisd:

    100
    1 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top