মেন্যু
তাওবাহর গল্প

তাওবাহর গল্প

প্রকাশনী : আযান প্রকাশনী
পৃষ্ঠা সংখ্যা: ১৬০ তাওবাহর সত্য ঘটনা নিয়ে বই "তাওবাহর গল্প"। সাহাবা (রাদিয়াল্লাহু আনহুম ওয়া আজমাঈন), বনী ইসরাইল, তাবেঈ, তাবেঈন এবং বর্তমান সময়ের দ্বীনবিমুখ বিভিন্ন মানুষের ঈমান জাগানিয়া তাওবাহর ঘটনাসমূহ স্থান পেয়েছে... আরো পড়ুন
পরিমাণ

185  250 (26% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

1 রিভিউ এবং রেটিং - তাওবাহর গল্প

5.0
Based on 1 review
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    Al meraz:

    اِنَّ اللّٰہَ یُحِبُّ التَّوَّابِیۡنَ وَ یُحِبُّ الۡمُتَطَہِّ
    নিশ্চয়ই আল্লাহ তাওবাহকারীদেরকে ভালবাসেন এবং যারা পবিত্র থাকবে তাদেরকেও ভালবাসে।

    ভুল-শুদ্ধ মিলেই জীবন।ত্রুটিহীন মানুষ খুঁজে পাওয়া দুষ্কর। জীবনচলার পথে নানা রকমের স্খলন হয়েই যায়।কখনো
    চেতনে কখনোবা অবচেতনে।
    কতবার তাঁর সঙ্গে ওয়াদা করেছি,প্রভু!আর অপরাধ করব না, ভুল পথে পা বাড়াব না,কৃপা করে এবার অন্তত ক্ষমা কর।
    বান্দা যত অপরাধই করুক,ক্ষমতার আঁধার
    যিনি,মহিমাময় যিনি,যার কাছে দয়া ও ক্ষমার অফুরান ভাণ্ডার।তাঁর কাছে যদি পাপী বান্দা অনুনয়-বিনয় করে,প্রাণের পুরোটা আবেগ উজাড় করে একটু ক্ষমা প্রার্থনা করে,
    তিনি তাকে ক্ষমা করে দেন।বান্দাহ হাজারো পাপ করুক।যখন আল্লাহ কাছে তাওবা করে তখন তিনি এতো খুশি হোন,রাসুল সা বলেন-
    ‘তোমাদের কেউ মরুভূমিতে হারিয়ে যাওয়া উট খুঁজে পেয়ে যতটা খুশি হও, আল্লাহ তার বান্দার তাওবাতে
    এরচেয়েও বেশি খুশি হন।

    ★মূলত তাওবা হলো অতীতের কৃত অপরাধ ও ভুলের কারণে অনুতপ্ত ও লজ্জিত হওয়া।আল্লাহর দরবারে ভুল স্বীকার করে ভবিষ্যৎতে এমনটা করা থেকে বিরত থাকা।আমরা বিভিন্ন সময় ছোট বড় অনেক পাপ করে ফেলি।কেউ কেউ ফিরে আসে তাওবা করে,কেউবা করব করব ভেবে পাপ করতেই থাকি।তাওবা করার পরেও অনেকে ভাবি আসলেই আল্লাহ মাফ করবেন তো আমার এত পাপ?
    পাপ নিয়ে সংশয়ে থাকা মানুষেরা যেন নিরাশ না হয় সে জন্য রাসুল সা বহু পাপীদের তাওবার গল্প সাহাবাদের শুনাতেন।আর সে ঘটনাগুলো তাদের অন্তরে দাগ কাটতো।শয়তান যাদের নিরাশ করতে চেয়েছিল,শয়তান নিজেই নিরাশ হয়ে গেল।
    যে মানুষরা আজ পাপ নিয়ে সংশয়, প্রভুর কাছে দাঁড়াতে দ্বিধা এমন মানুষদের আশা জাগাতে রাসুলের বলা সে তাওবার গল্পগুলো আরেকবার জানিয়ে দিতে হবে।

    ★তাওবা সম্পর্কে আমার পড়া সবচেয়ে মুগ্ধকর একটা বই হলো “তাওবার গল্প”।বলতে গেলে তাওবার উপর বেষ্ট একটা বই।বইয়ে প্রত্যেক টা গল্পতেই আপনাকে মুগ্ধ হতে হবে।সকল ধরনেরর পাপ করা তাওবাকারীদের নিয়ে সাজানো এটি।কত বড় বড় পাপীদের তওবা কবুল করেছেন শুধুমাত্র অনুতপ্ত হয়ে চোখের পানির বদৌলে তার অজানা গল্প এটি।’দোয়া কবুলের গল্প’ নামের বইটির লেখক “রাজিব হাসান” এর লেখা।যা প্রকাশিত হয়েছে আযান প্রকাশনীর সহায়তায়।

    ★ঠিক “দোয়া কবুলের গল্প”এর আদলে সাজানো হয়েছে “তাওবার গল্প”বইটি।এটিও দুটি ভাগে করা হয়েছে।১ম ভাগে রাখা হয়েছে ৪২ টি তাওবার গল্প।যার প্রথম গল্পটি আদি পিতা আদমের তাওবা দিয়ে শুরু।আর শেষ হয়েছে বলিউডের জগত থেকে ফিরে আসা। ২য় ভাগে রাখা হয়েছে তাওবা কবুলের শর্ত,সর্তক,আমল,উপকারিতা ও উপদেশ দিয়ে শেষ কথায় সমাপ্ত করেছেন।

    ★বইটির প্রচ্ছদ,বাঁধা,কভার,পৃষ্ঠা,প্রিন্ট প্রশংসনীয়।বইটির সম্পর্কে বিশিষ্ট স্কলার শায়খ আহমাদুল্লাহ স্যারের অভিমত রয়েছে।

    মোবারকবাদ লেখক ও প্রকাশনী আযানকে।আল্লাহ আপনাদের কবুল করুন।

    4 out of 4 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No