মেন্যু
tara jhikimiki jole

তারা ঝিকিমিকি জ্বলে

পৃষ্ঠা : 144

অনুবাদ : মুহাম্মাদ আলী জাওহার

আমরা ভুলোমনা বলে প্রায়-ই হারিয়ে ফেলি পথ। আমরা অচেতন বলে প্রায়ই ছুড়ে ফেলি গাইরত। আমরা অবুঝ বলে, আদর্শ ও শিক্ষা খুঁজি বিজাতীয় সংস্কৃতিতে। আমরা বোকা বলে সুখ খুঁজি অুসখে। অথচ, আমাদের আছে বিশাল আকাশ, যেখানে হাত পাতলে ফিরতে হয় না খালি হাতে। আমাদের আছে বিশাল বটবৃক্ষ, যেখানে ছায়া পায় তাবৎ বিশ্বের অস্থির সমাজ। এই আকাশ আমাদের মালিকের আরশ। আর বটছায়া—সে তো সৌরভে ভরা আমাদের আকাবির-জীবন।
এই বইয়ে বেশ কিছু গল্প আছে। গল্পগুলো নিছক কোনো গল্প না। এগুলো গল্পের আড়ালে থাকা আমাদেরই জীবন—সংকট, সমাধান ও আলোকিত পথ। গল্পগুলো আকাবির-আসলাফগণের বিভিন্ন কিতাবে ছড়িয়ে থাকা মুক্তা। সেগুলো সযতনে কুড়িয়ে এনেছেন আলোকের মশালধারী আলোকপুরুষ—আমাদেরই লোক—শাইখুল ইসলাম বিচারপতি মুফতি মুহাম্মাদ তাকি উসমানি। ‘তারা ঝিকিমিকি জ্বলে’ আমাদের অন্ধকারে আলোর মশাল হোক।

পরিমাণ

117  162 (28% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
- ১,৪৯৯+ টাকার অর্ডারে সারাদেশে ফ্রি শিপিং!

প্রসাধনী প্রসাধনী

1 রিভিউ এবং রেটিং - তারা ঝিকিমিকি জ্বলে

4.0
Based on 1 review
5 star
0%
4 star
100%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
Showing 1 of 1 review (4 star). See all 1 review
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 4 out of 5

    :

    #বুক_রিভিউঃ তারা ঝিকিমিকি জ্বলে
    #সাখাওয়াত_রাহাতের_পাঠ_প্রতিক্রিয়া

    ‘আমরা ভুলোমনা বলে প্রায়ই হারিয়ে ফেলি পথ। আমরা অচেতন বলে প্রায়ই ছুঁড়ে ফেলি গাইরত। আমরা অবুঝ বলে আদর্শ ও শিক্ষা খুঁজি বিজাতীয় সংস্কৃতিতে। আমরা বোকা বলে সুখ খুঁজি অসুখে।’—চমৎকার এ কথাগুলো উদ্ধৃত হয়েছে বইয়ের একেবারে শেষে, জ্যাকেটের গায়ে!

    প্রাচীনকালে সমুদ্রপথে রাতের আকাশে তারা দেখে মানুষ যেমন অনায়াসে দিক নির্ণয় করতে পারত; দিকভ্রান্ত পথিক খুঁজে পেত তার কাঙ্ক্ষিত পথ, ঠিক তেমনই বক্ষমান বইটিতে ছোট-বড় এমন অসংখ্য গল্প রয়েছে যেগুলো আমাদের জীবন-সংকট সমাধানে কিছুটা হলেও অবদান রাখবে। ঘুমন্ত চেতনা ও হারোনো আত্মবিশ্বাস ফিরে পেতে সহায়তা করবে। হয়তো একারণেই বইটির নাম দেওয়া হয়েছে ‘তারা ঝিকিমিকি জ্বলে’। এইদিক বিবেচনায় বইটির নামকরণ যথার্থই হয়েছে।

    এটি ব্যাকরণ মেনে লেখা প্রথাগত কোনো গল্পের বই নয়। বরং কোরআন-হাদিস, আকাবির ও আসলাফের যাপিত জীবনে ঘটে যাওয়া হৃদয়ছোঁয়া ঘটনাবলি এবং ইসলামের সোনালি যুগের তথ্যসমৃদ্ধ নির্মল ইতিহাসভিত্তিক একটি গল্পসংকলন।

    গল্পগুলোর কোনোটি আপনাকে হাসাবে, কোনোটি কাঁদাবে। কোনোটি ভাবনার সাগরে ডুবিয়ে দেবে, কোনোটি আপনার চোখে নিয়ে আসবে আনন্দাশ্রু। কোনোটি বিবেকের দরজায় মৃদু টোকা দেবে, কোনোটি আপনার সুপ্ত প্রতিভা বিকাশের অন্তরায় ‘গাফলতের চাদর’ টেনে সরাতে চাইবে!

    কিছু গল্পে আপনি পেয়ে যাবেন দুর্লভ কোনো তথ্য, অব্যর্থ কোনো দোয়া, পরীক্ষিত কোনো আমল, মূল্যবান কোনো উপদেশ, জ্ঞানগর্ভ কোনো উক্তি!

    আচ্ছা.. আপনি কি জানেন—কোন সাহাবী শাহাদাত বরণ করার পর ওসিয়ত করেছিলেন এবং তা বাস্তবায়নও করা হয়েছিল? মুসলমানদের রচিত এমন একটি গ্রন্থের নাম বলুন—যার জবাব আজ পর্যন্ত কোনো খ্রিস্টান দিতে পারেনি! ইবরাহিম আলাইহিস সালাম ছাড়া আরেকজন মানুষের কথা বলুন তো; যার জন্য আল্লাহ তায়ালা আগুনকে শীতল ও নিরাপদ করেছিলেন! কখনো কি এমন মহিয়সির গল্প শুনেছেন—যিনি সুদীর্ঘ চল্লিশ বছর কুরআনের আয়াত ছাড়া স্বাভাবিক কোনো কথাবার্তা পর্যন্ত বলেননি? ভাবা যায়—পৃথিবীতে এমন স্কুলও আছে যেখানে বাচ্চাদের রীতিমতো চুরি শেখানো হয়!

    এই বই পড়লে উপরিউক্ত বিষয়গুলোর সঙ্গে আরও অনেক চমকপ্রদ তথ্য আপনার জ্ঞানকে সমৃদ্ধ করবে। এ পাঠ ও শিক্ষা জীবন চলার পথে বন্ধুর পথ পাড়ি দিতে একজন বিশ্বস্ত রাহবারের মতোই সঠিক পথ দেখাবে।

    বইয়ের যে বিষয়টা আমাকে সবচেয়ে বেশি চমৎকৃত করেছে তা হলো—প্রায় প্রতিটি গল্পেরই উৎসস্থলের বর্ণনা। বিষয় বুঝার সুবিধার্থে অনুবাদকের পক্ষ থেকে কোথাও কোথাও টীকার সংযোজনও ভালো লেগেছে।

    এবার লেখক সম্পর্কে কিছু বলি। এই বইয়ের লেখক জাস্টিস মাওলানা ‘তাকি উসমানি’ দা. বা.। তাঁর সম্পর্কে যত বলবো ততই কম হবে। তিনি প্রায় সবমহলে গ্ৰহণযোগ্য একজন ফকিহ। বিশ্বখ্যাত ইসলামী স্কলার এবং যুগশ্রেষ্ঠ আলেমদের অন্যতম। পাশাপাশি ষাটোর্ধ্ব বইয়ের লেখক। মজার ব্যাপার হলো—এই মহান জ্ঞানতাপস তাঁর সুদীর্ঘ চল্লিশ বছরের অধ্যয়ন থেকে নির্বাচিত ঘটনা-উপদেশ দিয়ে সন্নিবেশিত করেছেন এই বই!

    বইটি অনুবাদ করেছেন এ সময়ের অন্যতম তরুণ গবেষক আলেম মুহতারাম Md Ali Jawhar হাফিজাহুল্লাহ। প্রিয়-ব্যস্ততা অধ্যাপনার পাশাপাশি যিনি একজন পাঠকপ্রিয় লেখক এবং অনুবাদকও। ইতোমধ্যেই তাঁর অনূদিত ‘শেষনবি’ ﷺ বইটি সহ একাধিক বই পাঠকমহলে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে।

    বক্ষমান বইটি অনুবাদ হলেও একাজে তিনি যে মুন্সিয়ানা দেখিয়েছেন তাতে একজন পাঠক বইয়ে মৌলিকেরই স্বাদ পাবেন। সাধারণ পাঠকের কথা চিন্তা করে মেদহীন ঝরঝরে গদ্যে অত্যন্ত সাবলীলভাবেই তিনি অনুবাদের কাজটি করেছেন। তাই আশাকরি একবার পড়তে শুরু করলে বইটি শেষ না করা অবধি ক্ষান্ত হবেন না। আর গল্পগুলো ছোট ছোট হওয়ার কারণে অনিয়মিত পাঠকদেরও পড়ার প্রতি অনীহা তৈরি হবে না বলেই বিশ্বাস করি।

    একজন সমালোচকের দৃষ্টিতে মন্তব্য করতে গেলে সর্বপ্রথম যে বিষয়টা বলতে হবে তা হলো—বেশকিছু প্রিন্টিং মিস্টেইক আছে বইটিতে। ইবনে উমার রা. এর ঘটনা বর্ণনায় একাধিক স্থানে ‘ইবনে’ শব্দটা বাদ পড়েছে। মহিলা সাহাবির নামের শেষে কোথাও কোথাও ‘আনহা’র স্থলে ‘আনহু’ এসেছে। আর (—) ব্র্যাকেটবন্দি চিহ্নটার পরিবর্তে অনেক জায়গায় ‘ঙ’ হয়ে গেছে। আশা করছি যথাযথ কর্তৃপক্ষ পরবর্তী সংস্করণে যাবতীয় ভুলগুলো শুধরে নেবে।

    তো আর দেরি কেন? আজই শুরু হোক ঝিকিমিকি তারার আলোয় অজানা ‘জ্ঞানসমুদ্র’ জয়ের সর্বাত্মক অভিযান। জ্ঞানের আলোয় দূর হয়ে যাক সব অজ্ঞতার কালো!

    .
    বই: তারা ঝিকিমিকি জ্বলে
    ধরন: গল্প-অনুগল্প
    মূল: মুফতি তাকি উসমানি
    অনুবাদ: মুহাম্মাদ আলী জাওহার
    বানান ও ভাষারীতি: মুসা আমান
    প্রচ্ছদ: ফয়সাল মাহমুদ
    বাঁধাই: হার্ড কভার
    প্রকাশক: তাজকিয়া পাবলিকেশন
    প্রকাশকাল: জানুয়ারি ২০২১
    পৃষ্ঠা: ১৪৪
    মুদ্রিত মূল্য: ১৬২ টাকা মাত্র

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top