মেন্যু


তাবিয়িদের চোখে দুনিয়া

তাহকীক: মুহাম্মাদ আহমাদ ঈসা, হামিদ আহমাদ আত-তাহির
সম্পাদনা : মোস্তফা মনজুর
পৃষ্ঠা : 320

প্রথম তিন প্রজন্ম (সালফে সালেহীনগণ) দুনিয়াকে যেভাবে দেখেছেন, সেটাই ছিল সঠিক দৃষ্টিভঙ্গি। একজন মুসলিম যতক্ষণ পর্যন্ত তাঁদের দৃষ্টিভঙ্গি বিবেচনায় রেখে এই দুনিয়াকে দেখবে, ততক্ষণ যে নিরাপদ থাকবে। কিন্তু যখন তার দৃষ্টি পাশ্চাত্যের দিকে, অবিশ্বাসীদের দিকে কিংবা নিজ প্রবৃত্তির দিকে ঝুঁকে যাবে, তখন সে বিপদের সম্মুখীন হবে। তার দুনিয়াও বরবাদ হবে, আর আখিরাতেও সে ক্ষতিগ্রস্ত হবে।
তাই দুনিয়ার ব্যাপারে সঠিক দৃষ্টিভঙ্গি কোনটা, সে বিষয়ে জ্ঞান রাখাটা জরুরি। ইমাম আহমাদ বিন হাম্বাল তাঁর “কিতাবুয যুহ্‌দ” গ্রন্থে দুনিয়ার ব্যাপারে সালফে সালেহীনদের দৃষ্টিভঙ্গি কী ছিল, তা নিয়ে আলোচনা করেছেন। নিঃসন্দেহে কিতাবটি মুসলিম উম্মাহর অমূল্য সম্পদ। কিন্তু দুঃখজন হলেও সত্যি, কিতাবটির বাংলা কিংবা ইংরেজি অনুবাদ এত বছরেও প্রকাশিত হয়নি।
দুনিয়ার ব্যাপারে ইসলামের সঠিক দৃষ্টিভঙ্গি কী হওয়া দরকার, সে বিষয়টা মাথায় রেখেই “মাকতাবাতুল বায়ান” বইটি বাংলায় অনুবাদ করার সিদ্ধান্ত নেয়। আলহামদুলিল্লাহ, ইতোমধ্যেই বইটির দু-খণ্ড “রাসূলের চোখে দুনিয়া” ও “সাহাবিদের চোখে দুনিয়া” নামে প্রকাশিত হয়েছে।

সেই ধারাবাহিকতায় কিতাবটির শেষ খণ্ড ‘তাবিয়িদের চোখে দুনিয়া।’

পরিমাণ

292  417 (30% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
প্রসাধনী
- ১৪৯৯+ টাকার অর্ডারে সারাদেশে ফ্রি শিপিং!

3 রিভিউ এবং রেটিং - তাবিয়িদের চোখে দুনিয়া

5.0
Based on 3 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    বইটি নতুন কোন বই নয় এটা “কিতাবুয যুহদ্” এর বাংলা সংস্করন। সাথে হাদিসের কিছু সোর্স বর্ননা করা হয়েছে। সুতরাং বলার অপেক্ষায় রাখেনা যে খোদাভীরুদের জন্য বইটা অমূল্য রতনের মতই। এই সিরিজে ৩ টা বই আছে
    ১) রাসুলের চোখে দুনিয়া
    ২) সাহাবীদের চোখে দুনিয়া
    ৩) তাবিয়িদের চোখে দুনিয়া
    সবগুলোই পড়ার উপদেশ থাকল সকল মুসলিমদের উপর। বইটি পড়ুন এবং এই দুনিয়ার বিলাশিতা থেকে বাচতে শিখুন।
    2 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    :

    Excellent book to escape from this mundane world and concentrate on the real after life world. A must read.
    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    :

    কেন্দ্র থেকে বিচ্যুত হওয়ার জন্যে একটি বিন্দুই যথেষ্ট। একটি বিন্দু পরিমাণ জায়গা এদিক-সেদিক হলেই শেষ। আপনি আর সেন্টারে পৌঁছুতে পারবেন না। মানজিল থেকে সরে যাবেন, দূরে। বহুদূরে। এই দুনিয়া আপনার আমার জন্যে পরীক্ষার ক্ষেত্র। এখানে যেভাবে প্রস্তুতি নেওয়া হবে, সেরূপ ফলাফল পাওয়া যাবে আখিরাতে। দুনিয়ায় মানুষ কীভাবে চলবে, তার যাপিত জীবনের পদ্ধতি কেমন হবে, তার অনেকটাই নির্ভর করে—সে দুনিয়াকে কীভাবে দেখছে, এর ওপর। দুনিয়াকে যদি রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর চোখে, সাহাবিদের চোখে কিংবা তাবিয়িদের চোখে দেখা হয় । সাহাবি-তাবিয়িগণ দুনিয়ার বিষয়ে কেমন ছিলেন? তাদের চোখে দুনিয়া কেমন ছিল? তাদের জীবন থেকে সংরক্ষিত মণিমুক্তাগুলোর সমন্বয়ে হাজার বছর আগে ইমাম আহমাদ বিন হাম্বাল রহ. রচনা করে গেছেন ‘কিতাবুয যুহুদ’; যার শেষ অংশের বাংলারূপ ‘তাবিয়িদের_চোখে_দুনিয়া’।
    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top