মেন্যু
the martyr leader sultan imaduddin jengi

দ্য মার্টায়ার লিডার সুলতান ইমাদউদ্দীন জেঙ্গী রহ.

প্রকাশনী : শব্দতরু
অনুবাদ : ফাহাদ আব্দুল্লাহ। সম্পাদনা : Hasan Mahmud ইমাদউদ্দীন জেঙ্গী বড় বাহাদুর, সাহসী এবং দৃঢ়প্রত্যয়ী মুজাহিদ ছিলেন। এ দৃঢ়প্রত্যয়ের মাধ্যমেই তিনি বিজয় এবং উন্নতির চরম শিখরে উন্নীত হন। তার সাহসিকতার অবস্থা তো... আরো পড়ুন
পরিমাণ

86  120 (28% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

1 রিভিউ এবং রেটিং - দ্য মার্টায়ার লিডার সুলতান ইমাদউদ্দীন জেঙ্গী রহ.

4.0
Based on 1 review
5 star
0%
4 star
100%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 4 out of 5

    nishumoshiur:

    ইতিহাস একটা জাতি ও একজন ব্যক্তির জন্য অনেক বড় ভূমিকা পালন করে। নিজেদের পরিচয়, আত্মমর্যাদা চেনা যায়। অন্যান্য ইতিহাসের তুলনায় ইসলামী ইতিহাসে রয়েছে একদম স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্য। ইসলামী ইতিহাসে যেরকম রয়েছে বর্ণনাসূত্রের বিশুদ্ধতা, তেমনি ঘটনাগুলো থেকে প্রচুর পরিমানে দুনিয়া ও আখিরাতের শিক্ষা। অন্যান্য জাতির শাসকদের বিজয়গাথার পিছনে রয়েছে নিঃশব্দ আর্তনাদ। যেখানে বিজেতা দল, পরাজিত দলের উপর নির্যাতন, হত্যা ও লুটপাট করে বিজয় উল্লাস করে। সেখানে মুসলিম বিজেতা দলগুলো বরাবরই দেখিয়েছে মানবতার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। সেরকমই এক ইতিহাসের মহানায়ক সাহসী, নির্ভীক ও ঈমানদীপ্ত সুলতান ছিলেন ইমাদউদ্দীন জেঙ্গী।

    বাবা কাসিমউদ্দৌলার স্বপ্ন ক্রুসেডাদের কবল থেকে মুসলিম ভূখণ্ডগুলো উদ্ধারের স্বপ্নকে তিনি এগিয়ে নিয়ে যান আরও উঁচুতে। ইমাদউদ্দীন জেঙ্গীর যুদ্ধ জীবনের শুরু থেকে প্রতিটি যুদ্ধে তিনি সাহসিকতার পরিচয় দিয়ে বিজয় ছিনিয়ে এনেছেন।

    ইমাদউদ্দীন জেঙ্গীর শাসনামলের অনেক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উঠে এসেছে। উনি তাঁর এলাকায় জনগণের জন্য খুব দরদী মানুষ ছিলেন। ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। গরীবের হক যথাযথ আদায় করেছিলেন।

    উনার শাসনব্যবস্থার একটি উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো তথ্যের জন্য যোগাযোগ ব্যবস্থা। এটাকে উনি অনেক উন্নত করতে পেরেছিলেন। যার উনার কারণে গুপ্তচরদের সংবাদ সহজে পেয়ে যেতেন। ফলে ক্রুসেডারদের গোপন খবর খুব সহজে পেয়ে যেতেন এবং সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতেন। দেখা যেত এই তথ্যের কারণে উনি অনেক বড় বড় বিজয় এনেছেন অনেকবার। গৃহযুদ্ধের কবলে পড়ে উনাকে অনেক বড় সময় নষ্ট করতে হয়েছে, যা তিনি চাইতেন না। এতে ক্রুসেডারদের থেকে মুসলমি দূর্গগুলো ফিরে আনা অনেক সময় পিছিয়ে গিয়েছিল।

    বইটা ছোট হলেও তথ্যবহুল একটা বই। যেখানে ছোট কোন ঘটনার বিবরণ এসেছে, সেই ঘটনাকে বুঝতে লেখক পিছনের ইতিহাসও তুলে ধরেছেন। অনুবাদও সুন্দর, সাবলীল হয়েছে। বানান ভুল খুব ছিল। কয়েক জায়গায় হিজরী সন ও খৃস্টাব্দ সালের উলোটপালোট হয়েছে। আশা করি পরবর্তীতে ঠিক করবে প্রকাশনী।

    বিভিন্ন কাল্পনিক, অযথা গল্পকাহিনীর চেয়ে এরকম ইতিহাসের বই বেশি বেশি আশা উচিত। এতে করে মহানায়কদের দৃঢ়তা, সাহসীকতা, ন্যায়পরায়ণতা ও বিচক্ষণতা পাঠকদের অন্তরে প্রভাব ফেলবে। যা জাতি ও সমাজ গঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top