মেন্যু
shoytaner biruddhe lorai

শয়তা‌নের বিরু‌দ্ধে লড়াই

প্রকাশনী : রাইয়ান প্রকাশন
পৃষ্ঠা : 144, কভার : পেপার ব্যাক, সংস্করণ : 1st Published, 2022
ভাষা : বাংলা
চারপাশের শত্রুরা শারীরিক ও আর্থিক ক্ষতিসাধনের উদ্দেশ্যে জাল বিছিয়ে রাখলেও, শয়তান কিন্তু  আমাদের ঈমান হরণের উদ্দেশ্যে জাল বিছিয়ে রাখে। এদিকে আমরা, সেই জালে আটকে পড়ে খুইয়ে ফেলি ঈমানের মতো উৎকৃষ্ট... আরো পড়ুন
পরিমাণ

146  200 (27% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

3 রিভিউ এবং রেটিং - শয়তা‌নের বিরু‌দ্ধে লড়াই

5.0
Based on 3 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    Tanha Tonu:

    আল্লাহ স্বয়ং ঘোষণা করেছেন শয়তান হচ্ছে আমাদের প্রকাশ্য শত্রু। জীবনের পদে পদে আমরা টের পাই শয়তান আমাদেরকে আল্লাহর থেকে দূরে সরিয়ে রাখার জন্য কত কূটকৌশল করে। চব্বিশ ঘন্টা শয়তান আমাদের পেছনে লেগে থাকে। সারাক্ষণ প্ররোচনা দিতে থাকে পাপ কাজের জন্য। নেক কাজ থেকে দূরে রাখার জন্য কত ষড়যন্ত্রই না সে করে! অনেক সময় আমরা বুঝতেও পারি না শয়তানের ফাঁদে পা ফেলে কত ক্ষতি করছি নিজেদের। শয়তান সম্পর্কে, শয়তানের আসল উদ্দেশ্য ও তার কাজের ধরণ সম্পর্কে যথাযথ জ্ঞান না থাকার দরুণ আমরা সহজেই তার ফাঁদে পড়ে যাই, পাপে জড়িয়ে পড়ি।

    শয়তানের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে জয়ী হতে হলে তার সম্পর্কে জানতে হবে, তার উদ্দেশ্য,প্ররোচনা, কাজের কৌশল সবকিছু জানতে হবে। এ সবকিছুর সুবিন্যস্ত একটি রূপ লেখক মাহমুদ বিন নূরের লেখা “শয়তানের বিরুদ্ধে লড়াই” বইটি।

    শয়তানের আকার-আকৃতি, উদ্দেশ্য,মুমিনের নিকট তার আগমন, সব ধরণের চক্রান্ত-প্ররোচনা,শয়তানের ফাঁদে পড়ে নিজের অজান্তেই ইমান হারিয়ে ফেলা,স্মার্টফোন, গান,নারী,হতাশা ইত্যাদিকে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করে শয়তানের আমাদেরকে জাহান্নামের দিকে ঠেলে দেওয়া থেকে শুরু করে শয়তানের সব চক্রান্ত নষ্ট করে দেওয়ার কৌশল, শয়তানের বিরুদ্ধে যুদ্ধে জয়ী হওয়ার ট্রিকস ইত্যাদির সমন্বয়ে সুসজ্জিত করা হয়েছে “শয়তানের বিরুদ্ধে লড়াই” বইটি।

    শয়তান কীভাবে আমাদের নিকট আগমন করে, কোন সময় বেশি ওয়াসওয়াসা দেয়, কীভাবে একজন মুমিন ব্যক্তিকে নিজের ফাঁদে ফেলার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে, ইমানদারের পরিচ্ছন্ন হৃদয়কে কোন কৌশলে নোংরার ভাগাড়ে পরিণত করে, কীভাবে কুফর-শিরকে লিপ্ত করে, রবের আনুগত্যে বাঁধা প্রদান করে, মানুষের মাঝে কীভাবে ফিতনা ছড়ায় ও পাপকে সুশোভিত করে তোলে সবকিছুর আদ্যোপান্ত ব্যাখ্যা করেছেন লেখক পাঁচটি অধ্যায়ে বিভক্ত এই বইটিতে।

    বইটি এক পৃষ্ঠা শেষ করে অপর পৃষ্ঠায় যাচ্ছিলাম আর অবাক হচ্ছিলাম। আমাদের জীবনের প্রতিটি কাজে শয়তান কীভাবে আধিপত্য বিস্তার করে সেসবকিছুর ব্যাখ্যা পড়ছিলাম আর মনে পড়ে যাচ্ছিলো, “এসব তো আমার সাথেও হয়। আমাকেও তো শয়তান এভাবেই ধোঁকায় ফেলে। তাহলে কীভাবে এই ধোঁকা থেকে পরিত্রাণ পাবো!” মানুষকে শয়তান যত ধরণের প্রক্রিয়ায় ধোঁকায় ফেলে সেগুলো যেমন বইটিতে আছে, একইভাবে এই ধোঁকা থেকে পরিত্রাণের উপায়ও বর্ণনা করা হয়েছে।

    বই থেকে নেওয়া মনে গেঁথে যাওয়ার মতো একটা
    অংশ —❝যেখানেই অশ্লীলতার ছড়াছড়ি, সেটাই মূলত হচ্ছে শয়তানের বাগান। যে বাগানের ফুল হচ্ছে ‘পাপ’। মালি হচ্ছে ‘শয়তান’। পর্যটক হচ্ছি আমরা। আমরাই শয়তানের বাগানে বিচরণ করি, অতঃপর পাপ নামক ফুল নিয়ে নীড়ে ফিরি। সাধারণ গাছের ফুল শুকিয়ে গেলেও, সেই ফুল কখনও শুকায় না; তার পাপড়ি ঝরে না-যতক্ষণ না তাওবা করা হয়।❞

    সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে বইয়ের লেখা, শব্দ চয়ন খুবই সহজ; নেই কোনো কাঠিন্যতা। যে কোনো বয়সের মানুষের জন্য উপযোগী একটি বই। পঞ্চম শ্রেণির একজন ছাত্র বা পঞ্চান্ন বছরেরও একজন বৃদ্ধও খুব সহজেই বুঝতে পারবে বইটির মূলভাব।

    2 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    rsabbir125:

    খুবই ভালো বই শয়তান এবং তার কার্যকলাম সম্পর্কে জানতে অনেক বেশি সাহায্য করবে ইনশাআল্লাহ । ব্যাক্তিগত ভাবে আমার কাছে ভালো লেগেছে বইটি ❤️
    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    muhammad ashraful:

    পাঠ অনুভূতি: জ্বিন শয়তান ও মানব শয়তানদের কার্যকলাপ সম্পর্কে কুরআন ও সুন্নাহর আলোকে সচিত্র ধারণা পেলাম। কিভাবে শয়তান খারাপ কাজকে সুশোভিত করে পুণ্যবান মানুষদের নিকট উপস্থাপনের মাধ্যমে ঈমান এবং আমল দু’টো বরবাদ করে চলেছে সেটা ভাবতে গা শিউরে উঠেছে। লেখকের গভীর চিন্তা ভাবনার ফল এ বইটি শয়তানের বিভিন্ন দরজার প্রতিবন্ধক স্বরুপ কাজ করবে।

    রাতে ঘুমানোর সময় শয়তান মানুষের নাকের ডগায় আশ্রয় নেয় এবং ওজুর সময় তিনবার ভালোভাবে নাক পরিষ্কার করে নিলে শয়তান নাক থেকে পালিয়ে যায়- এমন তথ্য বইটা পড়ার আগে জানতাম না। এছাড়া বই থেকে পাওয়া আরো সুন্দর, সুন্দর পরামর্শগুলো হাদিস থেকে জানতে পেরে উপকৃত হলাম। সামনে জানা বিষয়ের দ্বারা আমলের প্রতিফলন ঘটানোর নিয়ত করলাম। আল্লাহ সহায় হউন, আমিন।

    পুরো বইটা আমার কাছে এলার্ম ঘড়ির মতো মনে হয়েছে। এলার্ম ঘড়ি যেমন আপনাকে জেগে তুলতে সাহায্য করে, ঠিক অনুরূপ এ বইটা শয়তানের বিরুদ্ধে জয়ী হওয়ার জন্য আপনাকে জেগে উঠতে সাহায্য করবে। বইটা আমাকে আপনাকে শয়তানের শতসহস্র অলিগলির সন্ধান দেয়ার পাশাপাশি সেসব কুপথ থেকে ফিরে আসার পথ হাতেকলমে দেখিয়ে দিবে। শয়তান আপনার অন্তরে প্রবেশের আগে কিভাবে তার মোকাবেলা করবেন তা লেখক কলম আর কালির আঁচড়ে বিস্তারিত আলোচনা করে গেছেন। একজন লেখকের লেখা তখনি সার্থক হবে যখন পাঠক তার পরামর্শ মোতাবেক আমল করে দুনিয়া ও আখিরাতের জন্য কামিয়াব হবে। এ বইটা সে আশা পূরণ করবে বলে আমি দৃঢ় বিশ্বাস রাখি ইনশাআল্লাহ।

    লেখকের লেখার মান: লেখকের লেখার মান ভীষণ রকম পছন্দ হয়েছে। চিন্তার গভীরতা দেখে মুগ্ধ না হওয়ার উপায় নাই আলহামদুলিল্লাহ। শব্দ গাঁথুনি, বর্ণনার ধরণ, বাক্য গঠনে মুনশিয়ানার পরিচয় দেখিয়েছেন।

    বইয়ের প্রচ্ছদ, কাগজের মান, ছাপা, বাঁধাই সবকিছু মানসম্মত ছিলো আলহামদুলিল্লাহ। প্রকাশনীর জন্য দুআ ও সালাম থাকলো।

    5 out of 5 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No