মেন্যু
১০০০ টাকার পণ্য কিনলে সারা দেশে ডেলিভারি একদম ফ্রি।

শিকড়ের সন্ধানে

পৃষ্ঠা সংখ্যা: ২৯৬ টি
কভার: পেপার ব্যাক

‘Know Thyself’ সক্রেটিসের বিখ্যাত একটি উক্তি। সক্রেটিস নিজেকে জানতে বলেছেন। নিজেকে জানতে পারার মধ্যেই সক্রেটিস মানবজীবনের সার্থকতা খুঁজেছেন। সক্রেটিসের এই দর্শন আদতে কানায় কানায় সত্য। মানবজীবন ঠিক তখনই পরিপূর্ণভাবে বিকাশ লাভ করে যখন মানুষ নিজেকে জানতে শুরু করে ও আত্মপরিচয়ের ব্যাপারে প্রলুব্ধ হয়। নিজেকে উদঘাটন করতে পারলেই ঠিক করে ফেলা যায় জীবনের দর্শন। জীবনের গন্তব্য, উদ্দেশ্য এবং রদবদল, সবকিছু সহজ হয়ে যায় যদি নিজেকে জানা যায়। যদি একেবারে শেকড়ে ফিরে চেনা যায় নিজের প্রকৃতি।

‘মুসলমান’ হিসেবে এই ব্যাপারটা আরও বিশদভাবে সত্য। আমরা যদি নিজেদের আত্মপরিচয়, আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তাআলা প্রদত্ত গৌরবময় মর্যাদা ‘মুসলমানিত্বের’ সঠিক মর্মার্থই বুঝতে না পারি, তাহলে কীভাবে নির্ধারণ করব নিজেদের গন্তব্য এবং উদ্দেশ্য? কেন-ই বা আমরা মুসলিম, অন্যরা কেন নয়, কীভাবে আমরা মুসলিম হলাম, আমাদের ঠিক আগে, আল্লাহর একাত্মবাদে যারা আসীন ছিলেন, তারা কোন পরিচয়ে ধন্য হয়েছেন, তাদের সাথে আমাদের যোগসাজশ কোথায়? সাদৃশ্য আর বৈসাদৃশ্য কী কী—এসব জানতে পারাই হলো আমাদের আত্মপরিচয় সন্ধানের প্রথম সবক।

‘শেকড়ের সন্ধানে’ বইতে লেখিকা হামিদা মুবাশ্বরা ঠিক আমাদের জন্য এই কাজটিই করেছেন। তিনি আমাদের নিয়ে গেছেন অতীতে—একেবারে গোড়ায়, যেখান থেকে আমাদের আত্মপরিচিতির শুরু। কত হাওয়া বদল করে, কত বাঁক পেরিয়ে, কত সময় পার করে, কত ঘাত-প্রতিঘাতে আমরা আমাদের শেষ পরিচয়, ‘মুসলমান’—এ এসে ঠেকেছি, সেই মহাযাত্রার রহস্যপানে লেখিকা আমাদের ভ্রমণ করিয়েছেন। লেখিকা কেবল আমাদের সোর্স থেকে আমাদের ক্ষুধা, তৃষ্ণা নিবারণ করাননি। তিনি আমাদের কখনো তাওরাতে, কখনো ইঞ্জিলে, আবার কখনো কুরআনে ডুব দিইয়েছেন। প্রসঙ্গক্রমে ঢুকে পড়েছেন বিশাল বিস্তৃত হাদিসশাস্ত্রের ভেতরেও। লেখিকার অণ্বেষণ প্রক্রিয়া, জানার তীব্র আকাঙ্খা, সত্যকে আজলা ভরে তুলে আনার ঢঙ বেশ আশাজাগানিয়া। এ রকম একাডেমিক একটা বিষয়কে তিনি কীভাবে সাধারণ মানুষদের জন্যও উপযোগী করে ফেললেন তা-ও বিস্ময় জাগানিয়া!

পরিমাণ

280.00  400.00 (30% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

2 রিভিউ এবং রেটিং - শিকড়ের সন্ধানে

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    ‘শিকড়ের সন্ধানে’বইটি যে লেখক হামিদা মুবাশ্বেরার অক্লান্ত পরিশ্রমের ফসল সেটা বলার অপেক্ষা রাখেনা।এটি লেখকের প্রথম বই হলেও লেখালেখির জগতে তিনি পাঠকমহলের প্রশংসা কুড়িয়েছেন অনেক আগেই।অত্যন্ত দক্ষতার সাথে একাডেমিক বিষয়গুলোকে তিনি সাধারণ পাঠকদের জন্য সহজবোধ্য ভাষায় প্রকাশ করেছেন।

    #রিভিউ ও বিষয়বস্তুঃবইটি কিছুক্ষণ পড়ার পরই ইচ্ছে করবে কুরআন নিয়ে বসতে! কুরআনকে অনুভব করবেন,রব্বের ভাষা উপলব্ধি করতে পারবেন আরও নতুনভাবে।
    কী অসাধারণ,সহজ-সাবলীল ভাষায় লেখক কুরআনে বর্ণিত কাহিনীগুলো তুলে ধরেছেন!কুরআন যেহেতু কোন ইতিহাসগ্রন্থ নয়,তাই বিভিন্ন সূরায় প্রাসংগিকভাবে ঘটনার অংশবিশেষে আল্লাহ তা’আলা আমাদের জানিয়েছেন।সেই সব ঘটনা লেখক শুধু ধারাবাহিকভাবে একত্রিতই করেননি বরং সেই সময়,সেই সমাজের মানুষ,তাদের পরিবেশ,সংস্কৃতি,রীতিনীতি,জীবনযাত্রা কেমন ছিল তা বিশ্লেষণ করেছেন চমৎকারভাবে।কিভাবে ইব্রাহীম আ. এর দ্বীনের অনুসারীরা পরবর্তীতে ইহুদি,খৃস্টান,মুসলমান এই তিনটি ধর্মে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেলো এবং প্রকৃত সত্য ধর্ম ইসলাম কিভাবে কালের পরিক্রমায় বিকশিত হলো তা পাঠক জানতে পারবেন।চৌদ্দশ বছর পূর্বের এই কুরআনে বর্ণিত পূর্ববর্তী নবী-রাসূলগণের জীবন-কাহিনী এবং তাঁদের সম্প্রদায়ের উত্থান-পতনের যেসব ঘটনা আল্লাহ তা’আলা আমাদের জানিয়েছেন সেসব থেকে আমরা কি শিক্ষা গ্রহণ করতে পারি,নিজেদের জীবনের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য স্থির করে সে অনুযায়ী কিভাবে জীবন পরিচালনা করতে পারি তার দিকনির্দেশনা পাওয়া যাবে। ইহুদি-খৃস্টানদের বিশ্বাসের সাথে আমাদের বিশ্বাসের পার্থক্য,যুগের পর যুগ মানুষের মধ্যে একই রকম বিদ্যমান চারিত্রিক বৈশিষ্ট্য,একইভাবে নানান ঘটনার পুনরাবৃত্তি উল্লেখ করে লেখক দেখিয়েছেন ইতিহাস থেকে শিক্ষা না নেওয়ায় কী করুণ পরিণতি হয়েছে পূর্ববর্তীদের,অতীত থেকে শিক্ষা গ্রহণ করা কতটা গুরুত্বপূর্ণ তা উপলব্ধি করতে পারবেন। নিজের শিকড় সম্পর্কে পূর্ণ জ্ঞান ও শিক্ষা নিয়ে একজন মু’মিন তার দুনিয়ার জীবনকে সাজিয়ে আল্লাহ আযা জাও জাল্লার সন্তুষ্টি অর্জন করে আসল গন্ত্যবে পৌঁছাবে-এটাই শিকড়ের সন্ধানে বইয়ের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়।

    #ভাললাগাঃ ঘন্টার পর ঘন্টা স্কলারদের লেকচার ঘেঁটে,বিভিন্ন বই পড়ে যা জানা দুঃসাধ্য ছিলো তা এক মলাটের ভেতরে বই আকারে পাওয়া নিঃসন্দেহে প্রচন্ড ভালো লাগার মত ব্যাপার।আল্লাহ তা’আলা লেখককে উত্তম প্রতিদান দান করুন।

    #বইটি কাদের জন্যঃ

    যারা কুরআনের বাংলা অনুবাদ পড়তে যেয়ে খেই হারিয়ে ফেলেন;ইহুদি,নাসারা, মুশরিকদের সম্পর্কে উল্লেখ করা বিভিন্ন নির্দেশ,কাহিনী পড়ে বুঝতে পারেন না এতে কি শিক্ষা বা উপকার রয়েছে,বইটি তাদের জন্য।যারা কুরআনকে আরো গভীরভাবে জানতে চান,বুঝতে চান,তারাও নিঃসন্দেহে উপকৃত হবেন।

    ‘শিকড়ের সন্ধানে’বইটি পড়ার পর কুরআনের প্রতিটি শব্দ,প্রতিটি বাক্য থেকেই জ্ঞান আহরণের জন্য পাঠক চিন্তার খোরাক পাবেন এবং সে অনুযায়ী জীবন পরিচালনা করতে অনুপ্রেরিত হবেন।ইনশাআল্লাহ।

    বইয়ের প্রচ্ছদ,বাইন্ডিং ৪/৫।

    Was this review helpful to you?
  2. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    “শিকড়ের সন্ধানে”— বইটিতে কোরআনের বিভিন্ন সূরায় ছড়িয়ে থাকা ঘটনার ইতিহাস ও এসব ঘটনা থেকে শিক্ষণীয় বিষয়গুলো ধারাবাহিকভাবে বর্ণনা করা হয়েছে।

    ❒ যা জানতে পারবেনঃ
    ইউসুফ(আ) জন্মেছিলেন কেনানে, তাঁর বংশধর মূসা(আ) কি করে মিশরে জন্মালেন। বনী ইসরাঈল কে অত্যাচারী ফেরাউনের হাত থেকে রক্ষা করে মূসা(আ) কি পেরেছিলেন স্বাধীন রাষ্ট্র গড়ে নিতে? ইউশা ইবন নুন এর ভূমিকা কি ছিলো? মুসা(আ) সহ অন্যান্য নবীদের এর জীবনী থেকে যে শিক্ষা আল্লাহ তায়ালা আমাদের দিয়েছেন তা নবীজি (সা) কি করে তাঁর সময়কালে আরোপ করেছেন এবং আমরা কিভাবে তা কাজে লাগাতে পারব। ইব্রাহিম(আ) এর প্রকৃত অনুসারী হিসেবে দাবি করা মানুষগুলো আজকে কিভাবে ইহুদি, খ্রিস্টান ও মুসলিম এই তিন পরিচয়ে বিভক্ত হয়েছে। ঈসা(আঃ) এর পরবর্তী সময়ে সেইন্ট পল কিভাবে ঈসায়ী ধর্মকে বিকৃত করেছে এবং ঈসা (আঃ) এর সত্য অনুসারীরা কিভাবে শেষ পর্যন্ত অনেক অত্যাচার নির্যাতন সহ্য করেও হকের কথা বলে গেছেন— এ সকল বিষয় আমরা বইটি পড়ে জানতে পারব।

    ❒ বইটি কেন পড়বেনঃ
    কুরআনে মহান আল্লাহ প্রয়োজন মোতাবেক যখন যে ঘটনা প্রাসঙ্গিক তারই অংশবিশেষ নবীজি (সা) এর উপর নাযিল করেছেন। তবে তা ধারাবাহিকভাবে বলা হয়নি। তাই এসব ঘটনার আদ্যোপান্ত, ইতিহাস, তৎকালীন পরিবেশের অবস্থা ভালো করে না জানা থাকায় আমরা কুরআনের আয়াতগুলো উপলব্ধি করতে পারিনা। বইটি পড়ার মাধ্যমে আমরা কুরআনে উল্লেখিত ঘটনাগুলোকে বিস্তারিত বুঝতে পারব এবং তা থেকে শিক্ষা নিয়ে বাস্তব জীবনে প্রয়োগ করতে পারব।

    ❒ ভালো লাগা বিষয়ঃ
    – বইয়ে প্রত্যেকটি ঘটনার ইতিহাসের রেফারেন্স দেওয়া হয়েছে।
    – কুরআনের যেকোনো কাহিনী বর্ণনা শেষে লেখিকা ফুটনোটে উল্লেখ করে দিয়েছেন এই কাহিনী কোন কোন সূরায় পাওয়া যাবে।
    – কুরআনে বর্ণিত প্রতিটি ঘটনার ঐতিহাসিক ধারাবাহিকতা বজায় রেখে সাজানো হয়েছে বলে এই বই মুসলমানদের উত্থান-পতন ক্রম বুঝতে সহায়ক হবে।
    – আজকের বাস্তবতার নিরিখেও কুরআনে বর্ণিত কাহিনীগুলো কতটা প্রাসঙ্গিক তা উপলব্ধি করতে শেখায়।

    Was this review helpful to you?