মেন্যু
salafder bisshoykor ibadat

সালাফদের বিস্ময়কর ইবাদত

প্রকাশনী : আযান প্রকাশনী
অনুবাদক : ইমতিয়াজ বুরহান
সম্পাদক : মোহাম্মদ সাজেদুল ইসলাম
পৃষ্ঠা : 256, কভার : পেপার ব্যাক, সংস্করণ : 1st Published, 2022
ভাষা : বাংলা
এই বইটির পাতায় পাতায় ছড়ানো-ছিটানো রয়েছে হাজারো মণিমুক্তাতুল্য উপমা, যেগুলো সংগ্রহ করা হয়েছে সলফে-সলেহীনের ব্যক্তিগত জীবন ও অসংখ্য গ্রন্থাবলি থেকে। আমাদের উদ্দেশ্য হলো, মানুষ যেন এগুলো থেকে নিজেদের ভবিষ্যৎ জীবনের... আরো পড়ুন
পরিমাণ

255  350 (27% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

17 রিভিউ এবং রেটিং - সালাফদের বিস্ময়কর ইবাদত

4.8
Based on 17 reviews
5 star
82%
4 star
17%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published.

  1. 4 out of 5

    Saroar Jahan Hasan:

    প্রারম্ভিক আলাপঃ

    আল্লাহ তা’য়ালা বলেছেন,

    “আমি মানুষ ও জ্বিন জাতিকে সৃষ্টি করেছি
    শুধু আমারই ইবাদাত করার জন্য”
    সুরাঃযারিয়াত ৫৬।

    ইবাদত কোন মামুলী বিষয় না।ইবাদত হচ্ছে স্রষ্টার প্রতি দাসত্ব স্বীকার করে তার সমস্ত হুকুম আহকাম মেনে নেওয়া,এবং নিষিদ্ধ বিষয়াদি থেকে বিরত থাকা।জীবনের প্রতিটি শাখা-প্রশাখায় এসব পালন করা বিরত থাকা।
    ইবাদত মুমিন বান্দার অলংকার স্বরূপ।
    বান্দা যত বেশি ইবাদত করে আল্লাহর কাছে তার সৌন্দর্য তত বেশি বৃদ্ধি হতে থাকে।গুনাহ থেকে মুক্ত হয়ে সুবাসিত ফুলের মত সুঘ্রাণে মুখরিত করে জমিন ও আসমান।

    যদি আমরা এই মুহুর্তে নিজেদের প্রতি গভীর দৃষ্টি দেই,দেখতে পাবো সৃষ্টিকর্তা থেকে আমাদের দূরত্বই বেশি।ইবাদতের প্রতি কতটা অবহেলা আমাদের।হেলায়-খেলায় নষ্ট করছি ইবাদতের কত মূল্যবান সময়।
    অথচ সালাফদের(সালাফ বলতে আমাদের পূর্ববর্তীদেরকে বোঝায়। মূলত, সাহাবী, তাবেয়ী ও তাবে-তাবেয়ীদেরকে সালাফ বলে নির্দেশ করা হয়ে থাকে)ইতিহাস পড়লে দেখতে পাই! তারা আল্লাহর ঠিক কত কাছের বান্দা,রবের নিকট কতটা আস্থাভাজন,নৈকট্য আর আনুগত্যে কত দূর এগিয়ে গেছেন।সামান্য একটুখানি সময়ের মূল্য কতগুন বেশি ছিলো তাদের নিকট।তারা ছিলেন রবের প্রিয়ভাজন নিকটতম বান্দা।খোদায়ী রহমত বরকতে বেষ্টিত মুমিন।বিপরীতে যারা নফসের গোলাম,ক্ষতি আর হালাকাত তাদের ত্বরান্বিত করছে প্রতিটা মুহুর্তে।
    “সালাফদের বিস্ময়কর ইবাদত”বইটি এসব কিছুর ই শ্রেষ্ঠতম উপমা।

    বইটি যে ভাবে সাজানো হয়েছেঃ

    ৫টি মূল শিরোনাম দিয়ে সাজানো হয়েছে।প্রতিটি শিরোনামে রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন পরিচ্ছদ যাতে আলোচনা ফুটিয়ে তুলা হয়েছে।বিস্তারিত দালিলিক ও প্রক্ষাপট উপযুক্ত উদাহরণ সমৃদ্ধ আলোচনা এর সৌন্দর্য আরো বৃদ্ধি করেছে।

    সংক্ষিপ্ত পিডিএফ থেকে আমার মন্তব্যঃ

    সংক্ষিপ্ত ১৫ পৃষ্ঠা থেকে উপলব্ধি করলাম,প্রচন্ড তৃষ্ণায় যেমন অল্প একটু পানি মৃতপ্রায় জীবনে সজীবতা ফিরিয়ে দেয়।ঠিক তেমনিভাবে রব থেকে পিছিয়ে পড়া গাফেলরা সালাফদের ইতিহাস জেনে রবের প্রতি ফিরে আসার হুঁশ জাগ্রত হয়।

    কেন পড়বো কারা পড়বোঃ

    নিজেদের সোনালী জীবনের মর্যাদা দিতে।জান্নাতে নিজেদের জায়গার দখল নিতে।বেহুঁশ,গাফেল হুঁশে ফিরে রবের একান্ত হতে আগ্রহী যারা এই বই তাদের জন্য।

    সর্বশেষঃ

    বইটি সংগ্রহে রাখুন ইনশাআল্লাহ উপকৃত হবেন।

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    ইমতিয়াজ বুরহান:

    সালাফদের বিস্ময়কর ইবাদত
    বইটির ভেতরের আয়োজন :

    ~ লেখক প্রথমেই আলোচনা করেছেন মানবীয় বৈশিষ্ট্যের প্রথম স্বভাবজাত চাহিদা ইবাদত আর আনুগত্য নিয়ে। কুরআন-সুন্নাহ ও অসংখ্য বুজুর্গদের উক্তির মাধ্যমে তিনি সুস্পষ্টভাবে আলোচনা করেছেন বিষয়টির প্রতিটি দিক। এসেছে ইসলামে ইবাদতের ব্যাপকতার প্রভাবের কথা।

    ~ বইটির প্রথম পরিচ্ছেদে এসেছে ইবাদতে চেষ্টা-প্রচেষ্টা ও মুজাহাদার ক্ষেত্রে শরয়ী দলীলের প্রামাণ্যতা এবং মুজাহাদার ক্ষেত্রে সাহাবায়ে কেরামের অনুসৃত পন্থার আলোচনা।

    (২) দ্বিতীয় পরিচ্ছেদে ইবাদতে চেষ্টা প্রচেষ্টার ক্ষেত্রে রাসূলের উৎসাহ ও মর্যাদাপূর্ণ অবস্থা পর্যালোচনা।

    (৩) তৃতীয় পরিচ্ছেদে ইবাদতে কঠোরতা প্রদর্শন থেকে নিষেধাজ্ঞা ও তার যুক্তিসংগত কারণ নিয়ে অসাধারণ তত্ত্ব ও তথ্যসমৃদ্ধ আলোচনা।

    ~ এসেছে মুজাহাদার প্রকার, কুরআন-সুন্নাহর মাধ্যমে ইবাদতে মুজাহাদার উপমা উপস্থাপন।

    ~ বইটিতে এসেছে শয়তানের সবচেয়ে বড় অপরাধ হিংসা ও অহংকারের ধ্বংসাত্বক ক্ষতির আলোচনা। আত্মশুদ্ধির ব্যাপকতার তথ্যবহুল আলোচনা।

    ~ এসেছে কলব ও নফস বিভিন্ন ধরনের অন্ধকারে নিমজ্জিত হওয়ার আলোচনা। কুরআন-সুন্নাহর আলোকে তা থেকে পরিত্রাণের বিস্তারিত উপায়।

    ~ এসেছে নফসের চাহিদার ভিন্নতার আলোচনা। চাহিদা পূরণের জন্য শরীয়তসম্মত পদ্ধতির পথ ও পন্থার কথা।

    ~ দয়া, প্রতিশোধ গ্রহণ, বড়ত্ব ও শ্রেষ্ঠত্ব প্রদর্শনের দুনিয়ায় মানুষ বেড়ে ওঠার পর তার দ্বীন দায়িত্ব ও কর্তব্য নিয়ে বিস্তর আলোচনা।

    ~ ইবাদতে মুজাহাদার ব্যাপারে বিশজনের মত আকাবির আসলাফ ও হক্কানি উলামায়ে কেরামের কিছু উক্তি।

    ~ বইটির দ্বিতীয় পরিচ্ছেদে আমলে মুজাহাদা ও উৎসাহ সৃষ্টিকারী রাসূলের অবস্থাসমূহের আলোচনা।

    ~ ইবাদতে মুজাহাদার ব্যাপারে বর্ণিত হাদিসগুলোকে দুই ভাগে বিভক্তকরণ।

    প্রথম ভাগে ইবাদতে মুজাহাদার ব্যাপারে উৎসাহ প্রদানকারী রাসুলের আদেশসমূহের আলোচনা।

    দ্বিতীয় ভাগে ইবাদতের ক্ষেত্রে রাসুলের কর্মপন্থা ও মুজাহাদা।

    ~ তৃৃতীয় অধ্যায়ে আলোচনা হয়েছে ইবাদতে বাড়াবাড়ির ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞামূলক বর্ণনার কিছু উদাহরণ এবং এর কারণ নিয়ে।

    ~ এসেছে কুরআন-সুন্নাহর আলোকে সহজতা গ্রহন করা, কঠোরতা ত্যাগ করা এবং উম্মতে মুহাম্মদী থেকে বোঝা অপসারণের ব্যাপারে আলোচনা।

    ~ নয়জন সাহাবির অত্যধিক আমল দেখে রাসুলের সাধ্যাতীত আমল থেকে নিষেধাজ্ঞার আলোচনা।

    ~ কখন ইবাদতে বাড়াবাড়ি নিষিদ্ধ?
    এই পয়েন্টে আলোচনা।

    ~ ইমাম আবদুল হাই লাখনবি (রহ) তার বিখ্যাত গ্রন্থ ইকামাতুল হুজ্জাতে আধ্যাত্মিক ইবাদত ও আমলে মুজাহাদা করার ব্যাপারে ১০ টি মূলনীতি আলোচনা করেছেন তার বিস্তারিত বিবরণ।

    ~ দ্বিতীয় অধ্যায়ে এসেছে যে সমস্ত ইবাদতে মুজাহাদা করা যায়।

    এখানে পাঁচটি পরিচ্ছেদ আছে:

    ১/ নামাজ এবং রাত্রি জাগরণের ফজিলত। নামাজে মুজাহাদার ব্যাপারে সালাফের ১০৫ জন মহান ব্যক্তিত্বের ঈমানজাগানিয়া ঘটনা। হৃদয়গ্রাহী ত্যাগ-কুরবানির চমৎকার কিছু উপমা।

    ২/ রোজা ও তার চমৎকার প্রভাবসমূহ। ধারাবাহিকভাবে রোজা রাখার বিধান নিয়ে আলোচনা। রোজায় মুজাহাদার ব্যাপারে সালাফের ৪৮ জন মহান ব্যক্তিত্বের বিস্ময়কর ও চমৎকার উপমা।

    ৩/ কুরআনুল কারিমের তেলাওয়াত ও তার চমৎকার প্রভাবসমূহ। কুরআন নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করার উপকারিতার কথা। পবিত্র কুরআনুল কারীম তিন দিনের কম সময়ে খতম করা এবং তার হুকুম সম্পর্কে আলোচনা। কুরআন তেলাওয়াতে মুজাহাদার ব্যাপারে সালাফের ৪৮ জন মহান ব্যক্তিত্বের অসাধারণ ও চমৎকার উপমা।

    ৪/ হজের আলোচনা, হজের মাধ্যমে প্রাপ্ত শারীরিক ও আধ্যাত্মিক উন্নতির আলোচনা। হজে মুজাহাদার ব্যাপারে সালাফের ২৩ জন মহান ব্যক্তিত্বের ঈমানজাগানিয়া চমৎকার উপমা।

    ৫/ তাকওয়া ও খোদাভীতি নিয়ে গভীর উপস্থাপনা।
    কুরআন-সুন্নাহর আলোকে তাকওয়ার ফযীলত প্রমাণ করা। খোদাভীতির ব্যাপারে সালাফের ৪২ জন মহান ব্যক্তিত্বের হৃদয়গ্রাহী ও চমৎকার কিছু উপমা।

    আল্লাহ বইটিকে কবুল করুন। আমাদের সবার নাজাতের উসিলা বানিয়ে দিন 💚

    2 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    ইসমত আরা তানজিন:

    🔸শুরুর কথাঃ

    ইসলাম হলো আমাদের জন্য পূর্ণাঙ্গ জীবনব্যবস্থা। ইসলামে ইবাদত শব্দের মূল অর্থ হলো দাসত্ব করা, আনুগত্য করা৷ আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলার আনুগত্য বা দাসত্ব করা এবং পরিপূর্ণভাবে দ্বীন মেনে চলার নামই হলো ইবাদত৷ ইসলামের ৫টি রোকন বা স্তম্ভ রয়েছে। যথা: ইমান, সালাত, সাওম, হজ্জ ও যাকাত। এগুলো যথাযথভাবে পালন করলেই যে পরিপূর্ণ ইবাদত পালন হয়ে যায় তা নয় বরং সেই সাথে নেক আমল করা, কুফরি ও খারাপ কাজ থেকে মুক্ত থাকা, নিজের নফসকে নিয়ন্ত্রণ করা, দান-সদাকা করা, ওয়াদা রক্ষা করাসহ আরো কিছু কাজ করার মাধ্যমেই ইবাদত পরিপূর্ণ হয়৷ একজন মানুষ আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা কে কতটুকু ভালোবাসে তা বুঝা যায় তার তাকওয়া ও দ্বীন পালনের মাধ্যমে। আল্লাহর কাছে প্রিয় হতে চাইলে অবশ্যই অবশ্যই তাকওয়া অর্জন ও নেক আমল করতে হবে।

    🔸শর্ট পিডিএফ পড়ে আমার মতামতঃ

    আমাদের আকাবির-আসলাফদের ব্যক্তিজীবন ছিল অতি বিস্ময়কর। কেননা, আমরা যদি আমাদের পূর্ববর্তী সালাফদের জীবনী পর্যালোচনা করি তাহলে দেখব তাদের ইবাদতের ধরণ আর আমাদের ইবাদতের ধরণ সম্পূর্ণ আলাদা। তাদের আচার-আচরণ ও কাজে-কর্মে সর্বদা তাকওয়া ও আল্লাহভীতি থাকতো, তাঁরা সর্বদা তাদের গুনাহ নিয়ে অনুশোচনা করতেন। আর তাদের চিন্তাধারা ও ব্যক্তিত্ব বারবার আমাদের মুগ্ধ করবে৷ ১৩ পৃষ্ঠার শর্ট পিডিএফ পড়ে পুরো বই সম্পর্কে ধারণা করতে না পারলেও এতটুকু বুঝেছি যে শুরু থেকেই বইটি বেশ সাবলীল ও মার্জিত ভাষায় সালাফদের মধ্যে আল্লাহভীতি কেমন ছিল, তাদের বড়ত্বের কথা এবং অতীতের সেই সোনালি গৌরবময় ইতিহাসের কথা বইয়ের পাতায় পাতায় রচিত। শাইখ ইবরাহীম মুহাম্মাদ হুসাইন আল-আলি রচিত “সালাফদের বিস্ময়কর ইবাদত” বইটি লেখক ইমতিয়াজ বুরহান অনুবাদ করেছেন৷ বইটির সূচিপত্র দেখেই বোঝা যাচ্ছে যে এই বইটি মূলত সালাফদের ইবাদত তথা তাদের তাকওয়া, সালাত, রোজা, কুরআন তিলাওয়াত ও হজ কেমন ছিল সেসব সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে৷ শুধু তাই নয়, তাদের ব্যক্তিজীবনের ঘটনাগুলো স্মরণ করিয়ে দেয় যে তাদের ইবাদত আর আমাদের ইবাদতের মধ্যে আকাশ-পাতাল তফাত রয়েছে।

    🔸কেন এই বইটি পড়বেনঃ

    এই বইটির মূল উদ্দেশ্য হলো ইবাদত নিয়ে মানুষ যে অহংকার ও বাড়াবাড়ি করে তা চুরমার করে আমরা যেন সালাফদের জীবনী থেকে শিক্ষাগ্রহণ করতে পারি, আমরা যেন আমাদের কাজে-কর্মে ও দ্বীন পালনে আল্লাহভীরু হই, আমরা যেন আমাদের অন্ধকারে ডুবে থাকা অন্তরে দ্বীনের আলোয় আলোকিত হতে পারি, সালাফদের জীবনী থেকে শিক্ষা নিয়ে আমরা যেন আমাদের দুনিয়া ও আখিরাতে কল্যাণ লাভ করতে পারি৷ এই বইটি পড়ে মানুষের মধ্যে অনুশোচনাবোধ কাজ করবে, নিজেদের আমলগুলোকে ছোট মনে হবে। মনে হবে আমরাও যদি সালাফদের মতো হতে পারতাম!

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    sazzadais:

    সালাফ বলতে আমাদের পূর্ববর্তীদেরকে বোঝায়। মূলত, সাহাবী, তাবেয়ী ও তাবে-তাবেয়ীদেরকে সালাফ বলে নির্দেশ করা হয়ে থাকে। সাহাবীগণ সরাসরি রাসূলের (সাঃ) তত্তাবধানে দ্বীন শিখেছেন, তাদের কাছ থেকে তাবেয়ীরা, তাবেয়ীদের থেকে তাবে-তাবেয়ীরা। এভাবে চলছে। তাই তাদের ইবাদাতের মেজাজ, মর্ম, আগ্রহ আমাদের জন্য অনুসরণীয় রাসূল (সাঃ) এর পর।

    বইয়ের বিষয়বস্তু ও বইটি কেন পড়া দরকারঃ
    বইটি মূলত পাঁচটি পরিচ্ছদে বিভক্ত। ইবাদাত – এটি নিছক কোন কাজ নয়। একজন মুমিনের প্রতিটা কাজ, কথা, চিন্তা, প্রচেষ্টা করা বা না করা – সবই ইবাদাতের অন্তর্ভূক্ত। সূরা যারিয়াতের ৫৬ আয়াতে আল্লাহ বলেনঃ
    وَ مَا خَلَقۡتُ الۡجِنَّ وَ الۡاِنۡسَ اِلَّا لِیَعۡبُدُوۡنِ ﴿۵۶﴾
    [আর আমি সৃষ্টি করেছি জিন এবং মানুষকে এজন্যেই যে, তারা কেবল আমার ইবাদাত করবে।]
    ফলে, মুমিনের ইবাদাত সকল অবস্থাতেই হতে পারে। আমাদের সালাফগণ যে কি পরিমাণ এ বিষয়ে সতর্ক ও হুঁশিয়ার ছিলেন তা ইমাম ইবন তাইমিয়া (রাহ.), ইমাম ইবনুল মুবারক (রাহ.) উনাদের বক্তব্য থেকে বুঝা যায়। ইবাদাতের মাধ্যমে নফসকে নিয়ন্ত্রণে রাখা যায়। বইটিতে এমন অনেক অনেক নামকরা আলেমদের ঘটনা ও বক্তব্য স্থান পেয়েছে ইবাদাতের মর্ম ও গুরুত্ব বুঝাতে।

    বইটি কাদের জন্যঃ
    এক কথায় বলতে গেলে সকলের জন্যই অবশ্য পাঠ একটি বই। এর সবিস্তারিত আলোচনায় উপকৃত হবে সকল পাঠকগণ ইনশাআল্লাহ্।

    বইয়ের উল্লেখযোগ্য কয়েকটি দিকঃ
    বিস্তারিত দালিলিক ও প্রক্ষাপট উপযুক্ত উদাহরণ সমৃদ্ধ আলোচনা খুব ভাল লেগেছে।

    শর্টপিডিএফ পড়ে মন্তব্যঃ
    শর্টপিডিএফ এ ১৫টি পৃষ্ঠা দেয়া আছে। সূচিপত্রই বলে দিচ্ছে কি কি বিষয় আছে আর কেমন হতে পারে আলোচনা। এটা পুরো বইটা পড়ার আগ্রহ বাড়িয়ে দিয়েছে। পুরো প্রিভিউ শর্টপিডিএফ পড়েই দেয়া হয়েছে। তবে, মূল বিষয়বস্তুর কোন অংশ দেয়া হয়নি, এটা ভাল লাগেনি শর্টপিডিএফ এ। এটা থাকলে আরো ভাল করে অনুধাবন করা যেত। যার জন্য খুব বেশি কিছু বলা গেল না প্রিভিউতে।

    0 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  5. 5 out of 5

    ইয়াসমিন:

    ইসলামে ইবাদত এমন একটি সার্বজনীন বিষয় যা জীবনের প্রতিটি শাখা-প্রশাখার বিধিবিধানকে নিজের মধ্যে ধারণ করে। বর্তমান সময়ে দৃষ্টিপাত করলেই বোঝা যায় আল্লাহর সাথে আমাদের সম্পর্ক এবং ইবাদতে নিষ্ঠা কেমন? অপরদিকে আকাবির আসলাফদের ইতিহাস দেখলে বোঝা যায় তারা কতটা আল্লাহর প্রিয়ভাজন ও নিকটবর্তী ছিলেন। তারা ছিলেন আল্লাহর রহমত বরকত প্রাপ্ত।
    যে যত বেশি আল্লাহর ইবাদত করবে সে তত বেশি আল্লাহর প্রিয়ভাজন হবে, অন্তর নরম হবে, বিনয়ী হবে, রহমতে ছেঁয়ে থাকবে। আর যে বিপরীতে চলবে এককথায় সে হবে নফসের গোলাম। ফলে তার মাধ্যমে শুধু ক্ষতিই তরান্বিত হবে।

    ➤ব্যক্তিগত অভিমতঃ
    বইটির প্রিভিউ পড়ে যতটুকু বুঝতে পেরেছি তাতে পুরো বইটি পড়ার জন্য মুখিয়ে আছি। আরো উপলব্ধি হয়েছে যে- এই কঠিন সময়ে আমারা আল্লাহর সাথে সম্পর্ক স্থাপনে এবং ইবাদতে অনেক পিছিয়ে আছি। এই বইটি পড়লে কিভাবে আল্লাহর একান্ত অনুগত দাস হওয়া যাবে, কি কি ইবাদতের দ্বারা আল্লাহর প্রিয়ভাজন ও নৈকট্য লাভ করতে পারবো। সর্বপরি দ্বীন ইসলামকে জীবনে পুরোপুরি ধারণ করার উপায় জানতে পারবো।
    আল্লাহ মানুষ সৃষ্টি করেছেন কেবল তার ইবাদত করার জন্য। আর আল্লাহ তায়ালার পছন্দীয় কাজই হচ্ছে ইবাদত। সেটা হতে পারে কথা বা কাজ, নামাজ, রোজা,হজ, যাকাত, সৎ কাজের আদেশ অসৎ কাজের নিষেধ, মুনাফিকদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ, পারস্পরিক লেনদেন, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, চরিত্রগত বা রাষ্ট্রীয় প্রতিটা ক্ষেত্রেই আল্লাহর হুকুম মত চলাই ইবাদত। আল্লাহকে ভয় করা, ইখলাসের সহিত ইবাদত করা, কৃতজ্ঞ থাকা, তার উপর পূর্ণ তাওয়াক্কুল রাখা ইত্যাদিও ইবাদত। এ বই থেকে আমাদের আকাবীর আসলাফদের রাত্রি জাগরণ ও ইবাদতে মুজাহাদার বিস্ময়কর ঘটনা জানতে পারবো এবং নিজেদের শুধরে নিয়ে অনুতপ্ত হয়ে আল্লাহর কাছে ফেরার ধরণা দিতে পারবো।
    এই ক্রান্তিকর ও টেকনোলজির সময়ে আমাদের নবপ্রজন্মেরা কোন পথে হাঁটছে তা বলাই বাহূল্য। নতুন প্রজন্মের ছেলে মেয়েরা এ বই থেকে আমাদের অতীত পূণ্যবানদের কাজকর্ম সম্পর্কে জানতে পারবে এবং নিজেকে ইসলামের ছাঁচে ফেলে গড়ার একটা মোক্ষম সুযোগ পাবে ইনশাআল্লাহ।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top