মেন্যু
  • You cannot add "আল-কুরআনের শব্দসমূহ" to the cart because the product is out of stock.
১০০০ টাকার পণ্য কিনলে সারা দেশে ডেলিভারি একদম ফ্রি।

কুরআনের সাথে হৃদয়ের কথা

অনুবাদ – আব্দুল্লাহ মজুমদার
পৃষ্ঠা – ১৬৮ (পেপারব্যাক কভার)

যখন হৃদয় হয় আর্ত, তৃষ্ণার্ত। যখন হৃদয় আকাশে নেমে আসে চৈত্রের দাবদাহ। যখন হৃদয়-জমিন মরুভূমির মতোন হাহাকার করে, তখন কুরআন যেন সেখানে এক পশলা বৃষ্টি হয়ে নামে। উত্তপ্ত আকাশে একখণ্ড মেঘের মতো। কুরআন যেন হৃদয়ের জন্যই রচিত, অথবা হৃদয়ের জন্যই কুরআনের আগমন। হৃদয়ের সমস্ত আকুলতা-ব্যাকুলতা, সমস্ত আকাঙ্খার স্রোত যেন কুরআনের কাছে এসে থেমে যায়। কুরআনের শব্দেই হৃদয় ধ্বনিত হয়। কুরআনের ঝংকারে মধুর কল্লোল জেগে ওঠে হৃদয় সমুদ্রে। কুরআন যেন কোনো মোহিত গানের সুর যা হৃদয়কে ছুঁয়ে যায় পরম আবেশে। সেই আবেশে হৃদয়ের কথাগুলো খুঁজে পায় প্রাণ। এমন কথাগুচ্ছের সম্মিলনের নাম ‘কুরআনের সাথে হৃদয়ের কথা’।

পরিমাণ

208.00  260.00 (20% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

6 রিভিউ এবং রেটিং - কুরআনের সাথে হৃদয়ের কথা

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    আমাদের কাছে একটি সুমহান কিতাব আছে যার সংস্পর্শ আমাদের অন্তরকে করে আর্দ্র আর আমাদের জীবনকে করে অর্থবহুল। এটি সেই কিতাব যা অতৃপ্ত, অশান্ত হ্রদয়ে বর্ষণ করে প্রশান্তি, প্রসন্নতা, নিশ্চয়তা ও পরিতৃপ্তির নিয়ামত। পথ হারিয়ে বিক্ষিপ্ত ছুটে চলা অসংখ্য মানব-মানবী এ কিতাবের ছোঁয়ায় খুঁজে পেয়েছে পথের দিশা। এই কিতাব কতশত জীবনে সাধন করেছে উৎকর্ষ আর তাদেরকে পরিণত করেছে বিশ্ববাসীর জন্য আদর্শরূপে, তাওহিদের পতাকার আদর্শ বাহক হিসেবে। এই কিতাবটি যেন আশ্চর্য এক পরশপাথর। বলছিলাম, আল কুরআনুল কারিমের কথা।
    .
    কিন্তু, মানুষ তো গাফিল, সময়ের সাথে সাথে সে ভুলে যায়। কুরআনের সাথে তার সম্পর্ক ক্ষীণ হতে থাকে, কুরআন পড়তে গড়িমসি করে। কুরআন পড়ে সে শিক্ষা গ্রহণ করতে পারে না, কুরআন নিয়ে চিন্তা-ফিকির (তাদাব্বুর) করে না। লেখক ইবরাহিম আস সাকরান তাই ‘কুরআনের সাথে হৃদয়ের কথা’ বইতে কুরআনের বিভিন্ন আয়াত নিয়ে তাদাব্বুর করেছেন। গল্পকথায় সৃষ্টিশীল গদ্যে অনিন্দ্য রচনাশৈলীতে লেখক যেন কুরআনুল কারিমের আলোকে ব্যক্ত করেছেন হৃদয়ের কথা। সেই কথাগুলো হ্রদয়ে সঞ্চারন করে সঞ্জীবনী সুধা, আত্মাকে অনুপ্রাণিত করে কুরআন থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে জীবন সাজাতে।
    .
    বইতে মোট ১২টি ছোট ছোট অধ্যায়ে কুরআনের নানা আয়াতের আলোকে লেখক প্রদান করেছেন বাস্তবমুখী নানা শিক্ষা। উদাসীনতার চাঁদরে গা ঢাকা দিয়ে মৃত্যুকে ভুলে যাওয়া এই আমাদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে লেখক তূলে ধরেছেন মৃত্যুর সুনিশ্চিত বাস্তবতা আর মনে করিয়ে দিয়েছেন তাওবাহ, সাদাকাহ ও যিকিরের গুরুত্বের কথা। কখনো কিয়ামতের বিভিষীকাময় পরিস্থিতির অবতারণা করে আল্লাহর সাথে সাক্ষাতের পরিস্থিতি বর্ণনা করে নেক আমলে উৎসাহ দিয়েছেন।
    .
    হৃদয়ের কাঠিন্য, ঈমান কমে যাওয়া, অন্তরে মুনাফেকি ব্যধির বিস্তার রোধে লেখক সুলুক সন্ধান করেছেন এসব অন্তরের রোগের মূল কারণের। আমরা যদি অনবরত গুনাহ করে যাই, আল্লাহর কালামের ভ্রান্ত ব্যাখ্যা গ্রহণ ও প্রচার করি এবং আল্লাহর স্মরণবিমুখ হয়ে যাই তবে আমাদের অন্তর শক্ত হয়ে যেতে বাধ্য। দানে কৃপণতা, হেলামি ও গোঁড়ামিপূর্ণ আচরণ ও নিয়ন্ত্রণহীন জবান আমাদেরকে ধীরে ধীরে শামিল করবে মুনাফিকদের কাতারে। তাই এখনই সময়, পরিবর্তনের।
    .
    বইতে পাঠক খুঁজে পাবেন সফলতার টোটকা। গড়িমসি ত্যাগ করে বিনয়াবনত সালাতই পারে আমাদের চরিত্রকে উৎকর্ষ প্রদান করতে।তাহাজ্জুদ ও যিকিরের গুণেই আমরা পারবো সফল মানুষ ও দ্বাঈ হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে, ইলমের সুফল ভোগ করতে, প্রসন্ন হৃদয়ের অধিকারী হতে। আল্লাহর অধিক স্মরণই আমাদের দুঃখে প্রশান্তির প্রলেপ যোগাবে, বিপদ থেকে আমাদের মুক্তি দিবে।
    .
    তাওয়াক্কুল আর ইয়াকিন তো হচ্ছে এমন দুটি মহৌষধ, যা পারে আমাদেরকে শক্তিশালী আল্লাহর বান্দায় পরিণত করে। এসকল গুণে গুণান্তিত হতে পারলেই আমরা পারবো শয়তানের সকল চক্রান্তকে নস্যাৎ করে দিতে, পরীক্ষার সময় অবিচল থাকতে ও দুনিয়ার বুকে শ্রেষ্ঠ উম্মত হিসেবে নিজেদেরকে প্রতিষ্ঠিত করতে। আমরা প্রস্তুত তো?
    .
    বইটি পড়ে আমি উপকৃত হয়েছি, অনুবাদের ভাষাশৈলীও ছিল চমৎকার। তাই লেখক ও অনুবাদককে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আর পাঠককে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি বইটি পাঠ করে কুরআন নিয়ে চিন্তা ফিকির করতে ও কুরআনের আলোকে জীবন সাজাতে।
    Was this review helpful to you?
  2. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    আমাদের কাছে একটি সুমহান কিতাব আছে যার সংস্পর্শ আমাদের অন্তরকে করে আর্দ্র, আমাদের জীবনকে করে অর্থবহুল। এটি সেই কিতাব যা অতৃপ্ত, অশান্ত হ্রদয়কে প্রদান করে প্রশান্তি, প্রসন্নতা, নিশ্চয়তা ও পরিতৃপ্তির নিয়ামত। পথ হারিয়ে বিক্ষিপ্ত ছুটে চলা কতশত মানব-মানবী এ কিতাবের ছোঁয়ায় খুঁজে পেয়েছে পথের দিশা। এই কিতাব কতশত জীবনে সাধন করেছে উৎকর্ষ আর তাইতো তারা হয়ে উঠেছে বিশ্ববাসীর জন্য আদর্শ; তাওহিদের পতাকার আদর্শ বাহক। এই কিতাবটি যেন আশ্চর্য এক পরশপাথর। বলছিলাম, আল কুরআনুল কারিমের কথা।
    .
    কিন্তু, মানুষ তো গাফিল, সময়ের সাথে সাথে সে ভুলে যায়। কুরআনের সাথে তার সম্পর্ক ক্ষীণ হতে থাকে, কুরআন পড়তে গড়িমসি করে। কুরআন পড়ে সে শিক্ষা গ্রহণ করতে পারে না, কুরআন নিয়ে চিন্তা-ফিকির (তাদাব্বুর) করে না। লেখক ইবরাহিম আস সাকরান তাই ‘কুরআনের সাথে হৃদয়ের কথা’ বইতে কুরআনের বিভিন্ন আয়াত নিয়ে তাদাব্বুর করেছেন। গল্পকথায় সৃষ্টিশীল গদ্যে অনিন্দ্য রচনাশৈলীতে লেখক যেন কুরআনুল কারিমের আলোকে ব্যক্ত করেছেন হৃদয়ের কথা। সেই কথাগুলো হ্রদয়ে সঞ্চারন করে সঞ্জীবনী সুধা, আত্মাকে অনুপ্রাণিত করে কুরআন থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে জীবন সাজাতে।
    .
    বইতে মোট ১২টি ছোট ছোট অধ্যায়ে কুরআনের নানা আয়াতের আলোকে লেখক প্রদান করেছেন বাস্তবমুখী নানা শিক্ষা। উদাসীনতার চাঁদরে গা ঢাকা দিয়ে মৃত্যুকে ভুলে যাওয়া এই আমাদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে লেখক তূলে ধরেছেন মৃত্যুর সুনিশ্চিত বাস্তবতা আর মনে করিয়ে দিয়েছেন তাওবাহ, সাদাকাহ ও যিকিরের গুরুত্বের কথা। কখনো কিয়ামতের বিভিষীকাময় পরিস্থিতির অবতারণা করে আল্লাহর সাথে সাক্ষাতের পরিস্থিতি বর্ণনা করে নেক আমলে উৎসাহ দিয়েছেন।
    হৃদয়ের কাঠিন্য, ঈমান কমে যাওয়া, অন্তরে মুনাফেকি ব্যধির বিস্তার রোধে লেখক সুলুক সন্ধান করেছেন এসব অন্তরের রোগের মূল কারণের। আমরা যদি অনবরত গুনাহ করে যাই, আল্লাহর কালামের ভ্রান্ত ব্যাখ্যা গ্রহণ ও প্রচার করি এবং আল্লাহর স্মরণবিমুখ হয়ে যাই তবে আমাদের অন্তর শক্ত হয়ে যেতে বাধ্য। দানে কৃপণতা, হেলামি ও গোঁড়ামিপূর্ণ আচরণ ও নিয়ন্ত্রণহীন জবান আমাদেরকে ধীরে ধীরে শামিল করবে মুনাফিকদের কাতারে। তাই এখনই সময়, পরিবর্তনের।
    .
    বইতে পাঠক খুঁজে পাবেন সফলতার টোটকাও। গড়িমসি ত্যাগ করে বিনয়াবনত সালাতই পারে আমাদের চরিত্রকে উৎকর্ষ প্রদান করতে।তাহাজ্জুদ ও যিকিরের গুণেই আমরা পারবো সফল মানুষ ও দ্বাঈ হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে, ইলমের সুফল ভোগ করতে, প্রসন্ন হৃদয়ের অধিকারী হতে। আল্লাহর অধিক স্মরণই পারে আমাদের দুঃখে প্রশান্তির প্রলেপ যোগাবে, বিপদ থেকে আমাদের মুক্তি দিবে।
    .
    তাওয়াক্কুল আর ইয়াকিন তো হচ্ছে এমন দুটি মহৌষধ, যা পারে আমাদেরকে শক্তিশালী আল্লাহর বান্দায় পরিণত করে। এসকল গুণে গুণান্তিত হতে পারলেই আমরা পারবো শয়তানের সকল চক্রান্তকে নস্যাৎ করে দিতে, পরীক্ষার সময় অবিচল থাকতে ও দুনিয়ার বুকে শ্রেষ্ঠ উম্মত হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে। আমরা প্রস্তুত তো?
    .
    বইটি পড়ে আমি উপকৃত হয়েছি, অনুবাদের ভাষাশৈলীও ছিল চমৎকার। তাই লেখক ও অনুবাদককে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আর পাঠককে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি বইটি পাঠ করে কুরআন নিয়ে চিন্তা ফিকির করতে ও কুরআনের আলোকে জীবন সাজাতে।
    Was this review helpful to you?
  3. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    #ওয়াফিলাইফ_পাঠকের_ভালোলাগা_মে_২০২০
    .
    বন্দেগীর আগেও রাব্বে কারীম যে বই পড়ার আদেশ দিয়েছেন, যেই গ্রন্থের উপমালহরীর ঝংকারে হিদায়াহ’র ছোঁয়া পেয়েছিলেন উমার ইবনুল খাত্তাব, যে বই পড়ে সাড়ে চৌদ্দশত বছর ধরে মানুষ পেয়ে আসছে সফেদ সত্যের শুভ্রতা, সেই ঐশীগ্রন্থ “আল কুরআন’
    .
    কথা ছিলো বনীআদম এই কুরআনের অমৃতলাভে পুরোদস্তুর আমগ্ন থাকবে। কিন্তু কেউ কথা রাখেনি। কুরআনের সাথে সম্পর্ক আজ আনুষ্ঠানিকতা; রামাদান কিংবা তারাবীহ’র মধ্যে নিবদ্ধ। যার অবস্থান শেলফের সবচেয়ে উপরের তাকে, অথচ ধূলিমলিন।
    উম্মাহ’র এই ভ্রান্তিলগ্নে কুরআনমুখীতা বাড়ানোর উদ্দেশ্যে, সম্প্রতি বাংলাভাষী পাঠকদের সামনে এ বিষয়ক মৌলিক ও অনুদিত বহু বই প্রকাশিত হচ্ছে, আলহামদুলিল্লাহ। এমনই একটি অনুদিত বই “কুরআনের সাথে হৃদয়ের কথা”
    .
    [বই কথন]
    কুরআনের সাথে মানবমনের নিবিড় সম্পর্ক এবং সেই সম্পর্কের সূত্র ধরে মানবজীবনের উত্থান-পতনের সমাধানে কুরআনের অনস্বীকার্যতা’ই এই বইটির উপজীব্য। কুরআন নিয়ে তাদাব্বুরের নির্দেশিকা দেওয়া হয়েছে বইটিতে ঈমান,সালাত,তাওয়াক্কুল,ফজর সালাতের মর্ম,ইত্যাদি মৌলিক বিষয়াদি নিয়েই বইটির ব্যাপ্তি। অধিপতি সত্তার মায়াভরা কথাগুলোকে সৃষ্টিকুলের জীবনের ছাঁচে ফেলে, লেখক নাড়া দিয়েছেন পাঠকের মনোজগতের মর্মমূল ধরে। হরফের ভাস্মরে হিদায়াহ’র সরলীকরণ পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা চালিয়েছেন, বইটির আদ্যোপান্তে।
    .
    উপভোগ্য শিরোনামের মোড়কে বইটিতে উপস্থাপিত হয়েছে, কুরআনের সৌন্দর্য। লেখক দেখিয়েছেন কুরআনের সাথে সম্পর্কের অভাবে হৃদয় পাথুরে হয়ে যাওয়ার কারণ,আর বাতলে দিয়েছেন উত্তরণের পদ্ধতি। তাছাড়া লেখকের ব্যক্তিগত জীবনের কিছু ঘটনাবলী উল্লেখ করে, তার কুরআনিক ব্যাখ্যা করেছেন।সাথে যোগ হয়েছে অন্তর প্রশান্তকারী কিছু আয়াত।
    .
    বইটির সবচেয়ে আকর্ষণীয় দু’টি টপিক হলো, “ভোর পাঁচটা ও সকাল সাতটা” এবং “অজ্ঞাতনামা পাপ”।
    এবার টপিকগুলোতে কি আছে, তা জানতে মাস্ট রিড এই বইটা হাতে নিন। রব্বের করুণায় হয়তোবা খুলে যেতে পারে, হৃদয়ের আবদ্ধ জানালাগুলো।
    .
    [পাঠ অভিমতঃ]
    কুরআনিক আলোচনার্থ বই মাত্রই আমার প্রিয়। সেই জায়গাকে আরো পোক্ততা দানকারীর স্থান জুড়ে নিলো “কুরআনের সাথে হৃদয়ের কথা” বইটা।
    .
    কুরআনের সাথে কথোপকথনের মাধুর্যতা লাভের উদ্দেশ্যে বইটা হাতে নিন। কুরআনেই আছে সব সমাধান। আপনি যখন বিষাদের নীল সায়রে হাবুডুবু খেয়ে স্বস্তি খুঁজেন মরিয়া হয়ে, কুরআন তখন জানান দেয়, “নিশ্চয়ই কষ্টের পরে রয়েছে স্বস্তি”।

    আপনি যখন রোগের পথ্য অন্বেষণে ব্যস্ত, কুরআন তখন বলে, “আমাতেই আছে নিরাময়”।
    আপনি যখন হতাশায় ধৈর্য্য হারা হন, কুরআন তখন বলে দেয় “মুমিনেরা সফলকাম হয়।”
    .
    জীবনের প্রতিটি পদক্ষেপে কুরআনের সাথে হৃদয়ের এমন আলাপনে অন্ধকার থেকে উঠা যায় সন্তর্পণে। দ্বীনবিমুখ গাফেল হৃদয়ের জন্য ও এই বইটা একটা অনন্য ম্যানুয়াল।
    সাহারার তৃষাতুর হৃদয়ে একপশলা বৃষ্টি আনয়নে এই বইটা অতুল্য। রব্ব প্রদত্ত শাব্দিক সালসাবিলে ডুব দেওয়ার জন্য বইটার সাথে হারিয়ে যান, কিছু মুহূর্তের জন্য…

    Was this review helpful to you?
  4. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    ‘কুরআনের সাথে হৃদয়ের কথা’ বইটি শাইখ ইব্রাহিম আস সাকরান এর রাকাইকুল কুরআন বইটি থেকে অনুবাদ করা হয়েছে।

    আমাদের জীবনে চলার পথে একটি গাইডলাইন আছে, সেটা হল আল কুরআন। এই কুরআন প্রত্যেক মানুষের কাছে আল্লাহর একটি চিঠি। এই চিঠি বুঝতে না পারলে জীবনটাই তো ব্যর্থ!

    অথচ, কুরআনের সাথে আমাদের বিচ্ছেদ কত দিনের? আমরা কি নিয়মিত কুরআন পড়ি? কুরআন নিয়ে তাদাব্বুর (চিন্তা ভাবনা) করি? নিজের জীবনের সাথে মিলাই?

    আল্লাহ বলেন-
    “তারা কি এই কুরআন নিয়ে গভীর চিন্তা করে না? নাকি তাদের অন্তরগুলো তালাবদ্ধ? ”

    আসলে, আমরা তো ভাবি না। ভাবে আমাদের হৃদয়। সম্পর্কটা তাই কুরআনের সাথে হৃদয়ের, হৃদয়ের সাথে কুরআনের। দীর্ঘদিন কুরআন না পড়লে হৃদয় কঠিন হয়ে যায়। অন্তর মরে যায়। আবার, কুরআনের স্পর্শে পাথুরে হৃদয় বিগলিত হয়।

    এই বইতে শাইখ তার জীবনের ব্যাক্তিগত বা সামাজিক ঘটনা বা দুর্ঘটনাগুলোর গল্প আমাদেরকে শুনিয়েছেন। তারপর, সেগুলোকে কুরআনের আলোকে বিশ্লেষন করেছেন। এতে তিনি কুরআনের এমন কিছু আয়াত তুলে এনেছেন, হৃদয় বিগলিত করার ক্ষেত্রে বেশ কার্যকর।

    ভালোলাগা, মন্দলাগাঃ
    কিছু বই থাকে এমন, যা সবাইকে পড়াতে ইচ্ছা করে, এই বইটি ঠিক তেমনই। কুরআনের সাথে সম্পর্কিত এই বইটি আমার মনে হয় সবারই পড়া উচিত।
    বইটির অনুবাদের ভাষা খুবই প্রাঞ্জল। বইটি পড়ার সমা আমার মনেই হয়নি যে কোন বাংলা অনুবাদ পড়ছি, মনে হচ্ছিলো যেন কোন মৌলিক বই পড়ছি।

    বইটির কভার খুব সুন্দর। বাইন্ডিং, পেজ মেকাপ ও মানসম্মত হয়েছে।

    বইটির সাথে জড়িত সবাইকে আল্লাহ উত্তম প্রতিদান দিন।

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
  5. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    আমার কাছে ভাল সময় কাটানো মানে, একটা ভাল বইয়ের পাতায় ডুব দেয়া । ভাল বই বলতে আসলে কি ! অবশ্যই সেটা “কুরআন” । সেই লিস্টে কুরআনই থাকবে প্রথমে । পাশাপাশি কুরআনকে কেন্দ্র করেও লেখা হয়েছে আরো লক্ষ লক্ষ বই । যেগুলোর মাধ্যমে কুরআনকে আরো বেশি উপলব্ধি করা যায়, কুরআনের দিকে ছুটে যেতে আরো অনুপ্রেরনা যোগায়, কুরআনের সাথে হৃদয়ের বন্ধন আরো দৃঢ় হয় । তেমনই একটা বই “কুরআনের সাথে হৃদয়ের কথা” !

    কুরআনের সঙ্গে সম্পর্ক এবং সেই সম্পর্কের সূত্র ধরে জীবনের সমস্যাগুলোর সমাধান বের করার প্রচেষ্টা তুলে ধরা হয়েছে এই বইটিতে । বইটি লিখেছেন– শাইখ ইবরাহীম আস-সাকরান । অনুবাদ করেছে – আব্দুল্লাহ মজুমদার । তার অনুবাদের হাত বরাবরই প্রশংসনীয়, সাবলীল এবং প্রাঞ্জল । বইটি সম্পাদনা করেছেন — আকরাম হোসাইন ।

    বইটিতে লেখক দেখিয়েছেন কিভাবে কুরআন নিয়ে তাদাব্বুর করা উচিত, কুরআনের কথা থেকে কিভাবে শিক্ষা নেয়া উচিত । বইটিতে লেখক তার চিন্তা গবেষনার সার নির্যাস তুলে ধরেছেন ।

    ঈমানের অর্থ, আখিরাতের স্মরণ, আল্লাহর ভয়, হৃদয়ের কাঠিন্য, পার্থিব পেশা, ফজরের সালাতের গুরুত্ব, সালাতকে জীবনে প্রতিষ্ঠা, তাহাজ্জুদ নিয়ে হৃদয় বিগলিত আলোচনা,নিফাকের পরিচয়, আল্লাহর পরিচয়, তাওয়াক্কুলের গুরুত্ব, শক্তিমান বান্দা হওয়ার উপায়, ঈমানের সর্বোচ্চ স্তরে আরোহনের উপায় ও সবশেষে অন্যের গুনাহের দায়ভার গ্রহনের কারন সম্পর্কে হৃদয়গ্রাহী সব আলোচনা করা হয়েছে ।

    বইটি পাঠকের চিন্তার জগতে আলোড়ন সৃষ্টি করবে; কুরআনের সঙ্গে বিশেষ সম্পর্ক স্থাপনে উদ্বুদ্ধ করবে এবং সেই সম্পর্কের সূত্র ধরে জীবনের সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করতে সাহায্য করবে ।

    বইটির ভাষাগত দিক খুবই চমৎকার হয়েছে । পড়তে গিয়ে অন্তরে একটা নূর অনুভব করেছি । হৃদয়ে সঞ্চারিত করেছে ভরসার স্পর্শ ।
    বইটি দ্বীন পালনে উদাসীনতা ভাঙতে সাহায্য করবে । আমলের পরিমান বাড়াতে সাহায্য করবে এবং কুরআনহীন মরুভূমির মতো হৃদয়ে এনে দেবে এক পশলা বৃষ্টির ছোঁয়া ।
    বইটির সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের জন্য দুআ রইল ।
    Was this review helpful to you?
  6. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    কুরআনের সঙ্গে সম্পর্ক এবং সেই সম্পর্কের সূত্র ধরে জীবনের সমস্যাগুলোর সমাধান বের করার প্রচেষ্টা তুলে ধরা হয়েছে এই বইটিতে । বইটি লিখেছেন– শাইখ ইবরাহীম আস-সাকরান । অনুবাদ করেছে – আব্দুল্লাহ মজুমদার । তার অনুবাদের হাত বরাবরই প্রশংসনীয়, সাবলীল এবং প্রাঞ্জল । বইটি সম্পাদনা করেছেন — আকরাম হোসাইন ।

    বইটিতে লেখক দেখিয়েছেন কিভাবে কুরআন নিয়ে তাদাব্বুর করা উচিত, কুরআনের কথা থেকে কিভাবে শিক্ষা নেয়া উচিত । বইটিতে লেখক তার চিন্তা গবেষনার সার নির্যাস তুলে ধরেছেন ।

    ঈমানের অর্থ, আখিরাতের স্মরণ, আল্লাহর ভয়, হৃদয়ের কাঠিন্য, পার্থিব পেশা, ফজরের সালাতের গুরুত্ব, সালাতকে জীবনে প্রতিষ্ঠা, তাহাজ্জুদ নিয়ে হৃদয় বিগলিত আলোচনা,নিফাকের পরিচয়, আল্লাহর পরিচয়, তাওয়াক্কুলের গুরুত্ব, শক্তিমান বান্দা হওয়ার উপায়, ঈমানের সর্বোচ্চ স্তরে আরোহনের উপায় ও সবশেষে অন্যের গুনাহের দায়ভার গ্রহনের কারন সম্পর্কে হৃদয়গ্রাহী সব আলোচনা করা হয়েছে ।

    বইটি পাঠকের চিন্তার জগতে আলোড়ন সৃষ্টি করবে; কুরআনের সঙ্গে বিশেষ সম্পর্ক স্থাপনে উদ্বুদ্ধ করবে এবং সেই সম্পর্কের সূত্র ধরে জীবনের সমস্যার সমাধান খুঁজে বের করতে সাহায্য করবে ।

    বইটির ভাষাগত দিক খুবই চমৎকার হয়েছে । পড়তে গিয়ে অন্তরে একটা নূর অনুভব করেছি । হৃদয়ে সঞ্চারিত করেছে ভরসার স্পর্শ ।
    বইটি দ্বীন পালনে উদাসীনতা ভাঙতে সাহায্য করবে । আমলের পরিমান বাড়াতে সাহায্য করবে এবং কুরআনহীন মরুভূমির মতো হৃদয়ে এনে দেবে এক পশলা বৃষ্টির ছোঁয়া ।
    বইটির সাথে সংশ্লিষ্ট সকলের জন্য দুআ রইল ।
    Was this review helpful to you?