মেন্যু
psychology  islami dristikon

সাইকোলজি ইসলামি দৃষ্টিকোণ

অনুবাদ: সিফাত-ঈ-মুহাম্মদ সম্পাদনা: ডা. শামসুল আরেফীন পৃষ্ঠা সংখ্যা: ২৭২ পৃষ্ঠা সাইকোলজি, মানব মনের ব্যবচ্ছেদ, মানসিক চিকিৎসা—আধুনিক সমাজে বেশ ভালোভাবে গেঁড়ে বসেছে। পশ্চিমা দেশে তো সবচেয়ে ব্যয়বহুল চিকিৎসা। সাইকাইট্রিস্টদেরও কদর বাড়ছে। মুসলিম সমাজে আত্মশুদ্ধি,... আরো পড়ুন
পরিমাণ

250  334 (25% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

8 রিভিউ এবং রেটিং - সাইকোলজি ইসলামি দৃষ্টিকোণ

4.9
Based on 8 reviews
5 star
87%
4 star
12%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published.

  1. 5 out of 5

    Foysal:

    দারূন বই। জীবনের প্রতি মূহুর্তে কাজে লাগবে এখাকার কিছু কন্সেপ্ট। বইয়ের সাথে জড়িত সবাইকে আল্লাহ উত্তম জাযা দান করুন।
    7 out of 7 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    Anisul islam opy:

    সাইকোলজি হচ্ছে সাধারণত আমাদের আচার আচরন ও মানসিক অবস্থা র বৈজ্ঞানিক ভাবে অধ্যায়ন করাকে বোঝায়”।এখানে ২ টি প্রক্রিয়া একটি দেখা যায় অপরটি দেখা যায় না। পশ্চিমা বিশ্বে মানসিক সমস্যায় প্রত্যেক বছর ভুগছে শত শত মানুষ সে পরিমাণ সাইকোলজিক্যাল ট্রিটমেন্ট ও দেওয়া হচ্ছে ।কিন্তু তবুও পশ্চিমাদের আত্মহত্যার আর সব চাইতে বেশি। এর পিছনে কি কারণ? কিসের জন্যে তাদের এসব ট্রিটমেন্ট এও কাজ হচ্ছে না? কোথায় তাদের প্রকৃত ঔষধ? এই নিয়েই লেখা হয়েছে বইটিতে।

    বইটির বিষয়বস্তু—
    °°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°°
    বইটি সাধারণ ডক্টর আইশা হামদান এর লেখা সাইকোলজি – from Islamic perspective ব‌ই থেকে অনুবাদ করা হয়েছে।বইটি থেকে আমরা বোঝতে পারবো সাইকোলজি কি?সাইকোলজিকাল দিক দিয়ে এক স্রষ্টার প্রতি বিশ্বাস। মনোবিজ্ঞান সম্পর্কে বিজ্ঞান কি বলে এবং ইসলাম কি বলে?কিভাবে ফিতরাত,আখিরাত,আকিদা,ঈমান,নফস,অন্তর,ক্বলব, নিয়ত ,কিভাবে সাইকোলজির সঙ্গে সম্পৃক্ত। মুমিন মুনাফিকের ব্যাক্তিত্বের মধ্যে মানসিক পার্থক্য,অদৃশ্য জীন শয়তানের সাথে সাইকোলজির সম্পর্ক, পশ্চিমারা কিভাবে সাইকোলজি কে বিকৃত করেছে,মোটিভেশন এর কাজ মানসিক সমস্যায়,আবেগ এর প্রভাব ও সমাধান,জীবনের উত্তাণ পতনে কিভাবে ঠিকে থাক যায়,কিভাবে শান্তিময় নির্মল জীবন উপভোগ করা যায় আরো নানা সমস্যা উল্ল্যেখ ,সমাধান, এবং পরিষ্কার ভাবে তুলে ধরেছেন আমাদের মাঝে এই বইটির মাধ্যমে। যা প্রত্যেক মানুষের জন্য প্রকৃত ট্রিটমেন্ট সাইকোলজিক্যাল সকল সমস্যার জন্য।

    পাঠ্যানুভূতি—
    °°°°°°°°°°°°°°°°°°
    আলহামদুলিল্লাহ্ বইটি পড়ে অনেক কিছু জানতে পেরেছি যা ধারণার বাইরে ছিল। সাইকোলজি নিয়ে পড়ার অনেকদিনের ইচ্ছে ছিল ।বইটি দেখার পর আরো ইচ্ছে বেড়ে যায় কারণ এর সাথে যুক্ত হয়েছে ইসলাম তাহলে তো পড়তেই হয়। বইটি অনুবাদ ছিল অনেক সুন্দর ও সহজ বোধগম্য। বইটিতে তত্ত্বে ভরপুর তাই মনোযোগ ধরে রাখতে হইয়েছে যা অনেক কঠিন ছিল আমার জন্য ।বইটিতে লেখিকা সাইকোলজি র ২ দিক ই উল্লেখ করেছেন পশ্চিমা ও ইসলাম যা অনেক ভালো লেগেছে।কারণ এই বইয়ে সব কিছু সাইকোলজি রিলেটেড।

    বই সম্পর্কে মতামত
    ~~~~~~~~~~~~~~
    বইটি সকলকে পড়ার অনুরোধ রইলো। কারণ আমাদের সব দিক দিয়ে জানা প্রয়োজন অল্প সল্প।বইটি যেহেতু তত্ত্বে ভরপুর তাই অনেক কিছু অর্জন করতে পারবেন আশা করি। আর একটি বিষয় বইটি এক বার পরে রেখে দেওয়ার বই নই বারবার পরে ঝালায় করে নেওয়ার বই।

    3 out of 4 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    muhammadjunayed23:

    প্রথাগত মনোবিদ্যার সীমাবদ্ধতা এবং ইসলামি দৃস্টিকোণ থেকে মানুষের আধ্যাত্মিক সত্তার অন্তর্নিহিত প্রকৃতি আলোচিত হয়েছে বইটিতে।
    অভিজ্ঞতা কিংবা পর্যবেক্ষণলব্ধ জ্ঞান মানবসত্তা এবং মনের ব্যাখ্যায় যথেষ্ট নয়। বস্তুগত বিজ্ঞান মানব প্রকৃতির সার্বিক তত্ত্ব প্রদানে অক্ষম। সমসাময়িক মনোবিজ্ঞানে মানবসত্তার গুরুত্বপূর্ণ অংশ আত্মাকে (soul) উপেক্ষা করা হয়েছে। লেখক ড. আইশা হামদান একাডেমিক সাইকোলজির সীমাবদ্ধতা এবং মন, মনোবিজ্ঞান ও মনোচিকিৎসায় ইসলামের নিজস্ব পূর্ণাঙ্গ দৃষ্টিভঙ্গি তুলে ধরেছেন। ইসলাম অন্তর বা রূহ কে কিভাবে দেখে, অন্তর এবং আত্মা নিয়ন্ত্রণে আমাদের ভূমিকা কতটুকু কিংবা আমাদের পারিপার্শ্বিকতা আমাদের মনস্তত্ত্বের উপর কতখানি প্রভাব রাখে তিনি তার রূপরেখা আমাদের সামনে তুলে ধরেছেন।
    সৃষ্টি সম্পর্কে সৃষ্টিকর্তা ব্যাতিত অধিক জ্ঞান আর কেউ রাখেনা। আল্লাহ তায়ালা মানুষকে সৃষ্টি করার সাথে সাথে তার জীবনযাপনের জন্য পূর্ণাঙ্গ গাইডলাইন প্রদান করেছেন। এই গাইডলাইন (ইসলাম) শুধু পরকালের কল্যাণের ব্যাপারে আলোকপাত করেনা, ইহকালের কল্যাণের ব্যাপারেও জোর দেয়। আমাদের মানসিক সুস্বাস্থ্যের যাবতীয় নির্দেশিকা রয়েছে আল্লাহ পাকের কালাম আর রাসুলের সুন্নাতে। আল্লাহ্‌র হুকুম পালন মানবজীবনে দৈহিক এবং আধ্যাত্মিকভাবে কি প্রভাব রাখে তাই এই বইয়ের উপজীব্য বিষয়।
    প্রশান্তিময় জীবনযাপনে আধ্যাত্মিকতার বিশেষ ভূমিকা রয়েছে। ধার্মিক ব্যাক্তির মানসিক সুস্থতার উপর ধর্মের যে গভীর প্রভাব তা বিশদভাবে আলোচিত হয়েছে বইটিতে । আমাদের ধর্মীয় রীতিনীতি, আচার-ব্যাবহার আমদের মানসিক সুস্বাস্থ্যের উপর কিভাবে প্রভাব রাখে লেখক তা যুক্তির আলোকে তুলে ধরেছেন। দেহের সুস্থতার জন্য যেমন খাবার প্রয়োজন তেমনি ভাবে অন্তর ও আত্মার সুস্থতার জন্য রসদ প্রয়োজন। আত্মাকে পরিশুদ্ধ এবং প্রশান্ত রাখার ধাপগুলো পর্যায়ক্রমে আলোচিত হয়েছে বইটিতে। অন্তরের খোরাক, সুস্থ অন্তরের বৈশিষ্ট্য, অসুস্থ অন্তরের লক্ষণ এবং অসুস্থ অন্তরের প্রতিকার নিয়ে লেখক পরিশীলিত বক্তব্য তুলে ধরেছেন। পাপ কাজ আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যের উপর কিধরণের প্রভাব ফেলে এবং দীর্ঘমেয়াদী তা মানসিকতার উপর যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি করে লেখক পর্যায়ক্রমে সে আলোচনা করেছেন। বর্তমান সময়ের মানুষের অন্যতম প্রধান সমস্যা মানসিক বিষণ্ণতার কারণ এবং আল্লাহ্‌র সাথে মানুষের সম্পর্ক এই বিষণ্ণতার উপর যে ইতবাচক প্রভাব তৈরি করে , লেখক তা তুলে ধরেছেন।
    হতাশা, গ্লানি, অস্থিরতা, উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা যাবতীয় মানসিক অসুস্থতা মানুষ খুব সহজেই আল্লাহ্‌র সাথে সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে সমাধান করতে পারে। সর্বপরি আল্লাহ্‌র আদেশ পালন শুধু পরকালের কল্যাণই নয় নিশ্চিত করবে ইহকালের সুস্থতা এবং সফলতা।
    তাই ইসলামের আলোকে মানসিকতার উৎকর্ষ সাধন এবং সাইকোলজিকে একটু ভিন্ন আঙ্গিকে দেখতে বইটি অবশ্যই সুখপাঠ্য।
    আল্লাহ্‌র সাথে মানুষের সম্পর্ক এই বিষণ্ণতার উপর যে ইতবাচক প্রভাব তৈরি করে , লেখক তা তুলে ধরেছেন।
    হতাশা, গ্লানি, অস্থিরতা, উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা যাবতীয় মানসিক অসুস্থতা মানুষ খুব সহজেই আল্লাহ্‌র সাথে সম্পর্ক স্থাপনের মাধ্যমে সমাধান করতে পারে। সর্বপরি আল্লাহ্‌র আদেশ পালন শুধু পরকালের কল্যাণই নয় নিশ্চিত করবে ইহকালের সুস্থতা এবং সফলতা।
    তাই ইসলামের আলোকে মানসিকতার উৎকর্ষ সাধন এবং সাইকোলজিকে একটু ভিন্ন আঙ্গিকে দেখতে বইটি অবশ্যই সুখপাঠ্য।
    1 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    ফাহিম মাসরুর:

    অনবদ্য, অসাধারণ, মনোযোগ ধরে রাখার মতো একটি বই যেটি আপনাকে কিছুক্ষন পর পর কাঁপিয়ে দিবে আল্লাহর কোন এক বিধানের অসাধারণ সাইকোলজিকাল গুরুত্ব জানিয়ে। ইসলামের আলোকে মনোবিজ্ঞানের ব্যাপার গুলো জেনে আপনি দ্বীনি জ্ঞান অর্জনে আরো উৎসাহী হয়ে উঠবেন। বইটি wafi life এর ফেসবুক পেজের মাধ্যমে যখন চোখে পড়লো, তখন মনে এমন একটি বই এর জন্য বোধহয় আমি অপেক্ষা করে আছি, যিনি সৃষ্টি করেছেন তিনিই তো আমাদের সবচেয়ে ভালো জানবেন। সবাই কে বইটি পড়ার আন্তরিক অনুরোধ রইলো। wafi life কে অনেক ধন্যবাদ এমন চমৎকার ইসলামি বই গুলো আমাদের সামনে আনার জন্য।
    14 out of 14 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  5. 5 out of 5

    ফাহিম মাসরুর:

    হিউম্যান সাইকোলজি নিয়ে বিশেষ আগ্রহ থেকে এই বিষয়ে বেশ কয়েকবছর ধরে কয়েকটি বই পড়া হয়েছে, অনলাইন অফলাইন কাউন্সিলিং, আত্নউন্নয়ন মূলক সেমিনার, ভিডিও, ব্লগ ইত্যাদি ঘাটাঘাটি করে আমি আমার একটা পার্সোনাল ধারনা তৈরি করি। তবে মনবিজ্ঞান বিষয়ক লেখা গুলোতে সৃষ্টিকর্তার এমন অনুপস্থিতি আমাকে ব্যাথিত করে। যেন মানুষ নিজেই নিজের সাফল্যের কারিগর সেখানে সৃষ্টিকর্তার কোন প্রয়োজন নেই (আসতাগফিরুল্লাহ্)।
    আমার সকল প্রশ্নের উত্তর নিয়ে আল্লাহ ই যেন আমার সামনে উপস্থিত করলো “সাইকোলজিঃ ইসলামী দৃষ্টিকোণ ” বইটি। এই দুনিয়ায় আল্লাহর সকল বিধিনিষেধ কেন, কি কারনে, তার উপকারিতা মনোবিজ্ঞানের ভাষায় ধারনা পেয়ে যাবেন। ইনশাআল্লাহ
    8 out of 8 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No