মেন্যু


নূরুন আলা নূর

অনুবাদ: মহিউদ্দিন রূপম
পৃষ্ঠা: ৯৫
কভার: পেপার ব্যাক

ড. জাকির নায়িক একটা কথা প্রায়ই বলতেন, “Quran isn’t a book of science, it’s a book of signs”.

কুরআনে অনেক আয়াতে আল্লাহ বারবার আমাদেরকে নিদর্শন দিয়েছেন, বিভিন্ন উপমা ব্যবহার করেছেন। সূরা বাকারা থেকে শুরু করে শেষ পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে দুনিয়ার উদাহরণ দিয়েছেন কখনো আসমান থেকে বর্ষণ হওয়া পানির সাথে, কখনো শুকিয়ে খড়কুটায় পরিণত হওয়া উদ্ভিদের সাথে, হিদায়াতের তুলনা দিয়েছেন আলো আর গোমরাহির তুলনা দিয়েছেন অন্ধকারের সাথে। এভাবে গোটা কুরআন অসংখ্য উপমায় ভরপুর। কিন্তু স্রেফ তরজমা পড়ে সেগুলোর ব্যাখ্যা বোঝা যায় না। এগুলো এতটাই গভীর হয় যে, মাঝে মাঝে খেই হারিয়ে ফেলতে হয়। বাংলায় অনূদিত তাফসীর গ্রন্থগুলোতেও এগুলোর অন্তর্নিহিত শিক্ষা নিয়ে খুব বেশি আলোচনা পাইনি। অপর দিকে কুরআনীয় উপমা নিয়ে যুগ যুগ ধরে কিতাব লিখে গেছেন বহু আলিম। তাদের মধ্যে অন্যতম ইমাম ইবনুল-কাইয়্যিম রহ.।

ইতিহাসের পাতায় যে কয়েকজন কুরআনের আশেক ছিলেন, যাদের করে যাওয়া খেদমত থেকে আজও আমরা উপকৃত হচ্ছি, সেই সেরাদের একজন এই মহান ইমাম। ইবনুল-কাইয়্যিম রহ. কুরআনের গোটা গোটা উপমাগুলো একত্র করেছেন এবং ধারাবাহিকভাবে সেগুলোর ব্যাখ্যা নিয়ে সাজিয়েছেন  الأمثال في  القرآن الكريم গ্রন্থটি। এখানে তিনি বের করে এনেছেন কুরআনের এমন অজানা রহস্য ভাণ্ডার, আমার বিশ্বাস এর সন্ধান অধিকাংশ পাঠক আগে কখনো পাননি, বা আগে কখনো ভেবে দেখেনি। এই গ্রন্থেরই অনুবাদ ‘নূরুন আলা নূর’।

পরিমাণ

91  127 (28% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
প্রসাধনী
- ১৪৯৯+ টাকার অর্ডারে সারাদেশে ফ্রি শিপিং!

9 রিভিউ এবং রেটিং - নূরুন আলা নূর

5.0
Based on 9 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    হৃদয়ে জমে গেছে ধুলোর আস্তরণ,কুরআনটা আর আজকাল পড়া হয় না,,,,,ডিপ্রেশনে থাকি তবুও আমরা কুরআন পরতে বোর ফিল করি।আবার অনেকে বলে কুরআন পড়তে পারি না তাই বিভিন্ন শাইখের তিলাওয়াত শুনে দিন কেটে যায়।ভাই আমি আপনি আমরা কেউই কুরআনের মহত্ত্ব ততক্ষণ উপলব্ধি করতে পারবো না যতক্ষণ না আমরা তা পূর্ণ মনোযোগের সাথে অধ্যায়ন করি।আবার,শুধু অধ্যায়ন করবেন যে তাই ,,,নয় ভালোবাসাও থাকতে হবে।কুরআনের প্রতি যদি আপনার হৃদয়ে বিন্দু পরিমাণ ভালোবাসা থাকে তাহলে আপনি কুরআনি উপমা বুঝতে পারবেন ইনশা আল্লাহ্।ভাবছেন শাইখদের তিলাওয়াত শুনে হৃদয় নরম হয়ে গেছে।কুরআন এমনভাবে পাঠ করুন যেন তা আপনার উদ্দেশ্যে নাযিল হয়েছে,তবেই পারবেন কুরআনের মহত্ত্ব উপলব্ধি করতে।
    ৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹
    ●কি কি পাবেন বইটিতে:কুরআনের উপমা কি,কিভাবে আয়ত্ত করবেন,কেন পড়বেন,কিভাবে কুরআন পড়া উচিত তা নিয়ে বহু গবেষণা।কুরআন আমাদের জন্য নির্দেশনাস্বরূপ।জীবনকে আলোকিত করতে হলে কুরআন আমাদের নিত্যদিনের সঙ্গী।
    ৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹
    ●কেন পড়বেন:বইটি একদিকে যেমন পাঠক হৃদয়ে কুরআনের প্রতি ভালোবাসা জাগাবে, তেমনি পাঠককে কুরআনের উপমা বুঝার প্রয়াস ঘটাবে। চারিদিকে তৃষিত হৃদয়ের মাঝে পাঠক অনুভব করবে তার হৃদয়ে এক ফোঁটা আশার বীজ।আমাদের বই পড়ার মূল উদ্দেশ্য যদি হয় জ্ঞান অর্জন করা তাহলে বইটি সকলের টেবিলে থাকা উচিত বলে মনে করি।
    ৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹
    ●অনুভূতি:হৃদয়ের জানালাটা এতদিন বন্ধ ছিলো বলেই হয়তো অনুভব করিনি কুরআন বোঝার মহত্ত্ব।যেন আমার অর্ন্তআত্না বলেই যাচ্ছে,,,,”শোন হে গাফেলীন কেন রয় দাগহীন কুরআনের পাতা”।
    ৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹৹
    ●যাদের জন্য বইটি:যারা নিজেদের মুসলিম বলে দাবী করেন অথচ,কুরআন রেখে বিভিন্ন ধরনের সাহিত্য নিয়ে পড়ে আছেন তাদের বলছি,বইটি আপনার জন্য।বইটিকে জ্ঞান অর্জনের জন্য সঠিক মাধ্যম বলা যায়।
    4 out of 5 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    :

    বইটি কেন আকর্ষনীয়?
    আল কুরআন এক বিস্ময়কর কিতাব। এর ভিতরে হয়েছে অনেক অনেক উপমা, উদাহরন। কয়েকটি চমৎকার উপমার মাধ্যমে আল কুরআনের সৌন্দর্য্য ফুটিয়ে তোলে হয়েছে এই বইয়ে। যারা সাহিত্যিক উপমা ব্যবহার পছন্দ করেন, উপমার মায়াজালে হারিয়ে যেতে ভালবাসেন তাদের কাছে এই বইটি ভাল লাগবে। মূলত মুসলিম মাত্রই এই বইয়ের ফ্যান হবেন কারন এই বই অতি অবশ্যই আল কুর আনের প্রতি ভালোবাসা বাড়াবে।

    বইয়ে কি কি আছে?
    শুরুতেই অনুবাদক কিছু কথা বলেছেন। আল কুর আন নিয়ে চিন্তা গবেষণা করার বিষয়ে তিনি দুকলম লিখেছেন। আমাদের এই যুগে এই আধুনিক সময়ে এই চিন্তা গবেষণা বা তাদাব্বুর এর বিষয়টি যেন হারিয়ে যাচ্ছে। আমরা তেলাওয়াতের শ্রুতিমধুরতার দিকে বেশি ধাবিত হচ্ছি। এর ভিতরের জ্ঞানের গভীরতা ও মধুরতা আহরনে কম উদ্যোগী হচ্ছি। এই বিষয়টির দিকে লক্ষ্য ফেরাতে এই বইটি অনুবাদ করা।

    আল কুরআন কি অপূর্বভাবে বিভিন্ন দৃষ্টান্ত দিয়ে মানুষকে বিভিন্ন জিনিস বুঝিয়েছেন তাঁর ব্যাখ্যা দেওয়া এই বইতে। মোট ২২ টি দৃষ্টান্ত স্থান পেয়েছে এখানে। আগুন ও পানি, দুনিয়া ও আখিরাত, দৃষ্টিশক্তি ও শ্রবনশক্তি, মুশরিক ও মাকড়শার বাড়ি, মরীচিকা ও সমুদ্রের ঢেউ, গীবত ও মৃত ভাইয়ের গোশত ভক্ষন, উৎকৃষ্ট বাক্য ও উৎকৃষ্ট গাছ, মুশরিক ও মাছি ইত্যাদি সুন্দর সুন্দর উপমার মাধ্যমে একদিকে যেমন আল কুর আনের ভাষার আভিজাত্য ও সৌন্দর্য্য প্রকাশ পেয়েছে তেমনি উপমার মাধ্যমে বোধগম্যতার চেষ্টা করা হয়েছে বিষয়টিতে। আল্লাহ কত পারফেক্টভাবে একটা বিষয়ের সাথে মিল রেখে উপমা দিয়েছেন এবং সেটি কত সুন্দরভাবে ম্যাচ করে তা বিষয়টি গভীরভাবে চিন্তা করলে বোঝা যায়, ভক্তিতে, ভালবাসায় মাথা নত হয়ে সিজদায় লুটিয়ে পড়ে।

    এসব উপমার ব্যাখ্যার মাধ্যমে উপমান, উপমিত এর বিস্তারিত ব্যাখ্যা এসেছে। পর্যাপ্ত রেফারেন্স, সাবলীল বর্ননা ও উদাহরনের মাধ্যমে বিষয়টিকে প্রাঞ্জল করে উপস্থাপন করা হয়েছে। এসব উপমা ও তাঁর যথার্থতা দেখে, বুঝে সত্যি অবাক হতে হয়।

    পাঠ অনুভূতি
    আকারে বা কলেবরে বইটি খুব বেশি বড় না হলেও ভিতরে যে পরিমান রত্ন রয়েছে তা এই বইটিকে মহিমান্বিত করেছে। ইমাম ইবনুল কাইয়িম (র) এর মত একজন উচ্চ মানের লেখকের বই এমনই তো হবার কথা। প্রতিটি উপমা মনে দাগ কেটেছে। ভাবিয়ে তুলেছে, আল কুর আন এর প্রতি ভালোবাসা বাড়িয়েছে। এ নিয়ে গবেষণায় উৎসাহ তৈরি হয়েছে নতুন করে। বইটি পড়ে আরবী ভাষা শেখার আগ্রহ ও বেড়েছে।

    বই সম্পর্কে মতামতঃ
    বইয়ের প্রচ্ছদ এক কথায় অসাধারন। বাইন্ডিং, পেজ কোয়ালিটিও ভাল আলহামদুলিল্লাহ। অনুবাদ কোয়ালিটি ও ভাল।

    রেটিংঃ ৯/১০

    6 out of 6 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    :

    ক. পরিচিতি:

    ইমাম ইবনুল কাইয়্যিম (রহ.) এর মূল কিতাবটি তিন অংশে বিভক্ত। তার মধ্যে থেকে তৃতীয় যে অংশটি রয়েছে সেখান থেকেই বইয়ের সূচনা। এছাড়া দ্বিতীয় ভাগ থেকে কিছু অংশ বইয়ের শেষ ভাগে উল্লেখ আছে। বইটি রচিত হয়েছে কুরআনীয় উপমার ব্যাখ্যার উপর ভিত্তি করে। ‘অনুবাদক’ আমাদের মত পাঠকের উদ্দেশ্যে সহজ ভাষায় তা তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন।
    .
    খ. বইয়ের বিষয়বস্তু:

    এর মধ্যে বুঝেই গিয়েছেন এ বইটি কি নিয়ে। বইটির মধ্যে ছোট ছোট মোট বাইশটি অধ্যায়ে ভাগ করা হয়েছে। শুরুতে ‘কিছু কথা’ এর মাধ্যমে সুচনা এবং শেষ হয় ইমাম ইবনুল কাইয়্যিম (রহ.) এর প্রেক্ষাপট ও জীবনী উল্লেখের মাধ্যমে। কিছু উল্লেখযোগ্য দৃষ্টান্ত যা উল্লেখ না করলেই নয়! যেমন:
    ১) দুনিয়া ও আখিরাতের জীবন।
    ২) মুশরিক ও মাকড়শার বাড়ি।
    ৩) মরীচিকা এবং সমুদ্রের ঢেউ।
    ৪) হিদায়াত লাভের পর বিপথে চলা।
    ৫) উভয় সমান নয়।
    .
    গ. নিজেস্ব কথন:

    বইটি হাতে পাওয়ার পর মনে হয়েছিল এ বই আমার জন্য কঠিন হবে। কিন্তু যখন পড়া শুরু করলাম বিষয় গুলো যেন সহজ ই ছিল। আমার ক্ষেত্রে আত্মার খোরক হিসেবে কিছু অধ্যায় কাজ করেছে। তাছাড়া কিছু উপমা যেন আবার নতুন করে ভাবতে শিখিয়েছে। আমরা একটু হিদায়াহ লাভের পর যেন ভেবেই নেই আমরা আর পথ ভ্রষ্ট হবো না।কিন্তু আসলে তা নয়।
    Don’t take hedayah as granted
    ‘তিনি তার নির্দেশে তার বান্দাদের,যার প্রতি ইচ্ছে রূহ প্রেরণ করেন।’
    [সূরাহ গফির, ৪০:১৫]
    .
    ঘ. শেষ কথা:

    আমাদের মত পাঠক সমাজ যারা আছেন তাদের একবার হলেও বইটি পড়ে দেখা উচিত। কলবে নাড়া পড়বেই ইন-শা-আল্লাহ। কুরআনের উপমা গুলো পড়ুন আর ভাবুন,এর সমতুল্য ওষুধ অন্য কোথাও নেই। কলবের কালি দূর হয়ে যাবে আমার রবের মহত্ত্বে।

    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    :

    •কুরআন । এটি কারো লেখা কোনো বই নই।এটি সরাসরি আল্লাহর কালাম আল্লাহর কথা আল্লাহর আদেশ। আল্লাহর তরফ থেকে আমাদের জন্য নিয়ামত। আমাদের সরল সঠিক আদেশ ও পথ দেখাইতে আল্লাহ আমাদের জন্য রহমত সরুপ এটি প্রেরণ করেছেন। কিন্তু আমরা কুরআন কে পড়ার জন্য যেন পরে যাই। না চেষ্টা করি বোঝার না চেষ্টা করি আয়াত গুলো নিয়ে ভাবার।কিন্তু এর অন্যতম উদ্দেশ্য টাদাব্বুর অর্থাৎ আয়াত নিয়ে চিন্তা ভাবনা।

    √আল্লাহ বলেন , ” এক মুবারক কিতাব,এটা আমি আপনার প্রতি নাযিল করেছি যেন মানুষ এর (আয়াতসমূহ নিয়ে) গভীরভাবে চিন্তা ভাবনা করে এবং বোধ সম্পন্ন ব্যাক্তিরা উপদেশ গ্রহণ করে”

    ••ইমাম ইবনুল কাইয়্যুম রাহী: এর লেখা ” আল আমচাল ফিল কুরআন ইল কারীম” বইকে বাংলাই অনুবাদ করে মহিউদ্দিন রূপম ভাই।যার নাম রাখা হয় “নুরুন আলা নূর”

    ••বইটিতে কুরআনের কিছু আয়াত এ ব্যবহৃত উপমা গোল ব্যাখ্যা করা হয়। যা হইতো আমরা আগে বোঝার ও চেষ্টা করি নি।যেখানে সূরা রদ,১৭/সূরা ইয়নুস,২৪/সূরা হুদ ২৪/সূরা অনকাবুত ৪১/সূরা নূর ৩৫/সূরা নাহল ৭৫/সূরা মূউদ্দাসির ৪৯-৫১ আরু কিছু উপমার আয়াত এর বিশ্লেষণ করা হয়। এত সুন্দর ভাবে আয়াত গলোকে বিশ্লেষণ করা হইয়েছে যা পড়ার পর মনে হবে এই নিয়ে তো আগে মাথায় আসেই নি।শেষে সংক্ষেপে তুলে ধরা হয়েছে ইমাম ইবনুল কায়্যিম রহি: এর জীবন বৃত্তান্ত।

    ••বইটি আমাকে কুরআন এর আয়াত নিয়ে ভাবতে শিখিয়েছে আলহামদুলিল্লাহ্। মহিউদ্দিন রূপম ভাইয়া এর সুন্দর অনুবাদ সহজ ভাবে বুঝতে সহায়তা করেছে। এখন আলহামদুলিল্লাহ কুরআন পড়ার সময় আয়াত গুলোও নিয়ে ভেবে দেখি চেষ্টা করি বোঝার।
    সকলকে পড়ার অনুরোধ রইলো। কারণ কুরআন বোজে পড়া আমাদের সকলের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। যাতে আমাদের কুরআন না বোজা অবস্থায় আল্লাহর সাথে সাক্ষাৎ করতে না হয়।

    2 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  5. 5 out of 5

    :

    মহান আল্লাহ তায়ালা পবিত্র আল কুর’আন মাজিদে, এর আয়াতসমূহ নিয়ে চিন্তাভাবনা করতে নির্দেশ দিয়েছেন। অতীতে আমাদের সালাফরা কুর’আনের আয়াত নিয়ে অনেক চিন্তা ভাবনা করে গিয়েছেন। আমরা অনেকে নিজেরাও টুকটাক চিন্তাভাবনা করি সাহস করে। আল্লাহ তায়ালা কুর’আনে অনেক উদাহরণ, উপমা ব্যবহার করে মানুষকে বুঝিয়েছেন বিভিন্ন বিষয়। অর্থগত ও ভাবগত ভাবে, সমুদ্রের ন্যায় গভীর, আল কুর’আনে নূর খুঁজতে পাথেয় হবে, প্রিয় ইমাম ইবনুল কাইয়িম রহ. এর ছোট্ট বইটি। খুশু খুযু বইটির মত, এই বইটিতেও উনার গভীর চিন্তাভাবনার প্রতিফলন রয়েছে।
    মা শা আল্লাহ।

    যতই পবিত্র আল কুরআন অর্থ বুঝে পড়েছি, ততই মুগ্ধ হয়েছি। এ যেন এক গভীর সমুদ্র।এই সমুদ্রে সাঁতরে সাঁতরে, চোখে দেখে, অনুভব করে, পাঠক মনি মুক্তার চেয়েও মূলবান কিছু যেমন, জীবনে চলার পথের আলো খুঁজে পায়।নতুন অর্থ খুঁজে পায়। জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে।যা তাকে টেনে নিতে সক্ষম, আখিরাতে নিরাপদ আশ্রয়ে,প্রিয় রবের নৈকট্যে।
    .
    “আল আমছাল ফিল কুরআনিল কারীম ”
    নূরুন আলা নূর বইটিতে
    কুরআনে আল্লাহ তায়ালার দেয়া বিভিন্ন দৃষ্টান্ত যেমন,
    “আগুন ও পানি”,
    “দুনিয়া ও আখিরাতের জীবন “,
    ” মুশরিক ও মাকড়শার বাড়ি”,
    “মরীচিকা এবং সমুদ্রের ঢেউ”,
    ” হিদায়াত লাভের পর বিপথে চলার ফল”,
    “দাসত্বের মহিমা”,
    ” নিকৃষ্ট বাক্য এবং নিকৃষ্ট গাছ”,
    “মুশরিক এবং মাছি”,
    ” অপব্যয় এবং বালুঝড়” ইত্যাদি নিয়ে সুন্দরভাবে আলোচনা করা হয়েছে।
    নতুন কিছু জেনেছি, শিখেছি। আলহামদুলিল্লাহ।

    ছোট্ট বই। কয়েক বসায় পড়ে ফেলা যায়। কিন্তু অনেক কিছু জানার আছে। মাথা দিয়ে চিন্তা ও মন দিয়ে অনুভব করার ব্যাপার আছে।
    .
    বইটার ফ্রন্ট কাভার, মা শা, আল্লাহ, অনেক চিত্তাকর্ষক।

    দু এক জায়গায় বানান ভুল আছে, বাংলা। প্রিন্টিং মিস্টেক হতে পারে।
    আল্লাহ ভাল জানেন।যেমন, পেইজ ১৯ এ, বজ্র (বর্জ্য হবে খুব সম্ভবত) কিন্তু পড়তে অসুবিধা হয়নি। আলহামদুলিল্লাহ।
    .
    শেষে বলতে চাই, বইটা পড়ে আল-কুর’আনের কিছু উপমা, দৃষ্টান্ত সম্পর্কে গভীরভাবে জানতে পারবেন। যারা কুরআন নিয়ে চিন্তা করতে ভালবাসেন,তাদের জন্য বইটা মাস্ট রিড।সংগ্রহে রাখার মত একটি বই।
    অনুবাদক ও সীরাত টীমকে ধন্যবাদ, এমন একটি বই বাংলায় নিয়ে আসার জন্য। আল্লাহ আপনাদের উত্তম প্রতিদান দিন। আমিন।

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top