মেন্যু
mrittur opare ononter pothe

মৃত্যুর ওপারে: অনন্তের পথে

পৃষ্ঠা : 304, কভার : হার্ড কভার, সংস্করণ : 1st published 2020
ভাষা : বাংলা
অনুবাদ : আবদুন নুর সিরাজি সম্পাদনা : মুফতি মুহিউদ্দীন কাসেমী ‘ছলনাসুন্দর’পৃথিবীটাকে মানুষ কত সুন্দরভাবেই-না সাজায়! সেই স্বপ্নসজ্জিত পৃথিবীটা ছেড়ে তাকে চলে যেতে হয় একদিন। চলে যায় সবাই। তাতে ইচ্ছা-অনিচ্ছার কোনো ভূমিকা নেই,... আরো পড়ুন
পরিমাণ

288  400 (28% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
- ১,৪৯৯+ টাকার অর্ডারে সারাদেশে ফ্রি শিপিং!

প্রসাধনী প্রসাধনী প্রসাধনী

21 রিভিউ এবং রেটিং - মৃত্যুর ওপারে: অনন্তের পথে

4.9
Based on 21 reviews
5 star
90%
4 star
9%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    মৃত্যুর আকাঙ্ক্ষা করা নিষেধ। জাগতিক জীবনকে ঢেকে দেয় মৃত্যু নামক বিপদের আবরণ। আমরা এই বিপদকে ভয় পাই আবার এটার প্রস্তুতি না নিয়ে অবহেলার সাগরে নিমজ্জিত হই। তাই সৎ কাজের প্রয়োজন।আনুগত্যকারী হিসেবেই যেন পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করতে পারি,এটাই কামনা করা উচিৎ। চরিত্র ও কর্মকে আত্মস্থ করা, আখিরাতের জীবনকে বেশি পরিমাণে মনে রাখাই সচেতন জ্ঞানীর কাজ। এই জগৎ পরীক্ষার কেন্দ্র, তাই অক্ষম হয়ে প্রবৃত্তির গোলামী না করে মুত্তাকী হিসেবেই নিজেকে গড়ে তুলতে হবে। অধিকহারে ইস্তেগফার পড়তে হবে। ফলশ্রুতিতে ইবাদাতে মনযোগ বাড়বে। সোনালী যুগের সোনালী মানুষগুলো মৃত্যু যন্ত্রণা এবং বিচারের মুখোমুখি হওয়াকে অনেক ভয় পেত, সেই অনুযায়ী ইবাদাতও করতো।
    নিজের ভিতরে আল্লাহভীতি আনার অন্যতম উপায় হলো- কবর যিয়ারত করা। কবর যিয়ারত ঈমানের ভঙ্গুরতা দূর করে আমলে সচেতনতা নিয়ে আসে।
    মৃত্যু যন্ত্রণা কাউকে ছেড়ে কথা বলেনি, এমনকি নবী-রাসূলগণও। আমাদের সমাজের রীতি হলো-মৃত্যু পথযাত্রীকে বার বার জিজ্ঞেস করা, চিনতে পারছেন কিনা? কিন্তু ইসলামী অনুশাসন হলো- সেই সময়ে কালিমা তালকীন করা।আমরা তা অবলীলায় ভুলে যাচ্ছি।
    সংক্ষিপ্ত পিডিএফ পড়ে উপরিউক্ত বিষয়গুলোর সাথে জানতে পারি মৃত্যু পথযাত্রীর সাথে মানুষের করণীয় কী? মৃত্যুকালীন যন্ত্রণার ভয়াবহতা। যা পরকালীন জীবন সম্পর্কে মানুষকে ভাবিয়ে তুলবে।
    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    :

    প্রতিনিয়ত যে চিরন্তন সত্য থেকে আমরা পালিয়ে বাঁচতে চাই তার নাম ‘মৃত্যু’। প্রতিদিন কত মানুষের মৃত্যু দেখি,কাফন দেখি,জানাযা দেখি এবং দেখি দাফন তবুও কখনো একটি বার চিন্তা করি না আমাদের সাথেও একদিন ঘটবে এ পরিনতি। যাত্রা হবে অনন্তের পথে।

    পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ মানব মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকেও মৃত্যু যন্ত্রণা পাকড়াও করেছিল। এ মৃত্যু যন্ত্রণা এতটাই কঠিন খোদ রাসূলের মুখ থেকে বের হয়েছিল-
    ‘নিশ্চয়ই মৃত্যু যন্ত্রণা খুবই কঠিন।’

    এ মৃত্যুতেই সব শেষ নয়। মৃত্যু এমন একটা স্টেশন যেখান থেকে অনন্তের পথে যাত্রা শুরু হয়। এ যাত্রার পথে পথে রয়েছে পুনরুত্থান,হাশর,পুলসিরাত,কিয়ামত, জান্নাত অথবা জাহান্নামের মত ভয়ানক সব জায়গা।

    এ যাত্রার বিস্তারিত জানিয়ে ইমাম কুরতুবি রাহিমাহুল্লাহর বই ‘মুখতাসারু কিতাবিত তাজকিরাহ বি আহ-ওয়ালিল মাওতা ওয়া উমুরিল আখিরাহ’ বিখ্যাত বইটি অনুবাদ হয় ‘মুহাম্মদ পাবলিকেশন’ এর হাত ধরে যার চমৎকার বাংলা নাম দেওয়া হয়েছে-‘মৃত্যুর ওপারে; অনন্তের পথে’। বিশ্ব বিখ্যাত ইমাম কুরতুবি সম্পর্কে আমাদের অনেকেই জানেন তাই নতুন করে ওনার ব্যাপারে কিছু লিখছি না। আল্লাহ ওনাকে উত্তম জাযা দান করুন।

    বইটি অনুবাদ করেছেন প্রিয় অনুবাদক ‘আব্দুন নুর সিরাজি’। অনুবাদকের সহজ-সাবলীল এবং প্রাণবন্ত অনুবাদ বইটিকে আরো পাঠক সমাদৃত করতে সহায়ক হবে আশা করি।বইটি পড়তে পড়তে মৃত্যু থেকে কিয়ামত পর্যন্ত ধাপগুলো একের পর এক যেন চোখের সামনে ভেসে উঠবে। বইটি পড়ে পাথরসম অন্তরসমূহ ক্ষেপে উঠবে আর বিগলিত হবে আল্লাহর ভয়ে। পরকালীন জীবনের ভয়ে ইহকালের জীবনকে সুন্দর করে তুলে পরকালের পাথেয় সংগ্রহ করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে ইন শা আল্লাহ।

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 4 out of 5

    :

    ‘মৃত‍্যুর ওপারে : অনন্তের পথে’ এর নির্যাস:

    “পুলসিরাতের কথা আমরা সবাই জানি।একটা প্রশ্ন উদয় হয়,পুলসিরাত কি হিসাব-কিতাবের আগে নাকি পরে?হিসাব-কিতাব হয়ে গেলে তো পুলসিরাতের কোনো দরকার নেই।কারণ যার জাহান্নাম নিশ্চিত সে তো জাহান্নামেই যাবে ;আর যার জান্নাত নিশ্চিত সে তো জান্নাতেই যাবে।আর যদি হিসাব-কিতাবের আগে পুলসিরাত হয় তাহলে হিসাব-কিতাবের তো কোনো প্রয়োজন নেই।কারণ,জাহান্নামিরা পুলসিরাত পার হতে গিয়ে নিচে পড়ে জাহান্নামে চলে যাবে।আর জান্নাতিরা পুলসিরাত পার হয়ে জান্নাতে চলে যাবে।
    তাহলে মূল বিষয়টা কী?”
    কী,চিন্তায় পড়ে গেলেন?হাশর,পুলসিরাত,মীযান —এমন মৃত‍্যু-পরবর্তী জীবনের শুধু নাম জানা বিষয়গুলো নিয়ে অসংখ্য প্রশ্ন উদয় হয় আমাদের মনে যেগুলোর উত্তর আমাদের কাছে অজানা।সেসব অজানা ও বিস্ময়কর তথ‍্যের এক অনন্য ভাণ্ডার ‘মৃত‍্যুর ওপারে : অনন্তের পথে’বইটি।

    সূচিপত্রের আলাপন:

    সহজ- সাবলীল এক অনন্য ভাষাশৈলীর মাধ্যমে মোট দশটি মূল অধ‍্যায়ের ভিতরে ছোট ছোট পরিচ্ছদে সুসজ্জিত করা হয়েছে বইটিকে।আর তুলে ধরা হয়েছে মৃত্যুর প্রস্তুতি, মুমিন ও কাফির ব‍্যক্তির মৃত্যুর লক্ষণ,কবরের জীবন,কবরের আযাব ও শান্তি,সিঙায় ফুঁৎকার, মানুষ ও জ্বিনের বিনাশ ও
    পুনরুত্থান,হাশর,পুলসিরাতসহ মৃত্যু-পরবর্তী নানান দিক। এছাড়াও কিয়ামতের বর্ণনা ও আলামত,জান্নাতের বিবরণী,জাহান্নামের ভয়াবহতা ও মুক্তির উপায়,বর্তমানের এই সংকটকালে সমসাময়িক ফিতনা থেকে সতর্কতা—কী নেই এ বইটিতে!

    বই আলাপন:

    সকল প্রাণীকেই ‘স্বাদ বিনষ্টকারী’ মৃত‍্যুর স্বাদ গ্রহণ করতে হবে। আর এই মৃত্যু অবধারিত বিষয় হলেও আমাদের জল্পনা-কল্পনায় ‘মৃত্যু’ শব্দটি ঘিরে শুধুই ভয় আর ভয়। আশ্চর্যের ব‍্যাপার এটাই,মৃত‍্যুকে ভয় পাই ঠিকই কিন্তু মৃত্যুর ওপারের পাথেয় সঞ্চয়ের বেলায় আমাদের বড়ই অনীহা,অবহেলা।মৃত‍্যু-পরবর্তী জীবনের নানান বিষয়ের নাম জানলেও এসম্পর্কে বিস্তারিত ও সুস্পষ্ট ধারণা না থাকায়;আসলে একজন প্রকৃত মুমিনের হৃদয়ে যে মৃত্যু-ভয় কাজ করে তা আমাদের মাঝে অনুপস্থিত।আর একারণেই আজ আমরা নানান ফিতনা-ফ‍্যাসাদের অন্ধকারে নিমজ্জিত। আর এ অন্ধকার দূর করে আমাদের অনন্তের যাত্রাপথকে আলোকিত করার এক অনন্য প্রয়াস ‘মৃত্যুর ওপারে: অনন্তের পথে’বইটি।অনন্তের যাত্রার সূচনা– ‘মৃত‍্যু’থেকে শুরু করে শেষ আবাসস্থল– ‘জান্নাত বা জাহান্নাম’পর্যন্ত প্রায় প্রতিটি বিষয়েই আলোকপাত করা হয়েছে এ বইটিতে।

    লেখক ও অনুবাদক পরিচিতি:

    ‘তাফসীরে কুরতুবি’ সহ বহু বিখ্যাত গ্রন্থের রচয়িতা মহান ইমাম ‘ইমাম কুরতুবি রহিমাহুল্লাহ ‘ রচিত গ্রন্থ ‘মুখতাসারু কিতাবিত-তাজকিরাহ বি আহওয়ালিল মাওতা ওয়া উমুরিল আখিরাহ’ গ্রন্থের সংক্ষেপিত অনুবাদ ‘মৃত্যুর ওপারে:অনন্তের পথে’বইটি।বইটি অনুবাদ করেছেন অনুবাদ জগতের বেশ পরিচিত ব‍্যক্তি,আবদুন নুর সিরাজি।

    ব‍্যক্তিগত অনুভূতি :

    সত‍্যিই, হৃদয়ে দাগ কাটতে,চক্ষু অশ্রুসিক্ত করতে,স্বাদ নষ্ট করতে এবং প্রত‍্যাশার অনিঃশেষ ধারা কর্তন করতে মৃত্যুই যথেষ্ট।বইটির শুধু একটুখানি অংশ পড়েছি কিন্তু তাতেই আমার মধ্যে প্রচন্ড মৃত্যু-ভয় কাজ করেছে।কী এমন আমল আছে আমার যা নিয়ে রবের সামনে দাঁড়াবো!!!কী আমলের ওপর ভর করে মৃত্যুর পরের সেই কঠিন স্তরগুলো অতিক্রম করবো!!!
    শর্ট পিডিএফ পড়ে আমার অনুধাবন, এ বইটি পাঠকের হৃদয়ের খোরাক যোগাবে,মৃত‍্যুর পরের জীবন সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা প্রদান করবে। আমাদের অনন্ত পথের যাত্রা এবং চূড়ান্ত গন্তব্য বর্ণাঢ্য ও সাফল্যমণ্ডিত করতে এ বইটি অত্যন্ত সহায়ক ও কার্যকরী হবে ইন শা আল্লাহ্।

    যা কিছু ভালো লেগেছে :

    বিষয়বস্তু অনুসারে বইটির গভীর অর্থবহ নামকরণ সার্থক হয়েছে। চমৎকার ভাষাশৈলী,সাবলীল অনুবাদ এবং আকর্ষণীয় বিন‍্যাস বইটিকে করেছে অনন্য।প্রচ্ছদও খুবই চমৎকার। আর কুরআনের আয়াত,সহীহ হাদীস ও সালাফদের কথামালায় সুসজ্জিত ও একইসাথে বলীয়ান হয়েছে প্রতিটি অধ‍্যায়।
    পরিশেষে,
    মহান আল্লাহ্ লেখক,অনুবাদক,প্রকাশনী ও এ বইটির স্বার্থে নিয়োজিত সকল ব‍্যক্তিবর্গের এ অনন্য প্রয়াস ও পরিশ্রমকে ইসলামের জন্য কবুল করে নিন। আমীন।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    :

    মৃত্যু মহান আল্লাহর পক্ষ থেকে আসা এমনই এক মহাসত্য যে, কোনো মানুষই এই সত্যকে অস্বীকার করতে পারে না; চাই সে স্রষ্টাকে মানুক কিংবা না মানুক। মুসলিমদের জন্য কিয়ামত দিবসের প্রতি ইমান রাখা ফরজ। আর মৃত্যুই হলো একজন মানুষের জন্য এই কিয়ামতের সূচনাবিন্দু। তাই আমাদের মৃত্যু, কবরের আজাব, হাশর, জান্নাত-জাহান্নাম ও সমগ্র কিয়ামত বিষয়ে কিছুটা হলেও ধারণা রাখা প্রয়োজন; যেহেতু আমাদের অবশ্যই এর মুখোমুখি হওয়া লাগবে।

    ইমাম কুরতুবি রাহিমাহুল্লাহ মুসলিম জগতের একজন সর্বজনবিদিত মনীষী। তাঁর রচিত তাফসীরে কুরতুবি অত্যন্ত প্রসিদ্ধ। তিনি কিয়ামত দিবসের ওপর আরবি ভাষায় ‘মুখতাসারু কিতাবিত-তাজকিরাহ বি-আহওয়ালিল মাওতা ওয়া উমুরিল আখিরাহ’ নামে প্রায় ১৫০০ পৃষ্ঠার বিশাল এক গ্রন্থ লিখেছেন। এত বড় সাইজের গ্রন্থ পাঠ করতে আমাদের মতো সাধারণ মানুষকে গলদঘর্ম হতে হবে বিবেচনায় ড. আহমদ বিন উসমান-আল মাজিদ গ্রন্থটিকে সংক্ষিপ্ত করেছেন। এবং আমাদের হাতে মুহাম্মদ পাবলিকেশনের যে অনুবাদের পিডিএফ তা এই সংক্ষিপ্ত গ্রন্থেরই।

    সাধারণত মৃত্যু পরবর্তী জীবন নিয়ে আমাদের একপ্রকার অজ্ঞতা থেকে যায়। বিশেষ করে আমরা যারা সাধারণ শিক্ষায় শিক্ষিত, তারা এই বিষয়ে নিচের ক্লাসে পঠিত কিছু শব্দই শুধু শিখে এসেছি; বিস্তারিত জানার আর সুযোগ হয়নি। আলহামদুলিল্লাহ। ইমাম কুরতুবি রহ. অত্যন্ত সুন্দরভাবে বিষয়টাকে পবিত্র কুরআন এবং হাদীসের আলোকে আমাদের সামনে উপস্থাপন করেছেন।

    সম্পূর্ণ গ্রন্থ মোট দশটি অধ্যায়ে বিভক্ত। প্রত্যেক অধ্যায়ে ভিন্ন ভিন্ন শিরোনামে অনেকগুলো করে পরিচ্ছেদ যুক্ত করা হয়েছে। এবং সেখানে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। অধ্যায়গুলো হলো- মৃত্যু, কবর, সিঙায় ফুঁৎকার, মানুষ ও জিনের বিনাশ ও পুনরুত্থান, হাশর, পুলসিরাত, জাহান্নাম, জান্নাত, ফিতনা, কিয়ামত, কিয়ামতের পূর্বে সংঘটিতব্য অন্যতম ও শেষ দশটি আলামত।

    চমৎকার ও সাবলীল অনুবাদে পাঠকদের ‘মৃত্যুর ওপারে: অনন্তের পথে’ গ্রন্থটি পড়তে মোটেও বেগ পেতে হবে না। বাংলা অনুবাদে গ্রন্থের নামকরণ বেশ পছন্দ হয়েছে। কিয়ামতের আলামত বিষয়ে একেবারে শেষে আলোচনা করা হয়েছে। বিষয়টা আমার কাছে কিছুটা ব্যতিক্রম মনে হয়েছে। সূচীপত্রে প্রত্যেক অধ্যায় এবং অনুচ্ছেদের সঙ্গে পৃষ্ঠা নাম্বার উল্লেখ থাকলে পাঠকদের জন্য কাঙ্ক্ষিত বিষয়বস্তু খুঁজে পেতে সুবিধা হতো। প্রচ্ছদটা বেশ ভালো লেগেছে।
    সবমিলিয়ে চমৎকার একটি গ্রন্থ আমাদের উপহার দিয়েছে মুহাম্মদ পাবলিকেশন। আল্লাহ তাদের এ খেদমতকে কবুল করুন।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  5. 5 out of 5

    :

    লেখক পরিচিতি :
    ‘তাফসীরে কুরতুবি’ সহ বহু বিখ্যাত গ্রন্থের রচিয়তা ‘ইমাম কুরতুবি রহিমাহুল্লাহ ‘ রচিত গ্রন্থ ‘মুখতাসারু-কিতাবিত-তাজকিরাহ বি আহওয়ালিল মাওতা ওয়া উমুরিল আখিরাহ’ গ্রন্থের অবলম্বনেই অনুবাদকৃত ‘মৃত্যুর ওপারে : অনন্তের পথে’।

    বই আলাপন :
    আকর্ষণীয় বর্ণনাশৈলী, সাবলীল ভাষারীতিতে অনুবাদক সংক্ষিপ্ত আকারে বর্ণনা করেছেন বিশাল এক যাত্রা সম্পর্কে মৃত্যু- কবর- পুনরুত্থান- হাশর- পুলসিরাত- জাহান্নাম- জান্নাত- ফিতনা- কিয়ামত। সংক্ষিপ্ত অর্থ এই নয় যে বইটিতে কিছু অংশ উল্লেখ করা হয়নি। বইটি সংক্ষিপ্ত হলে তাতে রয়েছে কুরআনের আয়াত, হাদীস আর সালাফদের কথামালায় সাজানো এক অমূল্য রত্নভান্ডার।

    কিছু কথা :
    এটি কোনো গল্পের বই নয়। রং তামাশার দুনিয়ায় এক তিক্ত সত্য মৃত্যু ও মৃত্যুর পরবর্তী জীবন নিয়ে লেখা একটি বই। দুনিয়া হাসিলের জন্য, এক চিলতে সুখের জন্য আমরা নিজের দেশ ছেড়ে উন্নত বিশ্বের দিকে যাত্রা শুরু করি। অথচ ভবিষ্যতের সব কিছুই অনিশ্চিত কিন্তু মৃত্যু নিশ্চিত। আর আমরা কখনোই ভাবিনা মৃত্যু নিয়ে বা মৃত্যুর পরবর্তী জীবন নিয়ে অথবা ভাবিনা মৃত্যুর আগ মুহূর্ত কেমন হবে আমাদের অবস্থা? আর আল্লাহ বলেন,“মৃত্যু যন্ত্রণা নিশ্চিত আসবে”( সূরা কাফ-১৯)। হাসান বসরি(রহ.) বলেন__” হে আদম সন্তান তুমিতো একাকী মৃত্যু বরণ করবে। রবের নিকট দাঁড়াবে একাই, একাই তুমি তোমার হিসাবের সম্মুখীন হবে”।

    ভালোলাগা :
    ব্যক্তিগত ভাবে শর্ট পিডিএফ টি পড়ে অত্যন্ত মুগ্ধ হয়েছি। বইটিতে হার্ডকাভার ব্যবহার করা হয়েছে এবং বইটির দাম ও সকলের নাগালের মধ্যে আলহামদুলিল্লাহ । অল্প সময়ে মৃত্যু থেকে পরবর্তী জীবন সম্পর্কে বিস্তারিত জানার একটি মাস্টারপিস বই হবে ইনশাআল্লাহ। মুহাম্মাদ পাবলিকেশন প্রকাশনী নিয়ে নতুন করে কিছুই বলার নেই। শুরু থেকেই পাঠকের মন জয় করে আসছে।

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No