মেন্যু


লাভ এন্ড রেসপেক্ট (নীল কভার)

পৃষ্ঠা : 224, কভার : পেপার ব্যাক, সংস্করণ : 1st published 2020

দাম্পত্য জীবনের ওপর বিখ্যাত বই। দাম্পত্য সম্পর্কের ওপর তিন দশকের কাউন্সেলিংয়ের অভিজ্ঞতার নির্যাস দিয়ে ড. এমারসন এগারিচেস বইটিতে এঁকেছেন স্বামী-স্ত্রীর নীল-গোলাপি সম্পর্কের রসায়নগাঁথা। স্বামী স্ত্রীর সাইকোলজি কীভাবে কাজ করে? সেই সাইকোলজিকে কীভাবে ইতিবাচকভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যায়? –তার একটি চমৎকার পাঠ অপেক্ষা করছে আপনার জন্য। অ্যামাজনে এ বইয়ের রেটিং সংখ্যা অবিশ্বাস্য রকমের ওপরে, তিনহাজার ছাড়িয়ে গেছে রেটিংয়ের সংখ্যা!!

বিবাহেচ্ছু, বিবাহিত সুখী যুগল, অসুখী স্বামী স্ত্রী সবার জন্য বইটি হতে পারে সুখপাঠ্য এবং উপকারী। দাম্পত্য জীবনের অজানা রহস্যাদি জেনে সম্পর্ককে আরও সুখময়, প্রাণবন্ত করে নিতে কাছে রাখতে পারেন বইটি।

 

পরিমাণ

224  320 (30% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

1 রিভিউ এবং রেটিং - লাভ এন্ড রেসপেক্ট (নীল কভার)

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    “লাভ অ্যান্ড রেসপেক্ট” বই সম্পর্কে প্রচ্ছদ প্রকাশন-এর ব্রান্ড অ্যম্বাসেডর ইয়াসির ক্বাদির রিভিউ

    ড. এমারসনের Love & Respect. বইয়ের ট্যাগলাইন হলো,

    The Love She Most Desires, The Respect He Desperately Needs. অর্থাৎ দাম্পত্য জীবনে নারী ভালোবাসা পেতে চায়, সান্নিধ্য চায় আর পুরুষের সম্মান প্রাপ্তির তীব্র আয়োজন।

    লেখক রোমন্থন করে অাবছা শৈশব ও কৈশোরে ফিরে যান। তিনি বর্ণনা করে চলেন এক বছর বয়স থেকে যৌবন পর্যন্ত তার বাবা-মায়ের সম্পর্কের ধরন। একবারে প্রথম অধ্যায়ে তিনি লিখেন, My mom was crying out for love and my dad desperately wanted respect.

    বইটি সম্পর্কে ড. ইয়াসির ক্বাদি নিম্নোক্ত মন্তব্য করেন,

    “অ্যামাজনে বিয়ে-সম্পর্ক নিয়ে বেস্ট সেলার বইগুলোর মধ্যে অন্যতম এই বইটি। অ্যামাজনে রেটিং সিস্টেম রয়েছে। এ বইতে রেটিং পড়েছে তিন হাজারেরও বেশি (বর্তমানে রেটিং সংখ্যা ৫৬৫৬-তে এসে পৌঁছছে)। কোনো বই সম্পর্কে অ্যামাজনে এমন আকাশচুম্বি রেটিং শোনা যায় না। অ্যামাজন সবার জন্য উন্মুক্ত একটি প্লাটফর্ম। এখানকার অধিকাংশ ভিজিটর অমুসলিম। এমন একটি বইয়ে একশ রেটিং পড়াই বড়ো বিষয়। অধিকাংশ লোকজনই বইয়ে রেটিং দেয় না। তিন হাজার রেটিং-এর মধ্যে অধিকাংশই ফাইভ স্টার রেটিং দিয়েছে।

    এটা যেকোনো সাইকিয়াট্রিস্ট কর্তৃক লিখিত জনপ্রিয় বইগুলোর মধ্যে অন্যতম। এটি লিখিত হয়েছে বিয়ের অনিন্দ্য সম্পর্ক নিয়ে। এই বই আমার বাসায় আছে। আমার বিয়ে সংক্রান্ত কিছু ক্লাসে এর সারাংশ বর্ণনা করেছি। আপনি যত খুশি বলতে পারেন যে, নারী পুরুষ সবাই সমান; নারী-পুরুষের ধারণা সমাজের তৈরি, এর কোনো বাস্তব অস্তিত্ব নেই। কিন্তু তা বলার মাধ্যমে আপনি নারী পুরুষের স্বভাবজাত প্রবণতা পরিবর্তন করতে পারবেন না, কারণ আল্লাহ তায়ালা তাদের এভাবে স্বতন্ত্র বৈশিষ্ট্যসহ সৃষ্টি করেছেন। নারীরা স্বামীর ভালোবাসা ও প্রশংসা পেতে পছন্দ করে। অন্যদিকে পুরুষ স্ত্রীদের থেকে ভালোবাসা ও সম্মান প্রত্যাশা করেন। এই বইয়ের বিবরণ তাই বলছে। সম্মানের মানে স্বামীর সামনে মাথা নত করে থাকা নয়; আক্ষরিকভাবে স্বামীর ইবাদত করা নয়। সম্মান করা মানে স্বামীর প্রতি আস্থা রাখা; স্বামীর কাজকে পরিবারের কল্যাণে সম্পাদিত বলে বিশ্বাস রাখা।”

    2 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No