মেন্যু
১০০০ টাকার পণ্য কিনলে সারা দেশে ডেলিভারি একদম ফ্রি।

কয়েদী ৩৪৫ গুয়ান্তানামোতে ছয় বছর (পেপারব্যাক)

মূলঃ সামি আলহায
ভাষান্তরঃ মুহসিন আব্দুল্লাহ
পৃষ্ঠাসংখ্যাঃ ১৯০

২০০১ সাল। আফগানিস্তানে আমেরিকা জোট আক্রমন শুরু করেছে। স্বাভাবিক ভাবেই সাংবাদিকদের কাজ হলো এতো বড় ঘটনা বিশ্ববাসীকে জানিয়ে দেওয়া। সামি আলহায ছিলেন বহুল পরিচিত গণমাধ্যম আলজাজিরা মিডিয়া নেটওয়ার্কের ফটোজার্নালিস্ট। অফিস থেকে আফগানিস্তানের সংবাদ কভার করতে পাঠিয়ে দেওয়া হলো সামি আলহাযকে। কিন্তু পাক সীমান্তে আটকে গেলেন তিনি। নানা নাটকীয়তার পরে অবশেষে সামিকে তুলে (কিংবা বিক্রি করে) দেওয়া হলো মার্কিন বাহিনীর কাছে। অকথ্য নির্যাতনের মাধ্যমেই একজন সাংবাদিক সামি আলহাযকে স্বাগত জানালো মানবতাবাদী (!) মার্কিন সেনারা। এরপর একসময় পাঠিয়ে দেওয়া হলো কুখ্যাত গুয়ান্তানামো বে কারাগারে। অত্যাচারের স্টিম রোলার চালানো হলো। নূন্যতম মৌলিক অধিকারগুলো থেকে বঞ্চিত করা হলো। একে একে জীবন থেকে অন্যায়ভাবে কেড়ে নিলো ছয় ছয়টি বসন্ত। অতঃপর বলা হলো, “আমরা সত্যিই দুঃখিত, তোমার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নেই”

সামি আলহায একজন অকুতোভয় কয়েদী। তাকে আমেরিকা বন্দি করেছিল ঠিকই কিন্তু তার মনকে বন্দী করার সক্ষমতা ছিল না কারো। সামিকে বন্দি করেছিল ঠিকই কিন্তু হার মানাতে পারেনি। “কয়েদী ৩৪৫” শুধু একটি বই নয় এটি একটি জীবন্ত ইতিহাস। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সযত্নে লুকিয়ে রাখা এক মিথ্যার মুখোশ উন্মোচন। সামির আইনজীবির ভাষায় গুয়ান্তানামো সম্পর্কে সবচেয়ে নিখাদ বর্ণনা এই বইটি। সামির সাহস পথ দেখাবে আগামী প্রজন্মকে। সামির লেখনি শক্তি যোগাবে লাখো সাংবাদিককে নির্ভীক হতে।

প্রকাশক
প্রজন্ম পাবলিকেশন

Out of stock

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

1 রিভিউ এবং রেটিং - কয়েদী ৩৪৫ গুয়ান্তানামোতে ছয় বছর (পেপারব্যাক)

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    বই-কয়েদি ৩৪৫
    লেখক- সামি আলহায
    ভাষান্তর- মুহসিন আব্দুল্লাহ
    প্রজন্ম প্রকাশনা
    মুল্য-২৩৫

    আমেরিকার গুয়ান্তানামোতে কারাগারে ছয় বছরের নির্মম অভিজ্ঞতার বর্ণনা করেছেন সাংবাদিক ‘সামি আলহায’।

    বইটি প্রথম পড়েছিলাম রাজশাহী থেকে ময়মনসিংহে আসার পথে ৷ আমি জার্নির সময় প্রায় বই পড়ি, নতুবা ঘুমায়।
    তবে ঘটনা হলো বইটির শুরু থেকে শেষ অব্দি আমি পড়েছি এবং কেঁদেছি। যেন ঘটনা গুলো আমার চোখের সামনে ভাসছে। কারাগারে জীবন সম্পর্কে জানার অনেক ইচ্ছা ছিলো, তবে কারাগারে জিবন যে এমন হয় কোনো ধারণা ছিলো না। মানুষ ও যে এত নিষ্ঠুর হতে পারে! এত অমানবিক নির্যাতনও করতে পারে! আমার কল্পনা তে কখনো আসেনি।

    এই বই সম্পর্কে কিছু লেখার কোনো ভাষা ই আমার জানা নাই।
    তাই লেখকের কথা গুলো ই তুলে ধরলাম…
    গুয়ান্তানামো নিয়ে সংক্ষেপে যদি বলি তবে বলতে হয় গুয়ান্তানামো আমার একার গল্প নয়। সেখানে আট শতাধিক কয়েদী। নরক তুল্য কারাগার। প্রত্যেককেই নিজের মতো করে সংগ্রাম করতে হয় । প্রত্যেকেরই আলাদা গল্প রয়েছে। একসাথে আমরা থেকেছি। একি কষ্টে পুড়েছি। একই অবিচার। অত্যাচার এর মুখোমুখি হয়েছি। একি লাঞ্ছনা সয়েছি। একই যন্ত্রনা ভোগ করেছি।

    মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সযত্নে লুকিয়ে রাখা এক মিথ্যার মুখোশ উন্মোচন গত ১৫ টি বছর ধরে লুকিয়ে রাখা ভয়ানক এক কারাগার সম্পর্কে সবচেয়ে নিখুঁত বর্ণনা রয়েছে এই বইটিতে।

    যদি জানতে চান শত কষ্ট, নির্যাতন সহ্য করেও কিভাবে ঈমানের পথে অটুট থাকা যায়। তবে বলবো একবার হলেও বইটি পড়েন। কারণ বইটি ঈমান বৃদ্ধি করার মতো বই। লেখক ছয় বছর কারাগারে থেকে আসার পর বইটি লিখেন।

    2 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?