মেন্যু


কিতাবুল ফিতান (২য় খণ্ড)

প্রকাশনী : পথিক প্রকাশন
বিষয় : আল হাদিস

অনুবাদ ও সংক্ষিপ্ত ব্যাখ্যা : মুফতি মাহদী খান
তাহকিক : শাইখ আহমাদ রিফআত ও শাইখ মানজুরুল কারীম
সম্পাদনা : শাইখ মানজুরুল কারীম ও সাইফুল্লাহ আল মাহমুদ
পৃষ্ঠা সংখ্যা : ৩৮৪
বইয়ের ধরণ : হার্ডকভার

বর্তমান যুগটি ফিতনার। যেন অন্ধকার রাতের মত একেকটা ফিতনা আমাদের গ্রাস করে নিচ্ছে। আমাদের ব্যক্তিগত জীবন, পারিবারিক জীবন, সামাজিক জীবন, রাষ্ট্রীয় জীবন ও আন্তর্জাতিক জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে রয়েছে ফিতনার আনাগোনা।

কেউ যদি ফিতনা সম্পর্কেই না জানে, তবে সে কীভাবে নিজেকে বাঁচাবে ফিতনা থেকে? কীভাবে বাঁচাবে পরিবার-পরিজন ও সমাজকে? আর শেষ যামানার ফিতনাগুলো এতোই ভয়াবহ যে– একজন লোক দিনের প্রারম্ভে মুসলিম থাকবে, কিন্তু দিন শেষে সে পরিণত হবে কাফিরে।আমাদেরকে রাসূলে কারীম ﷺ ১৪শ বছর আগে ফিতনা সম্পর্কে সচেতন করেছেন; আর আমরা এখনো ঘুমিয়ে আছি গাফলতের চাদর মুড়িয়ে। আমরা এখনো স্বপ্ন দেখছি দুনিয়ার ভোগ-বিলাস ও সুখ-সমৃদ্ধি নিয়ে! অথচ ফিতনা আমাদের দরজায় কড়া নাড়ছে।ফিতনা সম্পর্কে রাসূল সা. এর ভবিষ্যতবাণী জানতে ও ফিতনার যুগে করণীয় সম্পর্কে জানতে নুআইম বিন হাম্মাদ রচিত কিতাবুল ফিতান বইটি হতে পারে সত্যের পথিকদের পথের দিশারী। যারা ফিতনা সম্পর্কে জানতে চান ও সতর্ক হতে চান, তাদের জন্য বইটি হবে অনন্য।

অনূদিত বইটির বিশেষ বৈশিষ্ট্য:

১) বইয়ের শুরুতে হাদীস শাস্ত্র নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু আলোচনা আছে। যা একজন প্রাথমিক সত্যানুসন্ধানী পাঠকের আত্মার খোরাক হবে।
২) হাদীস শাস্ত্রের উৎপত্তি, ক্রমবিকাশ, হাদীস শাস্ত্রের পরিভাষার ব্যাখ্যা প্রভৃতি বিষয়গুলোর সাবলীল খোলাসা উল্লেখ করা হয়েছে।
৩) নুআইম বিন হাম্মাদের উপর আরোপিত অভিযোগের বাস্তবতা ও তার জবাব চমৎকারভাবে উপস্থাপিত হয়েছে।
৪) প্রতিটি হাদীসের মান, ক্ষেত্র বিশেষে রাবীদের পর্যালোচনা উল্লেখ করা হয়েছে।
৫) অস্পষ্ট অর্থ ও ইঙ্গিতবহ বর্ণনার সাথে যথাযথ ব্যাখ্যা উপস্থাপন করা হয়েছে।

১ম খণ্ড: কিতাবুল ফিতান
৩য় খণ্ড: কিতাবুল ফিতান (৩য় খণ্ড)

পরিমাণ

270  600 (55% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
- ১৪৯৯+ টাকার অর্ডারে সারাদেশে ফ্রি শিপিং!

2 রিভিউ এবং রেটিং - কিতাবুল ফিতান (২য় খণ্ড)

5.0
Based on 2 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    বই : কিতাবুল ফিতান (২য় খন্ড)
    লেখক : ইমাম নুয়ায়িম ইবনু হাম্মাদ (রহিমাহুল্লাহ্)
    অনুবাদ : মুফতি মাহ্দী খান
    সম্পাদনা : শাইখ আহমাদ রিফআত ও শাইখ মানজুরুল কারীম
    প্রকাশনী : পথিক প্রকাশন

    বইটি কেন পড়বেন?
    শেষ যামানার মধ্যেই আমাদের বসবাস। তাই এই বইটি আমাদের জন্য জ্ঞানের একটি মশাল হয়ে থাকার মত বই। শেষ যামানা, সেই সময়ের গতি প্রকৃতি, আলামত ইত্যাদি সম্পর্কে মুহাম্মাদ (স) বেশ কিছু হাদীস বর্ননা করে গেছেন। সকল হাদীস ই যে সহীহ ও পুরাপুরি ১০০% গ্রহনযোগ্য তা নয় তবে অনেক হাদীসই আমলযোগ্য। শেষ সময়ের নানা ঘটনা জানা থাকলে সে সম্পর্কে প্রস্তুতি গ্রহনে সহজ হয় এবং সেই সময়ে যদি উপস্থিত হয়েই যাই তাহলে তার ফিতনা মোকাবেলা বা নিজেকে বাঁচিয়ে রাখা সহজতর হয় এই ধরনের বই পড়ে রাখলে।

    মূল বিষয়বস্তুঃ
    মূলত ৩ টি খন্ডে শেষ সময়ের একটি এনসাইক্লোপিডিয়া বলা যায় বইটিকে। ফিতনা মোকাবেলায় প্রস্তুত থাকার জন্য এই বইটি হাতের কাছে রাখা যেতে পারে। বইয়ের পাতায় পাতায় চিত্রিত হয়েছে ভবিষ্যতে ঘটবে এমন ঘটনা। সেই সময়ের পরিবেশ পরিস্থিতি, নানা যুদ্ধ, ফিতনা, জয় পরাজয় ইত্যাদি আঁকা হয়েছে কালির তুলিতে। সকল হাদীসের ই রেফারেন্স, মান ও গ্রহনযোগ্যতার মাত্রা বর্ননা করে দেওয়ায় বইটি খুবই গ্রহনযোগ্যতা পেয়েছে আমলের ক্ষেত্রে এবং বাজারের অন্য ফিতান সংক্রান্ত বইগুলোর তুলনায় এগিয়ে গিয়েছে।

    পড়তে গিয়ে বারবার নিজেকে সেই সময়ে উপস্থিত মনে হয়েছে। সেসময়ের গৌরবময় দলে নিজেকে রাখার স্বপ্ন দেখিয়েছে এই বই। একদিকে সেই সময়ের ভয়াবহতা যেমন উদ্বিগ্ন করে মনকে তেমনি কিছু গৌরবময় নমুনার কথা জেনে আশান্বিত হয়ে ওঠে হৃদয়। এক কথায় ফিতান সম্পর্কিত একটি গ্রহনযোগ্য সামগ্রিক চিত্র তুলে ধরেছে এই বই।

    বই এর অনন্য বৈশিষ্ট্য সম্পর্কেঃ
    শেষ জামানার ফিতনা থেকে দূরে থেকে প্রস্তুতি, কার্যক্রম করার ক্ষেত্রে এই বইয়ের পাঠক অন্যদের থেকে এগিয়ে থাকবেন যোজন যোজন। বই পড়ে উপলব্ধির জায়গায় দাঁড়িয়ে আনমনেই দোয়া চলে আসবে, হাত উঠবে আল্লাহর দরবারে এর লেখক,প্রকাশক ও এই বইয়ের সাথে যারা জড়িত সকলের জন্য।

    বইটির উপযোগিতাঃ
    * সব ধরনের পাঠকের জন্য এই বইটি উপকারী কারন আমরা সবাই এখন শেষ যামানায় উপস্থিত। তাই ফিতানের বার্তা জানতে, সতর্ক হতে সব বয়সী মানুষের জন্য এটি উপকারী।
    * প্রতিটি বাড়িতে এই বইটি রাখা প্রয়োজন কারন এর বাসিন্দাদের মধ্যে একে অপরকে স্মরন করিয়ে দিতে পারবে। এক জনের পর আরেকজন উত্তরাধিকার হবে এই বইয়ের জ্ঞানের।
    * উপহার হিসাবে এই বইটি অসাধারন। যেকোন উপলক্ষ্যে, যে কাউকে এই বইটি উপহার দেয়া যায়।

    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    :

    #ওয়াফিলাইফ_পাঠকের_ভালোলাগা_জুলাই_২০২০

    #বই: কিতাবুল ফিতান (২য় খণ্ড)
    #লেখক: ইমাম নুআইম ইবনে হাম্মাদ (রাহিমাহুল্লাহ)

    #প্ররম্ভিকাঃ
    ফিতনা! শব্দটা আমরা সবাই কমবেশি শুনে থাকি। বলি দাজ্জালের ফিতনা, সুফিয়ানী ফিতনা, পরিবারের ফিতনা, সন্তান-সন্ততির ফিতনা আরও কত ফিতনা৷ কিন্তু কথা হলো এই ফিতনা আসলে কী? ফিতনা মানে কী? ফিতনা মানে বিপর্যয়, ফাসাদ, ঝগড়া, শিরক, কুফর। ফিতনার চূড়ান্ত পর্যায় কুফর। ফিতনায় আক্রান্ত হলে সেটা মানুষকে কুফরের দিকে নিয়ে যায়। কিন্তু এই ফিতনা থেকে বাঁচার উপায় কী? সাধারণত পরিবার ও সন্তান-সন্ততির ফিতনা দান-সাদকা, নফল ইবাদত দ্বারা কাফফারা হয়ে যায়। কিন্তু রাসুল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের ভবিষ্যৎ বানী করা শেষ যুগের ফিতনা আরও অন্যান্য ফিতনা থেকে বাঁচার উপায় কী? ১৪৫০ বছর আগেই নবিজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আমাদের এ সকল ফিতনা থেকে রক্ষার উপায় বাতলে দিয়েছেন। আমাদের কাজ শুধু তা জেনে সতর্ক থাকা। আর সতর্ক থাকার জন্যই আমাদের সালাফগণ অনেক শ্রম সাধনা করে হাদিস সমূহ সংকলন করেছেন। কিতাবুল ফিতান এদের মধ্যে অন্যতম একটি ফিতনা সংক্রান্ত হাদিস সংকলন গ্রন্থ।

    #বইটির_বিষয়বস্তুঃ
    বইটি শেষ যুগে সংগঠিত ফিতনা, এর সময় এবং ফিতনা থেকে নিজেকে আত্মরক্ষার হাদিস নিয়ে সংকলিত। রাসুল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ফিতনা সম্পর্কিত সকল বিষয়ের ভবিষ্যৎ বানী করে গিয়েছেন। তা থেকে নিজে এবং অন্যকে বাচানোর উপায় বলে দিয়েছেন আমাদের প্রিয় নবি (সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম)। সে বিষয়গুলো নিয়েই ইমাম নুআইম ইবনে হাম্মাদ (রাহিমাহুল্লাহ) একটি সতন্ত্র গ্রন্থ সংকলন করেছেন। বইটিতে শেষ যুগে সংগঠিত ফিতনার সকল হাদিস স্থান পেয়েছে।

    #সংকলক_সম্পর্কেঃ
    ইমাম নুআইম ইবনে হাম্মাদ (রাহিমাহুল্লাহ)-কে আমরা খুব বেশি চিনি না। কিন্তু ইমাম বুখারী রাহিমাহুল্লাহকে কে না চিনে? ইমাম বুখারী রাহিমাহুল্লাহকে চিনলেই ইমাম নুআইম ইবনে হাম্মাদ রাহিমাহুল্লাহকে চেনা যাবে। কারণ তিনি হচ্ছেন ইমাম বুখারী রাহিমাহুল্লাহর উস্তাদ। তাহলে তো তার জ্ঞান সম্পর্কে বলার প্রয়োজনই নেই৷ তবুও তার সম্পর্কে কিছু অভিযোগ রয়েছে। কিতাবুল ফিতান গ্রন্থের প্রথম খন্ডে অভিযোগ গুলো খন্ডন করা হয়েছে।

    #কারা_পড়বেন?
    যারা জাহেলি যুগের ফিতনা থেকে নিজেকে বাঁচাতে চান, কঠিন এই মুহুর্তের, কঠিন এই পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে চান তাদের জন্য বইটি৷ ফিতনা থেকে আত্মরক্ষার জন্য এমন হাদিসের বই দুর্লভ।

    #কেন_পড়া_প্রয়োজন?
    দজ্জালের ফিতনা সম্পর্কে সতর্ক করেননি এমন কোন নবি নেই। রাসুল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, “দাজ্জালের ফিতনার চেয়ে বড় কোন ফিতনা নেই। কিন্তু আমরা মনে করছি তাতো এখনও অনেক দেরি। না! আপনার ধারণা ভুল। তা সন্নিকটেই। কিতাবুল ফিতান বইটি পড়লে আপনি বুঝতে পারবেন তা কতটা সন্নিকটে! আপনি জনতে পারবেন কীভানে আপনি ফিতনার সাগরে হাবুডুবু খাচ্ছেন।

    #বি_দ্রঃ বইটি সম্পর্কে আরও অনেক কিছু বলার আছে। কিন্তু তাতে রিভিউ অনেক বড় হবে। ইনশাআল্লাহ বইটির তৃতীয় খন্ডের রিভিউতে বকি আলোচনা হবে।

    4 out of 4 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No