মেন্যু
১০০০ টাকার পণ্য কিনলে সারা দেশে ডেলিভারি একদম ফ্রি।

জিলহজ্জের উপহার

ভাষান্তর : উস্তায আব্দুল্লাহিল মা'মুন
সম্পাদনা : আতিয়া আবেদীন নাবিলা, উস্তায আবুল হাসানাত কাসিম, আফিয়া আবেদীন সাওদা, উস্তায আব্দুল্লাহ মাহমুদ
পৃষ্ঠা: ৮৮ (পেপার ব্যাক কভার)

জিলহজ মাস। বছরের এক পবিত্র ও মহিমান্বিত মাস। আল্লাহর নবি ইবরাহিম আলাইহিস সালাম তখন মরুভূমির দেশ মক্কায়। একদিন স্বপ্নে তিনি আদিষ্ট হলেন প্রিয়তম পুত্র ইসমাইলকে কুরবানি করতে হবে। স্বপ্নের কথা নিদ্বির্ধায় জানালেন আদরের সেই পুত্রকে। পুত্রের মুখে স্মিত হাসি। আনন্দিত কণ্ঠে বলে উঠল সে, ‘বাবা, আল্লাহ আপনাকে যে হুকুম দিয়েছেন তা যথাযথভাবে পালন করুন। এ কাজে আপনি আমায় ধৈর্যশীল পাবেন।’

আমরা ধৈর্যের এক পরাকাষ্ঠা দেখতে পাই পিতা ও পুত্রের সেই ঘটনায় যা ইসলামের ইতিহাসে সুবিদিত হয়ে থাকবে চিরকাল। যদিও সেদিন ইসমাইল আলাইহিস সালামকে কুরবানি করতে হয়নি, তবে আল্লাহর নামে কুরবানি তথা পশু উৎসর্গের রেওয়াজ আমাদের ধর্ম ও সংস্কৃতির অনুষঙ্গ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

সেদিনের সেই পবিত্র ঘটনা ঘটেছিল বছরের পবিত্র মাস জিলহজে। তাই জিলহজের মাহাত্ম্য, গুরুত্ব আর ফজিলত মুসলিমদের কাছে অপরিসীম। আর এ মাসেই সারা পৃথিবীর মানুষ কাবা প্রাঙ্গণে জড়ো হয় হজ সম্পাদনে। লাখো লাখো মুসল্লি অবস্থান করে মিনায়, ছুটে বেড়ায় সাফা-মারওয়ায়, পাথর ছুঁড়ে মারে মুযদালিফায় এবং যিয়ারত করে পবিত্র মদিনা-মুনাওয়ারায়। আল্লাহর ঘর তাওয়াফের তৃষ্ণা যাদের অন্তরে জিইয়ে থাকে, যারা স্বপ্নের ডালা সাজিয়ে রাখে সারাটি বছর ধরে। কেবল একটি বার তারা কাবাঘরের কালো গিলাফটি ছুঁয়ে দেখতে চান। তাদের কাছে জিলহজ মাস এক স্বপ্নছোঁয়ার মাস।

এই পবিত্র জিলহজ মাসকে ঘিরে আছে কিছু নির্দিষ্ট আমল, নির্দিষ্ট কিছু রীতিনীতি। সেই আমল এবং রীতিগুলো পালনে আছে অপরিমেয় সাওয়াব। মানুষ যাতে করে আমলের মাধ্যমে সেই সাওয়াবগুলো অর্জন করতে পারে, সঠিকভাবে বুঝতে পারে জিলহজের মাহাত্ম্য, সেজন্যেই আমাদের এবারের আয়োজন জিলহজের উপহার।

পরিমাণ

105.00  140.00 (25% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

1 রিভিউ এবং রেটিং - জিলহজ্জের উপহার

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5
    Rated 5 out of 5

    :

    উপহার ! শব্দটা শুনতেই একটা ভাল লাগা কাজ করে । আর সেই উপহার যদি হয় আরশের অধিপতির দেয়া, তবে সেই অনুভূতি কেমন হতে পারে- তা বলার অপেক্ষা রাখে না । মহান রব আমাদের জন্য জিলহজের এই ১০টি দিনকে উপহার হিসেবে প্রস্তুত করে রেখেছেন । আর এই ১০টি দিনে কিভাবে আমরা সাফল্য অর্জন করতে পারি, তা নিয়েই ড. খালিদ আবু শা’দি-র এই বই– “জিলহজের উপহার” ।

    ❒ বইয়ের আলোচ্য বিষয়—
     ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄
    বইটিতে জিলহজ মাসের ফজিলত, গুরুত্ব ও মাহাত্ন্য সম্পর্কে অত্যন্ত হৃদয়গ্রাহী ভাষায় তুলে ধরা হয়েছে । পাশাপাশি গুনাহগার হৃদয়কে আমলের প্রতি আগ্রহী করারও চেষ্টা করা হয়েছে । জিলহজের শ্রেষ্ঠ দিনগুলোর কর্ম পরিকল্পনাকে ৪টি ভাগে ভাগ করা হয়েছে । প্রতিটি আমলের জন্য নিয়ত ও ইবাদতের মান কেমন হওয়া উচিত সে সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে । প্রতিদিনের আমল-বিষয়ক “হারিয়ে যাওয়া সুন্নাহ্”-গুলোকে কিভাবে নিজেদের জীবনে প্রতিষ্ঠা করা যায় সে আলোচনাও উঠে এসেছে । আরো আছে হৃদয়গ্রাহী নাসিহা । যেটার শিরোনাম করা হয়েছে ” নাসিহার চাবুক” নামে । সর্বোপরি একজন আমলদার ব্যক্তির জন্য এই বইটি হতে পারে একটি গাইডলাইন ।

    ❒ বইটি কেন পড়বেন—
     ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄
    বইটি পড়তে গিয়ে একজন গাফিল বান্দা সংবিৎ ফিরে পাবে । তাই বছরের এই শ্রেষ্ঠ ১০টি দিনকে অবহেলা আর অলসতায় কাটাতে না চাইলে বইটি অবশ্যই পড়া উচিত । কিভাবে এই ১০টি দিনকে প্রোডাক্টিভ করতে পারেন, আমল আর ইবাদতের চাঁদরে মুড়ে কিভাবে অনন্য উচ্চতায় পৌছতে পারেন সে অনুপ্রেরণা খুঁজে পাবেন । জিলহজ মাসের নির্দিষ্ট আমল, রীতিনীতি এবং সাওয়াবগুলো সম্পর্কে জানতে পারবেন । পাঠকদের জন্য বইটির পাতায় পাতায় লেখক একরাশ অনুপ্রেরণার বীজ বুনেছেন । মোটকথা, এই মাসটা যে কতোটা গুরুত্বপূর্ণ পাঠকরা এই বইটা পড়ে তা উপলব্ধি করতে পারবে ।

    ❒ পাঠ্যানুভূতি—
     ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄
    বইটা যেদিন পড়েছিলাম সেদিন ছিল, শ্রাবণের মেঘলা দিন । বাইরে বৃষ্টি হচ্ছিল । দিন-রাতের বিরাম নেই, থেমে থেমে বৃষ্টি । কখনো মুষলধারে, কখনোবা গুড়িগুড়ি । বৃষ্টি বিলাস আর বইয়ের লেখাগুলো আমার হৃদয় অলিন্দে একটা অদ্ভুত মোহময় পরিবেশ সৃষ্টি করেছিল ৷ বইয়ের প্রতিটা লাইন থেকে যেন মুক্তো ঝরছিল । লেখকের হৃদয়গ্রাহী আহ্বান পাঠক হৃদয়কে আন্দোলিত করেছিল । বিশেষ করে “নাসিহার চাবুক” শিরোনামের আলোচনাগুলো হৃদয়ের ভিত নাড়িয়ে দিয়েছিল । বইটির অনুবাদ আর ভাষা সম্পাদনা দুটোই চমৎকার হয়েছে । শব্দচয়ন আর সাবলীল বাক্যগঠনে বইটি হয়ে উঠেছে সুখপাঠ্য । যেন সাহিত্যের পসরা সাজানো হয়েছে বইয়ে । জিলকদের শেষ সূর্যটা ডোবার আগে বইটা পড়তে পেরে খুবই আনন্দ লাগছিল । কারণ রমাদান মাসের মতো এই মাসটাকেও প্রবল আকাঙ্খা আর ভালোবাসার সাথে স্বাগতম জানাতে পারবো বলে ।

    প্রিয় পাঠক,
    যদি এই ১০টা দিনকে সাফল্যমন্ডিত করতে চান, আল্লাহর প্রিয় বান্দা হতে চান, তাহলে কেন পড়ছেন না এই বইটি ? বইটা অবশ্যই পড়ুন । দামও সাধ্যের মধ্যে । পারলে প্রিয়জনদেরকেও উপহার দিন । যেহেতু এটা একটা আমলের বই, তাই কেউ যদি বইটা পড়ে কোনো আমল করে তবে আপনিও আল্লাহর কাছে সমপরিমাণ প্রতিদান পাবেন, ইন শা আল্লাহ্ ।
    আল্লাহ্ আমাদের জানাকে আমলে পরিণত করার তৌফিক দান করুন, আমিন ।


    বইটি প্রকাশিত হয়েছে ‘সমকালীন প্রকাশন” থেকে ।
    পৃষ্ঠা সংখ্যা— ৮৬ ।
    প্রচ্ছদ মূল্য— ১৪০ টাকা ।
    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?