মেন্যু
itihaser kholnayok

ইতিহাসের খলনায়ক

প্রকাশনী : আরিশ প্রকাশন
পৃষ্ঠা : 176, কভার : হার্ড কভার, সংস্করণ : 1st Published, 2022
ইতিহাস আসলে মুদ্রার মতো। যার দুটি পিঠ রয়েছে। একদিক থেকে অন্যদিকটা সরাসরি দেখা যায় না। ইতিহাসের পাঠক মাত্রই জানেন, ইতিহাসের এক পিঠে আলো থাকলে অন্যদিকে থাকে অন্ধকার। এক প্রান্তে সত্য... আরো পড়ুন
পরিমাণ

204  340 (40% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

7 রিভিউ এবং রেটিং - ইতিহাসের খলনায়ক

4.9
Based on 7 reviews
5 star
85%
4 star
14%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    মিশেলা শারমিন:

    ““ইতিহাস একটি মুদ্রার মত। যার একপিঠে আলো থাকলে অপরপিঠে থাকে অন্ধকার। একপক্ষে নায়ক থাকলে প্রতিপক্ষে থাকে খলনায়ক৷”
    — ইমরান রাইহান

    ইতিহাস শব্দটির ওজন কেবল ইতিহাস দ্বারাই পরিমাপযোগ্য। সৃষ্টির সমবয়সী এই শব্দের সাথে জড়িয়ে আছে মানবসভ্যতার কত জানা অজানা অধ্যায়, যুদ্ধ-বিগ্রহ, জয়-পরাজয়, প্রাপ্তি-কুরবানি, নায়ক-খলনায়কের ইতিকথা।

    ইতিহাসের অলিগলিতে এমনই কিছু চরিত্র রয়েছে যারা রক্তের কালি দিয়ে মহাকালের খাতায় রচনা করে গেছে ধ্বংসযজ্ঞের উপাখ্যান। কেউবা আবার গোমরাহি আর নফসের তাড়নায় নিজের জাহান্নামের পথকে সুগম করেছে।
    ইসলামের সমৃদ্ধ ইতিহাসের তেমনই কিছু কুখ্যাত না-মানুষের সংক্ষিপ্ত জীবনী নিয়ে রচিত “ইতিহাসের খলনায়ক” বইটি।

    কুখ্যাত কেন বলছি? সেটা চেঙ্গিস খান, তৈমুর লং, আকবর, ড্রাকুলার মতো ব্যক্তিদের জীবনিতে চোখ বুলালেই জ্ঞাত হবে। স্বভাবতই পাশ্চাত্যের বয়ানে তারা কেউ-কেউ ইতিহাসের বীর সেনানায়ক (Greatest warriors) হিসেবেই পরিচিত।

    অথচ তাদের হাতে পতন হয়েছে সমরকন্দ, বুখারা, দামেশক, বাগদাদ, দিল্লী সহ অসংখ্য মুসলিম শহর ও সাম্রাজ্য। বইটিতে উঠে এসেছে তাদের পাশবিক গনহত্যার গা শিউরে ওঠা বর্ণনা।
    এছাড়া বইটি বলেছে গোমরাহী ও প্রবৃত্তির দাসত্বে পুরোপুরি নিমজ্জিত লোকেদের গল্প – আসওয়াদ আনাসি, মুসাইলামাতুল কাজ্জাব, মির্জা গোলাম আহমদ কাদিয়ানী। এরা যুদ্ধের মাধ্যমে মানুষ হত্যা না করলেও হত্যা করত তাদের ঈমান-আকীদা। লেখক ইতিহাস নিংড়ে সেই নববী যুগ থেকে উপমহাদেশে বৃটিশ শাসনকাল পর্যন্ত এরকম আরও নফসের গোলামদের জীবনি তুলে এনেছেন বইটিতে।

    বইটি আরো হতে পারে শাণিত মেধাবীদের প্রতি এক ফরমান।
    প্রখর মেধা এবং মেধার অপব্যবহারের এক বিরল সমন্বয় ছিল আকবর-দ্য-গ্রেট খ্যাত সম্রাটের জীবনে। মুক্তচিন্তা ও তার চর্চা ছিলো নেপথ্য কারণ। তার জীবনীও স্থান পেয়েছে খলনায়কদের হল-অফ-শেইমে।

    লেখক বইটি অর্পণ করেছেন যুগের আবুল ফজলদের। এ যেন লেখকের এক প্রহেলিকাময় উৎসর্গ, তাচ্ছিল্যভরা এক হুঁশিয়ার বার্তা। এ-যুগের আবুল ফজলদের জানতে বইটি অবশ্যই পড়তে হবে। দুষ্প্রাপ্য মণির আকাঙ্খায় এরকম আবুল ফজলদের মত বিষধরদের সংস্রব থেকে বাঁচার জন্য তাদেরকে চিনেতে হবে।
    ইতিহাসের কুখ্যাত খুনী, সিরিয়াল কিলারদের জীবনী নিয়ে অনেক বই থাকলেও বাংলায় ইসলামি ইতিহাসের খলনায়কদের জীবনী দুই মলাটের মধ্যে সম্ভবত এই প্রথম আবদ্ধ হল। তাছাড়া ইতিহাস পাঠ আমাদের জন্য জরুরিও। কারণ রাসুলুল্লাহ সাঃ বলছেন — “মুমিন একই গর্তে দুবার দংশিত হয়না ”

    ঐতিহাসিক ঘরানার বইয়ের বিশুদ্ধতা নিয়ে মনে দ্বিধা থাকতেই পারে। অসংখ্য গুরুত্বপূর্ণ কিতাবের রেফারেন্স বইটিতে যুক্ত রয়েছে। তবে লেখক সম্পর্কে ধারণা থাকলে তার প্রয়োজন হবেনা আশাকরি।

    ইমরান রাইহান হুজুরের লেখার সাথে যারা পরিচিত তারা জানেন উস্তাদের লেখার গতি অনেক দ্রুত এবং ক্ষিপ্র। অপ্রয়োজনীয় একঘেয়ে বর্ণনা নেই। নেই জোর করে উপমা কিংবা আবেগ দেয়ার চেষ্টা। যতটুকু প্রয়োজন ঠিক ততটুকুই। এছাড়া অত্যন্ত মাধুর্যপূর্ণ ও মূল্যবান একটা আলোচনা বইটির ভূমিকাংশে যুক্ত হয়েছে।

    তো, ইতিহাসপ্রেমীরা আর অপেক্ষা কীসের? ইতিহাসের খলনায়কেরা হাতছানি দিয়ে ডাকছে। খলনায়কের জগতে আপনাদের স্বাগতম!

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    ফয়সাল আদিব:

    ইতিহাসের পাতায় পাতায় যেমন রয়েছে নায়কদের পদচিহ্ন তেমনি রয়েছে খলনায়কদের রচিত অধ্যায়ও।নায়কেরা অন্ধকার ভেদ করে আলো ছিনিয়ে আনেন,সেই আলোয় আলোকিত করেন সমাজ।

    আর খলনায়করা সুন্দর,সুগঠিত এক সমাজ থেকে আলো কেড়ে নিয়ে রূপ দেয় অন্ধকারের,যেখানে রচিত হয় অসভ্যতা ও বর্বরতার কালো অধ্যায়।আবু জাহল,আবু লাহাব ছাড়াও অনেক খলনায়কদের মুখোমুখি হতে হয়েছে এই উম্মাহকে।কেন সেই খলনায়করা ইতিহাসে কুখ্যাত হয়ে আছেন তা নিয়েই মূলত বইটি লেখা।ইতিহাস প্রেমীদের জন্য প্রাথমিক বই হিসেবে অত্যন্ত সহায়ক একটি বই হবে বলে আশা করা যায়।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 4 out of 5

    abdullaafnan25:

    সংক্ষেপে অনেক খলনায়কদের ইতিহাস তুলে আনা হয়েছে। পাশাপাশি ইমরান রাইহানের যাদুময় লেখনি পাঠককে শেষপর্যন্ত ধরে রাখবে। এক কথায় অসাধারণ একটি বই।
    2 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    আমিন রায়হান:

    জাযাকাল্লাহ। আল্লাহ কলমকএ আরো শানিত করুক।
    4 out of 4 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  5. 5 out of 5

    নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক:

    বইটি প্রকাশের আগেই কর্তৃপক্ষের অনুরোধে ফাইল পড়ার সুযোগ হয়েছে। অসাধারণ একটি বই। শুরু করলে এক বসায় শেষ করার মত। আল্লাহ তায়ালা বইটিকে কবুল ফরমান।
    6 out of 6 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No