মেন্যু
১০০০ টাকার পণ্য কিনলে সারা দেশে ডেলিভারি একদম ফ্রি।

হিফয করতে হলে

ভাষান্তর : উস্তায আব্দুল্লাহ মাহমুদ
সম্পাদনা : উস্তায আকরাম হোসাইন

কুরআনের পরশে প্রতিটি বস্তুই পরিণত হয় পরম সম্মান ও মর্যাদার পাত্রে। যে-মাসে এ কুরআন অবতীর্ণ হয়েছে, সে-মাস অন্য মাসের চেয়ে অধিক সম্মানের। যে-রাতে এ কুরআন অবতীর্ণ হয়েছে সে-রাত অন্য রাতের তুলনায় অধিক মর্যাদার। যে-নবীর ওপর এ কুরআন অবতীর্ণ হয়েছে, তিনিই সকল নবীর পথিকৃৎ। অতএব, কুরআনের সংস্পর্শে এসে কুরআন অধ্যয়ন ও মুখস্থ করে একজন সাধারণ মানুষও পরিণত হন মহান ব্যক্তিত্বে। আর এভাবেই রচিত হয়েছিল ইসলামের ইতিহাসে কুরআন মুখস্থকরণের সোনালি অধ্যায়।

কীভাবে পবিত্র কুরআন ও হাদীস সহজে মুখস্থ করে তা স্থায়ীভাবে ধারণ করা যায় এবং এর সহায়ক উপায়সমূহ কী—এসব নিয়ে চমৎকার আলোচনার সমাবেশ ঘটেছে এই গ্রন্থখানিতে।

পরিমাণ

112.00  141.00 (21% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

7 রিভিউ এবং রেটিং - হিফয করতে হলে

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    বইটি এক কথায় অসাধারণ। বইটি সম্পর্ক গুরুত্বপূর্ণ বিষয় তুলে ধরছি।
    এই বইটি পড়ে আপনি কুরআন হিফয করার জন্য দারুণভাবে উৎসাহ লাভ করবেন। এর কারণ, কুরআন নাযিল হবার সময়কাল ও বর্তমান সময়ের মুসলিমদের জ্ঞানার্জনের মধ্যে যে আকাশ পাতাল তফাত আছে, তা বইটি না পড়লে জানতে পারবেন না।
    একটা ভুল ধারণা ভেঙে দিই। অনেকে ভাবতে পারেন যে বইটিতে হয়তো কুরআন মুখস্থ করা বা কোনটা আগে মুখস্থ করবো কোনটা পড়ে, কোথা থেকে মুখস্থ করলে ভাল হবে এরকম কিছু আছে। না ভাই, আসলে তা নেই। এই বইতে সেটাই পাবেন যা আপনাকে কুরআন হিফয করার জন্য দারুণভাবে উৎসাহ দেবে। আর এই উৎসাহটা না পেলে আপনি সাধারণভাবে কুরআন মুখস্থ করার আগ্রহ পাবেন না কোথাও। যারা কুরআন মুখস্থ করার উৎসাহ পেতে চান, তারা অবশ্যই বইটি পড়বেন।
    Was this review helpful to you?
  2. 5 out of 5

    :

    #ওয়াফিলাইফ_পাঠকের_ভাল_লাগা_সেপ্টেম্বর_২০২০

    যে সব আমলের মাধ্যমে খুব সহজে আল্লাহর নৈকট্য লাভ করা যায় এবং তার প্রিয়পাত্র হওয়া যায় সেগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো কুরআনুল কারীম হিফয করা। কারণ, কুরআনুল কারীম স্বয়ং আল্লাহ তাআলার কালাম, তার বাণী ও বিধান। আর আল্লাহর কালাম হিফয করার চেয়ে অধিক মর্যাদাবান আর কী হতে পারে?

    📓প্রারম্ভিকাঃ
    আমরা আমাদের মুসলিম জাতির ইতিহাসের দিকে লক্ষ করলে দেখতে পাই, মুখস্থকরণ মুসলিম জাতির ঐতিহ্য। মুখস্থকরণে মুসলিম জাতি যে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে, তা কখনও কোনো জাতি করতে সক্ষম হয়নি। এর প্রথম ভিত্তি স্থাপন করেন নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম। হিফয বা মুখস্থকরণ ব্যতীত কারও পক্ষেই জ্ঞানের রাজ্যে পদার্পণ করা সম্ভব নয়। মুখস্থকরণই জ্ঞান অর্জনের পূর্বশর্ত।

    📓বই আলাপনঃ
    আমরা অনেকেই মনে করি, জ্ঞানমূলক সকল বিষয়ই লিখিত হয়ে গেছে। প্রয়োজনের মূহুর্তে চাইলেই লিখিত গ্রন্থের শরণাপন্ন হতে পারি। সুতরাং, জ্ঞানমূলক বিষয় মুখস্থ করার পেছনে সময় নষ্ট না করে, সেগুলো বুঝে নেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ। বিশিষ্ট লেখক শাইখ আব্দুল কাইয়্যূম ইবনু মুহাম্মদ ইবনি নাসির হিফযের ক্ষেত্রে আমাদের এই প্রান্তিক ধারণা দূর করার জন্য এবং জ্ঞানের ভুবনে আমাদের অভিযাত্রাকে গতিশীল ও অর্থপূর্ণ করার লক্ষে ‘হিফয’ বইটি রচনা করেছেন। ছয় অধ্যায়ের বইটিতে রয়েছে –

    ১. হিফযের গুরুত্ব ও মাহাত্ম্য
    ২. বিস্ময়কর স্মরণশক্তি
    ৩. মুখস্থ করার পদ্ধতি
    ৪. হিফযের সহায়িকা
    ৫. কুরআনুল কারীম হিফয করার ফযীলত
    ৬. হাদীস মুখস্থের ফযীলত

    📓বইটি কেন পড়বেনঃ
    আমরা অনেকেই মনে মনে ইচ্ছা পোষণ করি হিফয করার, কিন্তু সেই সাহসটুকু করে উঠি না। ছোট্ট বইটিতে পূর্বসূরিদের বাস্তবজীবন থেকে নেয়া অনেক ঘটনার সমাহার ঘটেছে, যা পাঠককে যেমনভাবে বিস্ময়ের ভেলায় ভাসিয়ে নিয়ে বেড়াবে, তেমনিভাবে তাদের মতো হতে উৎসাহ জোগাবে। কীভাবে আমরা সহজে মুখস্থ করতে পারব, মুখস্থকৃত জ্ঞান কীভাবে স্থায়ীভাবে মস্তিষ্কে ধরে রাখব, এর জন্য করণীয় এবং এর সহায়ক উপায় কী- এসব বিষয়ে চমৎকার আলোচনার সমাহার ঘটেছে বইটিতে।

    📓পাঠ্যানুভূতিঃ
    আমরা সবাই স্কুল, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়াশোনার জন্য প্রচুর বই-পুস্তক মুখস্থ করি। কিন্তু কখনও কুরআন হিফয করার কথা ভাবি না। আমরা ভাবি, বুঝে দেখে দেখে তিলাওয়াত করাই যথেষ্ট। সেই অবহেলা থেকে বছরে হয়তো ঐ রমযান মাসেই কুরআন পড়া হয়। আবার অনেকে ইচ্ছা পোষণ করলেও মুখস্থ করার সাহস করি না ভুলে যাওয়ার ভয়ে। বইটি পড়ে অনেক এরকম কিছু ভুলভ্রান্তি দূর হয়েছে এবং মনে অনেক সাহস সঞ্চার হয়েছে। কুরআন ও হাদীসের জ্ঞান লিখিত থাকার চেয়ে হৃদয়ে ধারণ করার জন্য মুখস্থ করাটা যে কতটা জরুরি তা বইটি পড়লে জানা যায়।

    📓বই পরিচিতিঃ
    বইঃ হিফয করতে হলে
    মূলঃ শাইখ আব্দুল কাইয়্যূম আস-সুহাইবানী
    অনুবাদঃ আব্দুল্লাহ মাহমুদ
    প্রকাশনীঃ সমকালীন প্রকাশন
    মুদ্রিত মূল্যঃ ১৪১ ৳
    পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ ৯৪
    বইটি সংগ্রহ করতে ভিজিট করুনঃ
    https://www.wafilife.com/shop/books/hifz-korte-hole/

    Was this review helpful to you?
  3. 5 out of 5

    :

    বইঃ হিফজ করতে হলে

    রিভিউঃ
    ‘হিফজ করতে হলে’- বইটির মূল বিষয়বস্তু হল কিভাবে সহজে পবিত্র কুরআন হিফজ করা যায়, কিভাবে তা স্থায়ীভাবে স্মৃতিতে ধারণ করা যায়। যারা জেনারেল লাইনের স্টুডেন্ট এবং মাদ্রাসায় গিয়ে হিফজ করা যাদের পক্ষে সম্ভব হয় না, তাদের জন্য এই বইটি একটা চমৎকার গাইডলাইন। বিশেষ করে করোনাভাইরাসের কারণে অসহায় গৃহবন্দিত্বের এই সময়ে এই বইটিই হতে পারে সার্বক্ষণিক সঙ্গী। চমৎকার এই বইটি লিখেছেন শাইখ আব্দুল কায়্যুম আসে সুহাইবানী। বইটি প্রকাশ করেছে সমকালীন প্রকাশন।

    বইটির বিষয়বস্তুঃ
    বইটির শুরুতেই আলোচনা হয়েছে হিফজের গুরুত্ব ও মাহাত্ম্য নিয়ে। এই অধ্যায়ে হিফজ সম্পর্কে বিশজন সালাফের মন্তব্য উপস্থাপন করা হয়েছে।
    ২য় অধ্যায়টি সাজানো হয়েছে সালাফদের দ্রুত হিফজের, এবং স্মরণশক্তির বিস্ময়কর কিছু ঘটনা নিয়ে।
    ৩য় অধ্যায়টি খুবই গুরুত্বপূর্ন। এ অধ্যায়ে আছে মুখস্ত করার পদ্ধতি- ১. স্বল্প পরিমান লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন ২.পুনরাবৃত্তি।
    হিফজের সহায়ক কিছু গুরুত্বপূর্ন বিষয় আছে চতুর্থ অধ্যায়ে। এর মধ্যে বিশুদ্ধ নিয়ত এবং দু’আ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বাকিগুলো পাঠক বইয়ের পাতা থেকেই দেখে নিবেন।
    কুরআন হিফজের ফজিলত এবং হাদীস মুখস্থের ফজিলত আছে শেষ ২টি অধ্যায়ে।

    ভাললাগার বিষয়ঃ
    ১. বইটির প্রত্যেক বিষয়ে সালাফদের কথা, তাদের কুরআন হিফজ সম্পর্কিত বিভিন্ন ঘটনাবলি প্রথমেই বর্ণিত হয়েছে।
    ২. ‘কুরআন হিফজের ফজিলত’ ও ‘হাদীস মুখস্তের ফজিলত’ এই দুইটি অধ্যায় মূল বইতে ছিল না। পাঠকের সুবিধার জন্য এগুলো সংযুক্ত করা হয়েছে।

    বইটি যাদের জন্যঃ
    যারা মাদ্রাসায় গিয়ে হিফজ করতে পারছেন না, কিন্তু কুরআনুল কারীম হিফজ করতে আগ্রহী, তাদের জন্য বইটি খুবই উপকারী।

    বইটির কভার, বাইন্ডিং, পেজ মেকআপ উন্নতমানের।

    বইটির সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে আল্লাহ উত্তম প্রতিদান দিন।

    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
  4. 5 out of 5

    :

    সেই হৃদয়ের চেয়ে উত্তম কোন হৃদয় যে হৃদয় আল্লাহ্‌র কালাম ধারণ করে? আমরা যারা জেনারেল শিক্ষিত তাদের অনেকের ইচ্ছে থাকা সত্ত্বেও হিফয করার সাহস হয়ে উঠে না। আর জীবনের ফাঁদে পড়ে কোনো হিফয খানায় ভর্তি হওয়াও সম্ভব হয়ে না।
    আমাদের জন্য একটা গাইডলাইন হতে পারে এই বইটি। কিভাবে অল্প থেকে শুরু করে পর্যায়ক্রমে একজন হাফিজে কুরআন হওয়া যায়, তার গাইডলাইন পাবেন এই বইতে ইন শা আল্লাহ।
    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
  5. 5 out of 5

    :

    আমাদের মনে সবসময় আশা জাগে, হাফেজ দের মুখস্ত কোরআন পড়তে দেখে ইচ্ছা হয় ইসস! আমিও যদি পারতাম!
    কিন্তু শুরু করলে মুখস্ত করা তখন আর ইচ্ছা করে না সহজে ভুলে যাওয়া, আর নানা সমস্যা নিয়ে। ইন শা আল্লাহ্ বইটি পড়লে মনের আশা টি বাস্তবতায় পূরণ করার ইচ্ছা আরো প্রবল হবে ।নানা ধরনের উপায় পাবো কুরআন মুখস্ত করার ,শিখার,অন্তরে ধারণ করার ।
    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
  6. 5 out of 5

    :

    আমাদের চারপাশে এমন অনেক মানুষ আছে যারা তাদের রবের আরো নিকটবর্তী হওয়ার জন্য তার পাক কালাম হিফজ করতে চায়।মনে স্বপ্ন, সালাতে দাড়িয়ে রবের সাথে কথোপকথনে চোখের পানি ফেলবে।কিন্তু পারিপার্শ্বিক ব্যাস্ততা আর সঠিক দিকনির্দেশনা র অভাবে এ স্বপ্ন আস্তে আস্তে ফিকে হতে থাকে।এই মানুষগুলোর জন্য ‘হিফজ করতে হলে’ হতে পারে অমূল্য একটি বই।

    বইটিতে ৬ টি অধ্যায় আছে- হিফজের গুরুত্ব ও মাহাত্ম্য, বিস্ময়কর স্মরণশক্তি, মুখস্থ করার পদ্ধতি, হিফজের সহায়িকা,কুরান কারীম হিফজ করার ফযিলত, হাদিস মুখস্থের ফযিলত।

    প্রতিটি অধ্যায়ই আপনাকে নতুন করে ভাবাবে, তবে সবচেয়ে অসাধারণ লেগেছে – মুখস্থ করার পদ্ধতি ও হিফজের সহায়িকা, যার প্রতিটি লাইনই বারবার করে পড়ার মত।

    বইটি প্রথমে আপনাকে হিফজ করার আগ্রহ জাগাবে,সালাফদের ইতিহাস মনে বিস্ময় ও সাহস যোগাবে,এরপর কিভাবে করতে হবে তার পথনির্দেশ দিবে এবং পরিশেষে হিফজের প্রচন্ড লাভ দেখিয়ে আপনার মনে লোভ জাগিয়ে তুলবে একজন হাফেজ হওয়ার,আল্লাহর পরিজন হওয়ার,তিলওয়াতের মাধ্যমে হাশরের ময়দানে
    মর্যাদার উচ্চ স্তরে আরোহন করার।

    বইটির পরিসর খুব ছোট,৯৪ পৃষ্ঠা মাত্র, একদম নতুন পাঠকরাও অনায়াসেই পড়তে পারবেন।

    “যার ব্যাপারে আল্লাহ কল্যাণ চান,কেবল তাকেই আল্লাহ দ্বীনের জ্ঞান দান করেন”
    আল্লাহ নিজে যেখানে কুরানকে সহজ করে দিয়েছেন,হিম্মত করে সামনে বাড়তে আমাদের কি ভয়?

    9 out of 10 people found this helpful. Was this review helpful to you?
  7. 5 out of 5

    :

    আল কুরআন এর মহা সমুদ্রে ডুব দিয়ে মূল্যবান মানিক রতন আহরণের আগে , খাঁটি নাবিকের উচিত বইটি পড়ে নেওয়া… তাহলে হয়ত আমাদের সম্মানিত পূর্বসুরী দের পথ ধরে আল কুরআনের প্রকৃত বাণী হিফজ করতে আমাদের অত্যন্ত সুবিধা হবে… পাশা পাশি শুধু মাত্র হিফজ করাটাই সার্থকতা নয়, বরং আজীবন সেই মূল্যবান আয়াত সমূহের যত্ন করা, বার বার চর্চা করা, জীবন এর প্রতিটি ক্ষেত্রে সেগুলোর প্রকৃত প্রয়োগ করার জন্য এই বই টি হতে পারে যেকোনো মুমিন ভাইয়ের পছন্দের গাইড লাইন …
    13 out of 13 people found this helpful. Was this review helpful to you?