মেন্যু
he amar muslim vai

হে আমার মুসলিম ভাই

প্রকাশনী : হুদহুদ প্রকাশন
পরিমাণ

35  70 (50% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

4 রিভিউ এবং রেটিং - হে আমার মুসলিম ভাই

4.3
Based on 4 reviews
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    Hasnain Islam Emon:

    ❀ বিসমিল্লাহির রহমানির রহীম।

    ❝ সমস্ত মুসলমান পরস্পর ভাই ভাই। ❞
    (সূরা হুজরাত : আয়াত ১০)

    পবিত্র কোরআন রক্ত ও বংশ সম্পর্কের মতো ঈমান ও ইসলামকেও একটি গুরুত্বপূর্ণ আধ্যাত্মিক সম্পর্ক সাব্যস্ত করেছে এবং এ সম্পর্কের দিক দিয়ে প্রত্যেক মুসলমানকে অন্য মুসলমানের ভাই বলে উল্লেখ করেছে।এ ভ্রাতৃত্ব বজায় রাখায় অন্যতম মাধ্যম হলো দ্বীন ইসলামের পথে এক মুসলিম ভাইকে অন্য মুসলিম ভাইয়ের আহ্বান বা দাওয়াত করা।

    আল্লাহ তাআলা বলেন,
    ❝হে রাসুল! আপনার প্রতিপালকের পক্ষ থেকে আপনার ওপর যা অবতীর্ণ হয়েছে (কুরআনের বিধি-নিষেধ) তা আপনি প্রচার করুন। যদি আপনি তা না করেন তবে আপনি আল্লাহর বার্তা প্রচার করলেন না।❞ (সুরা মায়েদা : আয়াত ৬৭)

    আয়াতে বুঝা গেল দুনিয়াতে আল্লাহর পথে আহ্বানের জন্যই নবি-রাসুলদের আগমন। আল্লাহর দ্বীনের দাওয়াতের প্রচারই ছিল নবি-রাসুলদের প্রধান দায়িত্ব। আল্লাহ বলেন,
    ❝ রাসুলগণের দায়িত্ব তো শুধু সুস্পষ্টভাবে প্রচার করা।❞ (সুরা নাহল : আয়াত ৩৫)

    আর এ কারণেই একজন মুমিনের জীবনের অন্যতম মিশন হলো মানুষের প্রতি দ্বীনের দাওয়াত দেয়া। নিজেদের জীবনে কুরআন-সুন্নাহর বিধি-বিধান বাস্তবায়নের পাশাপাশি পরিবার ও পাশ্ববর্তীদেরকে আল্লাহর দ্বীনের প্রতি আহ্বান করা মুমিন বান্দার আবশ্যক কর্তব্য।

    একজন প্রকৃত মুসলিমের করনীয় এবং দ্বীন ইসলামের প্রতি এক মুসলমি ভাইয়ের আরেক মুসলিম ভাইয়ের দাওয়ারতের গুরুত্ব আমাদেরকে নতুন করে জানাতে হুদহুদ প্রকাশনী এবং লেখক শাইখ আলী তানতাভী আমাদের মুসলিম উম্মাহর জন্য আয়োজন করেছেন ❝হে আমার মুসলিম ভাই❞ নামক বইটি।আমাদের আজকের আলোচনা এই বইটিকে ঘিরেই।

    ♦বইটিতে যা যা রয়েছে সংক্ষেপেঃ

    নন্দিত আরবী কথাসাহিত্যিক ড. আলী তানতাবীর অনবদ্য রচনা ❝ মান হুওয়াল মুসলিম ❞ এর বাংলা অনুবাদ হলো ❝ হে আমার মুসলিম ভাই ❞ বইটি।

    বইটির মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হলো- দ্বীন ইসলামে মুসলিম ভাইদের মধ্যে ভ্রাতৃত্ব এবং বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখা এবং দ্বীন ইসলামের পথে একে অপরকে দাওয়াত প্রদান করা,যাতে সকল মুসলিম উম্মাহ ইহকাল এবং পরকাল এই দুইজগতেই উপকৃত হতে পারে।

    বইটি থেকে জানা যাবে-ইসলামে দাওয়াতের পন্থা ও পদ্ধতি,মোট ছয়টি পদ্ধতিতে দাওয়াত কার্য সম্পাদন-যা মুসলিম উম্মাহর জন্য খুবই উপকারী।এছাড়াও সুফীতত্ত্ব,সালাফী মতবাদ,ইসলাম ও পাশ্চাত্য সভ্যতার সংমিশ্রণ, উপমহাদেশে ইসলাম প্রচার এবং দায়ীগনের অসাধারন ভূমিকা সম্পর্কে জানা যাবে।

    ♦আমার অনুভূতিঃ

    আলহামদুলিল্লাহ।দ্বীন ইসলামের দাওয়াত বিষয়ক বই আমি এর আগেও পড়েছি কিন্তু এই বইটি একদমই অন্যরকম। বইয়ে উল্লিখিত আরবের বিভিন্ন দেশ এবং উপমহাদেশে ইসলামের দাওয়াত এবং দায়ীগনের অসামান্য ভূমিকা সকলকে ইসলাম প্রচারে উদ্বুদ্ধ করবে। বইটিতে দ্বীন ইসলামে দাওয়াতের ছয়টি পদ্ধতি জেনে আমি এককথায় অভিভূত।যেমন-
    এক,দ্বীন ইসলামের দাওয়াতের মাধ্যমে রাজা বা শাসকদের ইসলামের প্রতি আগ্রহী করে তোলা,কারন একটা দেশের শাসক যদি ইসলামি মতবাদী হয়,তাহলে বাকি সাধারনের মাঝে তিনিই ইসলাম প্রচারের বিরাট ভূমিকা রাখতে পারেন।
    দুই, শিক্ষা ও পাঠদান,ধর্মীয় গ্রন্থ, রচনা,প্রচীন ইসলামি শাসন ব্যবস্থার গ্রন্থসমূহ প্রকাশ করার মাধ্যমে দ্বীনের বানী মানুষের কাছে পৌছে দেওয়া।
    মাশাআল্লাহ কি চমৎকার সব পদ্ধতি তাই না?

    আমি ব্যক্তিভাবে বইটিকে দ্বীন ইসলামে দাওয়াতের পথে অত্যন্ত সহায়ক একটা বই মনে করছি।বইটি দাওয়াতের পথে আমাদের মুসলিম উম্মাহকে আরো সতর্ক করবে বলে আমার বিশ্বাস।

    ♦বইটি কেন পড়বেনঃ

    একজন মুসলিম তখনই প্রকৃত মুমিন হয়ে উঠবেন যখন সে ইসলাম ধর্ম সম্পর্কে পরিপূর্ণ জ্ঞানার্জন,সেগুলোকে অন্তরে ধারন এবং কর্মে সেগুলোকে বাস্তবায়ন করতে সক্ষম হবে।
    দুনিয়াতে নবীজী(সঃ) এর আগমন হয়েছিলো এমন এক সময়ে,যখন নবীদের দাওয়াত না থাকার কারনে সমাজে ছড়িয়ে পড়েছিলো জাহেলিয়াতের ঘোর অন্ধকার। নবীজীর ছড়িয়ে দেওয়া ইসলামিক শিক্ষা এবং জ্ঞান মুসলিম উম্মাহর মধ্যে এখনো বহাল আছে আলহামদুলিল্লাহ। নবীজী(সঃ) আমাদের উপর দ্বীন ইসলামের পথে দাওয়াতের দায়িত্ব দিয়ে গিয়েছেন। তাই মুসলিম উম্মাহর অত্যন্ত জরুরি কর্তব্য হলো দাওয়াতের মাধ্যমে অন্য ভাইদের দ্বীন ইসলামের পথে আহ্বান করা।

    এই বইটিতে যেভাবে দ্বীন ইসলামে দাওয়াতের গুরুত্ব এবং দাওয়ার কার্য সম্পাদনের কর্মপদ্ধতি দেখানো হয়েছে তাতে সকল মুসলিম উম্মাহ উপকৃত হবেন বলে আমি মনে করছি। যেহেতু দাওয়াত কার্য মুমিনের অন্যতম কর্তব্য,তাই সকল মুসলিম উম্মাহর জন্য বইটি মাস্টরিড একটি একটি।
    মহান রব্বুল আলামীন বইটির সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে কবুল করুক,আমিন।

    ♦এক নজরে বইটিঃ
    বইঃ ❝ হে আমার মুসলিম ভাই ❞
    লেখক : শাইখ আলী তানতাভী
    প্রকাশনী : হুদহুদ প্রকাশন
    বিষয় : ইবাদত, আত্মশুদ্ধি ও অনুপ্রেরণা
    মূল্যঃ ৩৬৳ (৪০% ছাড়ে)

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 4 out of 5

    Md Amdadullah Tafhim:

    একজন মানুষ প্রকৃত মুসলিম তখন ই হতে পারবে, যখন সে জানবে আল্লাহ তা’য়ালা মুহাম্মদ স. কে নবী বানিয়ে পাঠিয়েছিলেন এমন এক সময়ে, যখন নবীদের দাওয়াত না থাকার দরুন সমাজে ছড়িয়ে পড়েছিল জাহালিয়্যাতের ঘোর অন্ধকার। তিনি নবী স. কে দিয়েছেন সর্বজনীন ও সর্বকালীন শরীয়ত ও জীবন ব্যবস্থা।

    ইসলামি শরীয়ত তার অনুসারীদের দান করেছে দুনিয়া ও আখেরাতের সুখময় জীবনের এক উত্তম ব্যবস্থা। যে জীবনব্যবস্থাকে আল্লাহ তা’য়ালা প্রনয়ন করেছেন বিশ্ববাসীর সুখ, শান্তি ও কল্যানের জন্য।যার মাধ্যমে তিনি মানুষকে দেখিয়েছেন সরল সঠিক পথ-সিরাতুল মুস্তাকীম।

    ♣ বই সংক্ষেপঃ
    বইটি ড. আলী তানতাবীর লিখা। ।এ বইটিতে মুলত তিনি উল্লেখ করেছেন দাওয়াতের পন্থা ও পদ্ধতি নিয়ে বিশদ আলোচনা। শুরুতেই তিনি ইসলামের সুমহান কিছু বৈশিষ্ট্য নিয়ে আলোচনা করেছেন। খুব সুন্দর ভাবে উল্লেখ করেছেন,দুনিয়াতে এমন কোন কাজ নেই যা ইসলামের সুস্পষ্ট সীমারেখা বহির্ভুত। ইসলামের প্রত্যেকটা কাজই ফরজ, ওয়াজীব, সুন্নাত, নফল, মুস্তাহাব এবং মাকরুহ ক্যাটাগরিগুলোর মধ্যে পড়ে। কোনটি কতটুকু করলে বা ছাড়লে কতটুকু শাস্তি আস্বাদন করতে হবে তার বর্ণনা আছে। এর পরে লেখক বিশ্বের প্রসিদ্ধ ইসলামী দলগুলো এবং তাদের “ইক্বামাতে দ্বীন” কায়েমের প্রচেষ্টা নিয়ে আলোচনা করেছেন।

    এছাড়াও বইটির শেষ দিকে দাওয়াতের ক্ষেত্রে বর্তমান প্রেক্ষাপটে বিভ্রান্তির এক সুক্ষ্ম অনুপ্রবেশ মুজাশশিমা তথা দেহবাদি আকীদার তীব্র সমালোচনাও করেছেন।

    ♣ কাদের জন্য এই বইঃ
    ০১. যারা দ্বীন কায়েমের স্বপ্ন দেখে তাদের জন্য অবশ্যপাঠ্য।
    ০২. ইসলামী দলগুলোর কর্মী, যারা দাওয়াতের কাজ করে বা করতে চান তাদের জন্য একটু প্রেসক্রিপশন।
    ০৩. দায়ী ইল্লাল্লাহর ভুমিকায় প্রত্যেক মুসলিম উম্মাহর জন্য বইটি পড়া বাঞ্চনীয়।
    ০৪. নিজ জীবনে দ্বীন বাস্তবায়ন যারা করতে চান তাদের জন্যও।

    ♣লেখক সম্পর্কেঃ
    বিংশ শতাব্দীতে যে সকল মনীষী তাদের কলম আর জবানের মাধ্যমে দাওয়াতের ময়দানে বিশাল অবদান রেখেছেন তাদের মধ্যে অন্যতম ড. আলী তানতাবী। তিনি সিরিয়ার একজন প্রখ্যাত আলেম,দামেস্কের ফতোয়া প্রদানের দায়িত্ব তার কাঁধেই অর্পিত ছিল।জার্মানির হাতে ফ্রান্সের পতনের সময় তিনি জ্বালাময়ী ভাষণ দিয়েছিলেন।তার এ অগ্নিকণ্ঠের ভাষণ সিরিয়ার মানুষকে বেশ উজ্জীবিত করেছিল। মূলত তিনি ছিলেন সত্য প্রকাশে নির্ভীক এক সুপুরুষ।

    ♣ পাঠ্যানুভুতিঃ
    যারা উনার দুটি সু-প্রসিদ্ধ বই “হে আমার ছেলে”,”হে আমার মেয়ে” পড়েছেন, তারা হয়ত বুঝবেন উনার হৃদয় নিংড়ানো কথা মানবহৃদয়ের কতটুকু গভীরে গিয়ে আঘাত করতে পারে । তার কথা মানুষের মাঝে ফুটিয়ে তুলে লৌকিকতার আড়ালে চাপা পড়ে থাকা বাস্তবিক সত্য অস্তিত্বের বহিঃপ্রকাশ। উন্মুক্ত করে চিন্তার জগত,প্রসারিত করে ব্যক্তির ব্যক্তিত্ববোধ, সচেতন করে চিন্তার সীমাবদ্ধতার সুক্ষ্ম ফাঁদ থেকে। বইটি পড়ে মুসলিম উম্মাহর মধ্যে দাওয়ার পন্থা ও গুরুত্ব সম্পর্কে বিস্তারিত জানার সুযোগ হয়েছে ।

    ♣ এক নজরে…..
    বইঃ হে আমার মুসলিম ভাই
    মুলঃ ড. আলী তানতাবী
    অনুবাদঃ মাওলানা মাহমুদ আহমাদ
    প্রকাশনীঃ হুদহুদ প্রকাশন
    মূল্যঃ ৬০ টাকা।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 3 out of 5

    Redwan Nabil:

    #ওয়াফিলাইফ_পাঠকের_ভালো_লাগা_সেপ্টেম্বর_২০২০

    বইঃ হে আমার মুসলিম ভাই,
    লেখক : শাইখ আলী তানতাভী,

    ★বইটি যে বিষয়ে লেখাঃ
    বইটি দাওয়াত নিয়ে লেখা। খাবারের দাওয়াত না! ইসলামের দাওয়াত। দাওয়াতি কাজের কর্মপদ্ধতি সম্পর্কে লেখা হয়েছে। বইটি লিখেছেন আরবি কথাসাহিত্যিক শাইখ আলী তানতাভী। বইটিতে দাওয়াতের ছয়টি কর্মপন্থা সম্পর্কে ধারণা দেয়া হয়েছে। কীভাবে কার কাছে দাওয়াত দিতে হবে দাওয়াতের জন্য কোন কোন পন্থা অবলম্বন করতে হবে? এছাড়াও বিভিন্ন মতবাদ ও দাওয়াতের ক্ষেত্রে মধ্যমপন্থা অবলম্বনের উপায় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। পাশ্চাত্যের এবং ইসলামের সংমিশ্রণ নিয়েও আলাদা অধ্যায় করা হয়েছে।

    ★কাদের জন্য?
    যারা দাওয়াতি কাজ করতে চাচ্ছেন কিন্তু কর্মপদ্ধতি সম্পর্কে ধারণা নেই তাদের পড়া উচিত। বইটিতে দাওয়াতের যে সকল কর্মপদ্ধতি দেয়া হয়েছে তাতে দাওয়াতি কাজ সম্পর্কে সঠিক ধারণা হবে ইনশাআল্লাহ। আরও বিশেষ কিছু বিষয় যুক্ত করা হয়েছে। যেমন বিতর্কিত বিষয়ে কীভাবে দাওয়াত দিতে হবে এবং পশ্চিমার সাথে ইসলামের সাংঘর্ষিকতাও বর্ণিত হয়েছে।

    ★আমার অনুভূতিঃ
    বইটি পড়ে ইসলামের দাওয়াত সম্পর্কে ভালো ধারণা হয়। রাসুল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের দাওয়াতি কর্মপদ্ধতি সম্পর্কে লেখা হয়েছে। ছোট বই হিসেবে অনেক তথ্য দেয়া হয়েছে। বইটি আরবি বইয়ের অনুবাদ। অনুবাদ ভালোই লেগেছে। বইটি মত্র ৩২ পৃষ্ঠায় সমাপ্ত হয়েছে।

    প্রকাশনী : হুদহুদ প্রকাশন,
    বিষয় : ইবাদত, আত্মশুদ্ধি ও অনুপ্রেরণা,
    পৃষ্ঠাঃ ৩২,
    প্রচ্ছদ মূল্যঃ ৬০ টাকা (পেপারব্যাক)।

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    Azmin Akther Eva:

    ||বই রিভিউ||

    বই- হে মুসলিম ভাই
    লেখক- ড. আলী তানতাবী
    ভাষান্তর- মাহমুদ আহমেদ
    মূল্য- ৬০
    প্রকাশক- হুদহুদ প্রকাশন
    প্রচ্ছদ – শাহ ইফতেখার তারিক

    আব্দুল্লাহ ইবনে মাসউদ থেকে বর্ণিত, মহানবী সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বলেন, আল্লাহ তার চেহারা উজ্জ্বল করুন, যে আমার কাছ থেকে হাদিস শুনে অন্যের কাছে হুবুহু পৌঁছায়। যাদের কাছে পৌঁছানো হবে, হয়তো তারাই এগুলো বেশি করে মনে রাখবে।।
    ( তিরমিযীঃ ২৬৫৭)

    যেকোনো দরজায় তিনবার নক করুন, অনুমতি মিললে ভেতরে যান, নতুবা ফিরে আসুন।
    ব্যতিক্রম শুধু তওবার দরজায়,
    বারবার নক করতে থাকুন অবিরাম ক্ষমা চেয়ে জান শেষপর্যন্ত দরজা খুলবে।

    ছোট এই বইটিতে রয়েছে মহামুল্যবান কিছু কথা৷ যা হয়তো হঠাৎ করেই জিবনে পরিবর্তন আনতে পারে৷ বইটি মুসলিম ভাইদের উদ্দেশ্য করে বললেও সকলের ই পড়া উচিত বলে আমার মনে হয়।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top