মেন্যু
harano diner shonali prodip

হারানো দিনের সোনালী প্রদীপ

প্রকাশনী : আয়ান প্রকাশন
বিষয় : আত্মজীবনী
অনুবাদক : সাইফুল্লাহ আল মাহমুদ
সম্পাদক : আয়ান সম্পাদনা টিম
পৃষ্ঠা : 208, কভার : পেপার ব্যাক, সংস্করণ : 1st Published, 2022
আইএসবিএন : 9789849655510, ভাষা : বাংলা
ভাষা কে কেন্দ্র করে পৃথিবীতে অসাস্থ্য জনপদ ও মানবীগড়ে উঠেছে পৃথিবীর প্রতিটি ভাষার রয়েছে নিজস্ব মাধুর্যতা। ছন্দের মহিমা, শব্দ-বৈভবের কারিশমা,নির্মাণশৈলী বর্ণনায়নের রূপময়তা- এসব নিয়েই হল সাহিত্য। ভাষা ও সাহিত্যে সর্বাধিক... আরো পড়ুন
পরিমাণ

220  380 (42% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

4 রিভিউ এবং রেটিং - হারানো দিনের সোনালী প্রদীপ

4.8
Based on 4 reviews
5 star
75%
4 star
25%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    মুহাম্মদ রুবেল মিয়া:

    “হারানো দিনের সোনালী প্রদীপ” নামটা দেখে ভেবেছিলাম এটা হয়তো ইতিহাস সম্পর্কিত বই! একেবারে সত্যি বলছি শর্ট পিডিএফে যখন ভিন্ন কিছু দেখলাম আশ্চর্য হয়ে গিয়েছিলাম।
    বইটা মূলত ইতিহাস বা ঐতিহাসিক কোনো ব্যক্তিত্বকে নিয়ে নয়, বরং বইটি কবি এবং কবিতা নিয়ে।

    কি আছে বইটিতে :
    “হারানো দিনের সোনালী প্রদীপ” বইটি রচিত হয়েছে কবি এবং কবিতা নিয়ে ইসলামের দৃষ্টিভঙ্গী এবং সর্বকালের সেরা কয়েকজন মুসলিম কবির জীবনী আলোচনা নিয়ে। বইটিতে রয়েছে তিনটি অধ্যায়। প্রথম অধ্যায়ে আলোচনা করা হয়েছে ইসলামের দৃষ্টিতে কবি ও কবিতা নিয়ে। তাতে কুরআন এবং হাদিসের আলোকে কবিতার যৌক্তিকতা, কোন ধরনের কবিতা চর্চা করা জায়েজ এবং কোন ধরনের কবিতা চর্চা করা নাজায়েজ ইত্যাদি বিষয় নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। আরো রয়েছে ইসলামের প্রথম যুগের কয়েকজন কবির পরিচিতি যারা ছিলেন রাসুলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর সাহাবি এবং ইসলামের খলিফা। অধ্যায়টিতে রাসুলুল্লাহ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর কাব্যপ্রতিভা নিয়েও লেখা হয়েছে।
    দ্বিতীয় অধ্যায়ে আলোচনা করা হয়েছে বিশ্বসেরা কয়েকজন মুসলিম কবি এবং তাদের কবিতা নিয়ে। যারা সারাবিশ্বে নাম করেছেন তাদের কবিতা দিয়ে।
    তৃতীয় অধ্যায়ে আলোচনা করা হয়েছে বাংলা ভাষার মুসলিম কবিদের নিয়ে। এতে কাজী নজরুল ইসলামকে নিয়েও আলোচনা করা হয়েছে যার বিশ্বাস নিয়ে মানুষের আগ্রহের কমতি নেই।

    বইটি কবি এবং কবিতা নিয়ে আমাদের মধ্যে সব ধরনের সন্দেহ-সংশয়ের অপনোদন করবে ইনশাআল্লাহ। বইটি পাঠের মাধ্যমে আমরা বিশ্ববিখ্যাত এবং বাংলা ভাষার বেশ কয়েকজন মুসলিম কবি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে পারবো এবং কবি ও কবিতা সম্পর্কে আমাদের ভ্রান্তি দূর হবে ইনশাআল্লাহ।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 4 out of 5

    জুয়াইরিয়া:

    সেদিন কত কি না ছিলো! আজ আর তার ছিটেফোঁটাও নেই। এভাবে কত কিছু আমাদের থেকে হারিয়ে যায়। এটাই সৃষ্টিকর্তা প্রদত্ত একটা নিয়ম। কত কিছু চলে যাবে আবার নতুন কিছু আসবে। এভাবেই তো হয়ে আসছে। অতীতের দিনগুলো আমরা চাইলেও ফিরিয়ে আনতে পারবো না আর মানুষ তো না-ই।

    মানুষ চলে যায় কিন্তু রেখে যায় তাদের কর্ম। আর এই কর্ম যদি হয় ভালো তবেই পরিবর্তী যত প্রজন্মের আগমন ঘটবে সবাই তাদের শ্রদ্ধা ভোরে স্মরণ করবে।

    হারানো দিনের সোনালি প্রদীপ। উল্লেখিত শিরোনামের বইটিতে রাসুলুল্লাহ সাঃ এর সময়ের কবিদের নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। সাহাবীদের মাঝে অনেকেই এই তালিকার অন্তর্ভুক্ত। তাদের কবিতা গুলো জোগাতো সাহস,কাফিরদের জবাব দেওয়ার জন্য ছিলো যথেষ্ট। রাসুলুল্লাহ সাঃ নিজেই কবিতা অত্যন্ত পছন্দ করতেন। পাশাপাশি তিনি কবিদের অনেক পছন্দ করতেন।

    ইসলামে কবি এবং সাহিত্যিকদের অবস্থান কোথায় রয়েছে তা আমাদের অনেকেরই অজানা। আমরা না জেনেই ছড়াচ্ছি বিভ্রান্তি। অথচ আমরা সোনালি অতীতের পাতায় চোখ বুলালে দেখি কত কত আল্লাহওয়ালা মানুষ এই পথে ছিলেন মৃত্যু অবধি। তারা ইসলামি সাহিত্যকে বরণ করে নিয়েছেন নিজেদের জীবনে। হারানো দিনের সোনালি প্রদীপ বইটিতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে যুগে যুগে যত কবি এবং সাহিত্যিক গণ ছিলেন তাদের জীবন,কর্ম,দর্শন এবং লেখা। এরা সকলেই আজীবন আমাদের মাজে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন।

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    arifbdeshok:

    ◾হারানো দিনের সোনালি প্রদীপ ◾

    হারানো দিনের সোনালি প্রদীপ নামটিই যেন পুরো বইটির একটি প্রতিচ্ছবি। সাথে একে বলতে হবে আয়ান প্রকাশনের একদম ভিন্ন ধরনের উদ্যোগ। মনে হয় না এক আহে কেউ ইসলামি কবি-সাহিত্যিকের নিয়ে এমন বই কেউ লিখেছে।

    ইসলামে কবি-সাহিত্যিকের ব্যাপারে কেমন অবস্থান এ ব্যাপারেই অনেকে জানে না। অথচ নবির যুগেও অনেক সাহাবিরাও কবি ছিলেন। তাও যেনতেন না বিরাট মাপের কবি, যারা কাফের কবিদের টেক্কা দিয়ে সক্ষম ছিলেন। ফলে যুগে যুগে ইসলামে অনেক বিখ্যাত কবি-সাহিত্যিকের জন্ম হয়েছে। তারা কবিতা-গজলসহ সাহিত্যের নানা ক্ষেত্রে বিচরণ করেছেন। তাদের জীবন কেমন ছিল, তারা কারা ছিলেন, তাদের জীবন দর্শন কেমন ছিল এসব নানা বিষয় ফুটে উঠেছে এ বইতে।

    বইটি মোট চারটি অধ্যায়ে সাজানো। প্রথম অধ্যায়ে ইসলামের দৃষ্টিতে কবি ও কবিতার ব্যাপারে আলোচনা এসেছে। এরপরের বাকি তিনটি অধ্যায়ে নবির যুগের কবি, পরবর্তী যুগের কবি এবং সবশেষে সাম্প্রতিক কালের মুসলিম কবিদের নামও এসেছে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম।

    এভাবে খুবই সুন্দর করে কবিদেরকে তুলে ধরা হয়েছে বইটিতে। যা সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। ইসলামি কবি ও কবিতা সম্পর্কে জানতে অবশ্যই বইটি পড়তে হবে।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    সিরাজাম:

    ◾“তোমাদের কারো পেটে অসৎ কাব্যের বসত হওয়ার চেয়ে সে পেটে পুঁজ জমে তা পঁচে যাওয়া অনেক উত্তম।” শর্টপিডিএফ দেখতে গিয়ে প্রথমেই এই লেখাটা আমার দৃষ্টি আকর্ষণ করে। কথাটা বলেছেন আমাদের প্রিয়নবী মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম।

    “হারানো দিনের সোনালী প্রদীপ” দেখে ভেবেছিলাম হয়তো পূর্ববর্তী ব্যক্তিবর্গের জীবনকাহিনী নিয়ে বইটি৷ বইয়ের সূচিপত্র দেখে ভুলটা ভাঙলো। এত্ত সুন্দর একটা টপিক নিয়ে বইটি দেখেই খুশি হয়ে গেলাম। ঝটপট প্রাককথনও পড়ে নিলাম।

    প্রাককথন পড়ার পর মনে হচ্ছিলো পুরোটা বই যদি এখনই পড়ে ফেলতে পারতাম, তাহলে খুব ভালো হতো।

    যাই হোক মূল আলোচনায় আসি।

    ◾বই আলাপন:

    বইটি একদমই ব্যতিক্রমী টপিকে। বইয়ের আলোচনা কবি আর কবিতাকে কেন্দ্র করে। আমরা সবাই কবি নয়, আবার সবাই কবিতা লিখতেও জানে না। দেখা যায়, যারা গল্প ভালো লেগে তারা ভালো কবিতা লিখতে জানে না। কবিতা লিখতে পারা আল্লাহর দেয়া আরেক নেয়ামত। কবিতা রব্বের কথা বলে, মনের কথা বলে, কখনো কবিতা শত্রুদের জবাব দেওয়ার মোক্ষম হাতিয়ার হয়, কবিতা ভালোবাসার কথা বলে, কবিতা মানবতার কথা বলে, কবিতা প্রকৃতির কথা বলে। কবিতা নিয়ে আমার জানাশোনা খুবই কম। এই মুহূর্তে আমি প্রিভিউ কী লিখবো বইটিই চাইছি বেশি।

    ◾বই অভ্যন্তরে:

    বইটিতে আছে তিনটি অধ্যায়। তবে প্রথমে “ইসলামের দৃষ্টিতে কবি ও কবিতা” শিরোনামে আলাদা একটা পাঠ রয়েছে। যেখানে কবিতা সম্পর্কে নবীজির সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম মনোভাব, তার মুখোচ্চারিত কবিতা, তিনি যে কবিতার প্রশংসা করেছিলেন, তার র ওযার সামনে লিখিত কবিতা, কবিতা নিয়ে সাহাবাগণের মনোভাব, কবিতায় প্রথম ও দ্বিতীয় খলিফা, কবিতার উৎপত্তি- নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে।

    প্রথম অধ্যায়ে আলোচনা থাকবে- নবীজির সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সময়ে কিংবা তাঁর পরবর্তী সময়ের ছয়জন কবির পরিচয়। যেহেতু পিডিএফে এই অধ্যায়ের কিছু ছিলো না, তাই বিস্তারিত বলার সুযোগ নেই।

    দ্বিতীয় অধ্যায়ে থাকবে- পর্যায়ক্রমে মহাকবি ওমর আল খৈয়াম থেকে শুরু করে শেখ সাদী, জালালুদ্দিন রুমি, মহাকবি ফেরদৌসী, এবং আল্লামা কবি ইকবাল পর্যন্ত মোট আটজনের পরিচয়।

    তৃতীয় অধ্যায়ে রয়েছে- বাংলা ভাষার ব্যবস্থা পর্যালোচনা এবং বাংলার মুসলিম কবিগণের পরিচয় এবং কবি কাজী নজরুল ইসলামকে নিয়ে আলোচনা।

    ◾অবশেষে:

    ইতিহাসের সেরা মুসলিম কবি সাহিত্যিকগণ যারা কলমের আঁচড়ে কবিতা রচনার মাধ্যমে আজীবন দেশ ও সমাজের জন্য অবদান রেখে গিয়েছেন তাদের পরিচিতি নিয়ে এই বইটি।

    বইটি আমাদের কবি আর কবিতা সম্পর্কে জ্ঞান আরও ঋদ্ধ করবে। ইসলামের দৃষ্টিতে কবিতা জায়েজ এবং কেমন কবিতা জায়েজ আর কোনটা জায়েজ নয় সেটাও জানিয়ে দিবে৷ এছাড়া জানতে পারবো পৃথিবীখ্যাত মহাকবিদের লেখা কবিতার ধরণ। আরবি, ফার্সী, উর্দু, বাংলা সহ বিভিন্ন ভাষার কবিদের কবিপরিচিতি নিয়ে বইটি আশা করি পাঠকপ্রিয় হবে।

    তো পাঠক আপনি যদি কবিতাপ্রেমী হন তো বইটি আপনার জন্য, আপনি যদি বইপোকা হন তাহলে তো অবশ্যই আপনার জন্য, আপনি যদি নতুন কোনো টপিকের বই পড়তে চান তাহলে এই বইটা সংগ্রহ করতে পারেন। ইন শা আল্লাহ!

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top