মেন্যু
halal-binodhon

হালাল বিনোদন

লেখক : Ismail Kamdar
পৃষ্ঠা : 79, কভার : পেপার ব্যাক, সংস্করণ : 4th Edition, 20 February 2018
আইএসবিএন : 9789849295921
এটা হারাম। ওটা হারাম। এটা করা যাবে না। ওটা করা যাবে না। তাহলে কি ইসলামে বিনোদন বলে কিছু নেই? হ্যাঁ। আছে। বিনোদনের শত শত মাধ্যম। কিছু ভালো। কিছু খারাপ। খারাপটা থেকে যদি... আরো পড়ুন
পরিমাণ

100 

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

4 রিভিউ এবং রেটিং - হালাল বিনোদন

5.0
Based on 4 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published.

  1. 5 out of 5

    Nadira Nasrin:

    এটা হারাম। ওটা হারাম। এটা করা যাবে না। ওটা করা না।তাহলে কি ইসলামে বিনোদন বলে কিছু নেই?

    গতানুগতিক জীবনের কর্মব্যস্ততা থেকে একটুখানি সময় নিজের জন্য বের করে নেয়াটা মানুষের সহজাত প্রকৃতি।তাই যুগ যুগ ধরে নিজেদের বিনোদিত করার জন্য বিনোদনের নানা উপায় মানুষ খুঁজে চলেছে।বিনোদন সবসময়ই ছিল তবে কেউ কেউ তাদের ব্যক্তিগত কামনার চরিতার্থে বিনোদনকে বাড়াবাড়ি পর্যায়ে নিয়ে গেছেন।বিশেষ করে বর্তমান আধুনিক এ যুগে বিনোদন শিল্প এখন শীর্ষে অবস্থান করছে।বিনোদনের এত এত সব উপকরণ ছড়িয়ে আছে যে, কেউ চাইলে সারাজীবন শুধু বিনোদনের মধ্যে থেকেই কাটিয়ে দিতে পারবে। দিন দিন মানুষ সেদিকেই যাচ্ছে।
    মানুষ আজ টাকা আর বিনোদনকে তার উপাস্য হিসেবে গ্রহণ করে পূজা করছে।ধর্মীয় অনুশাসন না থাকায় যাচ্ছেতাইভাবে ভীবন উপভোগের পথে কোনো নৈতিকতার বালাই থাকে না। আর এগুলোর ফলাফল আমরা নিজের চোখেই দেখতে পাচ্ছি।একমাত্র অজ্ঞ লোকই পারে পৃথিবীর ক্ষণস্থায়ী আনন্দে ডুবে থেকে জান্নাতের অনন্ত বিনোদনের কথা ভুলে যেতে।

    “ওরা ওদের ধর্মকে বিনোদন ও খেলার বস্তু বানিয়ে ছিল।দুনিয়ায় জীবন ওদের বিভ্রান্ত করে রেখেছিল।(কুরআন-৭:৫১)

    কি সাংঘাতিক! লোকগুলো বিনোদনকে তাদের দ্বীন ( ধর্ম,লাইফস্টাইল) বানিয়েছে।বিনোদিত হওয়াই এই লোকগুলোর জীবনের উদ্দেশ্য। আজ আমরা কি তা-ই দেখছি না?

    বিনোদনের শত শত মাধ্যম।কিছু ভালো, কিছু খারাপ।খারাপটা থেকে যদি ভালোটা আলাদা করতে না-পারি তাহলে নিছক আনন্দও হয়ে উঠবে শোচণীয় পরিণতির কারণ। কাজেই, সাবধান হওয়া জরুরি।

    বন্যার পানির মতো বিনোদনের হাজারো উপকরণ আসছে। জায়গা করে নিচ্ছে হাতের মুঠোয়। পানি জীবন ধারণের জন্য অপরিহার্য। কিন্তু সেই পানি যদি বিশুদ্ধ না-হয়, ফোটানো না-হয়, তাহলেই সেটাই হয়ে উঠতে পারে জীবনঘাতি।

    এই বইতে একটা ফিল্টার দেওয়া হয়েছে যা দিয়ে আপনি ভালো আর খারাপ বিনোদনের উপকরণগুলো আলাদা করতে পারবেন নিজেই।

    পরিশেষে, মুসলিম হিসেবে বিনোদনই আমাদের শেষ কথা নয়।এটা আল্লাহর দেওয়া একটা অনুগ্রহ মাত্র।জীবনের অর্থ আরও ব্যাপক,উদ্দেশ্য আরও মহৎ।আল্লাহর নির্ধারিত সীমারেখার মধ্যে থেকে মানুষ তার চাহিদা বৈধভাবে পূরণ করতে পারে।বিনোদন তেমনই একটি চাহিদা।তাই আনন্দের পরিশুদ্ধ মাধ্যমগুলো নিয়ে মেতে উঠুন হালাল বিনোদনে…

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    redwannabil116:

    #ওয়াফিলাইফ_পাঠকের_ভাল_লাগা_জুন_২০২০

    #বইঃ_হালাল_বিনোদন,

    #প্রারম্ভিকাঃ
    মুমিনের জীবনের প্রধান উদ্দেশ্য মহান আল্লাহ সুবনাহু ওয়া তায়ালার ইবাদত করা। ইবাদতের মাঝেও দুনিয়াবি অনেক কাজ করতে হয়। এই ব্যস্ত দুনিয়ায় আমরা কাজ করতে করতে হাপিয়ে উঠি। ফলে একটু বিশ্রাম নিয়ে আবার নতুন উদ্যোমে ইবাদতে মশগুল হতে পারি৷ আর এই বিশ্রাম নেয়ার মাঝেই আমরা বিনোদন খুঁজি। তাতে অবসর সময় হয়ে ওঠে প্রাণবন্ত-সজীব। প্রত্যেক মানুষই অবসর সময়ে একটু বিনোদন চায়। কেউবা আবার এই পুরো সময়টাকে বিনোদনের জন্যই ব্যবহার করে। ফলে আমরা জীবনের মূল উদ্দেশ্য থেকে বেড়িয়ে পড়ি। আসলে মুমিনের জীবনে বিনোদনের সীমারেখা আছে।

    #বইয়ের_ভিতরে_যা_আছেঃ
    বইটি এককথায় একজন বিশ্বাসীর বিনোদন কতটুকু এবং কি হতে পারে তা নিয়ে লেখা। বর্তমান সময়ে বিনোদনের নানান সামগ্রীর ছড়াছড়ি। কিন্তু কোনটা হালাল আর কোনটা হারাম সেটাই আমরা পার্থক্য করতে হয়রান হয়ে পড়ি৷ লেখক সেই কাজটাই আমাদের জন্য সহজ করে দিয়েছেন। বইটিতে লেখক বর্তমান সময়ে প্রচলিত হালাল-হারাম বিনোদনের পার্থক্য করে দিয়েছেন। ফলে হারাম বিনোদন থেকে বাঁচতে সুবিধা হবে। বইটিতে বিনোদনের সীমারেখা দিয়ে দেয়া হয়েছে যা একজন মুমিনের জন্য জানা অতীব জরুরি।

    #আমার_যেমন_লেগেছেঃ
    বইটি পড়ে আমি বিনোদনের আসল উদ্দেশ্য এবং বর্তমান পৃথিবীতে প্রচলিত হারাম বিনোদন সম্পর্কে ভালো একটা ধারণা পেয়েছি। প্রচলিত হারাম বিনোদন সম্পর্কে জানার জন্য এবং এই বিনোদন গুলোর বিকল্প কি হতে পারে তা মার্জিত ভাষায় লেখক ফুটিয়ে তুলেছেন।

    #অনুবাদের_ধরণঃ
    আলহামদুলিল্লাহ। মাসুদ শরীফ খুব সহজ ভাষায় অনুবাদ করেছেন। বইটির কলেবর এমনিতেই ছোট তার উপর এত সুন্দর অনুবাদ করায় বইটি দারুণ লেগেছে।

    লেখক : ইসমাইল কামদার,
    অনুবাদকঃ মাসুদ শরীফ,
    প্রকাশনী : গার্ডিয়ান পাবলিকেশন্স,
    পৃষ্ঠাঃ ৮৭,
    মুদ্রিত মূল্যঃ ১৫০ টাকা।

    5 out of 6 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    mohammadhosen3231:

    [বিসমিল্লাহ]
    [পারম্ভে– হালাল বিনোদন]
    সৃষ্টির সূচনালগ্ন থেকেই প্রাণের অদম্য পথচলা। জন্ম ও মৃত্যুর বেড়াজালে প্রজন্মের অনবরত ছুটে চলা। অনেক প্রাণ এসেছে, অনেক প্রাণ বিলুপ্ত হয়ে গেছে। কেউ কেউ বিলুপ্তির পথে। সে তুলনায় মনুষ্য প্রাণ কিছুটা নতুন। অসংখ্য প্রাণের আগমন আর বিলুপ্তির ধারাবাহিক অনুক্রমের ধর্নায়ও মানুষ তবিয়েত বহাল। স্রষ্টা মনুষ্য প্রাণকে অন্যসবার উপর শ্রেষ্ঠত্ব দিয়েছেন। দিয়েছেন অনন্য সাধারণ গুণাবলি! তথাপি দুরভিসন্ধির মিথ্যা প্রতাপ দেখানো কিছু ধূর্ত প্রাণ অস্বীকার করতে চায় তাদের সৃষ্টিকর্তাকে। তারা একগাল হেসে বলে — আমরা আপনা আপনিই সৃষ্টি হয়েছি!
    কিছু অবলা প্রাণ পথ হারায়। তারা ভুলে যায় তাদের চিরচেনা স্রষ্টাকে, অবিশ্বাস করতে চায় সৃষ্টিকর্তা কর্তৃক প্রদত্ত ধর্মকে৷ তারা পূজা করে, স্রষ্টার সাথে শরীক করে।
    আর কিছু প্রাণ – তারা তাদের শ্রেষ্ঠত্ব নিয়ে গর্বের পাহাড় রচনা করতে গিয়ে হারিয়ে ফেলে তাদের বিবেচনাবোধ। জড়িয়ে পড়ে বিভিন্ন হারামে। হালাল হারাম নিয়ে দ্বন্দ্ব করে, হারামকে নিজের সুবিধামত হালাল বানিয়ে নেয়। হারাম জেনেও ছাড়তে চায় না। আর বিনোদনের বেলায় তাদের এই আবেদন যেন ঢের বেড়ে যায়। তাদেরকেই পথ দেখাতেই হালাল বিনোদন বইটির শুরু এবং শেষ!

    ❛তিনি পবিত্র বস্তুকে তাদের জন্য হালাল এবং অপবিত্র বস্তুকে হারাম করেন।❜—(সূরা আ‘রাফঃ ১৫৭)
    .
    [বইকথন– হালাল বিনোদনের বার্তা]
    বইটির শুরুতেই বর্ণিত হয়েছে ফিকহ বা ইসলামি আইনের কিছু মূলনীতি যা আপনাকে শিখাবে হালাল আর হারাম ও ইসলামের যেকোন বিষয়ে সঠিক সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়ার কৌশল।

    আরো বর্ণিত হয়েছে পাশ্চাত্যের দৃষ্টিতে ইসলামের বিনোদন। এটি সহজেই কোন মডারেট মুসলিমের চোখে পরা পাশ্চাত্যবাদ ও বস্তুবাদের চশমা খুলে দিবে।
    বইটির শুরুতেই পাঠক পেয়ে যাবে একটি ফিল্টার। এরপর লেখক বর্ণানা করেছেন প্রচলিত কিছু বিনোদনের মাধ্যম ও ইসলামের দৃষ্টিভঙ্গিতে তাদের মূল্যায়ন করে দেখিয়েছেন সাধারণ মুসলিমেরা নিজের অজান্তেই কত জঘন্য বিনোদনের দিকে ঝুঁকে যাচ্ছে। বইটির সকল আলোচ্য বিষয়ে টেনে আনা হয়েছে কুরআনের আয়াত ও সহীহ হাদিস সমূহ!

    শেষদিকে সন্ধান পাওয়া যাবে কিছু কুরআন ও সুন্নাহ সমর্থিত বিনোদন মাধ্যমের।
    লেখক আরো মূলোৎপাটন করেছেন ইসলাম নিয়ে কিছু মানুষের ভ্রান্ত ধারণাকে, কিছু ভুল বোঝা-বুঝিকে!
    .
    [বইটি যাদের জন্য]
    এই বইটি ম্যাজিকের মতো কাজ করবে তাদের জন্য যারা ইসলামকে ভালোবাসে, রাব্বে কারীমকে ভালোবাসে। এটি তাদের মধ্যেও অভাবনীয় পরিবর্তন আনবে যাদের অন্তর অনুতপ্ত হতে চায়, যারা ফিরে আসতে চায় সত্য সুন্দর ইসলামের দিকে, রাসুল (ﷺ) এর সুন্নাহের দিকে, মহান আল্লাহর দিকে।
    এটি কাজ করবে সবার জন্য একটি ফিল্টার স্বরূপ, যার ছাকনিতে যে কেউ খুঁজে নিতে পারবে হালাল বিনোদনকে।
    .
    [পাঠানুভূতি]
    বইটি আমার জীবনে মিরাকলের মত কাজ করেছে। এটি আমাকে ছাড়তে সাহায্য করেছে মিউজিকে ভরপুর গান আর হারামসংবলিত মুভি। বইটির লেখক নিজে একজন যুবক। তাই তিনি বইতে সন্নিবেশিত করতে পেরেছেন যুবকদের জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণ। যুবকরা আকৃষ্ট হবে তার লেখার ধরনে, তার নির্বাচিত বিষয়সমূহের প্রতি।
    বাংলা ইসলামি প্রকাশনায় বইটি অমূল্য সংযোজন। আপনিও হাতে তুলে নিতে পারেন, নিজের জীবনের হালাল ও হারামকে বিচার করতে….

    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    যাহরা খানম:

    পড়ার আগমুহূর্ত পর্যন্ত আমার ধারণা ছিল যে,মুসলিমদের জীবনে বিনোদন শব্দটি থাকতে নেই। কিন্তু বইটি আমার ধারণার মোর অন্য দিকে ঘুরিয়ে দেয়। বর্তমান যুগে এত হারাম বিনোদনের ভিড়ে হালাল বিনোদন খুঁজে পাওয়া সত্যিই কষ্টকর। “হালাল বিনোদন ” বইটি পড়ে আমি যেমন অনেক হালাল বিনোদনের সন্ধান পেয়েছি ঠিক তেমনি বুঝতে পেরেছি বিনোদন আসলে আমাদের জীবনের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ। রাসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদেরকে কিছু বিনোদনের অনুমতি দিয়েছেন এবং উৎসাহিত করেছেন। তিনি নিজেও বিভিন্ন খেলাধুলায় অংশগ্রহণ করেছিলেন।হারাম ও হালাল বিনোদনের পার্থক্য বুঝতে সকলেরই উচিত বইটি পড়া।
    5 out of 6 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top