মেন্যু
ek dighol dine nobiji

এক দিঘল দিনে নবিজি ﷺ

অনুবাদ: মাসুদ শরীফ
সম্পাদনা এবং আরবী থেকে সংযোজন: মুফতি মাহমুদুল হক
পৃষ্ঠা: ১৮২
কভার: পেপারব্যাক

এই তো খেজুর গাছের শহর। প্রাণচঞ্চল হৃদয়গুলোর শহর। এখানেই তাঁর হৃদয়ের বসত। যখন এসেছিলেন দীপ্তিময় হয়ে উঠেছিল শহরের প্রতিটি কোণ। এই শহর, শহরের মানুষ আর প্রকৃতি তাকে জড়িয়ে নিয়েছিল নিবিড় করে। খানিক দূরে ব্যথার স্মৃতিমোড়া সেই উহুদ পাহাড়, কত ভালোবাসার টান এর সঙ্গে। শহরপুরীর প্রতিটা অলিগলির কাছে অতি আপন তাঁর পায়ের চিহ্ন। অনতিকাল পর এখানেই গড়ে উঠবে তাঁর মাসজিদ, সঙ্গে লাগোয়া ছোট্ট একটি কুটির। এই মাসজিদের আঙিনাতে তাকে ঘিরে জড়ো হবে সেই মহান একদল মানুষ, যারা তাঁর অনুসরণে উদগ্রীব। তিনি হবেন তাদের ছায়াসঙ্গী। তবে সবচেয়ে মধুর সম্পর্কটি হবে আল্লাহর সঙ্গে।
.
আমরা আজ নবিজি ﷺ-এর সাথে কাটাব সকাল থেকে সন্ধ্যা। দেখব তাঁর প্রতিটি নিমেষ। চোখ মেলে অবলোকন করব তাঁর মহৎ অথচ সাদাসিধে জীবন। তাঁর ব্যস্তময় দিনমানে ছড়িয়ে আছে স্বতঃস্ফূর্ততা। সবকিছুর মাঝে আছে ঐকতান। কত খোরাক ছড়িয়ে আছে সেথায় আমাদের জন্য।

পরিমাণ

169  260 (35% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
- ৪৯৯+ টাকার অর্ডারে একটি প্রিমিয়াম বুকমার্ক ফ্রি!

- ৬৯৯+ টাকার অর্ডারে একটি একটি আমল চেকলিস্ট ফ্রি!

- ৮৯৯+ টাকার অর্ডারে একটি বই ফ্রি!

- ১,১৯৯+ টাকার অর্ডারে একটি আতর ফ্রি!

- ১৪৯৯+ টাকার অর্ডারে সারাদেশে ফ্রি শিপিং!

প্রসাধনী

24 রিভিউ এবং রেটিং - এক দিঘল দিনে নবিজি ﷺ

5.0
Based on 24 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    বইটার বাক্যগুলো ভীষণ মসৃণ, নদীর স্রোতের মতো চলমান, কিংবা দমকা হাওয়া বইতে লাগলে যেমন শব্দ কানে ভাসে তেমনি। প্রতিটি লাইনে প্রতিটি শব্দে চোখ বুলিয়ে যখন যাই তখন মনে হয় এইতো আমি নবীজীর সাথে আছি। সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম
    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    :

    অসাধারণ একটা বই।
    বইটি পড়ে প্রিয় নবিজি ( সাঃ) কে অনেক কাছে থেকে অনুভব করা যায়। মনে হয় যেন উঁকি দিয়ে দেখে এলাম তার জীবনের কিছুদিন। আর সারাক্ষণ মনে হতে থাকে, উনি এই সময় এটা করতেন, আমিও চেষ্টা করি। যদি পারি কিছুটা। উনাকে অনুসরণ করতে উৎসাহিত করে বইটা ভীষণ ভাবে।
    আল্লাহ লেখক ও এর সাথে জড়িত সকলকে উত্তম প্রতিদান দিন।
    5 out of 5 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    :

    ♦প্রারম্ভিকাঃ
    নবিজি (ﷺ )! প্রতিটি মুসলিমের হৃদয়ের বাদশাহ ; যিনি সমগ্র আরব বিশ্বের জাগরণের পথিকৃৎ হিসেবে অগ্রগণ্য।
    যার নাম শুনলেই হৃদয়ে ভালোবাসার নহর বইতে শুরু করে।দর্শন লাভে বঞ্চিত হলেও স্বপ্নের বাতায়ন পথে যাঁর দীদার একবার নসীব হওয়ার জন্য সবাই ব্যকুল।

    ♦বইয়ের বিষয়বস্তুঃ
    এটি মূলত একটি ব্যতিক্রমধর্মী সীরাহ গ্রন্থ।ঘরেবাইরে,উষা লগনে মসজিদে-মজলিশে,মদীনার অলিতে গলিতে,আত্মীয়-স্বজন,বন্ধুবান্ধবের সাথে দেখা,রোগীর খবর নেয়া,মদীনার বাগানে,শক্ত চাটাইয়ে,খাবারের ক্ষণে কিংবা নিশি জাগরণে নবিজির প্রতিটি মুহুর্ত যেন কেউ সে যুগে বসে ডায়রিতে লিপিবদ্ধ করেছে।রোজনামচা আকারে অহর্নিশি নবিজির প্রতিটি মুহূর্ত এক মলাটে আবদ্ধ;যা পড়লে মনে হয় নবিজিকে যেন চোখের সামনে দেখতে পাওয়া যায়।নবিজির সারা দিনের প্রতিটি আমল,আযকার,আখলাক ক্রমান্বয়ে গল্পের ভাষায় সাজিয়ে পাঠককে আরও ১৪০০ বছর পিছনে সোনালি অতীতের দৃশ্যপটে নিয়ে গেছে যাতে নবিজিকে যেন আরও গভীরভাবে চেনা-জানা যায়,নিবিড়ভাবে ভালোবাসা যায়।

    ♥পাঠ্যানুভুতিঃ
    বইয়ের প্রচ্ছদ দেখে মনে যেমন শীতল পরশ অনুভূত হয়েছিল তেমনি
    বইটি পড়ে অস্ফুট স্বরে মন থেকে বেরিয়ে আসে-
    “এক দিঘল দিনে প্রতিক্ষনে;
    নবিজির পদাংক অনুসরণে;
    মনে প্রশান্তি আনে।”

    ♦বইটি কেন পড়বেন?
    একজন মুসলিম হিসেবে প্রাত্যাহিক জীবন নববি সুন্নাতের আলোকে সাজাতে,নবির মত প্রোডাকটিভ হয়ে সময়ের যথার্থ ব্যবহার করতে,উষালগন থেকে শুরু করে নিশিরাত পর্যন্ত নবির শিক্ষায় নিজেকে দীক্ষিত করে তুলতে বইটি পড়া আবশ্যক।

    ♦উপসংহারঃ
    নবিপ্রেমে সিক্ত প্রতিটি মুসলিমের মনের সেই অপূর্ণ আকাঙ্ক্ষা প্রিয় নবিজিকে এক পলক দেখা,তাঁর সাথে কিছু সময় কাটানো,সকাল থেকে সন্ধ্যা তাঁর সাদাসিধে ব্যস্তময় জীবনে ছড়িয়ে থাকা স্বতঃস্ফূর্ততা চোখ মেলে অবলোকন করা; এসবের সৌভাগ্য না হলেও মনের খোরাক কিছুটা মেটাতে পেরেছে বইটি।

    আল্লাহ লেখককে এবং বইয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলে উত্তম প্রতিদান দান করুন। আমিন

    রেটিংঃ ৯/১০

    4 out of 4 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    :

    নবিজি (ﷺ )! প্রতিটি মুসলিমের হৃদয়ের বাদশাহ ; যিনি সমগ্র আরব বিশ্বের জাগরণের পথিকৃৎ হিসেবে অগ্রগণ্য।
    যার নাম শুনলেই হৃদয়ে ভালোবাসার নহর বইতে শুরু করে।দর্শন লাভে বঞ্চিত হলেও স্বপ্নের বাতায়ন পথে যাঁর দীদার একবার নসীব হওয়ার জন্য সবাই ব্যকুল।

    নবিপ্রেমে সিক্ত প্রতিটি মুসলিমের মনের সেই অপূর্ণ আকাঙ্ক্ষা প্রিয় নবিজিকে এক পলক দেখা,তাঁর সাথে কিছু সময় কাটানো,সকাল থেকে সন্ধ্যা তাঁর সাদাসিধে ব্যস্তময় জীবনে ছড়িয়ে থাকা স্বতঃস্ফূর্ততা চোখ মেলে অবলোকন করা; এসবের সৌভাগ্য না হলেও মনের খোরাক কিছুটা মেটাতে পেরেছে বইটি।এটি মূলত একটি ব্যতিক্রমধর্মী সীরাহ গ্রন্থ।ঘরেবাইরে,উষা লগনে মসজিদে-মজলিশে,মদীনার অলিতে গলিতে,আত্মীয়-স্বজন,বন্ধুবান্ধবের সাথে দেখা,রোগীর খবর নেয়া,মদীনার বাগানে,শক্ত চাটাইয়ে,খাবারের ক্ষণে কিংবা নিশি জাগরণে নবিজির প্রতিটি মুহুর্ত যেন কেউ সে যুগে বসে ডায়রিতে লিপিবদ্ধ করেছে।রোজনামচা আকারে অহর্নিশি নবিজির প্রতিটি মুহূর্ত এক মলাটে আবদ্ধ করা হয়েছে।যা পড়লে মনে হয় নবিজিকে যেন চোখের সামনে দেখতে পাওয়া যায়।নবিজির সারা দিনের প্রতিটি আমল,আযকার,আখলাক ক্রমান্বয়ে গল্পের ভাষায় সাজিয়ে পাঠককে আরও ১৪০০ বছর পিছনে সোনালি অতীতের দৃশ্যপটে নিয়ে গেছে যাতে নবিজিকে যেন আরও গভীরভাবে চেনা-জানা যায়,নিবিড়ভাবে ভালোবাসা যায়।বইটি পড়ে অস্ফুট স্বরে মন থেকে বেরিয়ে আসে-
    “এক দিঘল দিনে প্রতিক্ষনে;
    নবিজির পদাংক অনুসরণে;
    মনে প্রশান্তি আনে।”

    বইটি কেন পড়বেন?
    একজন মুসলিম হিসেবে প্রাত্যাহিক জীবন নববি সুন্নাতের আলোকে সাজাতে,নবির মত প্রোডাকটিভ হয়ে সময়ের যথার্থ ব্যবহার করতে,উষালগন থেকে শুরু করে নিশিরাত পর্যন্ত নবির শিক্ষায় নিজেকে দীক্ষিত করে তুলতে বইটি পড়া আবশ্যক।

    আল্লাহ লেখককে এবং বইয়ের সাথে সংশ্লিষ্ট সকলকে উত্তম প্রতিদান দান করুন।আমিন

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top