মেন্যু
১০০০ টাকার পণ্য কিনলে সারা দেশে ডেলিভারি একদম ফ্রি।

দুর্গম পথের যাত্রী

পৃষ্ঠা: ১৮৪
(হার্ড কভার)

কবি ও সাহিত্যিক আসাদ বিন হাফিজ রচিত ঐতিহাসিক উপন্যাস ‘দুর্গম পথের যাত্রী’। এই উপন্যাসের কাহিনি বর্ণিত হয়েছে মহাবীর হযরত খালিদ বিন ওয়ালিদ রা.-এর ইসলামে ফিরে আসার চমকপ্রদ ঘটনাসমূহ নিয়ে।

মহাবীর। সাইফুল্লাহ। আল্লাহর তরবারি।
তাঁর কি আর কোনো পরিচয় দেওয়ার প্রয়োজন পড়ে?
তিনি খালিদ বিন ওয়ালিদ রা.। জাহেলিয়াতের সাগরে হাবুডুবু খাচ্ছিলেন। একের পর এক বিজয়ের মালা পড়ছেন; তবুও কী এক আড়ষ্টতা যেন তাকে পেয়ে বসেছে। স্বস্তি নেই মনে; কী যেন খুঁজে ফিরছেন।

৬২৮ খ্রিষ্টাব্দের ৩১ মে। আরবের প্রসিদ্ধ জেনারেল খালিদ বিন ওয়ালিদ এবং আমর বিন আস একই সঙ্গে রাসূল সা.-এর দরবারে গিয়ে হাজির হলেন; সঙ্গে ওসমান বিন তালহা। প্রথমেই কামরায় ঢুকলেন খালিদ বিন ওয়ালিদ, তাঁর পেছনে আমর বিন আস এবং সবার শেষে ওসমান বিন তালহা।

তিনজনই নবিজিকে জানালেন তাদের ইচ্ছার কথা। নবিজিকে উঠে দাঁড়ালেন এবং প্রত্যেকের সাথে কোলাকুলি করলেন। এরপর ঘটল সেই অবিস্মরণীয় ঘটনা। রাসূল সা.- এর সাথে কণ্ঠ মিলিয়ে সবাই পড়লেন, ‘লা-ইলাহা ইল্লাল্লাহু মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ- আল্লাহ ছাড়া কোনো উপাস্য নেই এবং মুহাম্মাদ সা. আল্লাহর প্রেরিত নবি ও রাসূল।’

এ এক রোমাঞ্চকর ঘরে ফেরার গল্প! এক শিহরণ জাগানিয়া সফর!

পরিমাণ

188.00  270.00 (30% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

1 রিভিউ এবং রেটিং - দুর্গম পথের যাত্রী

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    #ওয়াফিলাইফ_পাঠকের_ভাল_লাগা_সেপ্টেম্বর_২০২০

    *বইঃ দুর্গম পথের যাত্রী
    *লেখকঃআসাদ বিন হাফিজ
    *প্রকাশনীঃ গার্ডিয়ান পাবলিকেশনস
    *পৃষ্ঠা সংখ্যাঃ১৮২
    *মূল্যঃ ২৭০টাকা (৩০% ছাড়ে ১৮৮ টাকা)
    _____________

    মহাবীর খালিদ বিন ওয়ালিদের ইসলাম গ্রহণের রোমাঞ্চকর কাহিনি
    ____________

    খালিদ বিন ওয়ালিদের পিতা ছিলেন ইসলাম বিদ্বেষী।রাসুল (সাঃ) কে নিশ্চিহ্ন করতে চেষ্টার কোনো কমতি রাখেন নি।বাবার এই বৈশিষ্ট্যটি খালিদ ভালো করেই পেয়েছিল। তার স্বপ্ন ছিল রাসুল (সাঃ) কে নিজ হাতে কতল করা।কিন্তু তাকদিরের মালিক তো আল্লাহই। খালিদ জীবনের প্রথম দিকে মুসলমানদের বিরুদ্ধে অনেক যুদ্ধে অংশ নিয়েছেন।অসংখ্য মুজাহিদের মস্তক কেটেছেন তার তলোয়ার দিয়ে। প্রত্যেক যুদ্ধে তিনি রাসুলুল্লাহ (সাঃ)এর যুদ্ধবন্দীদের সাথে ব্যবহার, যুদ্ধনীতি,আচার আচরণ দেখে মুগ্ধ হন। তার ভাইকে একবার বন্দী করা হয়। তো মুক্তিপণ দিতে গিয়ে দেখল ভাই মুসলমান হয়ে বসে আছে। খালিদ তো অবাক।ধীরে ধীরে তার মন মানসিকতা ইসলামের দিকে ঝুকে যাচ্ছিল।কাফিরদের ধর্মও আর ভালো লাগছিল না তার।একের পর এক বিজয়ের মালা পড়ছেন;তবুও কী এক আড়ষ্টতা যেন তাকে পেয়ে বসেছে! কী যেনো একটা নেই।বুকটা শুণ্য,হাহাকার।

    তো একদিন তিনি মক্কা থেকে মদিনায় রওনা দিলেন ইসলাম গ্রহণের জন্য।এই যাত্রাপথে তার অনেক স্মৃতি মনে পরে গেল, অনুশোচনায় তিনি কাঁদতে থাকেন। অবশেষে তিনি ফিরে এলেন। ফিরলেন বিশ্বাসীদের মিছিলে স্লোগান হাঁকতে,হায়দারি হাঁক ছাড়তে।

    এ এক রোমাঞ্চকর ফেরার গল্প!এক শিহরণ জাগানিয়া সফর!
    ________________

    ছোটবেলায় মাসিক কিশোরকন্ঠ পত্রিকায় ধারাবাহিকভাবে এই উপন্যাসটি ছাপা হত।আনন্দের সাথে পড়তাম।কিন্তু যখন শুনলাম গার্ডিয়ান পাবলিকেশনস এই উপন্যাসটি সম্পূর্ণ আকারে প্রকাশ করেছে তখন আরো খুশি হলাম।বইমেলা ২০২০ এ এই বইটি আমার বড় বোন আমাকে উপহার হিসেবে দেয়। এক নিমিষেই তা পড়া শেষ হয়ে যায়।বারবার পড়ি, কেন জানি ভালো লাগে!
    ————
    এই বইয়ের ভাষাশৈলি এককথায় অসাধারণ। লেখক তাঁর পান্ডিত্যের পরিচয়ই দিয়েছেন।প্রত্যেক সাহিত্যপ্রেমী মুসলমানদের একবার হলেও এই “দুর্গম পথের যাত্রী” বইটি পড়া উচিত বলে আমি মনে করি।

    ___________

    🔥রিভিউ লেখকঃ Abdullah Mohammad

    3 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?