মেন্যু


ধৈর্য হারাবেন না

প্রকাশনী : পথিক প্রকাশন

অনুবাদক: মুফতী সাইফুল্লাহ আল মাহমুদ
পৃষ্ঠা: ৮০
কভার: পেপার ব্যাক

পরিমাণ

91  160 (43% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
জিলহজ্জ স্পেশাল গ্যাজেটস
- ১৪৯৯+ টাকার অর্ডারে সারাদেশে ফ্রি শিপিং!

2 রিভিউ এবং রেটিং - ধৈর্য হারাবেন না

5.0
Based on 2 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    #ওয়াফিলাইফ_পাঠকের_ভালো_লাগা_জুলাই_২০২০

    “যে সহে, সে রহে ”

    চিরাচরিত বাংলা এই প্রবাদটি আমরা সবাই জানি।প্রবাদ হিসেবে মেনে নিতে এটিকে মেনে নিতে আমাদের আপত্তি নেই,তবে সমস্যা হলো বাস্তব জীবনে এর অনুশীলন নিয়ে।দুনিয়া মানেই পরীক্ষা। পরীক্ষার সফলতার জন্য ধৈর্য ধারন করা দরকার।আবার সবার কিন্তু পরীক্ষা নেয়া হয় না।পরীক্ষা তাদেরই নেয়া হয় যারা যোগ্য।মুমিনদের চলার পথে পরীক্ষা তো আসবেই,বরং পরীক্ষা না আসাটাই দুশ্চিন্তার কারন।বিপদ-আপদ, কষ্ট-দূর্দশায় হতাশ হবেন না,বরং এই নিয়ামত গুলোর কদর করতে শিখুন,সবর করুন।সুবহানআল্লাহ! যেখানে মুমিনদের জন্য কাঁটা বিঁধলেও গুনাহ মাফ হয় সেখানে আপনি কেন দুশ্চিন্তা করবেন?

    ________________________________
    ★কি নিয়ে এই বই
    ________________________________
    #ধৈর্য_হারাবেন_না __এই বইটি মূলত বিশ্বের অন্যতম দাঈ শাইখ আল মানাজ্জিল কর্তৃক রচিত “সিলসিলাতুল আমালুল কুলুব” এর একটি অংশ আস-সবর এর বাংলা অনুবাদ।লেখক বইটিতে ধৈর্যের পরিচয়,প্রকারভেদ, ধৈর্যের দুনিয়াবি এবং পরকালীন সুফল, এবং মহৎ ব্যক্তিদ্বয়ের ধৈর্য ধারনের উদাহরণসহ বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে।ধৈর্য বিষয়ক এতো খোলামেলা আলোচনা এবং অসাধারণ লেখা আমি এর আগে পড়িনি।

    ____________________________________
    ‌‌★সার-সংক্ষেপ
    _____________________________________
    #ধৈর্য_হারাবেন_না ___বইয়ের শিরোনামেই মনে হচ্ছে একগাদা উপদেশের ঝুলি,তাই না?আসলে তা নয়। বইটিতে এমনভাবে ধৈর্য সম্পর্কে বলা আছে যে আপনি নিজের অজান্তেই বইটি ধৈর্য ধরে পড়তে থাকবেন।ধৈর্য বলতে মূলত বোঝায় সর্ববস্থায় মহান রবের ফয়সালায় সন্তুষ্ট থাকা।৭৬ পৃষ্ঠার বইটি আপনাকে ধৈর্য সম্পর্কে পরিস্কার ধারনা দেবে।আলোচিত বিষয় সম্পর্কে জেনে আমরা খুব সহজেই ধৈর্যের গুরুত্ব অনুধাবন করতে পারব এবং প্রবৃত্তির অনুসরন হতে দূরে থাকতে পারবো।

    মুমিনদের অন্যতম গুন হলো সবর বা ধৈর্য ধারন।প্রিয়তম রবের চাহিদানুযায়ী নিজের মন বা নফসকে আটকে রাখাই হলো ধৈর্য। যে ব্যক্তি ধৈর্যধারন করেন তাকে বলা হয় ‘সাবের’।
    ধৈর্য কেবল এক স্তরে সীমাবদ্ধ নয়।ধৈর্যের রয়েছে তিনটি স্তর। এগুলো হলো—
    ১))আল্লাহর আনুগত্যে ধৈর্যধারন
    ২))গুনাহ /নফস থেকে বাঁচার জন্য ধৈর্যধারন
    ৩))বিপদে ধৈর্যধারন

    মহান রব মুমিনদের কে ধৈর্যধারন করতে বলেছেন সকল অবস্থায়। পবিত্র কুরআনে উল্লেখ আছে___

    “ধৈর্যের সাথে সালাতের মাধ্যমে আল্লাহর কাছে সাহায্য প্রার্থনা করো”

    ক্ষনস্থায়ী দুনিয়ার দুঃখ গুলো ও ক্ষনস্থায়ী।মুমিনদের জন্য ‘সকল ভালো’ কেবল ধৈর্যধারনের মধ্যেই রয়েছে। আল্লাহ তায়ালা হয়তো চান বিপদে আপতিত করে আমাদের হিদায়ত দিতে!মহান রব হয়তো আমাদের ক্ষমা করেই দিতে চান!পরীক্ষার মাধ্যমে হয়তো আমাদের জন্য তাওবা দুয়ার খুলে দিতে চান!___এভাবেই লেখক বইয়ের প্রথম অংশে সবরের গুরুত্ব আলেচনা করেছেন।

    বইয়ের শেষাংশে লেখক নবী-রাসূল,সাহাবায়ে কেরাম এবং তাবেইগনের উপর আপতিত বিপদের কথা তুলে ধরেছেন। লেখকের মতে পূর্ববর্তীদের সবরের দৃষ্টান্ত আমাদের অনুপ্রেরণা যোগাবে।

    মহান রব নূহ আঃ কে মহাপ্লাবন দ্বারা পরীক্ষা করেছেন,
    ইবরাহীম আঃ কে পরীক্ষা করেছেন আগুন ও স্বীয় পরিজনের দ্বারা,
    মূসা আঃ কে পরীক্ষা করেছেন জালিম বাদশাহ ফিরআউনের মুখোমুখি করে,
    আর প্রিয় নবী সাঃ তো পদে পদে পরীক্ষার সম্মুখীন হয়েছেন।

    খেয়াল করুন!নবী-রাসুলগন ছিলেন আল্লাহর প্রিয় বান্দা।অথচ তাদেরই পদে পদে পরীক্ষার মুখোমুখি হতে হয়েছেন।আর “কোথাকার কোন আমরা” সামান্যতেই বলি,
    “আমার সাথেই কেন এমন হয়?”
    “আল্লাহ কি শুধু আমাকেই দেখেন? ”

    অথচ আমরা ভুলে যাই মহান রব কারো উপরেই সামর্থ্যের অতিরিক্ত বোঝা চাপান না।সমস্যা শুধু আমাদের দৃষ্টিভঙ্গির।

    ____________________________
    #কেন_বইটি_পড়া_জরুরি?
    ____________________________
    আমার মতে বর্তমানের সবচেয়ে সময়োপযোগী বই এটি।চারিদিকে মহামারী করোনার প্রাদুর্ভাব। লকডাউনে জনজীবন অতিষ্ঠ। অর্থনৈতিক সমস্যার মুখোমুখি প্রতিটি পরিবার। এই তো উপযুক্ত সময় সবরের মাধ্যমে রবের সান্নিধ্য লাভ করার।বইটা পড়ুন,দৃষ্টিভঙ্গি বদলান।জীবনের মানে খুজে পাবেন ইনশাআল্লাহ।
    _________________________
    #ভালো_লাগা,মন্দ লাগা
    _________________________
    যা ভালো লেগেছে,

    _উপযুক্ত প্রচ্ছদ
    _সাবলীল অনুবাদ
    _ফন্ট সাইজ
    _সময়োপযোগী বক্তব্য

    যা মন্দ লেগেছে,
    পুরো বইটি অসাধারণ! খারাপ লাগার কথা মনেই আসেনি।
    _________________________
    #কেন_পড়বেন_বইটি?
    _________________________
    _আপনি কি জানেন ধৈর্যের গুরুত্ব কি?
    _আপনি কি হতাশায় আচ্ছন্ন?
    _জীবনের মানে খুজে পাচ্ছেন না?
    _অল্পতেই হতাশ হয়ে পরেন?
    _নফসকে নিয়ন্ত্রণ করার উপায় জানা নেই?
    _আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টি অর্জন করার উপায় জানা আছে কি?

    __তাহলে বইটি আপনার জন্য…..

    ___________________________
    #লেখক_সম্পর্কে_দু_লাইন
    ___________________________
    শাইখ মুহাম্মদ সালেহ আল মুনাজ্জিদ এর জন্ম ও বেড়ে ওঠে ও শিক্ষাজীবন কাটে সৌদিআরবে।শাইখ আব্দুল আজিজ আব্দুল্লাহ বিন বায রহঃ এর প্রচেষ্টায় বর্তমানে তিনি আরব বিশ্বের সামনে আলোড়নকারী খতিব হিসেবে নিজেকে তুলে ধরেছেন। বর্তমানে তিনি আল খুবার শহরের এক মসজিদে ইমাম ও খতিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

    _________________________
    #শেষ_কথন
    _________________________
    মহান রব একদিন নিশ্চয়ই চোখের পানি মুছে দেবেন।অন্তরের মালিক অন্তরে প্রশান্তি দান করবেন।
    সবর করুন।
    একটু ধৈর্য ধরুন।
    আস্থা রাখুন রবের ফয়সালার উপর!
    নিশ্চয়ই আপনি সফলকাম হবেন।
    আমার রবের ওয়াদা মিথ্যে নয়।
    আল্লাহ তায়ালা আমাদের বইটি পড়ার এবং সর্ববস্থায় সবর করার তৌফিক দান করুন।

    সকলকে জাঝাকুমুল্লাহ খাইরান।
    ______________________

    [আমি আল্লাহর নিকট আশ্রয় চাই মূর্খদের অন্তর্ভুক্ত হওয়া থেকে ]

    2 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    :

    #ওয়াফিলাইফ_পাঠকের_ভালোলাগা_মে২০২০

    #বুক_রিভিউ_৫

    বইঃধৈর্য হারাবেন না
    লেখকঃশাইখ মুহাম্মদ সালেহ আল মুনাজ্জিদ
    প্রকাশনীঃপথিক প্রকাশন
    অনূদিতঃসাইফুল্লাহ আল মাহমূদ
    মূল্যঃ১৬০

    যেসব গুনাবলী মানুষের জীবনকে সফল ও সার্থক করে তোলে তন্মধ্যে ধৈর্যশীলতা বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ।দুঃখ-দুর্দশা,হতাশা দিয়ে পরিপূর্ণ এই জীবনের কণ্টকাকীর্ণ বন্ধুর পথ পাড়ি দিতে ধৈর্য ছাড়া কোনো বিকল্প নেই।ধৈর্য হলো সফলতা ও সওয়াব পাওয়ার অন্যতম মাধ্যম।আল্লাহ তায়া’লা বলেন,
    “অবশ্যই আমি তোমাদেরকে পরীক্ষা করবো কিছুটা ভয়,ক্ষুধা,জান ও মালের ক্ষতি ও ফল-ফসল বিনষ্টের মাধ্যমে।তবে সুসংবাদ দাও ধৈর্যশীলদের।”(সূরা বাকারা,আয়াত ১৫৫)

    “ধৈর্য হারাবেন না” বইটি “সিলসিলাতুল আমালুল কুলুব” এর একটি অংশ আস-সবর এর বাংলা অনুবাদ যা আরব বিশ্বের ইসলামের অন্যতম দাঈ শাইখ সালেহ আল মুনাজ্জিদ কর্তৃক রচিত।

    ধৈর্য বলতে মূলত নিজের নফসের অনুসরণ করা থেকে বিরত থাকা বুঝায়।বইটিতে ধৈর্যের সংজ্ঞা,প্রকারভেদ,স্তর,সময়কাল,বাস্তবতা ও ধৈর্যের বিভিন্ন ক্ষেত্র সম্পর্কে উদাহরণসহ আলোচনা করা হয়েছে।আলোচিত সকল বিষয় সম্পর্কে জেনে আমরা খুব সহজেই ধৈর্যের গুরুত্ব অনুধাবনে সক্ষম হয়ে নিজেদেরকে কুপ্রবৃত্তি থেকে দূরে রাখতে পারবো।ধৈর্যের স্তরগুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ স্তর হলো আল্লাহর আনুগত্যের ওপর অবিচল থেকে ধৈর্যধারণ করা।আল্লাহ তায়ালা মুমিনদেরকে বিভিন্ন পরীক্ষার মাধ্যমে পরিশুদ্ধ করে নিতে চান যেসময় ধৈর্যধারণ করার ফলে তাদেরকে দেয়া হবে সীমাহীন প্রতিদান।অনেক কঠিন পরিস্থিতিতেই আমরা হা-হুতাশ করে সেটাকে আরো কঠিনতর করে ফেলি যা মোটেও ঠিক না।কষ্টের মেঘ কেটে নতুন দীপ্তময় সকালের সূচনা ঘটবে যা আমরা ভুলে যাই।তখন ধৈর্যধারণ করে অবিরাম প্রতিদান আমরা চাইলেই পেতে পারি যা এই বই পড়ার মাধ্যমে শিক্ষা নিতে পারবো।বইটির শেষ অংশে নবী-রাসুল,সাহাবী এবং তাবেঈনদের ধৈর্যধারণের কিছু ঘটনা সম্পর্কে বর্ণনা রয়েছে যা আমাদের জন্য পরম আদর্শ। এর মধ্যে খুবাইব (রাঃ) এর নির্মম ঘটনাটি আমাকে খুবই ব্যথিত করেছে।

    ধৈর্যশীলতা অর্জনের মাধ্যমে আল্লাহ তায়ালার প্রিয় বান্দা হওয়ার জন্য ছোট এই বইটি অবশ্যই পড়ুন।মুমিনের জন্য ধৈর্যধারণ করার মাধ্যমেই দুনিয়া এবং আখিরাতে সকল কল্যাণ নিহিত।

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top