মেন্যু
char tara

চার তারা

প্রকাশনী : আযান প্রকাশনী
প্রচ্ছদঃ পেপারব্যাক পৃষ্ঠাঃ ৯৬ চার ইমাম। ইমাম নুমান বিন সাবিত, ইমাম মালিক বিন আনাস, ইমাম শাফে'য়ী এবং ইমাম আহমদ ইবন হাম্বল। রাহিমাহুমুল্লাহ। সাহাবা (রাদিয়াল্লাহু আনহুম ওয়া আজমাইন) দের পরের প্রজন্ম। সত্য যুগের... আরো পড়ুন

Out of stock

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

4 রিভিউ এবং রেটিং - চার তারা

5.0
Based on 4 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    সাবিহা সাবা:

    বুক রিভিউ পড়েছেন কখনো?

    রিভিউ পড়বার পর আপনার অনুভূতি কেমন ছিলো?

    কখনো কি এমন হয়েছে যে, রিভিউ পড়ে ভাবলেন- রিভিউতে তো জানলাম বইয়ের কনটেন্ট কি; বই না পড়লেও চলবে।তা কিন্তু নয়। বরং রিভিউ, পাঠকের মনে বইয়ের প্রতি উৎসাহ বাড়িয়ে তোলে। বইটি কখন হাতে আসবে, পড়ার সুযোগ হবে- সেরকম এক উৎকন্ঠা কাজ করে!

    আজকে যেই বই নিয়ে কথা বলছি, আমার কাছে এ বইটি ও একপ্রকার রিভিউর মতো অনুভূত হলো। তবে তা কোন বইয়ের রিভিউ নয়। বরং আমাদের জ্ঞানের মুজতাহিদ শ্রদ্ধেয় চারজন ইমামের জীবনীর রিভিউ। তাঁরা কেমন ছিলেন, তা সম্পর্কে জানতে জনমানুষের মনে আগ্রহ সৃষ্টি করার উদ্দেশ্যে লেখক সম্পূর্ণরূপে সফল হয়েছেন বলে আমি মনে করি। কেননা এই বইটি পড়ার পর, জ্ঞানের বিশাল সমুদ্রের ধারক, আমাদের চারজন ইমামের জীবনাচরণের বিস্তারিত জ্ঞান আপনি লাভ করতে ইচ্ছুক হবেন।
    তাঁরা কেমন ছিলেন, জ্ঞানার্জনের জন্য কতোটা উন্মুখ ছিলেন, জ্ঞানপিপাসা নিবারণে তাঁদের আত্মত্যাগ, সত্যের পথে অটল অবিচল থাকতে গিয়ে হাজারো কষ্ট সহ্য করা- এসব ই আপনাকে তাঁদরে জীবন সম্পর্কে আরো জানতে অনুপ্রাণিত করবে।

    এই বই পড়লে আপনি জানতে পারবেন, চার মাজহাবের প্রবর্তক চারজন ইমামের মাঝে ছিলো ছাত্র- শিক্ষকের সম্পর্ক। যা কিছু সত্য ও যৌক্তিক, তা নিজের মতের বাহিরে গেলেও, দ্বিধাহীন চিত্তে মেনে নিতে তারা প্রস্তুত ছিলেন। পরস্পরের প্রতি ছিলেন শ্রদ্ধাশীল! সহনশীলতার গুণ তাঁদের মাঝে ছিলো প্রবল! ভিন্ন মতের ব্যক্তিদের সাথে ভালোবাসা পূর্ণ আচরণ করতেন।
    রাহিমাহুমুল্লাহ!

    একজন ব্যবসায়ী যুবকের জ্ঞানের সাধক হয়ে ওঠার ঘটনা, দারিদ্রের সাথে লড়াই করে কষ্টসহিষ্ণুতা অর্জন করে জ্ঞানান্বেষণে ছুটে চলা এক যুবকের জীবনী আপনার জীবনের জন্য অনুপ্রেরণা হবে! শতো নির্যাতন সয়েও বাতিল শক্তির সাথে তারা কখনোই আপোষ করেন নি।

    বইটির একটি ভিন্ন বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এখানে লেখক চারজন ইমামের প্রত্যেককে দু’শব্দের গুণবাচক নামে সংজ্ঞায়িত করার চেষ্টা করেছেন। যেমন- ইমাম আবু হানিফা(রাহিঃ)-কে ❝ইমানদীপ্ত ধীমান❞, ইমাম আশ শাফেঈ’র নামের সাথে ❝রবি ও কবি❞।

    দ্বীনে ফেরা এবং চর্চাকারী আমাদের মুসলিম ভাই-বোনেরা অনেকেই ইমামদের জীবনী সম্বন্ধে জানতে আগ্রহী। কিন্তু বিশাল পরিসরে লিখা বইগুলো হয়তো তাদের পড়ার আগ্রহ কমিয়ে দেয় কিংবা নানাবিধ অসুবিধার কারণে সংগ্রহে রাখা সম্ভব হয় না। তাদের জন্য লেখক ” আরিফুল ইসলাম ” এর ” চার তারা ” বইটি সব সমস্যার সমাধান দিয়ে দিবে। লেখক স্বল্প কলেবরে ইমামদের জীবনীর এক প্রতিচ্ছবি তুলে এনেছেন তাঁর অসাধারণ লেখনশৈলীর দ্বারা! ফলে আপনি বইটি পড়ে ইমামদের জীবনী সম্বন্ধে ধারণা রাখতে সমর্থ হবেন।

    ওয়ামা তাওফিকি ইল্লা-বিল্লাহ!

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    মো জসিম উদ্দীন:

    বই সারসংক্ষেপঃ
    একজন মুসলিম হিসেবে চার ইমামের কথা শোনেননি অথবা চার মাযহাব সম্পর্কে জানেন না তা খুবই দুর্লভ, তাই না? যদি বলা হয় চার ইমামের কথা তো শুনলেন কিন্তু চার ইমাম কে ছিলেন বা তাদের জীবনী সম্পর্কে কতটুকু জানেন? তাহলে চিত্র হবে তার উল্টো মানে তাদের জীবনী সম্পর্কে জানেন এমন মানুষ পাওয়া খুবই দুর্লভ হবে।
    আমাদের প্রধান চার ইমাম হলেন, ইমাম আবু হানিফা, ইমাম মালিক, ইমাম আশ-শাফেঈ, ইমাম আহমদ ইবনে হাম্বল (রাহিমাহুল্লাহ)। এই চারজনের জীবনের খুঁটিনাটি বিষয়গুলো চমৎকার ও সহজ ভাবে ফুটে ওঠে বইয়ের মাঝে। কিভাবে তারা পৃথিবীর বুকে বুনন করেছেন ইসলামের শস্যদানা এবং সেই শস্যক্ষেত্রে তাদের কতটুক অবদান তাই মূলত লেখক ফুটিয়ে তুলেছেন বইটিতে। তুলে ধরেছেন একজন বাজারমুখী যুবকের ইমাম হয়ে ওঠার পেছনের গল্প। তার সততা এবং নিষ্ঠা দিয়ে কিভাবে মানুষের মন জয় করে নিয়েছেন তাও বর্ণিত আছে।
    আমাদের মাযহাবগত অনেক বিতর্ক থাকতে পারে কিন্তু চার ইমামের মধ্যে সম্পর্ক কি রকম ছিল তা হয়তো আপনি ভাবতেই পারবেন না আর তাদের মধ্যকার আত্ম-সংযোগ কেমন ছিল তাও জানতে পারবেন বইটির মাধ্যমে। বিভিন্ন মাযহাবদের মতবিরুদ্ধ বিভিন্ন ইসলামিক প্রন্থার বিবরণ উল্লেখিত আছে বইটিতে। তাই ইসলামের চারজন মাহতাবের জীবনীয় ও তাদের সকল মযহাব সম্পর্কে অবগত হওয়ার জন্য/ জানতে হলে অবশ্যই পড়তে হবে “চার তারা” বইটিকে।

    ব্যক্তিগত মতামতঃ
    ব্যাক্তিগতভাবে “চার তারা” বইটি আমার সত্যি চমৎকার লেগেছে। অবশ্য লাগার মতোই। লেখকের লেখা ছিলো নিদারুণ ও প্রশংসনীয়। আমরা অনেকেই ইসলামের চার মযহাবের কথা বা নামে অবগত। কিন্তু তাদের অবদান অবগত নই। যারা অবগত নেন তাদের উদ্দেশ্য বলছি, বইটি সত্যি চমৎকার! পড়লে অনেক কিছু শিখাতে পারবেন। ইসলামিক বিধিবিধান, চার মাযহাবের প্রদানকৃত ইসলাম সম্পর্কিত নিয়মাবলি জানতে পারবেন। ইসলাম সম্পর্কে যত জ্ঞান আহরণ করা যায় ততই দ্বীনের দিকে ধাবিত হতে মন চাইবে।

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    nahar8123:

    প্রসিদ্ধ চার মাযহাবের অনুসারীরা বর্তমান সময়ে যেমন সাংঘর্ষিক আচরণ করেন, মাযহাবের ঈমামগন মোটেও এমন ছিলেন না। তারা একে অপরের জন্য ছিলেন সম্মানীয়, সম্মান প্রদর্শক। একে অপরের সম্পর্কে অত্যন্ত সুন্দর মনোভাব পোষণ করতেন। ঈমাম আবু হানিফা রহ. ঈমাম মালিক ইবনে আনাস রহ. ঈমাম মুহাম্মদ ইবনে ইদ্রিস আশ-শাফে’ঈ রহ. ঈমাম আহমদ ইবনে হাম্বল রহ. এর প্রাথমিক পরিচয়, জ্ঞান অন্বেষণে তাদের যাত্রা সংক্ষিপ্তভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে বইটিতে।

    নেতিবাচক দিকঃ তেমন নেতিবাচক দিক পাইনি। প্রাথমিক পরিচয় জানার জন্য সুন্দর ও গোছালো একটি বই মাশাআল্লাহ

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    Ashik:

    oshadhanor ekta boi, majhab ki r char imam er jibone tader eke opor er proti ki mono vhab chilo, tara vhinno mot k kivhabe dekhtn aro onk kisu niye boi ti ekta oshadharon boi…
    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No