মেন্যু
biye o divorce

বিয়ে ও ডিভোর্স

পৃষ্ঠা : 128, কভার : হার্ড কভার, সংস্করণ : 1st published 2020

অনুবাদক : শাহেদ হাসান

এই গ্রন্থটি মুসলিম তরুণ ও যুবকদের জন্য অনুপ্রেরণা ও উৎসাহের কারণ হবে। গ্রন্থটিতে বিশদভাবে বিয়ের উপকারিতা উপস্থাপন করা হয়েছে। বৈজ্ঞানিক দৃষ্টিকোণ থেকে ব্যক্তি, সন্তান ও সমাজের ওপর বিয়ে-বিচ্ছেদের ভয়াবহ প্রভাবের প্রমাণ উপস্থাপন করা হয়েছে। মুসলিম নবদম্পতি কীভাবে তাদের বৈবাহিক জীবনে সংঘাত এড়িয়ে চলবে, কীভাবে সুন্দর ও সুখী জীবন অতিবাহিত করবে, তার বাস্তবসম্মত পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।
লেখক কুরআন-সুন্নাহর দলিল ছাড়াও প্রচুর উপাত্ত এনে সেগুলোর যৌক্তিক ব্যাখ্যা দাঁড় করিয়েছেন। শতাধিক বৈজ্ঞানিক গবেষণাকে ভিত্তি বানিয়ে দেখিয়েছেন—কেন বিয়েতে উৎসাহ দেওয়া ও বিয়ে-বিচ্ছেদকে অনুৎসাহিত করা জরুরি।

গ্রন্থটির লেখক ড. গওহার মুশতাক–মেডিক্যাল টেকনোলজির ওপর ব্যাচেলর অফ সাইন্স ডিগ্রি অর্জন করেন সিটি ইউনিভার্সিটি অফ নিউ ইয়র্কের ইয়র্ক কলেজ থেকে। যুক্তরাষ্ট্রের রটগার্স বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মেডিক্যাল রিসার্চের ওপর ডক্টরেট লাভ করেন। ইসলামের বিভিন্ন বিষয়ে অধ্যয়ন করেন শায়খ আবদুর রহমান কাশমিরি (ব্রুকলিন, নিউ ইয়র্ক), শায়খ ড. ইসমাইল মাহমুদ আল আজহারি (নিউ জার্সি), মুফতি আবদুর রহমান ইবনু ইউসুফ (যুক্তরাজ্য), ইমাম তারেক শেববি আল তুনিসি (ফ্লোরিডা)সহ অনেকের তত্ত্বাবধানে।
লেখকের গ্রন্থগুলোতে প্রচুর পরিমাণে বিভিন্ন বৈজ্ঞানিক রিসার্চের উল্লেখ থাকে, যা ইসলামের বিভিন্ন শিক্ষার পেছনের মাহাত্ম্যকে তুলে ধরে। তিনি নিজেও একজন গবেষক এবং প্রশিক্ষণ নিয়েছেন কিছু শ্রেষ্ঠ পশ্চিমা বিজ্ঞানীদের অধীনে। প্রায় ৫০টি বৈজ্ঞানিক গবেষণাপত্রে তিনি অবদান রেখেছেন, যা পিয়ার-রিভিউড হয়ে বিভিন্ন খ্যাতনামা বৈজ্ঞানিক জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে।
ড. মুশতাক নিয়মিত জুমুআর খুতবা দেন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন মসজিদে এবং বক্তৃতা দেন ইসলামিক সেন্টারে। তিনি আল-জুমুআ ম্যাগাজিন (ইংরেজি), বাতুল (উরদু) ও মেসাক (উরদু) নামক মাসিক ম্যাগাজিনে লিখেন। বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে তাঁর রচিত গ্রন্থ রয়েছে। কয়েকটি গ্রন্থ কালান্তর থেকে প্রকাশিত হবে ইনশাআল্লাহ।

অনুবাদক শাহেদ হাসানের জন্ম ২০০০ খ্রিষ্টাব্দের ২০ জানুয়ারি রাজশাহীতে। লেখাপড়া করেছেন ঢাকার সেন্ট জোসেফ স্কুলে এবং সেখান থেকেই এসএসসি পাশ করেছেন। এরপর ভর্তি হন ঢাকার নটর ডেম কলেজের বিজ্ঞানবিভাগে এবং বর্তমানে সেখানেই পড়াশোনা করছেন।
লেখালেখি এবং অন্যান্য কর্মের দ্বারা দীনি খিদমতের মাধ্যমে আল্লাহর প্রিয়পাত্র হওয়া এবং আখিরাতের কঠিন দিবসে নাজাত লাভ করাই শাহেদের জীবনের লক্ষ্য।

পরিমাণ

117  180 (35% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
- ৪৯৯+ টাকার অর্ডারে একটি প্রিমিয়াম বুকমার্ক ফ্রি!

- ৬৯৯+ টাকার অর্ডারে একটি একটি আমল চেকলিস্ট ফ্রি!

- ৮৯৯+ টাকার অর্ডারে একটি বই ফ্রি!

- ১,১৯৯+ টাকার অর্ডারে একটি আতর ফ্রি!

- ১,৪৯৯+ টাকার অর্ডারে সারাদেশে ফ্রি শিপিং!

প্রসাধনী

6 রিভিউ এবং রেটিং - বিয়ে ও ডিভোর্স

5.0
Based on 6 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    “বিবাহ হলো অর্ধেক দ্বীন ” আল্লাহর নবী, আমাদের সবার প্রিয়, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এমনটাই বলেছেন। বর্তমান এই ফিতনার সময়ে বিয়ে করার চেয়ে প্রেম আর লিভ টুগেদার করা অনেক সহজ। বিয়েকে করা হয়েছে কঠিন, যার ফলশ্রুতিতে যিনা-ব্যভিচার এখন ডালভাত এবং ডিভোর্স হয়েছে গ্যাস বেলুনর মতো, ইচ্ছে হলো বেঁধে রাখলাম আবার যখন ইচ্ছে ছেড়ে দিলাম। সবকিছুর মূল কারণ হচ্ছে দ্বীন ইসলাম সম্পর্কে অজ্ঞতা ও দ্বীন মেনে না চলার ফল। দ্রুত বিয়ের উপকারিতা ও ডিভোর্সের ক্ষতি থেকে বাঁচাতে রচিত হয়েছে এক অনবদ্য কিতাব ‘Encouraging Marriage and Discouraging Divorce ‘ গ্রন্থের বাংলা অনুবাদ “বিয়ে ও ডিভোর্স” নামক বইটি। চলুন বইটি সম্পর্কে সংক্ষেপে জেনে নেওয়া যাক।

    বই পরিচিতি _
    বইঃ বিয়ে ও ডিভোর্স
    লেখকঃ ড. গওহার মুশতাক
    অনুবাদঃ শাহেদ হাসান
    সম্পাদনাঃ আলী হাসান উসামা
    প্রকাশনীঃ কালান্তর
    পৃষ্ঠাঃ ১২৮ ; মুদ্রিত মূল্যঃ ১৮০/-

    লেখক পরিচিতি _
    ড. গওহার মুশতাক মেডিক্যাল টেকনোলজির ওপর ব্যাচেলর অফ সাইন্স ডিগ্রি অর্জন করেন সিটি ইউনিভার্সিটি অফ নিউ ইয়র্কের ইয়র্ক কলেজ থেকে। যুক্তরাষ্ট্রের রটগার্স বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মেডিক্যাল রিসার্চের ওপর ডক্টরেট লাভ করেন। ইসলামের বিভিন্ন বিষয়ে অধ্যয়ন করেন শায়খ আবদুর রহমান কাশমিরি, শায়খ ড. ইসমাইল মাহমুদ আল আজহারি, মুফতি আবদুর ইবনু ইউসুফ, ইমাম তারেক শেববি আল তুনিসি সহ অনেকের তত্ত্বাবধানে। তার লেখনীর একটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য হলো তাতে প্রচুর বৈজ্ঞানিক রিসার্চের উল্লেখ থাকে, যা ইসলামের বিভিন্ন শিক্ষার পেছনের মাহাত্ম্যকে তুলে ধরে, উক্ত বইটিতেও যা বিদ্যমান রয়েছে, আলহামদুলিল্লাহ।

    বই আলাপন _
    গ্রন্থটি শুরু হয়েছে লেখকের সংক্ষিপ্ত কিন্তু চমকপ্রদ ভূমিকার মাধ্যমে। তারপর গ্রন্থটিকে মোট ৭টি অধ্যায়ে ভাগ করা হয়েছে, যার প্রথম তিনটি অধ্যায়ে স্থান পেয়েছে বিয়ে সংক্রান্ত আলোচনা এবং পরবর্তী চতুর্থ অধ্যায় থেকে শুরু হয়েছে ডিভোর্স তথা বিচ্ছেদ এর ক্ষয়ক্ষতি সংক্রান্ত আলোচনা আর সর্বশেষ অধ্যায় _ ‘কীভাবে রক্ষা পাবে মুসলিম পরিবার’ এই মূল শিরোনামের আলোকে ৯ টি উপশিরোনামের মাধ্যমে করণীয় দিকগুলো নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনার মাধ্যমে বইটিকে পূর্ণতা প্রদান করা হয়েছে। অধ্যায়সমূহ _

    ★কুরআন ও সুন্নাহর আলোকেঃ শুরুতে এই অধ্যায়ের নাম দেখেই বোঝা যাচ্ছে নিশ্চয়ই! জ্বি হ্যাঁ এখানে বিয়ে নিয়ে কুরআন ও সুন্নাহর বাণী তুলে ধরে হয়েছে। অতঃপর কিছু চিন্তাশীল লেখকদের গ্রন্থের উক্তিসমূহ উল্লেখ করে অধ্যায় সমাপ্ত করা হয়েছে।
    ★মুসলিম যুবক: বিয়ে-বিলম্বের শিকারঃ এই অধ্যায়ে বিয়ের উপকারিতা ও একাকিত্বের ক্ষতিকর দিক, বিবাহিত পুরুষের তুলনায় অবিবাহিত পুরুষদের বিভিন্ন সমস্যা, মুসলিম যুবকদের প্রতি আলিমদের উপদেশ এবং যুবকদের জন্য সমাধান নিয়ে সারগর্ভ আলোচনা সন্নিবেশিত হয়েছে।
    ★ বিয়েপূর্ব প্রেম ও ডেটিংঃ পশ্চিমা কৃষ্টিকালচারে ভেসে যাওয়া এই সমাজের সার্বিক অবক্ষয়ের বাস্তবচিত্র, অনলাইন ডেটিং এবং মাকড়সা ও মাছির গল্পসহ (গল্পটা কিন্তু ইন্টারেস্টিং ও শিক্ষণীয়), অনলাইন-ডেটিংয়ের ভয়াবহ দিক অত্যন্ত বোধগম্য করে উপস্থাপন করা হয়েছে এই অধ্যায়ে।
    ★বিয়ে-বিচ্ছেদের ক্ষতিকর দিকঃ এই অধ্যায়ে বিচ্ছেদের নানাবিধ ক্ষতি যেমনঃ পরিবারের অবস্থার নিম্নমুখী পরিবর্তন, সন্তান ও নাতি নাতনিদের ওপর সুদূরপ্রসারী ক্ষতিকর প্রভাবসহ ইত্যাদি বেশ কিছু ক্ষতির দিকগুলো তুলে ধরা হয়েছে।
    ★বিয়েবিচ্ছেদের প্রক্রিয়াঃ ইসলাম বিয়ে বিচ্ছেদ এর যে প্রসেস বলে দিয়েছে সেগুলো নিয়েই এখানে বিস্তারিত আলোচনা এসেছে।
    ★সাফা-মারওয়া এবং নারী-পুরুষের মানসিক ভিন্নতাঃ এই অধ্যায়ের নামটা বেশ ইন্টারেস্টিং না? যাই হোক, পুরুষ কর্তৃক নারীদের মানসিক প্রকৃতি বোঝার গুরুত্ব, ঋতুকালে নারীদের মানসিক পরিবর্তন, প্রাক – ঋতুকালে ঘটিত দুর্ঘটনা ইত্যাদি নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা তুলে ধরা হয়েছে।
    ★কীভাবে রক্ষা পাবে মুসলিম পরিবারঃ সর্বোপরি, সর্বশেষ এই অধ্যায়ে বিয়ে রক্ষার ব্যাপারে কিছু পরামর্শ প্রদান, বিয়ে সফল করতে নারীর ভূমিকা কি হতে পারে, বিবাহিত যুগলের মধ্যে তাকওয়া ও সহিষ্ণুতা বৃদ্ধির গুরুত্বসহ শিক্ষণীয় ও দিকনির্দেশনামূলক পরামর্শ প্রদানের মাধ্যমে বইটি সমাপ্তের দ্বারপ্রান্তে এসে পৌঁছেছে।

    পরিশেষে বিয়ে ও ডিভোর্স নিয়ে হৃদয়গ্রাহী কিছু নসিহতমূলক কথামালা উপসংহার আকারে এনে পরিবারবিশেষজ্ঞ লিন্ডা ওয়েইট এবং ম্যাগি গ্যালাহারের একটি উপদেশের মাধ্যমে বইটি শেষ করা হয়েছে। কলেবর বড় হয়ে যাওয়ার উপদেশটি এখানে উল্লেখ করছি না।

    বইটির প্রয়োজনীয়তা _
    বিয়ে ও ডিভোর্স নিয়ে ফ্যান্টাসিতে ও অজ্ঞতায় ভোগা বর্তমান প্রজন্মের জন্য বইটি কার্যকরী ভূমিকা রাখবে ইনশাআল্লাহ। পুরো বইটিতে অনুপ্রেরণা ও উৎসাহের পাশাপাশি রয়েছে শিক্ষণীয় ও বাস্তবসম্মত আলোচনা। বইটিতে তথ্য -উপাত্তের কোন কমতি রাখা হয় নি, এছাড়াও প্রতিটি বিষয়ের সাথে রেফারেন্স উল্লেখ করা হয়েছে। চিন্তাশীল পাঠকরা পাবেন যথেষ্ট চিন্তার খোরাক। বর্তমান দ্রুত বিয়েকে সমাজে যেভাবে ট্যাবু বানিয়ে রাখা হয়েছে এবং ডিভোর্স এর ছড়াছড়ির এই ভয়াবহ সময়ে বইটির গুরুত্ব বলাই বাহুল্য। বইটি সংগ্রহে রাখতে পারেন। বইটির শিক্ষা প্রচার ও বাস্তবায়ন করলে এই ঘুণেধরা সমাজের পুরোপুরি না হলেও কিছুটা পরিবর্তন অবশ্যই সম্ভব হবে ইনশাআল্লাহ আল আযীয।

    বইটির একটি অন্যতম ও ভালো লাগার দিক _
    যারা আর্থিক সমস্যার কারণে বিয়ে করতে পারছেন না বা বিয়ে বিলম্বিত হচ্ছে তাদের জন্য বইটির মুনাফা “করজে হাসানা” হিসেবে ওয়াকফকৃত, মাশা~আল্লাহ।

    বইটির নেতিবাচক দিক _
    বইটির নাম অনুযায়ী প্রচ্ছদ আমার কাছে চলনসই মনে হয়েছে, আরও সুন্দর হতে পারতো। বেশ কিছু ভুল বানান নজরে এসেছে, এমনকি সূচিপত্রতেও তা দৃশ্যমান। খুব সম্ভবত টাইপিং মিস্টেক হয়েছে, তারপরও সূচিপত্রে এমন ভুল দৃষ্টিকটূ। অনেকক্ষেত্রেই এসব দেখলে বই পড়ার আগ্রহটা পূর্বের মতো আর বহাল থাকে না।

    ★শেষ করছি, কুরআন ও হাদিসের দুটি বাণীর আলোকে _
    বিয়ে সম্পর্কে আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতাআ’লা কুরআনে আদেশ দিয়ে বলেন _ “তোমাদের যারা বিয়েহীন, তাদের বিয়ে সম্পন্ন করো ; আর তোমাদের সৎ দাস-দাসীদেরও। তারা নিঃস্ব হলে আল্লাহ নিজ অনুগ্রহে তাদের অভাবমুক্ত করে দেবেন। আল্লাহ প্রচুর দানকারী, সর্ববিষয়ে জ্ঞাত। [সূরা নুর : ৩২]

    ইসলামে ডিভোর্সকে অনুৎসাহিত করা হয়েছে। হাদিসে বর্ণিত হয়েছে _ ” আল্লাহর নিকট সবচেয়ে অপছন্দনীয় হালাল কাজ হলো তালাক বা ডিভোর্স। ” [ মুসতাদরাকে হাকিম : ২/১৯৬]।

    2 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    :

    #কালান্তর_ওয়াফিলাইফ_রিভিউ_প্রতিযোগিতা

    #বুক_রিভিউ

    গ্রন্থ: বিয়ে ও ডিভোর্স
    লেখক: ড. গওহার মুশতাক
    অনুবাদক: শাহেদ হাসান
    সম্পাদনা: আলী হাসান উ সা মা
    প্রকাশক: কালান্তর প্রকাশনি
    পৃষ্ঠা: ১২৮
    প্রচ্ছদ মূল্য: ১৮০/-

    ♦ভূমিকাঃ
    ‘‘মানুষ সামাজিক জীব। সমাজে বাস করার তাগিদেই মানুষকে কতগুলো বিধিবিধান পালন করতে হয়, কিছু নিয়মকানুন রক্ষা করতে হয়। শুধু সমাজ বা গোত্রই নয়, রাষ্ট্র থেকে শুরু করে বিশ্ব চরাচরেও মানুষকে টিকে থাকার জন্য, জীবনধারণের লক্ষ্যে কতিপয় গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সুষ্ঠুভাবে সম্পাদন করতে হয়। এক প্রজন্ম থেকে আরেক প্রজন্ম পর্যন্ত টিকে থাকার জন্য বংশবিস্তার করতে হয়। আর বংশবিস্তারের জন্য সবচে’ উপযোগি মাধ্যম হচ্ছে বিয়ে। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখজনক হলেও সত্য যে, আজকাল দেশে বিয়েকে অনেক কঠিন করা হয়েছে। দেশে আইন করা হয়েছে মেয়েরা ১৮ এবং ছেলেরা ২১ এর আগে বিয়ে করতে পারবে না। তারপরও অনেক মা-বাবা ছেলেমেয়েদেরকে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার দিবা স্বপ্নের মোহে ফেলে দিয়ে তাদের বয়স ৩০ এর কোটা পার করে ফেলে। অথচ তারা ১২-১৪ বছর বয়স থেকেই বালেগে পরিণত হয়। এই দীর্ঘ সময় বিলম্বের ফলে অনেক ছেলেমেয়ে মানসিকভাবে বিষন্নবোধ করে। অনেকে হস্তমৈথুন আর পর্ণগ্রাফির নেশায় আসক্ত হয়ে জীবন-যৌবনকে নষ্ট করে ফেলে। অনেকে বেছে নেয় আত্মহত্যার পথ। কেউবা পরকিয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে। অনেক যুবক-যুবতি আবার বিবাহ-বহির্ভূত হারাম রিলেশন তথা প্রেম-ভালোবাসায় লিপ্ত হয়ে পড়ে। যার ফলে এক সময় ফুটপাতে, ডাস্টবিনে পাওয়া যায় সদ্য ভূমিষ্ট নবজাতক শিশুর লাশ, যা নিয়ে অনেক সময় শেয়াল-কুকুরকেও টানাটানি করতে দেখা যায়। এসবের দায়ভার কস্মিনকালেও রাষ্ট্র এড়াতে পারবে না, যদি না রাষ্ট্র বিয়েকে সহজ করে তুলে।’’

    ‘‘বিয়ে শুধুমাত্র জৈবিক চাহিদা পূরণ করা বা একসঙ্গে থাকা নয়। বরং এর পেছনে যেমনিভাবে একদিকে সামাজিক শৃঙ্খলা রক্ষা পায়, তেমনিভাবে অন্যদিকে যুবক-যুবতিদের স্বাস্থ্যগত অনেক উপকারিতার দিকটাও রয়েছে। বক্ষ্যমাণ ‘‘বিয়ে ও ডিভোর্স’’ গ্রন্থে লেখক শুধুমাত্র বিয়ের উপকারিতা বা সঠিক সময়ে বিয়ে না করার ক্ষতিকর দিকগুলো নিয়ে আলোচনা করেননি। সেই সাথে বিয়ে বিচ্ছেদের ভয়াবহ প্রভাবের কথাও বৈজ্ঞানিক দৃষ্টিকোণ থেকে উল্লেখ করেছেন। গ্রন্থটি পাঠকদের পড়া এবং বুঝার সুবিধার্থে লেখক গ্রন্থটিকে মোট ৭টি অধ্যায়ে ভাগ করেছেন। প্রতিটি অধ্যায়ে রয়েছে স্বতন্ত্র পরিচ্ছেদ। পরিশেষে প্রয়োজনীয় উপসংহারে বইটির ইতি টেনেছেন।’’

    ♦প্রথম অধ্যায়: কুরআন ও সুন্নাহর আলেকে-
    ‘‘কুরআনের আয়াত, হাদীসে রাসূলের আলোকে এবং বিভিন্ন মনীষীর বাণীর আলোকে লেখক রেফারেন্সসহ একদিকে বিয়ের উপকারিতা, বিবাহিত থাকার সুফল, মানসিক প্রশান্তির দিকগুলো আলোচনা করেছেন। আবার অন্যদিকে অবিবাহিত থাকার অপকারিতা, অবাধ যৌনাচার ছড়ানোর সম্ভাবনা, মানসিক অস্থিরতার কথাও সংক্ষেপে তুলে ধরেছেন।’’

    ♦দ্বিতীয় অধ্যায়: মুসলিম যুবক: বিয়ে-বিলম্বের শিকার-
    ‘‘উক্ত অধ্যায় লেখক বিশদভাবে বিয়ের উপকারিতা এবং একাকিত্বের ক্ষতিকর দিকগুলো নিয়ে আলোচনা করেছেন। সেই সাথে অবিবাহিত পুরুষরা বিবাহিত পুরুষদের তুলনায় কিভাবে দ্রুত মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ে, কিভাবে বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়ে, তাদের উপার্জন কম হওয়ার কারণ এবং মৃত্যুর ঝুকি বেশি থাকার কারণও তুলে ধরেছেন। সেই সাথে মুসলিম যুবকদের প্রতি বিশ্ববরেণ্য আলেমদের উপদেশ এবং দ্রুত বিয়ে করে মুসলিম যুবকদের জন্য সমাধানের পন্থাও বলে দিয়েছেন।’’

    ♦তৃতীয় অধ্যায়: বিয়েপূর্ব প্রেম ও ডেটিং-
    ‘‘লেখক আমেরিকাতে থাকার সুবাধে সেখানের যুবক-যুবতিদের মধ্যকার বিয়েপূর্ব প্রেম এবং অবাধ মেলামেশার ক্ষতিকর দিকগুলো স্বচক্ষে দেখেছেন। পশ্চিমা সমাজে অশ্লীলতার ভয়াবহ বিস্তার এবং তার ফলে পশ্চিমা সমাজ ব্যবস্থা ধ্বসে পড়ার সম্ভাবনাও ব্যক্ত করেছেন। সেই সাথে যুক্তরাষ্ট্র, চীন এবং ভারতে অনলাইন ডেটিংয়ের ভয়াবহ বিস্তারের তথ্য তুলে ধরেছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সহজতা এবং অপব্যবহারের ফলে আজ সমাজ এবং রাষ্ট্র ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে উপনীত।’’

    ♦চতুর্থ অধ্যায়: বিয়ে-বিচ্ছেদের ক্ষতিকর দিক-
    ‘‘নিঃসন্দেহে বিয়ে-বিচ্ছেদ সকলেরই ক্ষতির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। দুটো পরিবার থেকে নিয়ে সেই পরিবারের সন্তান-সন্তুতি, নাতি-নাতনি সকলের উপরেই এর ক্ষতিকর প্রভাব পরিলক্ষিত হয়। একদিকে ছেলে-মেয়েরা বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়ে, অন্যদিকে শিশু নির্যাতনের হার বেড়ে যায়। একদিকে শিশুদের মৃত্যুর হার বেড়ে যায়, আবার অন্যদিকে পড়ালেখায় বাজে ফলাফল করে।’’

    ♦পঞ্চম অধ্যায়: বিয়েবিচ্ছেদের প্রক্রিয়া-
    ‘‘উক্ত অধ্যায়ে ইসলামের আলোকে একান্ত প্রয়োজনে বিয়েবিচ্ছেদের প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। নিতান্ত জরুরি প্রয়োজনে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যকার সম্পর্ক বিচ্ছেদের বিশদ ব্যাখ্যা উল্লেখ করা হয়েছে। সেই সাথে তালাক দেয়ার নিয়ামাবলিও তুলে ধরা হয়েছে।’’

    ♦ষষ্ঠ অধ্যায়: সাফা-মারওয়া এবং নারী-পুরুষের মানসিক ভিন্নতা-
    ‘‘এই অধ্যায়ে লেখক ইসলামের দৃষ্টিতে জৈবিক, আবেগিক এবং মানসিক দিক দিয়ে নারী-পুরুষের মধ্যকার প্রগাঢ় ভিন্নতার কথা আলোচনা করেছেন। নারীরা প্রতি মাসে হায়িজ চলাকালীন সময় বিভিন্ন হরমোনাল পরিবর্তনের ভেতর দিয়ে যান, যার ফলে তারা দুর্বল থাকে। প্রাক-ঋতুকালে তাদের মানসিক পরিবর্তনের ফলে অনেকে আত্মহত্যাপ্রবণ হয়ে ওঠে, অনেকে মানসিক বৈকল্যের কারণে আক্রমণাত্মকও হয়ে ওঠে। কিন্তু পুরুষদের উপর প্রজননচক্রের বিভিন্ন হরমোনজনিত প্রভাব না থাকার কারণে প্রতি মাসে তারা মেয়েদের মতো দুর্ভোগে পড়ে না। নারী-পুরুষের এই প্রগাঢ় ভিন্নতার কারণে তাদের মধ্যকার মানসিক ও স্বভাবগত পার্থ্যকগুলোই উক্ত অধ্যায়ে বিশদভাবে আলোচনা করা হয়েছে।’’

    ♦সপ্তম অধ্যায়: কীভাবে রক্ষা পাবে মুসলিম পরিবার-
    ‘‘একটি সুখি মুসলিম পরিবার গঠনের রক্ষাকবচ স্বামী-স্ত্রী উভয়ের হাতেই রয়েছে। স্বামীর উচিত স্ত্রীকে সময় দেয়া, ভালোবাসা, মন খুলে কথা বলা; তেমনি স্ত্রীকেও উচিত স্বামীর ডাকে সাড়া দেয়া, তাকে সম্মানের দৃষ্টিতে দেখা। উক্ত অধ্যায়ে লেখক বিয়ে রক্ষার ব্যাপারে আরো কতগুলো পরামর্শ দিয়েছেন। সেই সাথে আরো তুলে ধরেছেন বিয়েকে টিকিয়ে রাখতে নারীর গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার কথা। উভয়ের ক্রোধকে নিয়ন্ত্রণে রাখার কথাও ব্যক্ত করেছেন। সেজন্য পুণ্যবানদের সংস্পর্শে থাকার উপকারিতাও আলোচনা করেছেন।’’

    ♦গ্রন্থটি কেন পড়া দরকার?
    ‘‘বিয়ের গুরুত্ব সম্পর্কে জানতে, একাকিত্বের ক্ষতিকর দিকগুলো সম্পর্কে বুঝতে, বিয়ে-বিচ্ছেদের ক্ষতিকর প্রভাব সম্পর্কে অবহিত হতে এবং বিয়ে-বহির্ভূত প্রেম-ডেটিংয়ের ভয়াবহতা সম্পর্কে বিস্তারিত জানার জন্য বইটি পাঠ করা আবশ্যক।’’

    ♦গ্রন্থটির আলোচনা-সমালোচনা-
    ‘‘কালান্তরের প্রকাশিত বিয়ে সংক্রান্ত এটাই প্রথম বই যার মুনাফা তাঁরা ‘‘করজে হাসানা’’ নামক একটি প্রজেক্টের জন্য ওয়াকফ করে দিয়েছেন, যারা আর্থিক সমস্যার কারণে বিয়ে করতে পারছে না তাদের জন্য। নিঃসন্দেহে এটা অনেক বড় সদকায়ে জারিয়ার একটা অংশ। আল্লাহ তাঁদের দানকে কবুল করুন।
    বর্তমান সামাজিক প্রেক্ষাপটের আলোকে এক অনন্য সাধারণ গ্রন্থ এটি। গ্রন্থটির অনুবাদ থেকে নিয়ে প্রচ্ছদ, বাঁধাই, পেইজের মান অতুলনীয়। মূল লেখক এতে প্রচুর পরিমাণে বৈজ্ঞানিক রিসার্চের উল্লেখ করেছেন, সেই সাথে কুরআন এবং হাদিসের অনেক আয়াতও প্রয়োজনের তাগিদে তুলে ধরেছেন। যা গ্রন্থটির গ্রহণযোগ্যতাকে অনেক গুণ বাড়িয়ে দেয়।’’

    ♦রেটিং: ৫/৫

    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  3. 5 out of 5

    :

    #কালান্তর_ওয়াফিলাইফ_রিভিউ_প্রতিযোগিতা

    পত্রিকার পাতা দেখুন। প্রতিদিন ধর্ষণ এবং ডিভোর্সের নিউজ ছাপানো আজকাল পত্রিকাগুলোর জন্য আবশ্যিক কাজ। ধর্ষণের অন্যতম কারণ, বিয়ের কাঠিন্য। এদিকে ডিভোর্সের অন্যতম কারণ, পারস্পরিক সৌহার্দ্যহীনতা। এ দু’য়ের সমাধান, কেবলই ইসলামে। তাই ইসলামে সহজতার সাথে দ্রুত বিয়ের গুরুত্ব এবং সে বিয়ে টিকিয়ে রেখে ডিভোর্সহীন সমাজ গঠনের তাৎপর্য ও কৌশল নিয়ে আমাদের জ্ঞানার্জন করা জরুরি। আমাদের এ জরুরত পূরণে সহায়ক হবে, এমন একটি বই নিয়েই আজ আমরা কথা বলবো, ইনশাআল্লাহ।
    .

    ▪️ নির্বাচিত বই :

    রিভিউ লেখার জন্যে আজ আমরা নির্বাচন করেছি, কালান্তর প্রকাশনী থেকে প্রকাশিত বই, ‘বিয়ে ও ডিভোর্স’। বইটি লিখেছেন ড. গওহার মুশতাক। 
    .

    ▪️ লেখকপরিচিতি :

    আমাদের আলোচ্য বইটির লেখক ড. গওহার মুশতাক যুক্তরাষ্ট্রের অধিবাসী। তিনি নিউইয়র্ক থেকে মেডিক্যাল টেকনোলজির ওপর ব্যাচেলর অভ সাইন্স ডিগ্রি অর্জন করেন। এছাড়াও যুক্তরাষ্ট্রের রটগার্স বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মেডিক্যাল রিসার্চের ওপর ডক্টরেট ডিগ্রি লাভ করেন। ড. গওহার মুশতাকের লেখায় প্রচুর পরিমাণে বৈজ্ঞানিক রিসার্চের ফলাফল সন্নিবেশিত হয়। লেখক যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন মসজিদে জুমুআর খুতবা দেন। এছাড়াও ইসলামের নানান বিষয়ে বিভিন্ন জায়গায় জ্ঞানগর্ভ গবেষণাধর্মী বক্তৃতা প্রদান করেন। আল্লাহ তাকে ইসলামের আরও খেদমত করার তাওফিক দান করুন।
    .

    ▪️ বইয়ের আলোচ্য বিষয় :

    বইটির নামই এর মধ্যকার আলোচ্য বিষয়ের প্রতিনিধিত্ব করছে। হ্যাঁ, বইটিতে আলোচিত হয়েছে বিয়ের গুরুত্ব এবং ডিভোর্সের অপকারিতা ও ডিভোর্সহীন সমাজ গঠনের উপায়। বইটি মূলত গবেষণাধর্মী একটি বই।
    .

    ▪️ যেভাবে সাজানো হয়েছে বইটি :

    মোট ৭টি অধ্যায়ে বিভক্ত বইটি। লেখকের ভূমিকা ও উপসংহার তো আছেই, এছাড়াও প্রকাশক ও অনুবাদকের কথাও যুক্ত আছে বইটির শুরুতে।

    • প্রথম অধ্যায়ে লেখক কুরআন-সুন্নাহর আলোকে বিয়ের গুরুত্ব এবং দ্রুত ও সহজতার সাথে বিয়ে করার প্রয়োজনীয়তা উল্লেখ করেছেন।

    • দ্বিতীয় অধ্যায়ে আলোচনা করা হয়েছে বিয়েহীন থাকার কুফল নিয়ে। এখানে একাকিত্বের কিছু ক্ষতিকর দিক ওঠে এসেছে। এ অধ্যায়ের শেষের দিকে আছে মুসলিম যুবকদের প্রতি আলিমদের উপদেশ এবং যুবকদের করণীয় হিসবে কিছু পরামর্শ।

    • তৃতীয় অধ্যায়ে আছে বিয়ের আগে প্রেম ও ডেটিংয়ে যাওয়া নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা। অনলাইন-ডেটিংয়ের ভয়াবহ দিকগুলোও এখানে ওঠে এসেছে।

    • চতুর্থ অধ্যায় থেকে শুরু ডিভোর্স-কেন্দ্রিক আলোচনা। এখানে বর্ণিত হয়েছে ডিভোর্সের নানামুখী ক্ষতিকর দিক। ডিভোর্স কীভাবে পরিবার ও সন্তানসন্ততির জন্য ক্ষতিকর এবং শিশুনির্যাতনের কারণ, তা বিভিন্ন রিসার্চের রেফারেন্স দিয়ে তুলে ধরেছেন লেখক।

    • পঞ্চম অধ্যায়ের শিরোনাম ‘বিয়েবিচ্ছেদের প্রক্রিয়া’। এখানে লেখক ইসলামের দৃষ্টিতে ডিভোর্সের ধারাবাহিক প্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা করেছেন। ডিভোর্সের ব্যাপারে ইসলামের অবস্থান, ডিভোর্সের ভুল পদ্ধতি, একসাথে তিন তালাক দেওয়ার বিধান ইত্যাদি বিষয়গুলোও ওঠে এসেছে এখানে।

    • এরপরের অধ্যায়ে বেশ গুরুত্বপূর্ণ কিছু বিষয় ওঠে এসেছে। নারী-পুরুষের মানসিক ভিন্নতা, ঋতুকাল ও এর আগে-পরে নারীদের মানসিক অবস্থার চিত্র ফুটে ওঠেছে এ অধ্যায়ে।

    • শেষ অধ্যায়টি অত্যন্ত জরুরি। এর শিরোনাম ‘কীভাবে রক্ষা পাবে মুসলিম পরিবার’। এখানে খুব দামি টিপস উল্লেখ করা হয়েছে, যেগুলোর চর্চার মাধ্যমে মুসলিম পরিবার টিকে থাকবে বহুকাল, ইনশাআল্লাহ।

    এরপর লেখক কর্তৃক সংযোজিত ‘উপসংহার’ এর মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে বইটি।
    .

    ▪️ কাদের জন্যে এ বই :

    • আপনি অবিবাহিত? তাহলে বইটি আপনার জন্যে। পড়ুন। বিয়ের গুরুত্ব বুঝবেন ইনশাআল্লাহ।

    • দেরিতে বিয়ের পক্ষে আপনি? তাহলে এ বইটি আপনার জন্যে। পড়ুন। বুঝবেন দেরিতে বিয়ের ক্ষতি ও দ্রুত বিয়ের উপকারিতা।

    • বিয়েপূর্ব প্রেমাসক্ত ব্যক্তির জন্যেও বইটি দরকার। পড়লে বুঝবেন, এসব প্রেম-ডেটিং কতটা ভয়াবহ।

    • ডিভোর্সের ভয়াবহতা জানতে চাইলেও বইটি আপনার পড়তে হবে।

    • ডিভোর্সের ব্যাপারে ইসলামের নির্দেশনা ও প্রক্রিয়া জানতে বইটি আপনার জন্যে উপকারী হবে ইনশাআল্লাহ।

    • কীভাবে রক্ষা পাবে মুসলিম পরিবার? জানতে চান? তাহলে বইটি আপনার জন্যে। পড়ুন।
    .

    ▪️ ভালোলাগা-মন্দলাগা :

    কালান্তরের বাইন্ডিং বেশ দারুণ হয়। এ বইয়ের ক্ষেত্রেও একই কথা। প্রচ্ছদটাও ভালো লেগেছে। সাদামাটা হলেও অর্থবহ। তবে পৃষ্ঠামান তুলনামূলক কিছুটা দূর্বল বটে। অনুবাদও সাবলীল। নবীন অনুবাদক হওয়ার পরেও অনুবাদে প্রাঞ্জলতা আছে। সবচেয়ে চমকপ্রদ ব্যাপার হচ্ছে, লেখক বইটিতে রেফারেন্সসহ অনেক রিসার্চের ফলাফল থেকে কোট করেছেন। সেক্ষেত্রে বইটিকে গবেষণাধর্মী একটি বই বলা যায়। প্রয়োজনানুসারে কুরআন-হাদিস থেকেও যথেষ্ট দলিল এনেছেন লেখক। বইটি মূলত কালান্তরের ‘করজে হাসান’ প্রোজেক্টের জন্য ওয়াকফকৃত।
    .

    ▪️ একনজরে বইটি :

    • বই : বিয়ে ও ডিভোর্স
    • মূল : Encouraging Marriage and Discouraging Divorce
    • লেখক : ড. গওহার মুশতাক
    • অনুবাদক : শাহেদ হাসান
    • সম্পাদক : শাইখ আলী হাসান উসা.মা
    • প্রকাশনী : কালান্তর প্রকাশনী
    • প্রকাশকাল : অক্টোবর, ২০২০
    • প্রচ্ছদমূল্য : ১৮০/-
    • পৃষ্ঠাসংখ্যা : ১২৮
    • কাভার : হার্ডকাভার

    Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  4. 5 out of 5

    :

    #কালান্তর_ওয়াফিলাইফ_রিভিউ_প্রতিযোগিতা

    বর্তমানে যেসব সামাজিক সমস্যা মুসলিম যুবকদের আক্রান্ত করে রেখেছে, তার একটি হচ্ছে বিয়েকে বিনা কারণে দেরি করা। দেরিতে বিয়ে করার কারণে যুবসমাজ বিয়ের আগে অবৈধ রিলেশন, ভ্যালেন্টাইন দিবস উৎযাপন,হস্তমৈথুন, এবং পর্নোগ্রাফির মতো বিভিন্ন পাপাচারে লিপ্ত হচ্ছে। বিয়ে নৈতিক অবক্ষয় থেকে এবং নারী ও পুরুষকে তাদের দৃষ্টি হিফাজতে সাহায্য করে। আমাদের সমাজে বিয়ে নিয়ে আতঙ্কের যেনো কারোর শেষ নেই। আসলেই কি বিয়ে আতঙ্কিত কোনো বিষয়?আসুন যেনে নেওয়া যাক ইসলাম কি বলে বিয়ের ব্যাপারে।”ইসলাম বিয়ের ক্ষেত্রে এক গভীর অর্থ প্রদান করেছে, যার মধ্যে রয়েছে সৌহার্দ্যপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তোলা , আরেকজনের প্রতি দায়িত্ববোধ ও ভালোবাসার জন্ম এবং পরিবার গঠন”।বিয়ে সম্পর্কে আল্লাহ কুরআনে আদেশ দিয়ে বলেন,
    আর তোমরা তোমাদের মধ্যকার অবিবাহিত নারী-পুরুষ ও সৎকর্মশীল দাস দাসীদের বিবাহ দাও। তারা অভাবী হলে আল্লাহ নিজ অনুগ্রহে তাদেরকে অভাবমুক্ত করে দেবেন। আল্লাহ প্রাচুর্যময় ও মহাজ্ঞানী।[সূরা নূর:৩২]
    বিয়ে সম্পর্কে রাসূল(স) বলেছেন, ‘বিয়ে কর যদিও তা কেবল লোহার আংটির বিনিময়ে মোহর দিয়েও হয়। (সহিহ বুখারি)। উমর ইবনুল খাত্তাব (রা) ইবনুল মুনতাশারকে বলেছিলেন,’ বিয়ের মাধ্যমে সফলতার খোজ করো’।এক গবেষণায় দেখা গেছে, বিয়ে একদম জঘন্য অপরাধীরও বদলে ফেলতে পারে।** বর্তমান সময়ে অন্যতম জঘন্যত সমস্যা হলো বিয়ে বিচ্ছেদ।এটা যেনো একপ্রকার ব্যাধিতে পরিনত হয়েছে। ইসলামে ডিভোর্সকে অনুৎসাহিত করা হয়েছে। হাদিসে আছে, আল্লাহর নিকট সবচেয়ে অপছন্দনীয় হালাল কাজ হলো তালাক(মুসতাদরাকে হাকিম) ।
    জৈবিক, আবেগিক এবং মানসিক দিক দিয়ে নারী ও পুরুষের অনেক ভিন্নতা রয়েছে এবং ইসলাম ও এমনটা বলে। কুরআনে বলা হয়েছে নারী পুরুষ এক নয়,
    আর পুত্রসন্তান কন্যা সন্তানের মতো নয়। (সুরা আল ইমরান)। গবেষণায় দেখা গেছে বিয়ে বিচ্ছেদের পর তাদের শারীরিক মানসিক ও আবেগের দিক থেকে অসুবিধার মুখোমুখি হয়।ইসলাম বিয়ে বিচ্ছেদ পুরোপুরি বাতিল করেনি। অতি জরুরি প্রয়োজনে এ ব্যবস্থার গ্রহণ করতে বলা হয়েছে।

    পাঠ অনুভূতি : আসলে কিছু বিষয় থাকে যেগুলো ভাষায় প্রকাশ করা যায়না,, ব্যক্তিগত অভিমত যদি দিতে হয় তবে বলব এটা একটা বই যেটা সবাইকে অবশ্যই পড়া উচিত। কারণ, বিয়ে পরিবার গঠনকরে আর পরিবার গঠন করে সমাজ আর সেই নিয়ে তৈরি হয় একটি জাতি। জাতিকে বহাল রাখতে বিয়ের বিকল্প কিছুই নয়। বইটি পড়ে আপনি উপলব্ধি করতে পারবেন কেনো আপনার দ্রুত বিয়ে করা উচিত এবং দ্রুত বিয়ের উপকারিতা কি। বিয়ে বিচ্ছেদ বা ডিভোর্স পরিবার ও সমাজে কিভাবে বাজে পরিস্থিতি তৈরি করছে ও তার প্রভাব কি কি ক্ষতি বয়ে আনতে পারে।

    লেখার মান: ড. গওহার মুশতাক মেডিকেল টেকনোলজি ওপর ব্যাচেলর অফ সায়েন্স ডিগ্রি অর্জন করেন নিউ ইয়র্ক থেকে। এনার লেখার মান কতটা অসাধারণ সেটা আপনারা এই বই পড়ে বুঝতে পারবেন। তিনি এই বইতে প্রচুর পরিমাণে বৈজ্ঞানিক রিসার্চের উল্লেখ করেছেন এবং কিছু কিছু ক্ষেত্রে ছক আকারে প্রতিবেদন ও তুলে ধরেছেন।আল্লাহ লেখককে উত্তম জাজা দানা করুক আমীন।

    অনুবাদের মান: অনুবাদক শাহেদ রহমান আমার কাছাকাছি বয়সের, এটা তার প্রথম অনুবাদকৃত বই। প্রথম হলেও বেশ চমৎকার অনুবাদ করেছেন বলে মনে হয়েছে। দোয়া করি দ্বীনের এই পাখিকে আল্লাহ রাব্বুল আলামীন ভবিষ্যতে আরো ভালো কাজ করার তাওফিক দান করুক আমীন।

    সম্পাদনা: আলী হাসান উসামা যার বক্তব্য শুনলে মানুষের চেতনাবোধ জাগ্রত হয়। এই মহান ব্যক্তি এই বইয়ের সম্পাদক। অনেক ধন্যবাদ জনাব আপনাকে অধিক মূল্যবান বইটি সম্পাদনা করার জন্য। কালান্তর প্রকাশনা থেকে আমরা আপনার আরো অধিক কাজ দেখতে চাই। আল্লাহ আপনাকে উত্তমজাজা দান করুন আমীন।

    বইটি কেন পড়বেন: বিয়ে পরিবার গঠন করে আর পরিবার গঠন করে সমাজ আর সেই সমাজ নিয়ে তৈরি হয় একটি জাতি। জাতিকে বহাল রাখতে বিয়ের বিকল্প কিছুই নয়। বইটি পড়ে আপনি উপলব্ধি করতে পারবেন কেনো আপনার দ্রুত বিয়ে করা উচিত এবং দ্রুত বিয়ের উপকারিতা কি। বিয়ে দেরির কারণে সমাজ কীভাবে ক্ষতি হচ্ছে,বিয়ে বিচ্ছেদ বা ডিভোর্স পরিবার ও সমাজে কিভাবে বাজে পরিস্থিতি তৈরি করছে এবং তার প্রভাব কি কি ক্ষতি বয়ে আনতে পারে। এসব জানতে হলে অবশ্যই আপনাকে বক্ষমান বইটি পড়তে হবে।

    বই: বিয়ে ও ডিভোর্স [দ্রুত বিয়ের
    উপকারিতা ও ডিভোর্সের ক্ষতি]
    লেখক: ড.গওহার মুশতাক
    অনুবাদ: শাহেদ হাসান
    সম্পদনা: আলী হাসান উসামা
    প্রচ্ছদ:কাজী সাফওয়ান
    প্রকাশক: কালান্তর প্রকাশনী
    পৃষ্ঠা সংখ্যা:১২৭
    মুদ্রিত মূল্য: ১৮০

    2 out of 2 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  5. 5 out of 5

    :

    বর্তমান সমাজব্যবস্থায় বিয়েকে অত্যন্ত কঠিন ও জটিক কাজে পরিণত করা হয়েছে। ফলে বহু অবিবাহিত তরুণ-তরুণীদের প্রতিনিয়ত ভুগতে হচ্ছে প্রচুর। হারাম সম্পর্কের পরিমাণ আকাশছোঁয়া হয়ে উঠেছে এখন বিয়েতে বিলম্বের কারণে। এর ফলে সামাজিক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি হচ্ছে প্রতিনিয়ত। অথচ রাসুলুল্লাহ ﷺ বিয়েকে বলেছেন সহজ করতে। বিয়ের মতো পবিত্র ও সুন্দর বন্ধনকে করে তোলা হয়েছে ব্যবসায়িক লেনদেনে বর্তমান সমাজে।
    সকলে ক্যারিয়ার নিয়ে ছুটতে ছুটতে এই বস্তুবাদী জীবনের সাথে করে তুলছে গভীর সম্পর্ক, আর অন্যদিকে নিজের চরিত্র রক্ষা করা নিয়ে কার ভ্রুক্ষেপ নেই।
    দ্রুত বিয়ের প্রয়োজন ও উপকারিতা এবং ডিভোর্সের ক্ষতি নিয়ে অসাধারণ বই সাজিয়েছেন ড. গওহার মুশতাক। তার বইয়ের সাবলীল ও সুন্দর অনুবাদ করেছেন শাহেদ হাসান। বইয়ের বাধাই, প্রচ্ছদ ও পৃষ্ঠার মানে কালান্তর নিরাশ করেনি একটুও। উনাদের কাজে আল্লাহ বারাকাহ দান করুক।

    সবাই নিজে বইটি পড়ুন, বিবাহিত হয়ে থাকুন বা অবিবাহিত। নিজেদের মা বাবা ও বুজুর্গদের বর্তমান যুগের যুবক-যুবতিদের এই সমস্যা উপলব্ধি করার জন্য এই বইটি পৌছিয়ে দিন।

    2 out of 3 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top