মেন্যু
aynaghor

আয়নাঘর

প্রকাশনী : Ilmhouse Publication
বিষয় : বিবিধ বই

অনুবাদ – ইলমহাউস অনুবাদক টিম
সম্পাদনা – আসিফ আদনান
পৃষ্ঠা সংখ্যা – ২০০ (পেপার ব্যাক কভার)

আয়না!
.
হয়তো আমরা খেয়াল করি অথবা করি না, কিন্তু আমাদের জীবনের হাসি-কান্না, সুখ-দুঃখ, আনন্দ-বেদনার সাথে জড়িয়ে থাকে আয়না। জীবনপথে ক্লান্ত হয়ে আয়নায় আশ্রয় খুঁজি আমরা। জান্নাত বা জাহান্নাম পর্যন্ত বিস্তৃত এই পথে চলতে গিয়ে ধুলো জমে আমাদের হৃদয়েও। চিরচেনা আয়নায় বিকৃত হতে থাকে প্রতিবিম্ব। পরতের পর পরত জমে ময়লা। একের পর এক হাতে তুলে নিই নানা মতবাদ, নানা ‘তন্ত্রমন্ত্রের’ আয়না। ধরা পড়ে না অসুখ। ক্রমাগত আয়না বদলাই। ভুল প্রতিবিম্ব আর ভুল চিকিৎসায় আরও বাড়ে যন্ত্রণা। পুরু হতে থাকে ময়লার পরত…
.
কিন্তু জানেন, রূপকথার স্নো-হোয়াইটের সেই জাদুর আয়নার চাইতেও শতগুণ বেশি নির্ভুল আয়না ছিল আমাদের পূর্বপুরুষদের কাছে? সেই আয়না দেখে পরিপাটি করে তাঁরা সাজিয়েছিলেন নিজেদের। সাজিয়েছিলেন এই পৃথিবীকে। সেজেছিল মেঘ, রোদ, জোছনা; সেজেছিল মরু, নদী, সাগর। তাঁরা মানুষকে ডেকেছিলেন সৃষ্টির দাসত্ব থেকে স্রষ্টার দাসত্বের দিকে; এ দুনিয়ার সংকীর্ণতা থেকে মুক্ত হয়ে দুনিয়া ও আখিরাতের প্রশস্ততার দিকে। লিখেছিলেন মাটির পৃথিবীর ইতিহাসের সবচেয়ে মহাকাব্যিক অধ্যায়টি…।
.
ধুলো পড়া সময়ে হারিয়ে যাওয়া সেই আয়নার কথা মনে করিয়ে দিতেই এই আয়োজন…

আয়নাঘর।

পরিমাণ

200 

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
- ৪৯৯+ টাকার অর্ডারে একটি প্রিমিয়াম বুকমার্ক ফ্রি!
- ১,৪৯৯+ টাকার অর্ডারে সারাদেশে ফ্রি শিপিং!

প্রসাধনী প্রসাধনী

7 রিভিউ এবং রেটিং - আয়নাঘর

5.0
Based on 7 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    :

    #ওয়াফিলাইফ_পাঠকের_ভাল_লাগা_সেপ্টেম্বর_২০২০
    সমাজ, সংস্থা, রাজনীতি, পরিবেশ, পারিপার্শ্বিক বেড়াজাল আমাদেরকে আমাদের মূল ইসলাম থেকে সরিয়ে দিচ্ছে। ইসলামের মূল আয়নাটি তুলে ধরতে আজ আমরা সংকোচবোধ করি। না দেখতে চাই আর না চাই দেখাতে। পশ্চিমাদের তালে তাল মিলাতেই এখন যেন বেশি ভালো লাগে। “আমার পাশের হিন্দু লোকটি কি বলবে? পাশের নাস্তিক ভাইটিও ট্যারা চোখে তাকাবে, এর চেয়ে ভালো আমি মুখ বন্ধ করে রাখি। যেইসব বিষয় মিলে তা বলি, যা মিলবে না তা বলব না।”

    ছিঃ! ধিক আমাদের উপর। ওদের নির্দয় মনোভাব আর নিষ্ঠুরতা আমাদের কত কত বোনের ইজ্জত লুণ্ঠন করছে তা চোখে পরে না। শত শত নিষ্পাপ প্রাণ হারাচ্ছে তা চোখে পরে না। পাশ্চাত্য আজ আমাদের মুখ করেছে সেলাই আর চোখে বেধেছে কালো পট্টি। তবে এই এই কালো পট্টির আয়নায় নিজের কালো মুখের কাপুরুষতাকে চিনতে পারবে একটা বোকা নির্বোধ মানুষও।

    ড. ইয়াদ কুনাইবী সাহেব চেয়েছেন আমাদের চোখের সেই কালো পট্টিকে খুলে দিতে। চেয়েছেন ইসলামের সঠিক আয়নাটিকে উপস্থাপন করতে। তার সাহসী বক্তব্য অন্তত তাই প্রমান করে। ২০১৩ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত তার বিভিন্ন যুগান্তকারী প্রবন্ধ ও লেকচারের অনুবাদ করে আমাদের সামনে আনা হয়েছে, “আয়নাঘর” নামে। প্রকাশিত হয়েছে ইলমহাউস প্রকাশন থেকে, যার সম্পাদনা করেছেন “আসিফ আদনান” ভাই।

    লেখকের কথা দিয়েই শুরু করি। ড. ইয়াদ কুনাইবী একজন দা’ই এবং অ্যাকটিভিস্ট। মানুষকে ইসলামের পথে ডেকে যাচ্ছেন প্রায় দুই যুগ ধরে। নিজস্ব সমাজিক বলয়ে দাওয়াহের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতেও বেশ একটিভ তিনি। তার নির্ভয়ে সঠিক কথাগুলো অনেকবার তাকে কারাগারের কঠিন রডের মুখোপেক্ষিও করেছে।

    সম্পাদকের কথা বলতে গেলে বলব, “আসিফ আদনান” ভাই মানেই অন্যকিছু। তার কঠিন ভাষায় শক্ত কথাগুলো পড়ার আগে এক গ্লাস পানি খেয়ে নেয়া লাগে। চিন্তাপরাধ, অভিশপ্ত রংধনু, মুক্ত বাতাসের খোজের মতো বইগুলো সমাজের ঢিলে হয়ে পরা মস্তিষ্কের স্ক্রুকে অনেক জোড়ে একটা হাতুড়ির বারি মেরেছে। তার সম্পাদনা করা বইটি ভালো হবে না? নাহ্! আল্লাহ এমন দিন না দেখাক।

    তাহলে এবার বই নিয়ে আলাপ শুরু করা যাক। একশ নব্বই পৃষ্ঠার এই বইটিতে রয়েছে ৪৯ টি অধ্যায়।
    অধ্যায়গুলোতে ইসলামী শারিয়াহ ও শাসনব্যবস্থা, আত্মশুদ্ধি, ইসলামের আলোকে পারিবারিক জীবন, সমাজ ও উম্মাহের প্রতি কর্তব্যসহ আরও বিবিধ বিষয়াদি লেখার মাধ্যমে ফুটে উঠেছে। খোলা হয়েছে সমাজের কালো মুখোশ। চেনানো হয়েছে করে ফেলা ভূল ভ্রান্তিকে। ইচ্ছে করছে পুরো বইটিই তুলে লিখে দেই। কিন্তু তা সম্ভব না। বইটির ল্যাম লাইটের অধ্যায়গুলো হলো:

    • জিপিএস

    • মাপকাঠি। (নারী পুরুষের মেলামেশা, এ বিষয় নিয়ে একটি সুন্দর গল্পের মাধ্যমে উপস্থাপন করা হয়েছে।)

    • মিডিয়া। ( ইবলিস মিডিয়ার মাধ্যমে যেসব অশ্লীলতা ঢুকিয়ে দিতে চাচ্ছে তা নিয়ে রয়েছে কুরআন হাদিসের আলোকে আলোচনা।)

    • হ্যাঁ, ইসলাম বিজয়ী হবে। কিন্তু…..। ( ইসলাম বিজয়ী হবে বলে যে হাত গুটিয়ে নিজেকে অশান্তির জলে ভাসাতে দিব তা কিন্তু নয়! বরং নিজেকে যাতে ইসলামের সাথে আকড়ে রাখতে পারি তার জন্য নিতে হবে প্রস্তুতি।)

    • ইসলাম কি শান্তির ধর্ম? ( ইসলামকে শান্তির ধর্ম বলে ইসলামের অন্যান্য বিষয়ের যেসব অপব্যাখ্যা করা হচ্ছে সেগুলোর করেছে অবসান।)

    • …কিন্তু ওরা যে আমাকে ‘হুজুর’ বলবে! ( হুজুর বলে যেসব টিটকারি মারা হয় তার উচিৎ জবাব দেয়া হয়েছে এই গল্পটিতে।)

    • মুসলিমের রক্ত আজ সস্তা কেন?( এই অধ্যায়ে আমাদের মনোস্তাত্ত্বিক, চিন্তা-চেতনায় যেই বিপর্যয় ঘটেছে তার বর্ণনা রয়েছে।)

    • চরমপন্থা এবং জঙ্গীবাদ। ( আজ একজন মুসলিম বক্তা সেজে কাফেরদের বলা যে সকল বুলি আওড়ানো হয় তা নিয়ে এ অধ্যায়ে তীব্র নিন্দা জানানো হয়েছে।)

    • বিজয়, আত্মত্যাগ আর সুবিধাবাদের গল্প। ( দারুন একটি উপমা দিয়ে আজকের সমাজের প্রেক্ষাপট তুলে ধরা হয়েছে। আত্মত্যাগ ও সুবিধাবাদ এক না! না! না!)

    • শরিয়াহ নিয়ে ছয়টি ভূল ধারণা। ( এই অধ্যায়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। শরিয়াহ নিয়ে কিছু ভূল-ভ্রান্তির আলোকপাত করা হয়েছে।)

    • শরিয়াহ ! কি ভয়ংকর!

    কিছু কিছু অধ্যায়ের নাম শুনলেই শুধু বোঝা যায় কি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। সূচিপত্রটি আমার খুব ভালো লেগেছে। এছারাও বইটির পেজ, ফন্ট সিস্টেম বেশ ছিল। তবে হার্ডকভার করলে আরও ভালো হত। প্রচ্ছদটিও সাবজেক্টের সাথে খাপে খাপ মিলেছে কিন্তু আরও একটু ক্লিয়ার হলে সুন্দর দেখাত।

    সর্বপ্রথম এবং সর্বশেষ অধ্যায়টি পাঠকের জন্যে রেখে দিলাম। পাঠক তা নিজে বুঝে পড়বেন। সত্যি বলছি, বইটি না পড়া মানে আপনি খুব বড় কিছু মিস করে গেলেন। কষ্ট হবে, নিজের কুৎসিত চেহারা দেখতে কষ্ট হবে। কিন্তু দেখতে হবে! হ্যা, দেখতেই হবে।

    ইলমহাউস প্রকাশন সত্যিই করতালি পাওয়ার মতো কাজ করেছেন। তাদের এই বইটি সবার পড়া দরকার। অনুবাদ এতই চমৎকার ছিল যে বলার বাহিরে! আমি পারসোনালি সবাইকে রিকমেন্ড করব বইটি পড়ার জন্য। দোয়া করি আল্লাহ তায়ালা তাদের মেহেনত কবুল করে নিক। সবাইকে বেহেস্তের মুখ দেখাক।

    বই: আয়নাঘর
    মূল: ইয়াদ আল কুনাইবী
    অনুবাদ: ইলমহাউস অনুবাদক টিম
    সম্পাদনা: আসিফ আদনান

    7 out of 7 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    :

    একবার পড়ে বুক-সেল্ফে তুলে রাখার মত বই এটা না। যদি একবার পড়ে তুলে রাখা হয় তাহলে শুধু আয়নাটাকেই দেখা হবে। নিজের ভেতরে সত্ত্বাকে নতুন করে দেখতে-বার বার পাঠ্য এই ‘আয়নাঘর’।
    5 out of 5 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No