মেন্যু
১০০০ টাকার পণ্য কিনলে সারা দেশে ডেলিভারি একদম ফ্রি।

আন্দালুসের ইতিহাস- দুই খণ্ড একত্রে

তিন পাশে অথৈ জলরাশি, এক পাশে আকাশছোঁয়া পর্বতমালা। এর মাঝে ত্রিভূজ আকৃতির একটি ভূখণ্ড!
মাঝখান দিয়ে বয়ে গেছে কত শত নদী-নালা!
এখানে সেখানে দীর্ঘ পর্বতসারি! সুবিস্তৃত মালভূমি!
আর উপত্যকা জুড়ে সবুজ-শ্যামল ফসলের মাঠ!
যেন শিল্পীর তুলিতে আঁকা কোনো ছবি!
উপর থেকে তাকালে মনে হয়—
পানির তৈরি জালের ওপর ভেসে আছে একখণ্ড মৃত্তিকাভূমি!
নামটাও বড় মধুর— ‘আন্দালুস’!
বিশ্বমানচিত্রের ইউরোপ অংশের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে ইউরোপের দ্বিতীয় বৃহত্তম উপদ্বীপ ‘আইবেরিয়ান উপদ্বীপ’।
একদিন পৃথিবী যাকে চিনত ‘আন্দালুস’ নামে।
অতীত-পৃথিবীতে একটি সুদীর্ঘ সময় অতিবাহিত হয়েছে, যখন আন্দালুস শব্দটি প্রতিটি মুসলমানের কর্ণকুহরে মধুর ঝঙ্কার সৃষ্টি করত, যখন আন্দালুস শব্দটি অবিশ্বাসীদের অন্তরে সমীহ-ভাব সৃষ্টি করত।
আন্দালুস ছিল ইসলামী শৌর্য-বীর্যের আধার।
আন্দালুস ছিল সভ্যতা ও সংস্কৃতির সূতিকাগার।
আন্দালুস ছিল খেলাফতে ইসলামিয়ার কেন্দ্রভূমি।
এবং আন্দালুস ছিল ইউরোপের বুকে একখণ্ড ইসলাম-ভূমি!
এক বছর দু’বছর নয়; সুদীর্ঘ আট শ’ বছর!
আজকের ‘সভ্য’ ইউরোপ যখন আচ্ছন্ন নিকষকালো আঁধারে,
জানত না কাকে বলে শিক্ষার আলো, সভ্যতা কাকে বলে!
ইউরোপের এক কোণ তখন আলোকিত জ্ঞান-বিজ্ঞান, শিক্ষা-সংস্কৃতি এবং আবিষ্কার-উদ্ভাবনে!

সেই আন্দালুস কীভাবে আমাদের হয়েছিল এবং কীভাবে হয়েছিল হাতছাড়া
কী কী কার্যকারণ সক্রিয় ছিল বিজয়ের ক্ষেত্রে এবং পতনের ক্ষেত্রে।

একজন মুসলমান— সে ইতিহাস জানবেন না, তাও কি মেনে নেওয়া যায়?!

আন্দালুস-ভূমিতে সুদীর্ঘ আটশ’ বছর ব্যাপ্ত মুসলিম শাসনামলের এক প্রামাণ্য ইতিহাস ড. রাগিব সারজানী লিখিত—

“قصة الأندلس من الفتح إلى السقوط”

বাংলায় অনূদিত হয়ে, আগামী ৫ই ফেব্রুয়ারি ২০১৮-তে দুই খণ্ডে প্রকাশিত হয়েছে “মাকতাবাতুল হাসান” থেকে “আন্দালুসের ইতিহাস” নামে।

আপনি প্রস্তুত তো অতীতের ভেলায় চড়ে কিছুক্ষণের জন্য কয়েক শ’ বছর পূর্বের পৃথিবীতে ফিরে যেতে!
কিছুটা তৃপ্তি এবং কিছুটা রোমাঞ্চ অনুভব করতে!
আনন্দে উদ্বেলিত হতে এবং কান্নায় সিক্ত হতে!

পরিমাণ

600.00  1,200.00 (50% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

 প্রথম রিভিউটি আপনিই লিখুন - "আন্দালুসের ইতিহাস- দুই খণ্ড একত্রে"

Your email address will not be published. Required fields are marked *

পাঠক অথবা ক্রেতাদের মন্তব্য