মেন্যু
313 bodor juddher oitihashik golpo vassho

৩১৩ বদরযুদ্ধের ঐতিহাসিক গল্পভাষ্য

প্রকাশনী : নবপ্রকাশ
পৃষ্ঠা: ২৫৬ (হার্ডকভার) বইটি বদর যুদ্ধের গল্পভাষ্য হলেও গল্পটি শুরু হয়নি বদরের প্রান্ত থেকে কিংবা বদরের দিকে ধেয়ে আসা সেই মদিনার প্রান্ত থেকে কিংবা যে লগ্নে বদরযুদ্ধ সংঘটিত হয়, সেই ৬২৪ খ্রিষ্টাব্দের... আরো পড়ুন
পরিমাণ

255  340 (25% ছাড়ে)

পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন
পছন্দের তালিকায় যুক্ত করুন

2 রিভিউ এবং রেটিং - ৩১৩ বদরযুদ্ধের ঐতিহাসিক গল্পভাষ্য

5.0
Based on 2 reviews
5 star
100%
4 star
0%
3 star
0%
2 star
0%
1 star
0%
 আপনার রিভিউটি লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

  1. 5 out of 5

    Faika Jannat Peuly:

    ইসলামের ইতিহাসে জিহাদের অংশটা এ প্রজন্মের তরুনদের খুব কমই জানা আছে।এক নতুন দ্বীনের পথে আসা বান্ধবীর প্রশ্নের জবাব দেয়ার প্রয়োজনে বদর নিয়ে লেখা বই খঁুজতে থাকি। লেখক সালাউদ্দিন জাহাঙ্গীর ,উনার গল্পের ছলে লেখা ইতিহাস এর কায়দার সাথে পূর্বপরিচিতির কারনে এক মুহূর্তও দ্বিধা করিনি অর্ডার দিতে। আমি অবশ্যই রেকমেন্ড করব যারা ইতিহাস এর বা হাদিস এর কোটিং দেয়া থাকে এরকম বই একটু কঠিন লাগে,তাদের জন্যও এই বইটি পারফেক্ট।ইন শা আল্লাহ জানার বোঝার এবং ভুল ভাঙানোর অনেকগুলো ফাঁক ফোঁকর পূরণ হয়ে যাবে। বইটির লেখক,সম্পাদক,প্রকাশনার সাথে জড়িত সকলকে আল্লাহ জাযা খাইর দিন। ওয়াফি লাইফকে ধন্যবাদ এত ভাল প্লাটফর্ম তৈরী করে বইগুলো যথাসময়ে ঘরে পৌঁছে দেয়ার জন্য তাও আবার এই প্যান্ডেমিক এর সময়।আল্লাহ আপনাদের ব্যবসায় বারাকাহ দান করুন।
    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
  2. 5 out of 5

    M. Hasan Sifat:

    ৩১৩ ! সংখ্যাটা খুব পরিচিত লাগছে তাই না ? ইতিহাসের গতিপথ বদলে দিয়েছিল এই সংখ্যাটি । এই সংখ্যাটির সাথেই জড়িয়ে আছে আমাদের গৌরবময় ইতিহাস, চেতনা আর অনুপ্রেরণা । এই সংখ্যাটাকেই উপজীব্য করে লেখক সালাহউদ্দীন জাহাঙ্গীর লিখেছেন, ইতিহাস আশ্রিত গল্পভাষ্য– “৩১৩ : বদরযুদ্ধের ঐতিহাসিক গল্পভাষ্য” ।

    ❒ বইয়ের আলোচ্য বিষয়—
     ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄
    বইটি ইতিহাসকে আশ্রয় করে লেখা গল্পভাষ্য । ঐতিহাসিক বদর যুদ্ধের ইতিহাসকে শব্দের অনুপম গাঁথুনি দিয়ে গল্পের আদলে উপস্থাপন করা হয়েছে । শ্বাসরুদ্ধকর সেই ইতিহাস কখনো নবিজীর হাত ধরে, কখনোবা সাহাবীদের হাত ধরে ছুটে বেড়িয়েছে বইয়ের পাতায় । কখনো হাজার হাজার বছর পূর্বের ইয়েমেন সাম্রাজ্যে, কখনো তপ্ত মরুভূমিতে, কখনোবা মক্কা থেকে ইয়াসরিবের খেজুর বাগানে আর সবশেষে পূর্ণতা পেয়েছে বদরের প্রান্তরে বিজয়ীর বেশে ।

    বইটি বদর যুদ্ধের গল্পভাষ্য হলেও শুরু হয়নি বদরের প্রান্তর থেকে । শুরুতেই লেখক আমাদেরকে নিয়ে গেছেন হাজার হাজার বছর আগে । বইটির শুরুতেই আছে বদর যুদ্ধের তিনটি পূৰ্বাভাষ ৷ পূৰ্বাভাষগুলোতে আলোচিত হয়েছে মদিনায় ইহুদিদের গোড়াপত্তন, আউস ও খাজরাজের গোড়াপত্তন এবং ইয়াসরিবের ইহুদিদের প্রভাব-প্রতিপত্তির বিলীন হওয়ার ইতিহাস ৷ ৬ যুবকের হাত ধরে মদিনায় কিভাবে ইসলামের সূচনা হলো সে ঘটনা দিয়েই শুরু হয়েছে বইয়ের মূল পর্ব ৷ বাদ যায়নি নবিজী ﷺ এর মক্কা থেকে মদিনা হিজরতের ঘটনা আর সেখান থেকে কিভাবে তিনি হয়ে উঠলেন মদিনা রাষ্ট্রের প্রাণ । এরপর ধাপে ধাপে লেখক পৌছেছেন বইয়ের মূল আলোচনায়, ১৭ রমাদানের সেই রাতটিতে । যে রাতের দুআ সপ্তাকাশ ভেদ করে যাত্রা শুরু করেছিল আল্লাহর আরশ অভিমুখে ।

    ❒ পাঠ্যানুভূতি—
     ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄ ̄
    গদ্যশৈলি আর বর্ণনাভঙ্গির অপূর্ব সংমিশ্রণের কারনে বইটিকে সুখপাঠ্য মনে হয়েছে । হাজার বছর আগের ইতিহাসের অলিতে-গলিতে ছুটে বেড়ানো এক সুদীর্ঘ জার্নি যেন এই বইটি । এই জার্নি জেরুজালেমের ইহুদি সাম্রাজ্য থেকে ইয়েমেন সাম্রাজ্যে । কখনোবা ফল, ফসল আর প্রাচুর্যে পূর্ণ ইয়াসরিবে । মনে হয়েছে, লেখক টাইম মেশিনে করে বদরের প্রান্তরে ঘুরতে নিয়ে এসেছেন আর আমি যুদ্ধের ময়দানে একপাশে দাঁড়িয়ে নীরব দর্শকের ভূমিকায় যুদ্ধক্ষেত্র অবলোকন করছি । যুদ্ধের ময়দানের কিছু কিছু দৃশ্যে চোখের পানি ধরে রাখতে পারিনি । লেখক যথাসম্ভব ইতিহাসের শুদ্ধতা বজায় রেখেছেন ৷ শুধুমাত্র পাঠকের একঘেঁয়েমী দূর করতে মূল বর্ণনাকে ঠিক রেখে ভাষাকে গল্পের মতো করে বর্ণনা করেছেন । সবকিছু ছাপিয়ে হাদিস ও সিরাতের সূত্রনির্ভর ধারাবর্ণনায় রচিত হয়েছে এই বইটি ।

    প্রিয় পাঠক, ইতিহাসের মরুবালিতে পা ডুবিয়ে, টান টান উত্তেজনা নিয়ে পড়তে পারেন এ বইটি ।
    মনোরম গল্পভাষ্যে আর বিস্তৃত প্রেক্ষাপটে বাংলাভাষায় সিরাত পাঠের এটি একটি নতুন সংযোজন ।


    বইটি প্রকাশিত হয়েছে “নবপ্রকাশ” পাবলিকেশন থেকে ।
    পৃষ্ঠা সংখ্যা— ২৫৬ ।
    প্রচ্ছদ মূল্য— ২৫৫ টাকা ।
    1 out of 1 people found this helpful. Was this review helpful to you?
    Yes
    No
Top